সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন মরুভূমির জলদস্যু (১৭-০৮-২০১৪ ২১:২৩)

টপিকঃ বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

https://fbcdn-sphotos-b-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xfp1/t31.0-8/p600x600/10608438_10203392980483202_6164487756574728158_o.jpg
২৫ জানুয়ারি রওনা হয়ে ২৬ তারিখ সকালে পৌছাই খাগড়াছড়ি। একটি মাহেন্দ্রা গাড়ি রিজার্ভ করে নিয়ে সারা দিনের জন্য বেরিয়ে পড়ি খাগড়াছড়ি ভ্রমণে। একে একে দেখে ফেলি “আলুটিলা গুহা”, “রিছাং ঝর্ণা”, “শতবর্ষী বটবৃক্ষ” আর “ঝুলন্ত সেতু”।
পরদিন ২৭ জানুয়ারি খাগড়াছড়ি থেকে রাঙ্গামাটির দিকে রওনা হই একটি চান্দের গাড়ি রিজার্ভ করে। পথে থেমে দেখে নিই “অপরাজিতা বৌদ্ধ বিহার”। ২৭ তারিখ দুপুরের পরে পৌছাই রাঙ্গামাটি। বিকেল আর সন্ধ্যাটা কাটে বোটে করে কাপ্তাই লেক দিয়ে “সুভলং ঝর্ণা” ঘুরে।
২৮ তারিখ সকাল থেকে একে একে দেখে এলাম ঝুলন্ত সেতু, রাজবাড়ি ও রাজবন বিহার। দুপুরের পরে বাসে করে রওনা হয়ে যাই রাঙ্গামাটি থেকে বান্দারবানের উদ্দেশ্যে। রাতটা কাটে বান্দরবানের “হোটেল ফোরস্টারে”।
পরদিন ২৯ তারিখ সকালে একটি জিপ ভাড়া করে নিয়ে চলে যাই নীলগিরিতে। নীলগিরি থেকে ফেরার পথে দেখে নিলাম শৈলপ্রপাত। বিকেলটা কাটিয়ে দিলাম নীলাচলে সূর্যাস্ত দেখে।
৩০শে জানুয়ারি সকালের নাস্তা চলে গেলাম মেঘলাতে। মেঘলা ঘুরে সেখান থেকে ফিরে দুপুরের খাবার সেরে বেরিয়ে পরি স্বর্ণ মন্দির দেখতে।


বান্দরবান জেলা সদর থেকে ৪ কিলোমিটার দূরে বালাঘাটার কাছে পুলপাড়া নামক স্থানে স্বর্ণ মন্দিরের অবস্থান। স্বর্ণ মন্দির বলা হলেও এর আসল নাম মহাসুখ মন্দির। মহাসুখ মন্দির তার সোনালি রঙের জন্য "স্বর্ণ মন্দির" নামে বেশি পরিচিত। তাছাড়া একে স্বর্ণ মন্দিরের পাশাপাশি স্বর্ণ জাদি মন্দির, বুদ্ধ ধাতু চেতী ইত্যাদি নামেও ডাক হয়। মন্দির বললেও এটি আসলে বৌদ্ধদের প্যাগোডা। এটি বুদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের একটি পবিত্র তীর্থস্থান।

গৌতম বুদ্ধের সম-সাময়িক কালে নির্মিত বিশ্বের সেরা কয়েকটি বুদ্ধ মূর্তির মধ্যে একটি এখানে রয়েছে। এই প্যাগোডাটি দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার সেরা গুলোর একটি। এই মন্দিরের কাছেই রয়েছে দেবতা পুকুর নামে একটি পুকুর, যদিও এই পুকুরটি আমি দেখিনি একবারও।

স্বর্ণ মন্দিরের পথ আমাদের খুবই পরিচিত, বালাঘাটার তুলা উন্নয়ন বোডের ডাকবাংলোতে এর আগে আমরা থেকে গেছি বেশ কয়েক রাত। তাছাড়া বেশ কয়েকবার গিয়েছিও স্বর্ণ মন্দিরেও।
https://fbcdn-sphotos-a-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xfp1/t31.0-8/p180x540/1274561_10203392967882887_6024857560324966446_o.jpg
টিলার উপরে স্বর্ণ মন্দির

https://scontent-b-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xfp1/t31.0-8/p600x600/10619902_10203392968282897_6098326118232893716_o.jpg
মন্দিরের আগেই ঢালু হয়ে রাস্তা নেমে গেছে ছোট্ট একটা ছড়ার উপর দিয়ে, তারপরেই বাম দিকে বাক নিয়ে উঠে গেছে মন্দিরে।

https://fbcdn-sphotos-f-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xpf1/t31.0-8/p180x540/10626434_10203392969562929_4928364552071380460_o.jpg

মন্দিরটি একটি মাঝারি উচ্চতার পাহারের উপরে তৈরি করা হয়েছে বলে কিছুটা চড়াই পথ বেয়ে উঠতে হয়। এর পরেই আছে অনেকগুলি সিঁড়ি, সিঁড়ি শেষেই শুরু হয়েছে মন্দিরের সীমানা।

https://fbcdn-sphotos-b-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xfp1/t31.0-8/p600x600/10463760_10203392977123118_942838505775630619_o.jpg
সিঁড়ে সাইয়ারা, মনে হয় ১৮০টির মত সিঁড়ি রয়েছে এখানে।

https://fbcdn-sphotos-g-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xpf1/t31.0-8/p600x600/10547358_10203392979163169_6638848750616937012_o.jpg
মন্দিরের শেষ অংশের সিঁড়ি।

https://fbcdn-sphotos-e-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xfa1/t31.0-8/p180x540/10495106_10203393001723733_2858013695231062104_o.jpg
১০টাকা টিকেট কেটে প্রথমেই আপনার হাতের বাম দিকে পরবে এই মিউজিয়ামের মত অংশটি।


এখানে ১০ টাকার টিকেট কেটে মন্দির প্রাঙ্গণে যেতে হয়, শর্ট প্যান্ট পরে মন্দিরে ঢুকা নিষেধ, জুতা খুলে ঢুকতে হয়। মূল মন্দির চত্বরে আছে কারুকাজ করা সুন্দর তোড়ন, তার দুপাশে দুটি মূর্তি।
https://scontent-a-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xap1/t31.0-8/p600x600/1397024_10203392979083167_5332470867956994389_o.jpg
মূল তোড়ন

https://fbcdn-sphotos-h-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xap1/t31.0-8/p720x720/10623588_10203392981763234_2271870730990950296_o.jpg
তোড়নের বাম পাশে বসা এই মহাশয়।


https://fbcdn-sphotos-d-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xpf1/t31.0-8/p843x403/10562648_10203392985123318_4940073734778025147_o.jpg
তোড়নের ডান পাশে বসা এই মহাশয়।

মন্দিরের বাইরের অংশে ১২টি ভিন্ন ভিন্ন প্রকোষ্ঠে ১২টি দেশের শৈলীতে ১২টি দন্ডায়মান বুদ্ধ মূর্তি তৈরি করা হয়েছে। মন্দির দণ্ডায়মান আছে গরুড় স্তম্ব  ও একটি বিশাল ঘণ্টা। মন্দিরটি পাহারের চূড়ায় হওয়ায় এর উপর থেকে চারিধারের প্রাকৃতিক মনোরম শোভা উপভোগ করা যায়।

https://scontent-a-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xpa1/t31.0-8/p480x480/10623505_10203392986723358_4539417638710341496_o.jpg


https://fbcdn-sphotos-f-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xpf1/t31.0-8/p600x600/10547103_10203392983963289_5937600403498594395_o.jpg
এমন ১২টি দন্ডায়মান বুদ্ধ মূর্তি আছে।

https://scontent-a-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xpf1/t31.0-8/p640x640/10428399_10203392987843386_8941966758176235705_o.jpg
মূল মন্দিরের সামনে সাইয়ারা।

https://fbcdn-sphotos-d-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xpf1/t31.0-8/p720x720/10580849_10203392994483552_3577970909202630962_o.jpg
গরুড় স্তম্ব, মূলত একটি পতাকা দন্ড।

https://scontent-b-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xpf1/t31.0-8/p180x540/10550032_10203392995683582_6879924924938580267_o.jpg
মন্দিরের ঘন্টার সামনে সাইয়ারা।

https://scontent-a-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xpf1/t31.0-8/p843x403/10506565_10203392997523628_5567641306090019323_o.jpg
ঘন্টা


https://fbcdn-sphotos-e-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xfa1/t31.0-8/p600x600/10357797_10203392989123418_957177409885514710_o.jpg


https://fbcdn-sphotos-c-a.akamaihd.net/hphotos-ak-xpa1/t31.0-8/p600x600/10504995_10203392993403525_7169290191291830861_o.jpg




আপনি যদি এই স্বর্ণ মন্দির দেখতে যান তাহলে অবশ্যই সকাল ৮টা ৩০ মিনিট থেতে ১১.৩০ মিনিটের মধ্যে যাবেন, আর যদি সকালে যেতে না চান তাহলে দুপুর ১২টা ৪৫ মিনটি থেকে বিকেল ৬টার মধ্যে যেতে পারেন। অন্য সময় আপনাকে মন্দিরে ঢুকতে দেয়া হবে না।

https://scontent-a-sin.xx.fbcdn.net/hphotos-xfa1/t31.0-8/p180x540/10454067_10203393024724308_6529916932121404270_o.jpg

মন্দির দেখা শেষে আমরা আবার ঘুর পথে (দেবতা পুকুর যেদিকে) নেমে আসি। এই পথে নামার সুবিধা হচ্ছে এটায় কোন সিঁড়ি নেই। মূলত এই পথটা ধরে গাড়িগুলি একে বারে মন্দিরের কাছাকাছি চলে আসতে পারে। মন্দির থেকে নেমে আমরা এবার চললাম সাঙ্গু নদের দিকে........


পূর্বের পর্বগুলি -
খাগড়াছড়ির পথে”।
খাগড়াছড়ি ভ্রমণ – প্রথম পর্ব”।
খাগড়াছড়ি ভ্রমণ – আলুটিলা গুহা”।
খাগড়াছড়ি ভ্রমণ – রিছাং ঝর্ণা”।
খাগড়াছড়ি ভ্রমণ – শতবর্ষী বটবৃক্ষ”।
খাগড়াছড়ি ভ্রমণ – ঝুলন্ত সেতু”।
খাগড়াছড়ি ভ্রমণ – অপরাজিতা বৌদ্ধ বিহার”।
রাঙ্গামাটি ভ্রমণ – সুভলং ঝর্ণা ও কাপ্তাই হ্রদে নৌবিহার”।
রাঙ্গামাটি ভ্রমণ – ঝুলন্ত সেতু, রাজবাড়ি ও রাজবন বিহার”।
বান্দরবান ভ্রমণ – নীলগিরি”।
বান্দরবান ভ্রমণ – শৈলপ্রপাত”।
বান্দরবান ভ্রমণ – নীলাচল”।
বান্দরবান ভ্রমণ – মেঘলা”।


প্রথম প্রকাশ : ঝিঁঝি পোকা
https://fbcdn-sphotos-a-a.akamaihd.net/hphotos-ak-ash3/249083_10201394970614204_700541791_n.jpg

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

বেশিভাগ ছবি ওয়াও !!! আপনি কি বেবিটাকে ১৮০ টা সিঁড়ি আরোহণ করাইছেন স্ব পদে ??

এক টুনিতে টুনটুনালো সাত রানির নাক কাঁটালো

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

thumbs_up thumbs_up ওয়াও ছবি গুলো সুন্দর হইছে।
সময় বলে দেয়ায় ভাল হইছে।

আর পর্ব আছে?

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

RubaiyaNasreen(Mily) লিখেছেন:

বেশিভাগ ছবি ওয়াও !!! আপনি কি বেবিটাকে ১৮০ টা সিঁড়ি আরোহণ করাইছেন স্ব পদে ??

ধন্যবাদ।
জ্বি। এটা ওর স্বর্ণ মন্দিরের দ্বিতীয় অভিযান। প্রথম যখন গিয়েছে তখন বয়স ছিলো এক কি দেড় বছর। সেবার পুরটাই ইস্রাফীলের কোলে চরে পার হয়েছিলো, এবার স্বপদেই।

Jol Kona লিখেছেন:

thumbs_up thumbs_up ওয়াও ছবি গুলো সুন্দর হইছে।
সময় বলে দেয়ায় ভাল হইছে।

আর পর্ব আছে?

ধন্যবাদ।
আগামীটা শেষ পর্ব হবে  yahoo
সেই পর্বে তেমন কিছু থাকবেনা উল্লেখ করার মত।  brokenheart

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

হুহুহু wink পোস্ট শেষ হওয়া মাত্র বিশাল আকারে আমারে ধন্যবাদ দিততে ভুলবেন না ghusi
অনেক কষ্ট  হইতেছে আমার, আপনাকে দিয়ে এই পর্ব গুলা শেষ করাইতে  dontsee

blushing blushing blushing

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

Jol Kona লিখেছেন:

হুহুহু wink পোস্ট শেষ হওয়া মাত্র বিশাল আকারে আমারে ধন্যবাদ দিততে ভুলবেন না ghusi
অনেক কষ্ট  হইতেছে আমার, আপনাকে দিয়ে এই পর্ব গুলা শেষ করাইতে  dontsee

blushing blushing blushing

আগেই ঘোষণা করেছি এই পুরা সিরিজটি আপনাকে ডেডিকেট করা হইবে।  love

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

lol থাক ভাইয়া কিছু লাগবে না। 


সুন্দর মত পরের ট্রিপ গুলো দেন। বসে বসে দেখি বাংলাদেশে কি কি আছে ঘুরার মত!!  যাওয়াতো হবেনা কখন দেখেও শান্তি  dream

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

এই জায়গাটা এত্ত উচুতে!!! আমি ঢাল বেয়ে হেটে হেটে নামছিলাম, নামার পর আবিষ্কার করলাম একটু বেশিই উচু! গাড়ি উঠার সময় একবার ব্যালেন্স হারালে খবর আছে।

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

Jol Kona লিখেছেন:

সুন্দর মত পরের ট্রিপ গুলো দেন। বসে বসে দেখি বাংলাদেশে কি কি আছে ঘুরার মত!!  যাওয়াতো হবেনা কখন দেখেও শান্তি

আমি এক কুয়ার ব্যাঙ্গের জীবন যাপন করতেছি, আমার দুনিয়া ঐ কুয়াটাই। কতটুকুই আর দেখেছি।

মেহেদী৮৩ লিখেছেন:

এই জায়গাটা এত্ত উচুতে!!! আমি ঢাল বেয়ে হেটে হেটে নামছিলাম, নামার পর আবিষ্কার করলাম একটু বেশিই উচু! গাড়ি উঠার সময় একবার ব্যালেন্স হারালে খবর আছে।

উচ্চতা কিন্তু খুব বেশি না।  isee

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১০

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

মরুভূমির জলদস্যু লিখেছেন:

উচ্চতা কিন্তু খুব বেশি না।


খুব কমও না কিন্তু।

১১

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

মেহেদী৮৩ লিখেছেন:
মরুভূমির জলদস্যু লিখেছেন:

উচ্চতা কিন্তু খুব বেশি না।


খুব কমও না কিন্তু।

আমার জন্য অনেক বেশি, আপনার জন্য পান্তা ভাত।  tongue_smile

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১২

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

হা কুয়ার জীবনে! wink
কুয়া থেকে কত সুন্দর সুন্দর ব্যাঙ (ছবি) আর ব্যাঙ্গাচিরা (বর্ণনা) বের হচ্ছে ! আর কত কত ব্যাঙ আর ব্যাঙ্গাচি আছে এ এ এ এ এ big_smile

বের হতে দিন!  ওই গুলাকে! big_smile   hug

tongue tongue tongue_smile hehe lol

১৩

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

Jol Kona লিখেছেন:

হা কুয়ার জীবনে! wink
কুয়া থেকে কত সুন্দর সুন্দর ব্যাঙ (ছবি) আর ব্যাঙ্গাচিরা (বর্ণনা) বের হচ্ছে ! আর কত কত ব্যাঙ আর ব্যাঙ্গাচি আছে এ এ এ এ এ big_smile

বের হতে দিন!  ওই গুলাকে! big_smile   hug

tongue tongue tongue_smile hehe lol

আমার ভ্রমণের ইচ্ছা-তালিকায় কি কি আছে শুনলে বুঝবেন সেই তুলনায় এখনো কুয়াতেই আছি  brokenheart

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১৪ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন Jol Kona (২৯-০৮-২০১৪ ২৩:৫৮)

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

পরের পর্ব-টাকি মিস করে ফেলছি!  thinking

না, দিয়ে থাকলে এই মাসের মধ্যে এই ভ্রমণ শেষ করেন ভাইয়া! এক বান্দরবন নিয়া ৪ মাস গেল গা! ভ্রমন ৪ দিনের আর লিখতে চার মাস! mad  angry angry angry

১৫

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

বান্দরবনে এত সুন্দর জায়গা আছে জানতাম না  dontsee  surprised শেয়ার করার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ দস্যু দা

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৬

Re: বান্দরবান ভ্রমণ – “স্বর্ণ মন্দির”

Jol Kona লিখেছেন:

পরের পর্ব-টাকি মিস করে ফেলছি!  thinking

না, দিয়ে থাকলে এই মাসের মধ্যে এই ভ্রমণ শেষ করেন ভাইয়া! এক বান্দরবন নিয়া ৪ মাস গেল গা! ভ্রমন ৪ দিনের আর লিখতে চার মাস! mad  angry angry angry

মিস করেন নাই, আগামী কাল সকাল সকাল পোষ্ট এসে যাবে শেষ পর্বের।  blushing

mizvibappa লিখেছেন:

বান্দরবনে এত সুন্দর জায়গা আছে জানতাম না  dontsee  surprised শেয়ার করার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ দস্যু দা

বাপ্পা দা, বান্দরবানে সুন্দর্যের কোন অভাব নেই, সময় করে দেখে আসেন।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।