টপিকঃ হস্ত রেখায় জীবন

হস্ত রেখায় জীবন
গিনি
কৈলেশ ছেলে বেলায় পথে হাটার সময় এক সাইন দেখে, "হস্ত দেখে ভাগ্য গণনা করা হয়", বিষয়টি তাকে নাড়া দেয়। বেড়ে উঠার সাথে সাথে এ নিয়ে অনেক পড়াশুনা করে এবং ধীরে হস্ত রেখা বিদ হয়ে উঠে।
বাজারের কোনায় একটা খালি স্থানে তার আস্তানা গড়ে। হস্ত পরে এবং পাথর বিক্রি করে জীবন চলার ব্ব্যস্থা করে।
আজ সকাল থেকেই টিপ টিপ বৃষ্টি। মন্দার দিন। তবুও পলিথিন দিয়ে ঢেকে বসে। চাদর গায়ে দেওয়া এক ব্যক্তিকে দেখে হাঁক দেয়," অর্ধেক পয়সায় আজ দেখা হবে।"" চাদরেরে বাহিরে যখন তার কব্জি থেকে কাঁটা হাত দেখে সে থতমত খেয়ে যায়। তাইত যার এমন অবস্থা তার জীবনও ত থেমে নাই। আর নিজের হাত কখনও দেখা হয় নাই। দেখে যে তার হাতের দাগ গুলি রাজা হওয়ার যোগ।
প্রশ্ন জাগে সে কেমন রাজা!