টপিকঃ অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

মোবাইল সংযোগ একনাগাড়ে দুই বছর ব্যবহার না করলে সিমের মালিকানা হারাবেন মোবাইল ফোন গ্রাহক। এরপর সংশ্লিষ্ট কোম্পানি ওই নম্বরটি বিক্রি করে দিতে পারবে। এ ছাড়া অব্যবহৃত ইন্টারনেট ডেটা পরের মাসে কেনা প্যাকেজের সঙ্গে ব্যবহারের সুযোগ পাবেন গ্রাহকেরা।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) সম্প্রতি মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলোকে এ নির্দেশনা দিয়েছে। নির্দেশনায় তিনটি সুনির্দিষ্ট বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। মোবাইল কোম্পানিগুলো বলছে, তাদের সঙ্গে আলোচনা করেই এ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে এবং দেশের মোবাইল খাতের জন্য এ সিদ্ধান্তকে তারা ইতিবাচকভাবেই দেখছে।

বিটিআরসির সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী (জানুয়ারি ২০১৫ পর্যন্ত), দেশে মোবাইল ফোনের গ্রাহকসংখ্যা ১২ কোটি ১৮ লাখ ৬০ হাজার। আর ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা ৪ কোটি ২৭ লাখ ৬৬ হাজার।

গত বৃহস্পতিবার বিটিআরসির জারি করা ‘ডাইরেকটিভস অন সার্ভিস অ্যান্ড ট্যারিফ ২০১৫’ শীর্ষক এই নির্দেশনায় মোবাইল অপারেটরদের বিভিন্ন সেবা, অফার, নম্বর প্ল্যান, ব্যবহার নোটিফিকেশন, ট্যারিফ ও চার্জ, প্রচারমূলক কার্যক্রম (প্রমোশনাল অ্যাক্টিভিটিজ), মার্কেট কমিউনিকেশন ইত্যাদি বিষয়ে নির্দেশনা দেওয়া হয়। এ ছাড়া মোবাইল সংযোগ অকার্যকর (ডি-অ্যাকটিভ), পুনরায় সচল (রি-অ্যাকটিভ), পুনরায় বিক্রির (রি-সেলিং) বিষয়গুলোও উল্লেখ করা হয় ওই নির্দেশনায়।

নির্দেশনায় বলা হয়, একনাগাড়ে কোনো মোবাইল সংযোগ ৯০ দিন বন্ধ থাকলে তা নিষ্ক্রিয় হয়ে যাবে। এক বছরের মধ্যে ন্যূনতম রিচার্জের মাধ্যমে সেটা চালু করতে পারবেন গ্রাহক। সিমটি যদি ৩৬৫ দিনের বেশি অব্যবহৃত থাকে তবে এটি সচল করতে গ্রাহককে ১৫০ টাকা রিচার্জ করতে হবে। গ্রাহক যদি এক বছরের মধ্যে বন্ধ সংযোগ চালু না করেন, তাহলে ৭৩০ দিনের (দুই বছর) মধ্যে অনধিক ১০০ টাকা ফি দিয়ে তা সচল করতে পারবেন। সংযোগ একনাগাড়ে দুই বছর বন্ধ থাকলেও মোবাইল কোম্পানিগুলো সেটা বিক্রি করতে পারবে না। দুই বছর পর্যন্ত ওই নম্বর সংরক্ষণ করতে হবে।

এ সময়ের পর বিটিআরসি বা অন্য কোনো সংস্থার আপত্তি না থাকলে মোবাইল কোম্পানি ওই নম্বর বিক্রি করতে পারবে। বিক্রি করার ক্ষেত্রেও শর্ত জুড়ে দিয়েছে বিটিআরসি। বিক্রি করার আগে এসব নম্বর কোম্পানির নিজস্ব ওয়েবসাইট, কাস্টমার কেয়ার সেন্টার ও বিটিআরসির ওয়েবসাইটে দিতে হবে। যেসব নম্বর আবার বিক্রি হবে, বিক্রির তিন মাস আগে কমপক্ষে তিনটি সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে জানাতে হবে।

