টপিকঃ কম্পিউটার হাডর্ওয়্যার ট্রাবলশ্যুটিং ও মেইনটেনেন্স

আসসালাসু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ ।  আশা করি আল্লাহর অশেষ রহমতে ভালো আছেন ।  ভালো থাকাটাই সব সময়ের জন্য প্রত্যাশা ।  ইতিপূর্বে কম্পিউটার ট্রাবলশুটিং বিষয়ে কয়েকটি টিপস নিয়ে আলোচনা করেছি। আজ তারই ধারাবাহিকতায় কম্পিউটার হাডর্ওয়্যার ট্রাবলশ্যুটিং ও মেইনটেনেন্স বিষয়ে সমস্যা-সমাধান ও পর্যালোচনা নিয়ে আলোচনা করবো ।


চলুন যথারীতি শুরু করা যাক ।


অনেকেই চেষ্টা করছেন উইন্ডোজ এক্স পি থেকে উইন্ডোজ সেভেন কিংবা উইন্ডোজ এইট কিংবা উইন্ডোজ টেন এ আপগ্রেড করতে । কিন্তু শুধু এটা ভাবলেই হবেনা পিসির কনফিগারেশনও পরিবর্তন করতে হবে ।  সরকারী অনেক অফিসে এখনো পেন্টিয়াম থ্রী কিংবা ফোর দিয়ে কাজ চলছে ।  আর অপারেটিং সিস্টেম এখনো উইন্ডোজ এক্সপি এবং উইন্ডোজ ৯৮ দিয়ে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড এর কাজ চলছে খুড়িয়ে খুড়িয়ে ।


ডিজিটাল বাংলাদেশে এটা যদিও দুখজনক তবুও আমরা আশা করছি পর্যায়ক্রমে সবই পরিবর্তন হবে । 


এ পর্যায়ে কম্পিউটারে অপারেটিং সিস্টেম সেটআপ দেয়ার পূর্বে যে বিষয় গুলো মনে রাখবেন । সেটা জেনে নিন...


আপনার গুরুত্বপূর্ণ ফাইলগুলো সরিয়ে রাখুন অন্য ড্রাইভ, পেন ড্রাইভ কিংবা পোর্টেবল কোন হার্ড ডিস্কে

বায়োস সেটআপে ফাস্ট বুট ডিভাইস সিডি/ডিভিডি  সিলেক্ট করে দিন ।

ডেস্কটপে কোন ফাইল রেখে থাকলে সেটি কপি করে অন্য ড্রাইভে রাখুন ।

নিশ্চিত হয়ে নিন আপনার সিডি / ডিভিডি সমস্যামুক্ত ।



এ পর্যায়ে অপারেটিং সিস্টেম সেটআপ দিয়ে যে কাজগুলো করবেন সেটি জেনে নিন...

আপনার কম্পিউটারের ডেস্কটপে ওয়ালপেপার না রাখলে ভালো এটি আপনার কম্পিউটারকে দ্রুত করবে । 

স্ক্রীন সেভার থাকলে সেটিও রিমুভ করে দিতে পারেন ।

ভার্চুয়াল মেমরী বাড়িয়ে দিন ।

গ্রাফিক্স অপশন ডিসেবল করে রাখুন ।

থীম সিলেক্ট করে রাখুন উইন্ডোজ ক্লাসিক ।

উইন্ডোজ এর সিকিউরিটি নোটিফিকেশন অফ করে দিন এটি আপনাকে ভয় দেখাবে

ফায়ারওয়াল অফ করে রাখুন ।

উইন্ডোজ আপডেট অফ করে দিন ।

কম্পিউটার এর কনফিগারেশন দুর্বল হলে এন্টিভাইরাস এর লাইসেন্স কপি দিতে যাবেননা ।

দুর্বল কনফিগারেশন এর জন্য ফ্রী একটি এন্টিভাইরাস ব্যবহার করতে পারেন । 

একাধিক এন্টিভাইরাস দিতে যাবেন না ।





উপরের কাজগুলো কারো অপছন্দ হলেও এটি করার ফলে আপনার কম্পিউটার অধিকতর দ্রুত হবে ।  আপনি নিজেই এখন চেষ্টা করে দেখুন ।   আর সকল কাজ দ্রুততার সাথে সম্পাদন করতে পারবেন ।



দীর্ঘদিন অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারের পর এক পর্যায়ে কম্পিউটার স্লো মনে হয়, তখন যা যা করতে পারেন...


কম্পিউটারের ভিতর খুলে পুরোটা একবার ব্লুয়ার দিয়ে পরিষ্কার করুন । এতে কম্পিউটারের স্থায়ীত্ব বাড়বে ।

এন্টিভাইরাস আপডেট দিয়ে স্ক্যান করে ভাইরাস ক্লীন করুন ।
ভাইরাসের পরিমাণ বেশী হলে সকল ফাইল বাইরে কোথাও কপি করে হার্ডডিস্ক পার্টিশন ডিলীট করুন ।
নতুন করে হার্ডডিস্ক পার্টিশন করে তারপর ফরমেট করে উইন্ডোজ দিন ।

স্টার্টআপের আইকনগুলো ডিসেবল করে দিন ।

অপ্রয়োজনীয় প্রোগ্রাম ইনস্টল করা থাকলে সেটি রিমুভ করে দিন ।

অপারেটিং সিস্টেম হালনাগাদ করতে চাইলে কম্পিউটারকেও হালনাগাদ করুন ।

অতিরিক্ত ফাইলগুলো মুছে ফেলুন । 





এখন আসুন কিভাবে আপনার কম্পিউটারের কোন সার্ভিস অফ হয়ে গেলে সেটি চালু করবেন জেনে নিন ।



মনে করুন প্রিন্টার স্ফুলার সার্ভিস অফ হয়ে গেছে যে কারণে প্রিন্ট হচ্ছে না ।



এজন্য  আপনাকে কন্ট্রোল প্যানেল এর এডমিনিস্ট্রেটিভ টুলসে যেতে হবে...



তারপর সেটি ওপেন করে সার্ভিসেস ওপেন করতে হবে ।



এখানে দেখুন অনেক সার্ভিস চালু কিংবা স্টপ অবস্থায় আছে, সেখানে থেকে প্রিন্টার স্পুলার চালু করে দিতে পারবেন । একইভাবে যেকোন সার্ভিস চালু কিংবা বন্ধ করতে পারবেন ।





এবার আসুন কিভাবে আপনার কম্পিউটারের কনফিগারেশন দেখবেন এক নজরে...


এজন্য স্টার্ট মেনু থেকে রান প্রোগ্রাম চালু করুন, সেখানে লিখুন dxdiag এবং এন্টার দিন ।

এক নজরে পুরো কনফিগারেশন দিখতে পাবেন । আর  অনেক সময় মাদারবোর্ডের মডেল জানা কষ্টকর ব্যাপার হয়ে দাড়ায় সেক্ষেত্রে খুব সহজেই আপনার কম্পিউটারের মাদারবোর্ডের মডেল জেনে নিতে পারবেন ।

আপনার কম্পিউটারের সকল ডিভাইসের জন্য উপযুক্ত কোন ড্রাইভার খুজে না পেলে অটো ড্রাইভার প্যাক সল্যুশন রান করে সে সমস্যা অচিরেই সমাধান করতে পারেন ।  এতে করে নির্দিষ্ট ড্রাইভার খুজে পাওয়া না গেলেও ভালো আউটপুট পাওয়া যায় ।


বরাবরের মতই এবার আসুন আপনার কম্পিউটার-এ ঘটতে পারে এমন কিছু অদ্ভুত সমস্যা ও সমাধান নিয়ে আলোচনা ।

সমস্যা-  অপারেটিং সিস্টেম কোন ভাবেই সেটআপ হচ্ছে না? বারবার বলছে সিডি/ডিভিডি মিসিং অথচ সেটি ঢুকানোই আছে ।
সমাধান- শুধুমাত্র ভালো একটি সিডি/ডিভিডি ঢুকান তাতেই কাজ হবে ।

সমস্যা- অপারেটিং সিস্টেম সেটআপের মাঝখানে বারবার রিস্টার্ট হয়ে যাচ্ছে? ধমক দিলেও কথা শুনছে না ।
সমাধান- র‌্যাম পরিবর্তন করে দিন কাজ হয়ে যাবে ।

সমস্যা- অপারেটিং সিস্টেম সেটআপের মাঝখানে পুরো কম্পিউটার হ্যাং ।  আর সামনে এগোয় না ।
সমাধান- এ ক্ষেত্রে সকল ডিভাইস চেক করে দেখুন বিশেষ করে হার্ডডিস্ক আর এটি পরিবর্তন করে দেখুন আশা করি একই সমস্যা আর হবে না ।

সমস্যা- কম্পিউটার চালু হওয়ার কিছুক্ষন পরই বন্ধ হয়ে যায়  । 
সমাধান- প্রসেসর ওভার হীট হচ্ছে । প্রসেসরের উপর পেস্ট দিন এবং নিশ্চিত হয়ে নিন কুলিং ফ্যান যথাযথভাবে বসেছে ।

সমস্যা- অনেকক্ষন কাজ করার পর ল্যাপটপ প্রচন্ড গরম হচ্ছে ।
সমাধান- এজন্য ল্যাপটপ এর জন্য নির্দিষ্ট কুলার ব্যবহার করতে পারেন ।  ডেস্কটপের মত ভারী কাজ করতে গেলে ল্যাপটপে কুলার ব্যবহার করা ভালো তাতে ২৪ ঘন্টাই ভালো সার্ভিস পাবেন ।

সমস্যা- হঠাৎ করেই ডেস্কটপের কোন আইকন দেখাচ্ছে না ।
সমাধান- ভাইরাসের উপদ্রব হয়েছে, রিপেয়ার দিলেই সমাধান হয়ে যাবে ।

সমস্যা- কোন ভাবেই কীবোর্ড কাজ করে না । আর করলেও কয়েকটি কী কাজ করে না ।
সমাধান- ল্যাপটপ-এ হলে আলাদা কীবোর্ড ব্যবহার করুন অথবা ডেস্কটপের জন্য মাউজ দিয়ে স্টার্ট মেনুতে গিয়ে রান-এ লিখুন  osk  অর্থাৎ অন স্ক্রীন কীবোর্ড  এরপর এন্টার দিন  ।   ব্যাস আপাতত কাজ সারাতে পারবেন ।

সমস্যা- অনেক সময় ভাইরাস এর কারণে কম্পিউটারে পেন ড্রাইভ লাগালেই সর্টকাট হয়ে যায় ।
সমাধান- ইতিপূর্বে এ থেকে পরিত্রাণ এর উপায় বলেছি ।   আপাতত সমাধান হচ্ছে টুলস এ গিয়ে ফোল্ডার অপশনে গিয়ে শো হিডেন ফাইলে টিক চিহ্ন দেয়া এবং হাইড এক্সটেনশন চেকবক্স তুলে দেয়া । তাহলে হাজারো সর্টকাটের ভিড়েও প্রয়োজনীয় ফাইল খুজে পাবেন এবং দেখতে পাবেন ।


সবাই ভালো থাকবেন ।



অনেক অনেক শুভ কামনা রইলো ।


আমার ব্লগ ।।। http://e-aiman.blogspot.com

আমার ফেসবুক ।।। http://facebook.com/obaid.aiman

আমার ফ্যানপেজ ।।। http://facebook.com/aimancse

Re: কম্পিউটার হাডর্ওয়্যার ট্রাবলশ্যুটিং ও মেইনটেনেন্স

হুম ভাল টিপস্ । নতুনদের কাজে আসবে।

Re: কম্পিউটার হাডর্ওয়্যার ট্রাবলশ্যুটিং ও মেইনটেনেন্স

অল্পকিছু নতুন শিখলাম।

বেকুবে কয় কি?

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত