সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন রুপকথা (২০-০৭-২০১৬ ১৬:১৮)

টপিকঃ ছাত্রলীগের অবরোধে ‘অচল’ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

নিজেদের আভ্যন্তরিন সমস্যার জন্য কেন সাধারন ছাত্র/ছাত্রীদের কে ভোগান্তিতে ফেলছেন? hairpull hairpull

http://imagesrv1.amardeshonline.com/201607/news/cb_135539.jpeg

সদ্য ঘোষিত চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কমিটিতে ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন না করায় বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ডাকা অবরোধে অচল হয়ে পড়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়।

বুধবার সকাল থেকে অবরোধের সমর্থনে চবি ক্যাম্পাস, ষোলশহর স্টেশনসহ বিভিন্ন জায়গায় মিছিল,সমাবেশ করেছে অবরোধকারীরা।অবরোধের শুরুতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটল ট্রেন আটকে দিয়েছে ছাত্রলীগ। ক্যাম্পাস থেকে কোন বাস শহরে আসতে দেয়া হচ্ছেনা । ফলে ক্যাম্পানে যেতে পারেনি শিক্ষক ও ছাত্র/ছাত্রীরা। এতে করে বন্ধ হয়ে গেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস ও পরীক্ষা। আন্দোলনকরীরা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে শহরে আসা কয়েকটি বাসকে মাঝ পথে থামিয়ে চাবি নিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়গামী শাটন ট্রেনে ইট-পাটকেল নিক্ষেপের খবরও পাওয়া গেছে।

এদিকে ক্যাম্পাসে যে কোন ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ক্যাম্পাসের বিভিন্ন গেইটে পাহারা বসিয়ে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। 

এবিষয়ে জানতে চাইলে চবি প্রক্টকর আলী আজগার শীর্ষ নিউজকে জানান, অবরোধকারীরা এতো সহিংস হতে পারে তা আমাদের তা আমাদেও জানা ছিলনা। সহিংসতার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বর্তমান অবস্থা থেকে উত্তোরণের চেষ্টা চলছে। অবরোধকারীদেও সাথে কথা বলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টাও চলছে।

আন্দোলনকারী ছাত্রলীগ নেতা রেজাউল শীর্ষ নিউজকে জানান, কমিটিতে ত্যাগী নেতাকর্মীদেও মূল্যায়ন করা হয়নি। আমরা কমিটি পূর্নমূল্যায়নের জন্য ৪৮ঘন্টা সময় দিয়েছিলাম। আমাদের দাবী না মানায় অবরোধ ডাক দিয়েছে। শান্তিপূর্ন ভাবে অবরোধ চলছে। ক্যাম্পাসে সকল পরীক্ষা ও ক্লাস বন্ধ রয়েছে।http://www.sheershanewsbd.com/2016/07/20/135539

Re: ছাত্রলীগের অবরোধে ‘অচল’ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

তারাই এখন সব কিছু