পুনরায় বিক্রি করা সংযোগ চলতি বাজারদরে বিক্রি করতে হবে বলেও নির্দেশনায় বলা হয়েছে। নম্বর বিক্রি করে দেওয়ার পরও ওই গ্রাহকের নিবন্ধন, ব্যবহার ও অন্যান্য তথ্য কোম্পানিগুলোকে সংরক্ষণ করতে হবে।

অব্যবহৃত ইন্টারনেট ডেটাও গ্রাহকদের ফেরত দিতে বলা হয়েছে নির্দেশনায়। এ ক্ষেত্রে পরের মাসে কেনা ডেটা প্যাকেজের সঙ্গে আগের মাসের অব্যবহৃত ডেটা যুক্ত হবে। অব্যবহৃত ডেটার ব্যবহার শেষ হলেই নতুন ডেটা ব্যবহারের সুযোগ দিতে কোম্পানিগুলোকে বলা হয়েছে।

ডেটা ব্যবহারের ক্ষেত্রে গ্রাহকদের সময়-সময় নোটিফিকেশন পাঠানোর কথাও নির্দেশনায় গুরুত্ব দিয়ে তুলে ধরা হয়েছে। এতে বলা হয়, ১০০ মেগাবাইটের (এমবি) নিচে ডেটার ক্ষেত্রে একবার, ১০০ থেকে ৫০০ এমবির ক্ষেত্রে দুবার এবং ৫০০ এমবির বেশি প্যাকেজের ডেটার ক্ষেত্রে গ্রাহককে তিনবার নোটিফিকেশন পাঠাতে বলা হয়েছে। বেশি ডেটার ক্ষেত্রে মোট ডেটার ৫০ ভাগ শেষ হলে প্রথমবার এবং ৮০ ভাগ ডেটা শেষ হলে গ্রাহককে দ্বিতীয়বার নোটিফিকেশন পাঠাতে বলা হয়েছে। ডেটা শেষ হয়ে যাওয়ার পরও নোটিফিকেশন দিতে হবে এবং ইন্টারনেটের ব্যবহার অব্যাহত রাখলে কীভাবে চার্জ ধরা হবে, তা-ও জানাতে হবে।

মোবাইল রিচার্জের ক্ষেত্রেও কত টাকায় কত দিন মেয়াদ দিতে হবে, তার ন্যূনতম সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ১০ থেকে ৩০ টাকা রিচার্জে ১০ দিন, ৩১ থেকে ৫০ টাকায় ১৫ দিন, ৫১ থেকে ১৫০ টাকায় ৩০ দিন, ১৫১ থেকে ৩০০ টাকায় ৪৫ দিন, ৩০১ থেকে ৫০০ টাকায় ১০০ দিন, ৫০১ থেকে ৯৯৯ টাকায় ১৮০ দিন এবং ১০০০ বা তার বেশি টাকা রিচার্জে ন্যূনতম এক বছর মেয়াদ দিতে হবে।

নির্দেশনাটিতে চটকদার বিজ্ঞাপনের লাগাম টেনে ধরার উদ্যোগের কথাও বলা হয়েছে। এখন থেকে নিজেদের অফারকে কোনো কোম্পানিই আর ‘সেরা’ দাবি করে বিজ্ঞাপন প্রচার করতে পারবে না।

বাংলাদেশে মোবাইল কোম্পানিগুলোর সংগঠন অ্যামটবের মহাসচিব টি আই এম নুরুল কবির প্রথম আলোকে বলেন, অপারেটরদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে বিটিআরসির সিদ্ধান্ত গ্রহণের উদ্যোগকে ইতিবাচকভাবে দেখছে অ্যামটব। নির্দেশনা জারির আগে তাদের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনার পর অনেকগুলো পরামর্শ বিটিআরসি গ্রহণ করেছে বলেও তিনি জানান।

গ্রামীণফোনের বহির্যোগাযোগ বিভাগের প্রধান সৈয়দ তালাত কামাল আজ রোববার প্রথম আলোকে বলেন, নির্দেশনাটিকে গ্রামীণফোন ইতিবাচকভাবেই দেখছে। বাংলালিংকের সরকারি সম্পর্ক ও রেগুলেটরি অ্যাফেয়ার্স-বিষয়ক জ্যেষ্ঠ পরিচালক তাইমুর রাহমানও একই মত জানান। মোবাইল কোম্পানি রবির মুখপাত্র মহিউদ্দিন বাবরও এটাকে ইতিবাচকভাবে দেখছেন বলে জানালেন। তিনি বলেন, পারস্পরিক আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নিয়ে দেওয়া এ নির্দেশনা টেলিযোগাযোগ খাতের জন্য ইতিবাচক। তবে এটাকে আরও বাস্তবধর্মী করা গেলে আরও ভালো হতো বলে তিনি মন্তব্য করেন।

৪জির তরঙ্গ বিক্রির জন্য এই নিয়ম করল বিটিআরসি  hairpull hairpull hairpull

সূত্রঃ প্রথম আলো

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

-_-  ফালজামো নাকি ? আমার সিম আমি ইউজ করবো, যখন খুশি তখন করবো। সীম আমার টাকা দিয়া কেন।  angry
ঢাকায় ফিরে আমার "এডভান্স" সীমটা এক্টিভ করে ফেলতে হবে আগে দেখি।

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

নীতিমালার বেশ কিছু পজিটিভ দিক খুজে পাচ্ছি  thumbs_up

IMDb; Phone: Huawei Y9 (2018); PC: Windows 10 Pro 64-bit

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

মেহেদী৮৩ লিখেছেন:

ফালজামো নাকি ? আমার সিম আমি ইউজ করবো, যখন খুশি তখন করবো।


খালি এইটা না ভাই, ১০-৩০ টাকা রিচার্জে মেয়াদ ১০ দিন sad আর ১ বছর সিম বন্ধ রাখলে জরিমানা ১৫০ টাকা দিয়ে এরপর সিম এক্টিভ করতে হবে sad ২ বছর রাখলে ২৫০ না যেন ৩০০ টাকার মত জরিমানা দিতে হবে।

এর মূল কারণ জিপি এক বড় ভাই থেকে যা জানতে পারলাম তা হল, থ্রী জি তে যে পরিমাণ টাকা সরকার হাতিয়ে নিয়েছে এর এখনো অনেকাংশই কোন কোম্পানী উঠাতে পারেনি। কারণ মোবাইল কোম্পানীর বড় টার্গেট ছিল থ্রী জি ভিডিও কলিং এবং ইন্টারনেট। এর ভিতর ভিডিও কলিং এর প্রজেক্ট ফেল। শুধু ইন্টারনেট রয়েছে। কিন্তু এতেও বিপর্যয়।

কারণ সাশ্রয়ী প্যাকেজের দিকে তাকালে চোখে পরে টেলিটক। আর যে সব জায়গাতে টিটির থ্রীজি এখনো বিস্তৃত নাই সে জায়গাতে জিপি, রবি ও বাংলালিংক আছে আর কি। তবে সার্বিক জরিপের দিক দিয়ে নেট সার্ভিসে জিপি এগিয়ে। তবে ২ জি ওরা কলরেটে বাজিমাত করছে। কারণ ১০সেঃ পালসের চিপায় ফেলে ১টাকা+ কেটে নিচ্ছে sad

এসব নীতিমালার সব অপারেটর মিলিত হয়ে করিয়েছে। ওরা বিটিআরসি কে লিখিত দিয়েছিল যে, ৪জি তরঙ্গ কিনতে অপারেটরগণ আগ্রহী নন। আর সরকার টাকার জন্য গ্রাহকের স্বার্থের কথা চিন্তা না করেই এসব নীতিমালা করেছে  worried worried

