টপিকঃ ময়রা

ময়রা
গিনি

ভোলা মিষ্টির কারিগর। বাল্য বয়স হইতেই তাহার এ কাজে যোগদান। এখন প্রায় সকল ধরনের মিষ্টান্ন চোখ বন্ধ করিয়া তৈয়ার করিতে পারে। স্বাদে অপূর্ব। সাধারন্ত মিষ্টান্নর হাঁড়িতে প্রচুর পিঁপড়ার আনাগোনা হইয়া থাকে। কিন্তু ভোলার ঐ প্রাণী কুলের সাথে এক প্রকার সমঝোতা কি ভাবে হইয়াছে যে, কোনো পিঁপড়াই হারি নষ্ট করার চেষ্টা নাই। তাহার এই গ্যান মিষ্টান্ন তৈয়ারের মতই আশ্চর্য। পিঁপড়ার দল বেড়ার বাহিরে একটি প্রকাণ্ড রস ভরা হাঁড়িতে সকাল সন্ধ্যা ঝাঁপাইয়া পরে এবং অর্ধেক ঐ মিষ্টান্নের নেশাতেই প্রাণ হারায়। ভোলা প্রতিদিন মৃত গুলিকে ছাকিয়া তুলিয়া কবর দেয়। আবার ভোরে নতুন দল ঝাপ দেয়।
মালিক নিজেও জানে যদি ভোলা কোন দিন বিদায় লয় , তবে ঐ ছোট্ট প্রানীকুলের আক্রমণে তাহার কারখানা ধ ংস হইবে।