টপিকঃ দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

দৈনিক ইত্তেফাকে প্রকাশিত খবরের যোগসূত্র: http://www.ittefaq.com/get.php?d=07/05/01/w/n_zutzzz

একই সাথে দূঃখ ও রাগ লাগে। কিন্তু এর পেছনে অন্য কোন ঘটনা আছে কি না সেটা তদন্ত হওয়া দরকার:rolleyes:। শুধু অবহেলার কারণে হলে, দায়ীদের ধরে গণধোলাই করা উচিৎ angry

দৈনিক ইত্তেফাক ইউনিকোড নয়। তাই খবরটাকে ইউনিকোডে রূপান্তর করে দিলাম। (এস.এম. মাহবুব মুর্শেদ এবং অরূপ কামালের কনভার্টার ব্যবহৃত হয়েছে এজন্য)

দৈনিক ইত্তেফাক (২রা মে ২০০৭) লিখেছেন:

সাবমেরিন ক্যাবল আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশে

আরও একবার সাবমেরিন ক্যাবলে সংযুক্ত হবার সুযোগ হারালো বাংলাদেশ। কৌশলগত দিক থেকে এই কনসোর্টিয়ামে যুক্ত হওয়াটা বাংলাদেশে নিরবিচ্ছিন্ন ও স্বল্প মুল্যে ইন্টারনেট ব্যবহারের জন্য ছিলো গুরুত্বপূর্ণ। ধারনা করা হচ্ছে টেলিযোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের গড়িমসির কারণেই এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। নতুন এই সাবমেরিন ক্যাবল কনসোর্টিয়াম এএজি গত বছর বিটিটিবি’এর সঙ্গে দুদফা যোগাযোগ কর্ েকিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নীরব থাকায় আবারও বাংলাদেশকে বাদ দিয়েই ২০ হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ এই সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপনের সিদ্ধান্ত চুড়ান্ত হয়। বর্তমানে বাংলাদেশ সিমিউই ৪ সাবমেরিন ক্যাবলের সাথে সংযুক্ত। এই ক্যাবলটি কোনো কারণে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেলে বা ক্ষতির সম্মুখিন হলে বিদেশের সাথে টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা ও ইন্টারনেট সংযোগ প্রায় বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এবছর শুরুর দিকে তাইওয়ান ও চীনের সমুদ্র তলদেশের ভুমিকম্পের কারণে বাংলাদেশ সহ দক্ষিণ এশিয়ার বেশ কিছু দেশ ইন্টারনেট সংযোগ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। তখন বিটিটিবি ও বিটিআরসির একাধিক কর্তৃপক্ষ ও বাংলাদেশের আইএসপি এসোসিয়েশনের সাথে মতবিনিয়ম কালে তারা দৈনিক ইত্তেফাকের কাছে জানান, প্রচলিত অবস্থায় ইন্টারনেট ও টেলিযোগাযোগকে নিরবিচ্ছিন্ন রাখতে আমাদের অবশ্যই সিমিউই ৪ এর একটি ব্যাকআপ সিস্টেম রাখা প্রয়োজন। সেক্ষেত্রে উল্লেখ করা হয়েছিলো ২ সমাধান। একটি ভিস্যাট ইন্টারনেট ব্যাকআপ, অপরটি বিকল্প সাবমেরিন ক্যাবল। নতুন এই সাবমেরিন প্রকল্পের সাথে বাংলাদেশ যুক্ত হতে পারলে ঠিক এমনই কিছু বিপদজনক অবস্থা থেকে মুক্তি পেতাম আমরা। ২০০৬ সালের ১ জুন বিশ্বের প্রধান টেলিযোগাযোগ কোম্পানীগুলোর একটি কনসোর্টিয়াম যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণপুর্ব এশিয়ার মধ্যে একটি সাবমেরিন ক্যাবল নেটওয়ার্ক গড়ে তোলার ঘোষনা দেয়। তারা এই নেটওয়ার্কের নাম দেয় এশিয়াআমেরিকা গেটওয়ে (্এএজি)। নতুন এই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে তথ্য স্থানান্তরের সর্বচ্চো হার হবে প্রতি সেকেন্ডে ১ দশমিক ৯২ টেরাবাইট। প্রাথমিক হার হবে সেকেন্ডে ৪৮০ গিগাবাইট। ২০০৮ সালের ডিসেম্বর থেকে এএজি ক্যাবলের মাধ্যমে সেবা দেওয়া শুরু করবে। দুঃখজনক বিষয় হচ্ছে বাংলাদেশই এ অঞ্চলের একমাত্র দেশ যারা একটি মাত্র সাবমেরিন ক্যাবলের সাথে সংযুক্ত। এপর্যন্ত তিন বার বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান সাবমেরিন কেবলে সংযুক্ত হবার সুযোগ হারিয়েছে বাংলাদেশ। এতে ক্ষতি হয়েছে দেশের আপামর জনগনের, সেই সাথে দেশের তথ্য প্রযুক্তি অবকাঠামোরও। ভবিষতে এমন পদক্ষেপগুলোতে যদি আমরা বিশ্বের সাথে তাল মেলাতে না পারি সেক্ষেত্রে আমরা ভবিষৎ প্রজন্মের জন্য রেখে যাবো একটি পিছিয়ে পড়া দেশ। এম এইচ মিশু

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

টেলিযোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের ডিসিশনমেকার সব মাথাগুলোই তথ্যপ্রযুক্তিতে অর্ধশিক্ষিত। sad

আর কতবার আমরা সুযোগ  হারাবো?

