টপিকঃ পান-চিনি

পান-চিনি
গিনি

কিছু পরে হবে পান-চিনি।
কন্যার স্বপ্নের দিন ঠিক।
পিতা অতি ব্যস্ত,
মেহেমানদের মন করতে হবে জয়।
কিছু উঠতি বয়সের তরুণ
ছোটাছুটি এদিক ওদিক।
কাজের মানুষদের অকারণে হৈ চৈ,
কর্তা কে ছেড়ে শুধু খোঁজে মা জননী কে,
জননী উচ্চ স্বরে হাঁকে,
যে যত চায় বিনা হিসাবে দেয় তাকে।
পিতার একটাই সখ, বড় ইচ্ছা,
আদরের কন্যার অনুষ্ঠানে
মেহমানদের তৃপ্তির জন্য
করবে আয়োজন আসামের বিশেষ পান।
তায় সে ভুলবে কন্যা ত্যাগের কষ্ট,
হবে তার পরম শান্তি।
আছে সব রাখা,
সুপারি, চুন, খয়ের, জর্দা,
রুপোর কারুকাজ করা পান দান।
ভাগনে গেছে।
খবর নেয় এখনো ত আসে নাই।
জননী ধৈরযহীন বলেন,
"পান না হয় নাই হল, পান-চিনি যেন হয়।
ঘরে আছে মিষ্টি, দৈ, সন্দেশ শয়ে।"

সকলের সখ ত পুরান তয়,
কেবল পিতার খানি গোপনে রয়।