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

big_smile lol2 surprised surprised surprised surprised

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

mizvibappa লিখেছেন:

থ্রী জি তে যে পরিমাণ টাকা সরকার হাতিয়ে নিয়েছে এর এখনো অনেকাংশই কোন কোম্পানী উঠাতে পারেনি।

আজকে এক কাস্টমার ৩জি ১জিবি (৩৪৫টাকা) প্যাকেজটা এক্টিভেট করার জন্য কল দিয়েছিলেন। উনি বললেন আপনারা কেন ৩৪৫টাকায় ১জিবির জায়গায় ২জিবি দিচ্ছেন না? মনে মনে বললাম স্যার যদি জানতেন পেছনের কারণটা...। neutral

ইমরান তুষার'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

সিম বন্ধ করে দেয়ার জন্য দুবছর সময়সীমা কম হয়ে যায়, বিশেষত প্রবাসীদের জন্য। দীর্ঘদিন পর দেশে ফিরবেন যারা, কোন অপরাধে তাদের সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হবে??

যদি আসো... স্বাগতম!
যদি না আসো... সুস্বাগতম!!

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

mizvibappa লিখেছেন:

অব্যবহৃত ইন্টারনেট ডেটাও গ্রাহকদের ফেরত দিতে বলা হয়েছে নির্দেশনায়। এ ক্ষেত্রে পরের মাসে কেনা ডেটা প্যাকেজের সঙ্গে আগের মাসের অব্যবহৃত ডেটা যুক্ত হবে। অব্যবহৃত ডেটার ব্যবহার শেষ হলেই নতুন ডেটা ব্যবহারের সুযোগ দিতে কোম্পানিগুলোকে বলা হয়েছে।

এটুকু খুব ভাল বিষয়।

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

এটা অলরেডি তারা করা শুরু করে দিয়েছে। সেদিন আমার ভাই এক পুরান সিম তুলতে গিয়ে দেখে সেটা আরেকজনের কাছে অলরেডি সাব্সক্রাইব করে দিয়েছে ওরা।

এম. মেরাজ হোসেন
IQ: 113
http://www.iq-test.cc/badges/4774105_3724.png

১০

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

ইমরান তুষার লিখেছেন:

আজকে এক কাস্টমার ৩জি ১জিবি (৩৪৫টাকা) প্যাকেজটা এক্টিভেট করার জন্য কল দিয়েছিলেন।


ভাউ কি ঝিপির কাস্টমার কেয়ারে জব করেন নাকি???  thinking thinking thinking thinking

onlysoBuj লিখেছেন:

সিম বন্ধ করে দেয়ার জন্য দুবছর সময়সীমা কম হয়ে যায়, বিশেষত প্রবাসীদের জন্য।


অপরদিকে যারা দীর্ঘদিন পর আসবে এরপর দেখবে যে নম্বরটি বন্ধ। তখন ঐ প্রবাসী যদি উনার ব্যবহৃত নম্বরে ফোন দেয় এরপর যখন দেখবে সেটি আরেকজন ব্যবহার করছে তখন ব্যাপারটি সাংঘর্ষিক হয়ে যেতে পারে sad তাছাড়া যদি উভয়ের কাছে বৈধ SAF ফর্ম থাকে তাহলে তো হয়েছেই, কাস্টমার কেয়ারে ও ছোট খাটো ও একটা যুদ্ধ হয়ে যেতে পারে।

মেরাজ০৭ লিখেছেন:

এটা অলরেডি তারা করা শুরু করে দিয়েছে।


হুমম তা তো করবেই  sad sad sad দেখছেন যে জিপি পুরাতন ০১৭১১,০১৭১২ এসব সিরিজের সিম রাস্তায় অহরহ পাওয়া যাচ্ছে  neutral আমিও একটা কিনেছি ওল্ডু ইজ গল্ডু সীম।