রংধনু দেখতে হলে বৃষ্টিকেও হাসিমুখে বরণ করতে হয়। বৃষ্টি নিজেই তখন রূপান্তরিত হয় আনন্দের উৎসে।

রুমন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

কাঁদবো না নিজের মাথার চুল ছিড়ব?

[img]http://twitstamp.com/thehungrycoder/standard.png[/img]
what to do?

Re: দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

রুমন লিখেছেন:

টেলিযোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের ডিসিশনমেকার সব মাথাগুলোই তথ্যপ্রযুক্তিতে অর্ধশিক্ষিত। sad

আর কতবার আমরা সুযোগ হারাবো?

sad sad sad

প্রত্যেক প্রাণীকেই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে।

Re: দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

রুমন লিখেছেন:

টেলিযোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের ডিসিশনমেকার সব মাথাগুলোই তথ্যপ্রযুক্তিতে অর্ধশিক্ষিত। sad

অর্ধশিক্ষিত নয়, অশিক্ষিত।

রুমন লিখেছেন:

আর কতবার আমরা সুযোগ  হারাবো?

যতদিন দিন না পর্যন্ত কর্তৃপক্ষ নিজের থেকে দেশের স্বার্থকে বড় করে দেখতে পারবে।

জোবায়ের সুমন
রক্তের গ্রুপ: B(-)

Re: দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

চারিপাশে দাউ দাউ আগুন কিন্তু তার ভেতর ও চুপচাপ বসে থাকতে হবে।
সাবমেরিন কেবল আসার পর কোথায় স্পেড বাড়বে ,সেটা তো হয়নি বরং মাসিক রেন্ট বেড়ে গেছে।কারন এখন সাবমেরিন কেবল আর ভিস্যাট ব্যাপ আপ ২টা ই লাগে।

কবে যে ঐ লোক গুলো মানসিক ভাবে ঠিক মতো বেড়ে উঠবে।শুনেছি অনেক আগেই সাব মেরিন ক্যাবল বিনা মূল্যে পাওয়ার সম্ভাবনা আসছিলো এরশাদের আমলে কিন্তু তখন নেওয়া হয়নি কারন দেশের তথ্য পাচার হয়ে যাবে।এর চেয়ে হাস্য কর কৌতুক কি হতে পারে আমার জানা নাই।

আশায় আছি কবে ৬০০ টাকায় ১ মেগা ব্যান্ডউইড পাবো

Re: দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

manchumahara লিখেছেন:

চারিপাশে দাউ দাউ আগুন কিন্তু তার ভেতর ও চুপচাপ বসে থাকতে হবে।
সাবমেরিন কেবল আসার পর কোথায় স্পেড বাড়বে ,সেটা তো হয়নি বরং মাসিক রেন্ট বেড়ে গেছে।কারন এখন সাবমেরিন কেবল আর ভিস্যাট ব্যাপ আপ ২টা ই লাগে।

কবে যে ঐ লোক গুলো মানসিক ভাবে ঠিক মতো বেড়ে উঠবে।শুনেছি অনেক আগেই সাব মেরিন ক্যাবল বিনা মূল্যে পাওয়ার সম্ভাবনা আসছিলো এরশাদের আমলে কিন্তু তখন নেওয়া হয়নি কারন দেশের তথ্য পাচার হয়ে যাবে।এর চেয়ে হাস্য কর কৌতুক কি হতে পারে আমার জানা নাই।

আশায় আছি কবে ৬০০ টাকায় ১ মেগা ব্যান্ডউইড পাবো

lol2 lol2 lol2

প্রত্যেক প্রাণীকেই মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে।

Re: দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

ইশতিয়াক লিখেছেন:
manchumahara লিখেছেন:

চারিপাশে দাউ দাউ আগুন কিন্তু তার ভেতর ও চুপচাপ বসে থাকতে হবে।
সাবমেরিন কেবল আসার পর কোথায় স্পেড বাড়বে ,সেটা তো হয়নি বরং মাসিক রেন্ট বেড়ে গেছে।কারন এখন সাবমেরিন কেবল আর ভিস্যাট ব্যাপ আপ ২টা ই লাগে।

কবে যে ঐ লোক গুলো মানসিক ভাবে ঠিক মতো বেড়ে উঠবে।শুনেছি অনেক আগেই সাব মেরিন ক্যাবল বিনা মূল্যে পাওয়ার সম্ভাবনা আসছিলো এরশাদের আমলে কিন্তু তখন নেওয়া হয়নি কারন দেশের তথ্য পাচার হয়ে যাবে।এর চেয়ে হাস্য কর কৌতুক কি হতে পারে আমার জানা নাই।

আশায় আছি কবে ৬০০ টাকায় ১ মেগা ব্যান্ডউইড পাবো

lol2 lol2 lol2

অফটপিকঃভাইজান আপনি ভুল ধরছেন বুঝলাম । তো শুধরায় না দিয়া এইভাবে হাসার তো কোনো মানে হয় না ।
অনটপিকঃ সত্যি আমাদের পোড়া কপাল । আমাদের নাতি-নাতনিরা সাব মেরিন ক্যবল দেখতে পাবে নাকি তাই নিয়া আমার সন্দেহ আছে ।:(

Re: দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

আল্লাহ জানে আমাদের বাংলাদেশের মাথারা কবে বুঝবে অন-লাইন শব্দটি। রাজনীতিতো বুঝেই না। একেকজন শুধু ভেজাল ছাড়া আর যেন কিছু পারে না। এখন বকতে ইচ্ছে করছে।

১০

Re: দূঃখজনক - সাবমেরিন ক্যাবল, আবারও সুযোগ হারালো বাংলাদেশ।

আবার কবে নাগাত আমাদের জন্য এই সুযোগ আসবে।

"We want Justice for Adnan Tasin"