টপিকঃ শ্রীমঙ্গলের পথে

যদিও অনেকবার গিয়েছি সিলেট তবে এই বছর বেশ কয়েকবার প্রগ্রাম ঠিক করেও যাওয়া হয়নি সিলেটে। শেষ পর্যন্ত ১৯শে অক্টোবর ২০১৪ইং তারিখে সিলেটের একটা ফ্যামেলি-ফ্রান্ড ভ্রমণের আয়োজন করেছিলাম। যাওয়ার সময় সরাসরি সিলেট না গিয়ে শ্রীমঙ্গলের লাউয়াছড়া ন্যাশনাল পার্ক হয়ে মাধপপুর লেক ঘুরে মাধপকুন্ড ঝর্ণা দেখে সিলেট যাব ঠিক করা হলো। যেহেতু ঘুরপথে যাচ্ছি আবার পথে তিনটি স্থানে থেমে বেরিয়ে যাবার ইচ্ছে আছে সেহেতু সীদ্ধান্ত নেয়া হলো ভোর ৫টায় রওনা হয়ে যাব। সেই মতে আমরা সবাই ভোরে রেডি হয়ে যখন আমাদের গাড়ি ছাড়া হলো তখন ঘড়িতে সময় ৫টা ৫০ মিনিট। অর্থাৎ অলরেডি ৫০ মিনিট পিছিয়ে পরলাম।
https://fbcdn-sphotos-b-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xap1/t31.0-8/p800x800/10679613_10204031065074918_9112544188599141618_o.jpg
{ভোরে উত্তরবাড্ডা বাজারে যে এই এক্কা গাড়ি আসে সেটা আজই প্রথম দেখলাম।}


এক টানা গাড়ি চললো টঙ্গি হয়ে  পূবাইল দিয়ে ঘোড়াশাল পার হয়ে শিবপুর নরসিংদী এসে পৌছলাম ৭টা ২৫ মিনিটে। এখানে রাস্তার ধারে সাতসকালের মিষ্টি রোদে বসে সকালের নাস্তা সারলাম গরম গরম পরটা ডিম ভাসি আর ডাল-ভাজি দিয়ে।
https://fbcdn-sphotos-h-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xfp1/t31.0-8/q81/p800x800/10708562_10204031065354925_3063326633772648595_o.jpg
{পথের ধারে নাস্তা পর্ব}


নাস্তা শেষে ৭টা ৫০ মিনিটে আবার শুরু হলো যাত্রা। পথের ধারে তখনো পুরপুরি ব্যস্ততা শুরু হয় নি। লক্ষ্য করলাম ঢাকায় শীতের নামগন্ধ না থাকলেও ঐদিকে হালকা কুয়ার মত আছে, আসলে হয়তো ধোয়াশা। তবে সাতাস বেশ ঠান্ডই আছে তখনো।
https://fbcdn-sphotos-e-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xaf1/t31.0-8/p800x800/1658263_10204031065914939_5401428955862341332_o.jpg
{ধোয়া না হালকা কুয়াশা!}
   

https://fbcdn-sphotos-a-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xap1/t31.0-8/p800x800/10431414_10204031066514954_3719657414588033755_o.jpg
যাত্রী


https://scontent-b-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xpf1/t31.0-8/p800x800/1492246_10204031067354975_8474353054207468913_o.jpg
পথের ধারে ছড়িয়ে আছে গ্রাম বাংলার আবহমান দৃশ্যাবলী।



আড্ডা আর পথের ধারের দৃশ্যাবলি দেখতে দেখতে চললাম আমরা আমাদের পথে। ৮টা ৫০ মিনিটে হবিগঞ্জের মাধরপুর এসে গ্যাস নিতেলাম গাড়িতে, এখানে আবার ১০ মিনিটের চা বিরতী শেষে  ৯টায় চলা শুরু হলো। ১০টা ১৫ মিনিটে আবার গ্যাস নিলাম শ্রীমঙ্গলের উত্তসরিতে এসে।
https://scontent-a-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xap1/t31.0-8/p800x800/10682450_10204031067034967_1803040580763986592_o.jpg


শ্রীমঙ্গল মানেই চা বাগান, আসলেই তাই,  মিনিট দশেক গাড়ি চলার পরেই শুরু হলো চা বাগান।
https://fbcdn-sphotos-b-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xap1/t31.0-8/p800x800/10620338_10204031067714984_6296745404767768285_o.jpg
এবার চায়ের দেশে প্রবেশ


https://fbcdn-sphotos-b-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xap1/t31.0-8/p800x800/1397147_10204031070355050_7374239684498497708_o.jpg
শুরু হলো চায়ের রাজ্যে যাত্রা, চা বাগানের ভিতর দিয়ে চলে গেছে এই পথ।

