টপিকঃ পুষ্পকথন (পর্ব-৪)

জীবজগতের Plantae কিংডমের অন্তর্ভুক্ত  Mirabilis গণের উদ্ভিদকে বাংলায় সন্ধ্যামালতী ডাকা হয়। সন্ধ্যামালতী একটি বিরুৎ জাতীয় উদ্ভিদ। লম্বায় ৩/৪ ফুট।
একটি সন্ধ্যামালতী উদ্ভিদ:
http://i68.fastpic.ru/big/2015/0919/9a/2884101800bc2e42786e0c2ff15d549a.jpg
ঝোপাকৃতি উদ্ভিদ।বৃতি থেকে প্রস্ফুটিত হওয়া ফুল পেছনের দিকে অনেকটা ক্রমশ সরু পাইপাকৃতির।

এর জন্মস্থান হল পেরু।
সাধারণত সুন্দর সুবাস ছড়ায়। এবং বিকেল সন্ধ্যার সন্ধিক্ষনে ফোটে বলে ল্যাটিন আমেরিকায় এ ফুলকে 4'o clock নামে ডাকা হয়।

সন্ধ্যামালতীর বড় বৈচিত্র হল এর রং। বিভিন্ন রঙের আবার একাধিক রঙের মিশ্রণে ফুলগুলোর দলমন্ডল গঠিত। সাধারণত গোলাপী,ঈষৎ লাল,হলুদ,সাদা, হলুদ-লাল,সাদা-লালের মিশ্রণ দেখা যায় ফুলে।আবার একই গাছে একাধিক রঙের ফুল ফুটতে পারে।
সাদা সন্ধ্যামালতী:
http://i68.fastpic.ru/big/2015/0919/e8/421f909e80c2e3ca133f8f079895b0e8.jpg
গোলাপী সন্ধ্যামালতী:
http://i65.fastpic.ru/big/2015/0919/39/ddf6b608006f981475eb87365e1acf39.jpg
মিশ্র রঙের সন্ধ্যামালতী:
http://i70.fastpic.ru/big/2015/0919/14/7f5f33e69c4f6e871903bf0701cbc214.jpg

সব ফুলের মত এটিও সাজানোর কাজে বিশেষভাবে ব্যবহৃত হয়, অর্নামেন্ট হিসেবে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়।

নিজে তোলা একটি বাগানের সন্ধ্যামালতী উদ্ভিদ:
http://i65.fastpic.ru/big/2015/0919/b8/ada7b7596f554c5b5583b4c4d03349b8.jpg

আরেকটি বহুল প্রচলিত ব্যবহার হল ফুড কালার হিসেবে। পাপড়ির রং থেকে খাবার রং প্রস্তুত করা হয় সন্ধ্যামালতী উদ্ভিদ থেকে।

সন্ধ্যামালতী ফুলের জন্য উপযুক্ত আবহাওয়া হল মাঝারি তাপমাত্রা এবং পর্যাপ্ত সূর্যালোক।নাতিশীতোষ্ঞ অঞ্চলের উপযোগী হওয়াতে বাংলাদেশ সহ বিভিন্ন দেশে সন্ধ্যামালতীর ব্যাপক প্রসার ঘটেছে।

অল্প পরিসরে প্রাঙ্গন বা নিজের আঙিনার এক কোণে সৌন্দর্যময় সন্ধ্যামালতী ফুলের জুড়ি নেই। যা রূপে, গুণে, বর্ণে, বৈচিত্রে অনন্য।

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন muniaamoni (১৯-০৯-২০১৫ ১৫:২৭)

Re: পুষ্পকথন (পর্ব-৪)

জীবজগত বলতেই যেন একটা এক্সট্রা ভালোলাগা কাজ করে ।
ভালো লাগলো এই পোষ্টটি । বিষেশ করে ছবিগুলো খুব সুন্দর আর ফ্রেশ লাগলো ।

Re: পুষ্পকথন (পর্ব-৪)

আমাদের ছাদে আছে গোলাপি আর হলুদ রঙের , বেশ লাগল আপনার পুস্প কথন  smile

এক টুনিতে টুনটুনালো সাত রানির নাক কাঁটালো

Re: পুষ্পকথন (পর্ব-৪)

এইটাকে তো আমরা ছোট বেলায় সকাল-সন্ধ্যা ফুল বলতাম  dream

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: পুষ্পকথন (পর্ব-৪)

ভাল লাগল পোষ্ট

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন Shoumik (২০-০৯-২০১৫ ১৭:৪৪)

Re: পুষ্পকথন (পর্ব-৪)

সবাইকে ধন্যবাদ  thumbs_up

মরুভূমির জলদস্যু লিখেছেন:

এইটাকে তো আমরা ছোট বেলায় সকাল-সন্ধ্যা ফুল বলতাম  dream

হুম হয়তো প্রচলিত নাম বলে প্রচলন হয়ে গেছে। কিন্তু ভাল নাম সন্ধ্যামালতী।

Re: পুষ্পকথন (পর্ব-৪)

এই ফোরামে কিভাবে পোস্ট লিখতে হয়?

Re: পুষ্পকথন (পর্ব-৪)

Siyam লিখেছেন:

এই ফোরামে কিভাবে পোস্ট লিখতে হয়?

যেভাবে কমেন্ট করেছেন সেই ভাবে!!  roll




শৌমিকদা, ফুল গুলা দিয়ে খেলছি অনেক। খাবার রঙ তৈরি হয় জানা ছিল না।
দুনিয়াতে কত কি যে আছে!!!

Re: পুষ্পকথন (পর্ব-৪)

Jol Kona লিখেছেন:

শৌমিকদা, ফুল গুলা দিয়ে খেলছি অনেক। খাবার রঙ তৈরি হয় জানা ছিল না।
দুনিয়াতে কত কি যে আছে!!!

হ্যাঁ,পানিকণা আপি, এটা ফুড কালারের এক অন্যতম উৎস।