তবে এই সব বুদ্ধি ভারত থেকে নিয়েছে। কারণ ভারতে এটা চালু আছে একটা সিম ৬ মাস অব্যবহৃত থাকলে ওরা ঐটা আবার বিক্রি করে দিতে পারে। এক্ষেত্রে যদি গ্রাহক কোন অভিযোগ করে কোন লাভ হয় না। কারণ গ্রাহকে তখন বলা হয় কেন এবং কি কারণে উনি ৬ মাস সিম বন্ধ রেখেছিল। আমার নিকট আত্মীয়ের সাথে এরূপ ঘটেছিল sad

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১১

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

mizvibappa লিখেছেন:

হুমম তা তো করবেই  sad sad sad দেখছেন যে জিপি পুরাতন ০১৭১১,০১৭১২ এসব সিরিজের সিম রাস্তায় অহরহ পাওয়া যাচ্ছে  neutral আমিও একটা কিনেছি ওল্ডু ইজ গল্ডু সীম।

এসব সিরিজ পাওয়া যাচ্ছে ? আমার কাছেই অবশ্য ০১৭১২ আর ০১৭১৩ সিরিজের সিম আছে smile

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

১২

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

প্রখর রুদ্র লিখেছেন:

এসব সিরিজ পাওয়া যাচ্ছে ?


হুমম পাওয়া যাচ্ছে smile তবে জিপির ০১৭১১ খুবই উচ্চ মূল্যে বিক্রি করেছে। প্রতি সিম ৫০০ টাকা করে। আর বাকি গুলো ১৫০-২০০ টাকা করে sad

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৩

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

এইটা কোন কথা হইলো? আচ্ছা সাপোজ আমরা দেশে এসে দেখলাম আমার সিম অন্য কেউ ইউজ করছে এবং আমার টা অফ এবং যেহেতু আমি দেশের বাইরে থাকি আমার সিমের কাগজ পত্র নিশ্চয়ই আমার কাছে থাকবে না (থাকাটা রেয়ার কেস), তাহলে আমি কি আমার সিম ফেরত পাবো না? নাকি অন্য কোন নির্দেশনা আছে এ ব্যপারে?

নিজেকে খুঁজে ফিরি...

১৪

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

আফসোস.......বড়ই সযত্নে আমার ১০ বছর বয়সী নাম্বারের জিপি গোল্ডের সীমটা রেখে দিয়েছিলাম(যদিও প্রায় বছর তিন বন্ধ আছে)........আশা ছিলো বছর শেষে দেশে ফিরে ইউজ করবো...... sad sad
আগে দরকার বাধ্যতামূলক ভাবে নম্বার পোটর্িং করার সুবিধা........যেন যখন খুশি যেকোন অপারেটরে তার নম্বর সুইচ করতে পারে।

টিপসই দিবার চাই....স্বাক্ষর দিতে পারিনা......

১৫

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

onlysoBuj লিখেছেন:

সিম বন্ধ করে দেয়ার জন্য দুবছর সময়সীমা কম হয়ে যায়, বিশেষত প্রবাসীদের জন্য। দীর্ঘদিন পর দেশে ফিরবেন যারা, কোন অপরাধে তাদের সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হবে??

ভাই আপনার সাথে একমত। ফাজলামো করার আর জাগা পাচ্ছে না।

১৬

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

যাদের একাধিক সিম আছে তাদের এখন রুটিন করে সিম চালু করে রাখতে হবে নাইলেই ঘ্যাচাং  smile

১৭

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

mizvibappa লিখেছেন:

তবে জিপির ০১৭১১ খুবই উচ্চ মূল্যে বিক্রি করেছে। প্রতি সিম ৫০০ টাকা করে। আর বাকি গুলো ১৫০-২০০ টাকা করে

যারা বিক্রি করছে তারা নরমাল রিটেইলার অথবা ফ্ল্যাক্সি দোকানদার। এই সিমগুলো-ও ২০০টাকাই দাম। গ্রামীনফোন এর নিজস্ব কাস্টমার সেন্টার থেকে কিনুন, ওখানে ২০০টাকা তেই পাবেন। তবে ০১৭১১ সিরিজ এর কিছু প্লাটিনাম সিম ছাড়া হয়েছিলো যেগুলোর দাম ২০০০টাকা থেকে শুরু।

ইমরান তুষার'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৮

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

নাহিদ ইসলাম লিখেছেন:
onlysoBuj লিখেছেন:

সিম বন্ধ করে দেয়ার জন্য দুবছর সময়সীমা কম হয়ে যায়, বিশেষত প্রবাসীদের জন্য। দীর্ঘদিন পর দেশে ফিরবেন যারা, কোন অপরাধে তাদের সংযোগ বন্ধ করে দেয়া হবে??

ভাই আপনার সাথে একমত। ফাজলামো করার আর জাগা পাচ্ছে না।

একটা সিম কি শুধুই সিম? কত স্মৃতি জড়িয়ে থাকে না?? পুরনো সিম দুটি নিয়ে দেশ ছেড়েছি প্রায় দুবছর। এতোদিনে ওগুলোর মালিকানা আমার আছে কিনা, কে জানে? অনেকদিনের পর যখন ফিরবো দেশে, অনেক কিছুর মতই আমার সিমগুলোও আর ফেরত পাবো না! ভাবলেই অতীব আনন্দ হচ্ছে!! ধন্যবাদ নীতিমালা প্রনয়ণকারীগণ!  clap

যদি আসো... স্বাগতম!
যদি না আসো... সুস্বাগতম!!

১৯ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সেজান (২৪-০৩-২০১৫ ১৭:১৪)

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

ইমরান তুষার লিখেছেন:

যারা বিক্রি করছে তারা নরমাল রিটেইলার অথবা ফ্ল্যাক্সি দোকানদার।

ভাই রিসেইলার হবে মনে হয় big_smile আচ্ছা এই সব সিমগুলো কি গ্লোড প্লাটিনাম এইরকম ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে নাকি?যদি প্লাটিনাম সিরিজের সিম এর দাম ২০০০ টাকার উপরে হয় তাহলে গ্লোড সিরিজের সিমের দাম কত হতে পারে?নাকি প্লাটিনাম সিরিজের সিমই হাইয়েষ্ট ক্যাটাগরি thinking

অন্যের কাছ থেকে যে ব্যবহার প্রত্যশা করেন আগে নিজে সে আচরন করুন।

২০

Re: অব্যবহৃত সিমের মালিকানা হারাবেন গ্রাহক

সেজান লিখেছেন:

ভাই রিসেইলার হবে মনে হয় big_smile আচ্ছা এই সব সিমগুলো কি গ্লোড প্লাটিনাম এইরকম ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে নাকি?যদি প্লাটিনাম সিরিজের সিম এর দাম ২০০০ টাকার উপরে হয় তাহলে গ্লোড সিরিজের সিমের দাম কত হতে পারে?নাকি প্লাটিনাম সিরিজের সিমই হাইয়েষ্ট ক্যাটাগরি thinking

থুক্কু ভাই, টাইপো হয়ে গেসিলো।  tongue
স্টার ক্যাটাগরির কোন সিম-ই বাইরে বিক্রি হয়না। শুধু নরমাল বেসিক সিম বাইরে পাবেন। একমাত্র রিসেল হয় প্লাটিনাম সিম, আর সেটা হয় শুধু গ্রামীনফোন সেন্টারে। আর স্টার ক্যাটাগরিটা শুরু থেকে উপরে উঠেছে এভাবেঃ সিলভার, গোল্ড, প্লাটিনাম। অর্থাৎ, গোল্ড সিরিজ এর দাম আরো কম হবার কথা, যদি কখনো বিক্রি হতো আরকি। smile

ইমরান তুষার'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত