টপিকঃ গুনের নারদ

গুনের নারদ
গিনি

তখন কোন কেকা গেয়ে ছিল
কবির জানালা কাছে,
তারই সুর জেগে ছিল
গুরুর লেখনি মাঝে।
শ্রাবনে যে জল ধারা
করে ছিল উদ্দেল, পাগল পারা,
সে কনা গুলি কোথায় আজ,
আমি খুঁজে খুঁজে হারা।
কোন সে আখি এনে ছিল
কবির হ্রদয়ে প্রেম,
কালো মেয়ের কালো নয়ন,
বুনুক পুরানো কাঁথার হেম।
কুহু ডাকে ভেঙ্গে দিল
স্বপন ঘেরা ঘুম,
কোন সে বিহঙ্গ বিরহ ধ্বনি
ঢেলে ছিল নিরব খন নিঝুম।
যৌবন রস যখন ভরে ছিল পূর্ণ করি মন,
কত নৃত্য, দাদরার তাল
তুলে ছিল প্রেমের আলাপন।
স্রষ্টার কাছে প্রশ্ন কত
ছিল কবির তরে,
সে রহস্য ছন্দ, গাঁথা,
আজিও চিত্ত পরে।
আমি পেতে চাই সে সব
যত গুনের নারদ,
তাদের স্বল্প ছোয়ায় ভরি হ্রদয়,
যারা ভাবিয়ে কবিরে, পঙক্তিতে লিখিয়ে,
রুখেনি তারে ,
করেনি বিরোধ।