পথে দু ধারের সবুজ চাবান, পাহারের থালে আর টিলায় ঢেউ খেলান দিগন্তবৃস্তিত সবুজের সমারহ, যেন সবুজের সমুদ্র।
https://fbcdn-sphotos-d-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xfp1/t31.0-8/p800x800/10548202_10204031069835037_7012840869535489438_o.jpg
চা বাগানের একটা টিলা।

চাবাগানের সিমানা পেরুতেই শুরু হবে ঘন বনের রাজি, বন বললে ভুল বলা হবে, বলাউচিত জঙ্গল।
https://fbcdn-sphotos-h-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xpa1/t31.0-8/p800x800/10608239_10204031070635057_5182934839523716970_o.jpg
এবার জঙ্গলের পথে ঢুকলাম

https://scontent-a-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xfp1/t31.0-8/q82/p800x800/10321725_10204031070915064_5414121915061509169_o.jpg
দুধার থেকে জঙ্গের ঝোপ আর গাছের ঢাল এসে মিসে গেছে রাস্তার মাথার উপরে, মনে হবে যেন সবুজ টানেল দিয়ে চলছে গাড়ি, সামনেই আমাদের প্রথম গন্তব্য শ্রীমঙ্গলের লাউয়াছড়া ন্যাশনাল পার্কে।
https://scontent-a-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xpf1/t31.0-8/p800x800/10005837_10204031071635082_967704710513854917_o.jpg
এর সামনেই লাউয়াছড়া বন

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

বাহ বেশ সুন্দর ছবি তুলেছেন তো  clap

IMDb; Phone: Huawei Y9 (2018); PC: Windows 10 Pro 64-bit

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

বোরহান লিখেছেন:

বাহ বেশ সুন্দর ছবি তুলেছেন তো  clap

ধন্যবাদ বোরহান ভাই।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সীমান্ত ঈগল (মেহেদী) (১৮-১১-২০১৪ ১৩:১০)

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

রোডের ছবিগুলো অসাধারণ। smile

একটুখানি অফ টপিক-
ফোরামিকদের কেউ  আমাকে কোশ্চেন করেন, জলদস্যু ভাই অনেক জায়গায় ঘুরে বেড়ান। তিনি বুঝি অনেক বিত্তবান?  big_smile আমি কি উত্তর দিবো!! আমি আসলেই জানি না। thinking

প্রশ্নটা তোলা রইলো জলদস্যু ভাইর জন্যে।  confused

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

সীমান্ত ঈগল (মেহেদী) লিখেছেন:

রোডের ছবিগুলো অসাধারণ। smile

একটুখানি অফ টপিক-
ফোরামিকদের কেউ  আমাকে কোশ্চেন করেন, জলদস্যু ভাই অনেক জায়গায় ঘুরে বেড়ান। তিনি বুঝি অনেক বিত্তবান?  big_smile আমি কি উত্তর দিবো!! আমি আসলেই জানি না। thinking

প্রশ্নটা তোলা রইলো জলদস্যু ভাইর জন্যে।  confused

ধন্যবাদ।
অট জবাব: আমি বিত্তবান নই। আমার নিজস্ব সম্পদ বলতে আছে সুবাস্তু নজর ভেলিতে একটি ১০৫ বর্গফুটের দোকান, যেটার মাসিক ভাড়া পাই ৫ হাজার টাকা।  ghusi
বাড্ডাতে আমার পিতার একটি বাড়ি আছি, যায়গার পরিমান ১০ কাঠা। আমার চার বোন আছে, কোন ভাই নেই। ভবিষ্যতে ১০ কাঠা থেকে আশা করি ৬ কাঠা আমি পাব। yahoo
বর্তমানে আমাদের একটা তিন তালা বাড়ি আছে যার সমুদয় ভাড়া পিতা নেন, আমি নিজ খরচে তৃতীয় তলা করার ফলে তার ভাড়া বাবত ২৬ হাজার টাকা পাই।  thumbs_up
বাসার নিচে দুটি দোকান আছে ভাড়া পাই ২২০০+১৫০০ = ৩৭০০ টাকা। ঠিক মত ভাড়া দেয় না এখনো দুই দোকানে ১৫হাজারের মত বাকি আছে।  whats_the_matter
আমি নিজে গুলশানে মোজবোনের দোকানে অনিয়মিত (ইচ্ছে মত যাওয়া আসা) কামলা দিয়ে ১০ হাজার পারিশ্রমিক নিই।
অর্থাৎ (+)(-) ৪৫ হাজার টাকা আমার নিয়মিত মাসিক ইনকাম। আর অনিয়মিত বর্তমান মাসিক ইনকাম আর ৪৫ হাজার। মোট ৯০ হাজার টাকা।  yahoo
ব্যয় : মেয়ের স্কুল খরচ ১৫ হাজার।  dontsee
মেয়ের মাকে দিই ৫ হাজার  waiting
আমার মাকে দিই ৩ হাজার
নেট বিল ১২০০
লোনের কিস্তি দিই ৩০ হাজার  brokenheart
নিজের পকেট খরচ ২ হাজার
গুলশানে যাতায়াত ১ হাজার
টুকটাক বাজার ৩ হাজার।
অপ্রত্যাশিত ব্যয় ৫ হাজার।
এই হিসাবে মাসিক ব্যয় (+)(-) ৬৫ হাজার টাকা।
হিসাব অনু যায় প্রতি মাসে ২৫ হাজার হাতে থাকার কথা, কিন্তু কিছুই থাকে না। এর কারণ অনিয়মিত ৪৫ হাজার ইনকাম। খরচ কিন্তু পুরাটাই নিয়তিম। আমার কোন ব্যাংক ব্যালেন্স নেই।
ফলাফল আমি বিত্তবান নই।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন কাঠাল পাতা (১৯-১১-২০১৪ ১২:০৫)

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

দস্যু ভাইয়ের তো অনেক সম্পত্তি। ১ বাপের ১ ছেলে। ১ লাখের মতো মাসিক ইনকাম, ঢাকায় ১০ কাঠার উপরে বাড়ি (ভবিষ্যতে বিশাল এপার্টমেন্ট হবে সেখানে), মার্কেটে দোকান ইত্যাদি। খাইছে আমারে।  donttell

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

কাঠাল পাতা লিখেছেন:

দস্যু ভাইয়ের তো অনেক সম্পত্তি। ১ বাপের ১ ছেলে। ১ লাখের মতো মাসিক ইনকাম, ঢাকায় ১০ কাঠার উপরে বাড়ি (ভবিষ্যতে বিশাল এপার্টমেন্ট হবে সেখানে), মার্কেটে দোকান ইত্যাদি। খাইছে আমারে।  donttell

মরুভূমির জলদস্যু লিখেছেন:

ফলাফল আমি বিত্তবান নই।

  big_smile big_smile big_smile

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

আপনার তোলা নিজের ছোবি দেখে মোনে হয় নিজেই ঘুর তে আসছি।

বেকুবে কয় কি?

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

দস্যু ভাই দেখি আর কয়দিন পর ওয়ারেন বাফেটকে ছাড়িয়ে যাবেন! smile

আমার সকল টপিক

কোনো কিছু বলার নেই আজ আর...

১০

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

লক্ষটাকা ইনকাম.. দোকান... বড়ি... এইসব কিছুইনা! দস্যু ভাইয়ে আসল বিত্ত হল এটা

মরুভূমির জলদস্যু লিখেছেন:

আমি নিজে গুলশানে মোজবোনের দোকানে অনিয়মিত (ইচ্ছে মত যাওয়া আসা) কামলা দিয়ে ১০ হাজার পারিশ্রমিক নিই।

উনি চাইলেই একঘন্টার নোটিশে এক সপ্তাহের জন্য হাওয়া হয়ে যেতে পারেন। বাফেটেরও ক্ষমতা নেই সেটা করার!

১১

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

কাঠাল পাতা লিখেছেন:

দস্যু ভাইয়ের তো অনেক সম্পত্তি। ১ বাপের ১ ছেলে। ১ লাখের মতো মাসিক ইনকাম, ঢাকায় ১০ কাঠার উপরে বাড়ি (ভবিষ্যতে বিশাল এপার্টমেন্ট হবে সেখানে), মার্কেটে দোকান ইত্যাদি। খাইছে আমারে।  donttell

ভাইজান তথ্য বৃক্রিত হচ্ছে কিন্তু। আমার সম্পত্তি আপাততত একটা দোকান। আনুমানিক যার মূল্য ১০ লাখের বেশি হবে না। এবং স্পষ্টই বলেছি ৬ কাঠার বেশি পাব না। আর আমার বাড়ি মেই রাস্তা থেকে অনেক ভিতরে তাই ভবিষ্যতে বিশাল এপার্টমেন্ট হওয়ারও সুযোগ নাই।

মেহেদী হাচান লিখেছেন:

আপনার তোলা নিজের ছোবি দেখে মোনে হয় নিজেই ঘুর তে আসছি।

এটাই সবচেয়ে বড় পাওয়া আমার জন্য।

গৌতম লিখেছেন:

দস্যু ভাই দেখি আর কয়দিন পর ওয়ারেন বাফেটকে ছাড়িয়ে যাবেন! smile

টিপ্পনি কাটলেন মনে হচ্ছে? অর্থ বা যোগ্যতার দিক থেকে আমি ওর পায়ের নোখের কাছেও যেতে পরবো না কোন দিন, আর তেমন কোন ইচ্ছেও আমার নেই। আপনি আমার দেয়া হিসাবটা দেখল বুঝবেন আমি যা ইনকাম করি ঠিক তাই খরচ করি। ৫ বছর আগে পকেট মানি ছিলো ৫ হাজার টাকা, তখন তাই খরচ হতো, এখন লাখটাকা আর খরচটাও তাই। আমি যা ইনকাম করি তাই খরচ করি, ওর সেই সাধ্যা নাই, এই খানে আমি রাজা।
আমি একাউন্টিং এ অনার্স আর মাস্টার্স করেছি। মাস্টার্সে সারা বাংলাদেশে সর্বচ্চ মার্ক পাওয়ার একটা বিশাল তালিকা হয়, সেই তালিকায় আমার নামও আছে। MBA ও করেছি কিন্তু শুনে অবাক হবেন আমি আমার জীবনে একটিও চাকুরির জন্য এপলাই করিনি। আমি এমনই। আপনি বা অন্য অনেকেই এমন হতে পারবেন না।

সদস্য_১ লিখেছেন:

উনি চাইলেই একঘন্টার নোটিশে এক সপ্তাহের জন্য হাওয়া হয়ে যেতে পারেন। বাফেটেরও ক্ষমতা নেই সেটা করার!

ভালো বলেছেন দাদা, আসলে আমি নোটিশ ছাড়াও উধাউ হতে পারি। যেমন আজকে কোন নোটিশ ছাড়াই ৪দিনের জন্য উধাউ হবো সুন্দরবনে।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১২

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

আরে দস্যু ভাই, সবাই একটু মজা করছে  big_smile

আপনি আবার মাইন্ড খেয়ে বইসেন না  smile

১৩

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

ছবিগুলো অসাধারণ thumbs_up

"We want Justice for Adnan Tasin"

১৪

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

সীমান্ত ঈগল (মেহেদী) লিখেছেন:

আরে দস্যু ভাই, সবাই একটু মজা করছে  big_smile

আপনি আবার মাইন্ড খেয়ে বইসেন না  smile

আমি এত সহজে মাইন্ড খাইনা।  cool

আউল লিখেছেন:

ছবিগুলো অসাধারণ thumbs_up

ধন্যবাদ।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১৫

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

শ্রীমঙ্গল এর ধার দিয়ে যাবার সময় আমার বেশ লাগছে! ফ্রেস এয়ার আর কাকে বলে! চা -পাতার গন্ধ! মারাত্মক!  dream
আঁকাবাঁকা রাস্তা  love ছবি দেখে তো আমার আবার যাইতে ইচ্ছা করতেছে!  dream

১৬ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন Moonstruck (২০-১২-২০১৪ ০২:১৫)

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

শ্রীমঙ্গল আসলেই সুন্দর জায়গা। তবে চা বাগানের শ্রমিকদের অবস্থা সেই ব্রিটিশ আমল থেকে কোন পরিবর্তন হয় নি।  mad  রাতে তীব্র শীত প্রায় হাড় কাঁপিয়ে দেয় (আমি অবশ্য শীতকালেই গিয়েছিলাম)। শহরের যান্ত্রিক জীবন থেকে দলছুট হয়ে প্রকৃতির কাছে যাওয়ার জন্য শ্রীমঙ্গল খুবই উপযুক্ত জায়গা।

Eat, drink and be happy

১৭

Re: শ্রীমঙ্গলের পথে

Jol Kona লিখেছেন:

শ্রীমঙ্গল এর ধার দিয়ে যাবার সময় আমার বেশ লাগছে! ফ্রেস এয়ার আর কাকে বলে! চা -পাতার গন্ধ! মারাত্মক!  dream
আঁকাবাঁকা রাস্তা  love ছবি দেখে তো আমার আবার যাইতে ইচ্ছা করতেছে!  dream

আমারও বারবার যেতে ইচ্ছা করে, মনটা কয়েকদিন ধরে সেন্টমার্টিন সেন্টমার্টিন করতেছে অবশ্য।  dream

Moonstruck লিখেছেন:

শ্রীমঙ্গল আসলেই সুন্দর জায়গা। তবে চা বাগানের শ্রমিকদের অবস্থা সেই ব্রিটিশ আমল থেকে কোন পরিবর্তন হয় নি।  mad  রাতে তীব্র শীত প্রায় হাড় কাঁপিয়ে দেয় (আমি অবশ্য শীতকালেই গিয়েছিলাম)। শহরের যান্ত্রিক জীবন থেকে দলছুট হয়ে প্রকৃতির কাছে যাওয়ার জন্য শ্রীমঙ্গল খুবই উপযুক্ত জায়গা।

খাঁটি কথা বলেছেন আপনি্।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।