টপিকঃ এপিগ্রাম ইন “পাহাড় চূড়ায় আতঙ্ক”

বই পড়ার সময় এপিগ্রাম গুলি সহজাত ভাবেই আমার চোখে পড়ে, আর সেগুলিকে আলাদা করে টুকে রাখাটা আমার স্বভাব। শত শত বইয়ের এপিগ্রাম দুটি ডায়রিতে লেখা আছে। এখনও বই পড়ার সময় এই অভ্যাস নিরবে কাজ করে যায়। তারই ফল এই সুনীল গঙ্গপাধ্যায়ের লেখা কাকাবাবু সিরিজের- “পাহাড় চূড়ায় আতঙ্ক” বইয়ের এপিগ্রাম।

https://c1.staticflickr.com/1/678/22856816704_dff9c69497.jpg

১। ইচ্ছে থাকলেই পারা যায়।

২। তীব্র ইচ্ছে আর মনের জোর থাকলে মানুষ সব কাজই করতে পারে।

৩। সব জিনিস ভাল করে লক্ষ্য করতে হয়।

৪। মানুষের মধ্যে দু’রকম প্রবৃত্তি থাকে। মানুষ একদিকে চায় পৃথিবীর  সব রহস্যের সমাধান করতে। আবার অন্যদিকে চায় পৃথিবীতে অচেনা অদেখা অদ্ভুত কিছু রহস্য থেকে যাক।

৫। গায়ের জোর থাক বা না থাক মনের জোর থাকলে মানুষ সবকিছু জয় করতে পারে।

৬। স্লো এন্ড স্টাডি উইন দা রেস।

৭। বিশাল মহান কিছুর কাছাকাছি এলেই মানুষের মন কেমন জানি একটু অন্যরকম হয়ে যায়।

৮। মৃত্যু ঠিক মুখোমুখি এলে মানুষ অনেক অসম্ভব কাজও সম্ভব করতে পারে।

৯। মানুষের সাধ্যের একটা সীমা আছে।

১০। ঘুমের মতন এমন ভালো জিনিস আর কিছু নেই।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: এপিগ্রাম ইন “পাহাড় চূড়ায় আতঙ্ক”

শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ smile

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: এপিগ্রাম ইন “পাহাড় চূড়ায় আতঙ্ক”

mizvibappa লিখেছেন:

শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ smile

মন্তব্যের জন্য আপনাকেও অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।