সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আউল (০৯-০১-২০২২ ১৫:২৫)

টপিকঃ ক্রিকেট ইতিহাসে ১ বলে ২৮৬ রান!

আজ বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের টেস্ট খেলায় ইবাদতের এক বলে ৭ রান (৩+৪) নিলে - আলোচিত হয় - এক বলে ৭ রান বলে ,

নিউজিল্যান্ডের ৯২ রানে কোনও উইকেট পড়েনি। ইবাদত হোসেনের করা সেই ওভারের শেষ ডেলিভারিতে ইয়ং অফ স্টাম্পের বাইরের বলটি স্লিপের দিকে ঠেলে দেন। দ্বিতীয় স্লিপে থাকা লিটন দাস ক্যাচটি মিস করেন। উল্টে ৩ রান নেন ইয়ং এবং টম লাথাম।

এর পর সেই বলটি ওভার থ্রো করেন নুরুল হাসান। যার ফলে চার হয়ে যায়। ইবাদত বলটি ধরার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন। মোট ৭ রান হয় এই ওভারে। ইবাদতের সেই ওভারের প্রথম ৫টি বলে কিন্তু কোনও রান হয়নি। নিউজিল্যান্ডের প্রথম উইকেট ফেলার বড় সুযোগ পেয়ে, সেটা হেলায় হারায় বাংলাদেশ। আর ক্যাচটি হলে ২৬ রানেই আউট হয়ে যেত পারত উইল ইয়ং। শেষ পর্যন্ত ৫৪ রান করে আউট হন নিউজিল্যান্ডের ওপেনার।

অবশ্য এক বলে ৭-৮ রানের রেকর্ড আরও আছে কিন্তু  ১ বলে ২৮৬ রান! শুনে অবাক হলেন, এখানে দেখুন


এক বলে সর্বোচ্চ কত রান হতে পারে? উত্তরটায় হয়তো দুই অঙ্ক স্পর্শ করবে না। কেননা একজন ব্যাটসম্যান সর্বোচ্চ ছক্কা হাঁকাতে পারেন। কিংবা দৌড়ে রান নেয়ার পাশাপাশি ওভার থ্রোতে ৪ রান আসলে সংখ্যাটি বড়জোর ৭-৮ হতে পারে। কিন্তু যদি বলা হয় এক বলে নেয়া হয়েছে ২৮৬ রান! ব্যাপারটা অবিশ্বাস্যই লাগবে।

https://ajkerbazzar.com/wp-content/uploads/2020/01/1979968716.jpg

কিন্তু এমনই ঘটনা ঘটেছিলো অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটে। ঘটনাটি ১৮৯৪ সালের। দেশটির প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে মুখোমুখি হয়েছিলো ওয়েস্টার্ন অস্ট্রেলিয়া ও ভিক্টোরিয়া। ইনিংসের প্রথম বলেই সজোরে ব্যাট চালান ভিক্টোরিয়ার ব্যাটসম্যান।

মাঠের ভেতরেই ছিলো বিশাল আকৃতির একটি জাররাহ গাছ। গাছের ডালে গিয়ে আটকে যায় বলটি। বলটি এত ওপরে আটকে যায়,যা ফিল্ডারদের ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিলো। বলটি হারিয়ে গেছে বলে আম্পায়ারের কাছে আবেদন করেন তারা। কিন্তু আম্পায়াররা অসম্মতি জানান, কেননা বলটি স্পষ্ট দেখা যাচ্ছিলো কোথায় আটকে আছে।

অন্যদিকে চতুর ব্যাটসম্যানরা দৌড় থামাননি। তারা দৌড়াতেই থাকেন। ফিল্ডাররাও কম বুদ্ধিমান ছিলেন না। তাদের মধ্যে একজন কুঠার দিয়ে গাছ কেটে ফেলার চেষ্টা করতে থাকেন।
তাদের মধ্যে আরেকজন ছিলেন, যিনি কিনা আইনস্টাইনের চেয়েও বেশি বুদ্ধিমান। গুলি করে বল পাড়ার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। যাই হোক শেষ পর্যন্ত কয়েকটা গুলি খরচের পর বলটি মাটিতে পড়ে।

দুর্ভাগ্যবশত বলটি কোনো ফিল্ডারই ধরতে পারেনি। বলটি যখন তারা মাটি থেকে কুড়িয়ে নেয় এরইমধ্যে ২৮৬ বার নিজেদের মধ্যে ক্রিজ বদল করে নেন ভিক্টোরিয়ার দুই ব্যাটসম্যান। এ সময় তারা প্রায় ৬ কি.মি পথ দৌড়ান। যেটা যুক্তরাজ্যের একটি পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছিলো। এই ঘটনার একমাত্র প্রমাণও এটি।

এক বলে ২৮৬ রান তুলে ইনিংস ঘোষণা করে ভিক্টোরিয়া। ম্যাচটি তারা জিতেও যায়। এক বলেই ইনিংস ঘোষণা করার আর কোনো নজির নেই ক্রিকেট ইতিহাসে

https://ajkerbazzar.com/%E0%A6%95%E0%A7 … %AC/141185

"We want Justice for Adnan Tasin"