সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন Raza420 (২৭-০৯-২০১৪ ১০:০৪)

টপিকঃ মানিবুকার্স/স্ক্রীল আর বাংলাদেশে টাকায় কোন ব্যাংক উইথড্রো দিবেনা

মানিবুকার্স/স্ক্রীল আর বাংলাদেশে বাংলাদেশী টাকায় কোন ব্যাংক উইথড্রো করতে দিবেনা। এতে হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার বিপাকে পড়বে। বাংলাদেশে পেপল না থাকায় ফ্রিল্যান্সাররা যুক্তরাজ্য ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান মানিবুকার্স ব্যবহার করে বাংলাদেশে বৈদেশিক মুদ্রা আনতেন। এখন সেটাও বন্ধ হয়ে গেল।

মানিবুকার্স তাদের গ্রাহকদেরকে এক ইমেলের মাধ্যমে জানিয়েছে যে, আজ (২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪) থেকে বাংলাদেশ সহ পাকিস্তান এবং মিশরে এই সুবিধা বন্ধ করে দেয়া হলো। পাঠকদের সুবিধার্থে নীচে ই-মেলটির একটি কপি প্রকাশ করা হলো।

Dear Md xxxx xxxx,

We would like to inform you that US bank withdrawals to Bangladesh, Pakistan and Egypt can no longer be made from Saturday 27th September. Once dollar payments come to an end, you will be able to withdraw funds in any of our supported currencies other than US dollars.

We are exploring a number of new options to offer you faster and more cost effective transfers. Any new methods of payment will be published on our website and will be listed in the "withdraw" section of your Skrill account so please look out for more information.

Your feedback is important to Skrill so if you have any questions or concerns, please visit help.skrill.com and contact us.

Kind Regards,

The Skrill Team

ফ্রিল্যান্সার সহ সকল অনলাইন আর্নিং প্রফেশনালস-দের অনেক দিনের দাবি দেশে পেপল আনা। সরকারের উচ্চ মহল থেকে অনেক প্রকার আশ্বাস পেলেও বাস্তবতা বাংলাদেশে এখনো পেপল আসেনি।

বেসিস থেকে কয়েকমাস আগে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশে পেপল আনার জন্য সকল প্রকার চেস্টা চালিয়েছে; কিন্তু পেপল নিজেই বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে আগ্রহী না। তার পরেও ফ্রিল্যান্সার ও অনলাইন আর্নিং প্রফেশনালসরা এতদিন চুপ চাপ ছিলো কারন তারা বিকল্প হিসাবে মানিবুকার্স/স্ক্রিল নামে পেমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার করতো। সেটি দিয়ে পেপলের মত প্রায় সব কাজ করা যেতো। মার্কেট প্লেস থেকে পেপল, মানিবুকার্স, পেওনিয়ার ও ব্যাংক উইথড্রো দেওয়া যেতো।

ফ্রিল্যান্সার-দের পছন্দের উইথড্রো মেথড ছিলো মানিবুকার্স/স্ক্রিল। কারন অনেকেই ব্যাংক উইথড্রো দিতে গিয়ে সমস্যার সম্মুখিন হতো। এছাড়া সব মার্কেটপ্লেস থেকে ব্যাংক উইথড্রো দেওয়া যায় না। পেওনিয়ার মেথডে উইথড্রো দিয়ে ফ্রিল্যান্সার-রা তাদের ইন্টারন্যাশনাল মাস্টার কার্ড দিয়ে যে কোন মাস্টারকার্ড সাপোর্টেড এটিএম থেকে টাকা উইথড্রো করতে পারতো। কিন্তু তাতে মোটামুটি সব ফ্রিল্যান্সার-দের অভিযোগ তারা ডলার থেকে টাকার কনভার্সনে ব্যাংক থেকে কম পক্ষে ৪ থেকে ৫ টাকা কম রেট দিতো। সে ক্ষেত্রে ফ্রিল্যান্সার-দের প্রিয় মেথড ছিলো স্ক্রীল বা মানিবুকার্স। কিন্তু ২৬/৯/২০১৪ তারিখ রাত ১০ টার দিকে মোটামুটি সব মানিবুকার্স একাউন্ট হোল্ডাররা একটা মেইল পায় তাতে তারা বলে দেয় ২৭/৯/২০১৪ তারিখ থেকে তারা বাংলাদেশ, পাকিস্থান ও মিশরে আর ব্যাংক উথড্রো দিবেনা। এতে হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার বিপাকে পরে গেছে। তারা তাদের মানিবুকার্স একাউন্টের ডলার কিভাবে দেশে আনবে এই নিয়ে চিন্তায় পরে গেছে। এই নিয়ে ফেসবুকে হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার তাদের স্টাটাসে তাদের হতাশার কথা জানায়।

যাদের একাউন্টে অলরেডী হাজার হাজার ডলার পরে আছে তারা কোন মেথডে কিভাবে তাদের ডলার ফেরত পাবে এই নিয়ে স্ক্রীল/ মানিবুকার্স কোন স্পস্ট কিছু বলে নাই। এতে দেশের হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার তাদের রাত জেগে কাজ করা উপার্জন করা ডলার নিয়ে উদ্গিন্ন। সামনে ঈদ সবার এই সময় হাতে টাকা দরকার। কিন্তু কেউ আপাতত তাদের আর্ন করা টাকা মানিবুকার্স এর মাধ্যমে দেশে আনতে পারবেনা।

Re: মানিবুকার্স/স্ক্রীল আর বাংলাদেশে টাকায় কোন ব্যাংক উইথড্রো দিবেনা

লিখছে তো ডলারে উইথড্র দেয়া যাবে না, অন্য কারেন্সিতে দেয়া যাবে।

সালেহ আহমদ'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মানিবুকার্স/স্ক্রীল আর বাংলাদেশে টাকায় কোন ব্যাংক উইথড্রো দিবেনা

আপনি মানিবুকারের টাকা পেওনার একাউন্টে উইথড্র দিতে পারবেন, ইউএস পেমেন্ট সার্ভিস ব্যাবহার করে।

Re: মানিবুকার্স/স্ক্রীল আর বাংলাদেশে টাকায় কোন ব্যাংক উইথড্রো দিবেনা

ভাই এখানে আপনার বক্তব্য ভুল আছে, আপনি ব্যাঙ্ক উইথড্র দিতে পারবেন তবে ডলার থেকে না অন্য কোন কারেন্সি থেকে, আপনি আপনার উইথড্র কারেন্সি ডলার না রেখে ইউরো বা পাউন্ড এ রাখলে আমার মনে হয় সহজেই উইথড্রো দিতে পারবেন। আমি অনেক আগে থেকেই পাউন্ড ব্যবহার করে আসছি, স্ক্রিল একটি ব্রিটিশ ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান তাই পাউন্ড ব্যবহার ই আমার মনে হয় সুবিধাজনক।

অনিশ্চয়তার পৃথিবীতে অনিশ্চয়তার মাঝে ডুবে আছি।

Re: মানিবুকার্স/স্ক্রীল আর বাংলাদেশে টাকায় কোন ব্যাংক উইথড্রো দিবেনা

উইথড্রো আগের মতই দেয়া যাবে, লসের মধ্যে শুধু কারেন্সী কনভার্সন চার্জ যোগ হবে।

স্ক্রিল কারেন্সী যাই হোক না কেন ওডেক্স বা ইল্যান্স ডলারেই টাকা পাঠাবে। সে টাকা স্ক্রিলে অন্য কারেন্সীতে নিতে হলে কারেন্সী কনভার্সন চার্জ দিতে হবে।

একইভাবে, আপনার স্ক্রিল কারেন্সী যদি ডলার হয়, উইথড্র দিতে হবে পাউন্ড বা ইয়রোতে। সেক্ষেত্রেও কারেন্সী কনভার্সন চার্জ দিতে হবে।

ইন্জ্ঞিনিয়ার'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মানিবুকার্স/স্ক্রীল আর বাংলাদেশে টাকায় কোন ব্যাংক উইথড্রো দিবেনা

Raza420 লিখেছেন:

মানিবুকার্স/স্ক্রীল আর বাংলাদেশে বাংলাদেশী টাকায় কোন ব্যাংক উইথড্রো করতে দিবেনা। এতে হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার বিপাকে পড়বে। বাংলাদেশে পেপল না থাকায় ফ্রিল্যান্সাররা যুক্তরাজ্য ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান মানিবুকার্স ব্যবহার করে বাংলাদেশে বৈদেশিক মুদ্রা আনতেন। এখন সেটাও বন্ধ হয়ে গেল।

মানিবুকার্স তাদের গ্রাহকদেরকে এক ইমেলের মাধ্যমে জানিয়েছে যে, আজ (২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৪) থেকে বাংলাদেশ সহ পাকিস্তান এবং মিশরে এই সুবিধা বন্ধ করে দেয়া হলো। পাঠকদের সুবিধার্থে নীচে ই-মেলটির একটি কপি প্রকাশ করা হলো।

Dear Md xxxx xxxx,

We would like to inform you that US bank withdrawals to Bangladesh, Pakistan and Egypt can no longer be made from Saturday 27th September. Once dollar payments come to an end, you will be able to withdraw funds in any of our supported currencies other than US dollars.

We are exploring a number of new options to offer you faster and more cost effective transfers. Any new methods of payment will be published on our website and will be listed in the "withdraw" section of your Skrill account so please look out for more information.

Your feedback is important to Skrill so if you have any questions or concerns, please visit help.skrill.com and contact us.

Kind Regards,

The Skrill Team

ফ্রিল্যান্সার সহ সকল অনলাইন আর্নিং প্রফেশনালস-দের অনেক দিনের দাবি দেশে পেপল আনা। সরকারের উচ্চ মহল থেকে অনেক প্রকার আশ্বাস পেলেও বাস্তবতা বাংলাদেশে এখনো পেপল আসেনি।

বেসিস থেকে কয়েকমাস আগে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশে পেপল আনার জন্য সকল প্রকার চেস্টা চালিয়েছে; কিন্তু পেপল নিজেই বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে আগ্রহী না। তার পরেও ফ্রিল্যান্সার ও অনলাইন আর্নিং প্রফেশনালসরা এতদিন চুপ চাপ ছিলো কারন তারা বিকল্প হিসাবে মানিবুকার্স/স্ক্রিল নামে পেমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার করতো। সেটি দিয়ে পেপলের মত প্রায় সব কাজ করা যেতো। মার্কেট প্লেস থেকে পেপল, মানিবুকার্স, পেওনিয়ার ও ব্যাংক উইথড্রো দেওয়া যেতো।

ফ্রিল্যান্সার-দের পছন্দের উইথড্রো মেথড ছিলো মানিবুকার্স/স্ক্রিল। কারন অনেকেই ব্যাংক উইথড্রো দিতে গিয়ে সমস্যার সম্মুখিন হতো। এছাড়া সব মার্কেটপ্লেস থেকে ব্যাংক উইথড্রো দেওয়া যায় না। পেওনিয়ার মেথডে উইথড্রো দিয়ে ফ্রিল্যান্সার-রা তাদের ইন্টারন্যাশনাল মাস্টার কার্ড দিয়ে যে কোন মাস্টারকার্ড সাপোর্টেড এটিএম থেকে টাকা উইথড্রো করতে পারতো। কিন্তু তাতে মোটামুটি সব ফ্রিল্যান্সার-দের অভিযোগ তারা ডলার থেকে টাকার কনভার্সনে ব্যাংক থেকে কম পক্ষে ৪ থেকে ৫ টাকা কম রেট দিতো। সে ক্ষেত্রে ফ্রিল্যান্সার-দের প্রিয় মেথড ছিলো স্ক্রীল বা মানিবুকার্স। কিন্তু ২৬/৯/২০১৪ তারিখ রাত ১০ টার দিকে মোটামুটি সব মানিবুকার্স একাউন্ট হোল্ডাররা একটা মেইল পায় তাতে তারা বলে দেয় ২৭/৯/২০১৪ তারিখ থেকে তারা বাংলাদেশ, পাকিস্থান ও মিশরে আর ব্যাংক উথড্রো দিবেনা। এতে হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার বিপাকে পরে গেছে। তারা তাদের মানিবুকার্স একাউন্টের ডলার কিভাবে দেশে আনবে এই নিয়ে চিন্তায় পরে গেছে। এই নিয়ে ফেসবুকে হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার তাদের স্টাটাসে তাদের হতাশার কথা জানায়।

যাদের একাউন্টে অলরেডী হাজার হাজার ডলার পরে আছে তারা কোন মেথডে কিভাবে তাদের ডলার ফেরত পাবে এই নিয়ে স্ক্রীল/ মানিবুকার্স কোন স্পস্ট কিছু বলে নাই। এতে দেশের হাজার হাজার ফ্রিল্যান্সার তাদের রাত জেগে কাজ করা উপার্জন করা ডলার নিয়ে উদ্গিন্ন। সামনে ঈদ সবার এই সময় হাতে টাকা দরকার। কিন্তু কেউ আপাতত তাদের আর্ন করা টাকা মানিবুকার্স এর মাধ্যমে দেশে আনতে পারবেনা।

Re: মানিবুকার্স/স্ক্রীল আর বাংলাদেশে টাকায় কোন ব্যাংক উইথড্রো দিবেনা

ধুরু উইথড্রো। মানিবুকারস ব্যবহারই বন্ধ করে দিয়েছি ...

ব্যাংক উইথড্রোতে দেরী তো হইতোই, তার উপর এখন নতুন এই সমস্যা। ( যদিও ইউরো কারেন্সিতে সুন্দর করেই উইথড্রো দেয়া যাচ্ছে) ... ! তাও, নেটেলার ব্যবহার শুরু করে দিসি ! বায়ারদেরও কষ্ট করে কনভার্ট করতেসি নেটেলারে ... smile

প্রোফাইলে আজাইরা গুতাগুতি, খুচাখুচি করবেন না। বিরক্ত লাগে .....