টপিকঃ পাল্টে যাচ্ছে যুব সমাজের দৃশ্যপট

শিক্ষা জাতির মেরুদন্ড, শিক্ষা ছাড়া একটা দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। আর এই শিক্ষার সাথেই অধিকাংশ যুব সমাজ জড়িত। প্রাইমারী স্কুল থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত সব খানেই যুবদের বিচরন। বিশেষ করে “আইসিটি” শিক্ষা। এক্ষেত্রে যুব সমাজ এনেছে এক উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন- যুবকদের মধ্যে কেউ লিখছে আবার কেউবা শেখাচ্ছে। আর এটাই পাল্টে দিয়েছে যুব সমাজের দৃশ্যপট। আগে রাস্তার অলি-গলি বা রাস্তার মোড়ে মোড়ে যুবকদের দেখা যেতো হয় তারা আড্ডা দিচ্ছে বা মেয়েদের উত্যক্ত করছে অথবা বিভিন্ন ভাবে মাদকে আসক্ত হচ্ছে। কিন্তু সেই দৃশ্য এখন একেবারেই অচেনা। এখন আর যুবকরা রাস্তার অলি-গলি বা মোড়ে মোড়ে আড্ডা দেয় না। তারা এখন ব্যস্ত লেখাপড়া বা প্রযুক্তি নিয়ে। অদ্ভুত সুন্দর এই পরিবর্তন। ভাবতে ও খুব ভাল লাগে আমাদের ছেলেরা ড্রোন বা রোবট বানাচ্ছে, বিভিন্ন মোবাইল অ্যাপস্ তৈরি করছে। আজ ভাবতে অসম্ভব ভাল লাগে যে আমাদের ছেলেদের তৈরি এক কোটি মোবাইল অ্যাপস্ আগামী ২০২০ সালের মধ্যে বিদেশে রপ্তানী হবে? এছাড়াও খেলে গেছে আউট সোর্সসিং এক উন্মুক্ত বিশাল দরজা, লক্ষ-লক্ষ যুবকরা জরিত হচ্ছে এক্ষত্রে, আয় করছে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা। আর আগামী ১০ বছরের মধ্যে এ খাত ছাড়িয়ে যাবে গার্মেন্টস্ সেক্টরকেও। ভাবতে খুব ভাল লাগে এক্ষেত্রে এগিয়ে আছে আমাদের যুব-সমাজ। আজ আমাদের কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা পড়ালেখার পাশাপাশি আউট সোর্সসিং এর মাধ্যমে উপার্জন করে নিজের পড়ালেখা চালাচ্ছে এবং পরিবারকেও সাহায্য করছে। আজ আমাদের যুব-সমাজ তাদের পড়ালেখার পাশাপাশি অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে এক বিশাল অবদান রাখছে যা আমাদের দেশকে তুলে ধরছে এক নতুন মাত্রায়। তাই আমাদের যুব-সমাজ এখন আর সমাজের বোঝা নয়, নিজেদেরকে তৈরি করছে মানব সম্পদ হিসেবে, আজ যারা বিদেশে কাজ করছে তাদের অধিকাংশই এই যুব-সমাজের অংশ। তাই আমাদের যুব-সমাজ আজ শুধু তাদের দৃশ্যপটকেই পাল্টায় নাই- পাল্টে দিয়েছে পুরা দেশের দৃশ্যপটকে আর তাই অভিবাদন জানাই আমাদের যুব-সমাজকে।

Re: পাল্টে যাচ্ছে যুব সমাজের দৃশ্যপট

হুম , আউটসোর্সিং এর মাধ্যমৈ অনেকেই স্বাবলম্বী হচ্ছেন।

আমি আবদুল আউয়াল । আইটির সাথে সখ্যতা অনেকদিনের। চেষ্টা করি নিজে যা জানি অন্যকে তা জানাতে । আমার ওয়েবসাইট আইটি শিক্ষা

aouwalcmc'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত