টপিকঃ প্রিয় খেলোয়ারের জন্মদিনে ভক্তের আকাঙ্খা

আজ-কাল নারী পুরুষ নির্বিশেষে আমরা প্রায় সকলেই খেলা দেখি। এবং এক এক জনের প্রিয় দল এক একটি। আর সেরা খেলোয়ার প্রশ্নে তো পুরো দেশ ছোট ছোট দল বিভক্ত।
যাইহোক এইটা মুল কথা না। মূল কথা হইলো আমরা  ভক্ত হিসেবে প্রিয় খেলোয়ার তথা প্রিয় দেশের সফলতা কামনা করি। তেমনিভাবে প্রিয় দল/খেলোযারের সফলতা বা অকেশনে তাদের উপহার দিতে চাই। এই উপহারের ধরণ আবার এক এক জনের এক এক রকম।

তবে বর্তমানে এই ট্রেডিশনটি দিন দিন শরীরের দিকে ঘুরে যাচ্ছে। বিশেষ করে নারী ভক্তদের ক্ষেত্রে। আবার এইসব খবর আমাদের নিউস পোার্টালগুলো ফলাও করে প্রচার করতেছে।
এইটাতে বেশ কয়েক বছর ধরেই চলতেছিলো যে, পপ স্টার বা নায়িকারা এইসব ঘোষণা দিতেন তাদের প্রিয় দল বা খেলোযারকে উৎসাহিত করার জন্য। আজ সেই প্রচলন ঢুকে গেছে আমাদের দেশের কোমলমতি তরেুণীদের মধ্যেও।
কয়েকদিন আগে বর্তমান ফুটবলের অন্যতম তারকা খেলোযার  “মেসি” এর জন্মদিন ছিলো। ফেসবুকে দেখলাম তার এক নারী সমর্থক তার জন্মদিনের উপহার হিসেবে তার  তার সাথে শারিরিক মিলন অপার করতেছে। হয়তো এই খবর কখনোই মেসির কানে যাবে না। কখনোই সে জানবে না তার সমর্থকের এই ব্যকুল আবেদনের কথা। কিন্তু এইটাকি সুস্হ মানুষিকতা??

আমি নিজেও এর প্রত্যক্ষ স্বাক্ষী।
তখন পাকিস্তানের অন্যতম সেরা স্টার খেলোয়ার “শোয়েব আকতারের” জয় জয়কার। হয়তো আজ থেকে ৭-৮ বছর আগের কথা। আমরা যে বাড়িতে থাকতাম প্রত্যেকের মধ্যেই ছিলো সুন্দর সম্পর্ক এবং এই সম্পর্ক যেমন ছিল বড়দের মধ্যে ঠিক তেমনি ছিলো ছোটদের মধ্যে। আমাদের পাশের বাসায় আমার সমবয়সি কয়েকজন ছিলো। দু পরিবারের মধ্যে সম্পর্ক মজবুত হওয়ার কারনে আমারো ছোটরা প্রায় প্রতিদিন ৪-৬ ঘন্টা এক সাথে কাটাতাম। এর মধ্যে একজন ছিলো মেয়ে সমর্থক। সে আবার শোয়েব আখতারের অন্ধ ভক্ত। তখন একদিন খেলা দেখতেছি এই অবস্হায় ঐ মেয়েটি আমাকে উদ্দেশ্য করে বলেছিল আমাকে পাকিস্তান নিয়ে যাবা??
আমি অবাক হয়ে গিয়েছিলাম(!!!) কেন প্রশ্ন করতেই বলেছিল “শোয়েব আখতারের” সাথে সে দেখা করবে। পারলে শোয়েব আখতারের কাছে থেকে যাবে। আমি বিষয়টা খুব মজা পেয়ে বলেছিলাম “শোয়েবের তো বউ আছে। তোরে লাখবেনা । মাইরা ভাগাইয়া দিবো”। সে বলে মারলেও সে আসবে না। থাকবে। শোয়েবের বাসার কাজের মেয়ে হিসেবে হলেও থাকতে চায়। শোয়েব যেভাবে চায় সেভাবে সে শোয়েবের  সেবা করবে। আমি  তো আরো মজা পাওয়া শুরু করেছিলাম। বললাম “শোয়েব যদি অন্য কিছু চায় তাইলে কি করবি?”
উত্তরে বলেছিল: যা চায় তাই দিবো। আমি তো তারই। সুতরাং দিতে আপত্তি কোথায়”।
তখন যে ৭ কি ৮ এ পড়তো। আজ সে জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রি। আজ যদি তাকে প্রশ্ন করা হয় যাবা শোয়েবের কাছে। হয়তো সে নাক ছিটকাবে। কেননা শোয়েবের আজ কোন দাম নেই।

ছিক তেমনি ভাবে আমার  এই  বান্ধবীর মতো বাংলাদেশের প্রায় সব মেয়ে অনুভুতিই তার প্রিয় স্টার (হোক খেলোযার কিংবা মডিল) প্রতি এমনই।
কিন্তু এইটা কি সুস্হ?? এইটাকি আমাদের মানবিক ও চারিত্রিক দুর্বলতার বহিপ্রকাশ নয়?? আমাদের কি কিছুই করার নেই??
এর জন্য দ্বায়ি কে??

***আমি গুছিয়ে লিখতে পারি না। তবুও আজ মেজির জন্মদিনে তার ভক্তের অনুভুতির কথা পড়ে লিখলাম। কষ্ট করে হলেও এই অগোছালো লিখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।
সেই সাথে পরামর্শ কমনা করতেছি।

আমি একজন স্বাধারণ মানুষ। গুছিয়ে মনের ভাব করতে পারিনা। তাই অনেকের কাছেই অপছন্দনীয়।
www.hostastro.com
www.islamforu.com

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন দ্যা ডেডলক (২৫-০৬-২০১৪ ১৮:৫০)

Re: প্রিয় খেলোয়ারের জন্মদিনে ভক্তের আকাঙ্খা

ইয়াছিন লিখেছেন:

ফেসবুকে দেখলাম তার এক নারী সমর্থক তার জন্মদিনের উপহার হিসেবে তার  তার সাথে শারিরিক মিলন অপার করতেছে। হয়তো এই খবর কখনোই মেসির কানে যাবে না। কখনোই সে জানবে না তার সমর্থকের এই ব্যকুল আবেদনের কথা। কিন্তু এইটাকি সুস্হ মানুষিকতা??

https://www.facebook.com/farzana.shathi.18 (বর্তমানে বন্ধ) নামক এক ফেক আইডি ধারি তার ফ্রেন্ড সংখ্যা বাড়াতে এই কাজ করে ছিল। ফেক বিষয় নিয়ে আলোচনার কোন মানে দেখি না।

আর বিশ্বকাপ নিয়ে বাংলাদেশে অশ্লীলতা করতেছে হলো মডেল নাইলা নাঈম। একের পর এক দেশের পতাকার বিকিনি পড়ছেন। তাকে নিয়ে তো কিছু লিখলেন না ?

Re: প্রিয় খেলোয়ারের জন্মদিনে ভক্তের আকাঙ্খা

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:
ইয়াছিন লিখেছেন:

ফেসবুকে দেখলাম তার এক নারী সমর্থক তার জন্মদিনের উপহার হিসেবে তার  তার সাথে শারিরিক মিলন অপার করতেছে। হয়তো এই খবর কখনোই মেসির কানে যাবে না। কখনোই সে জানবে না তার সমর্থকের এই ব্যকুল আবেদনের কথা। কিন্তু এইটাকি সুস্হ মানুষিকতা??

https://www.facebook.com/farzana.shathi.18 (বর্তমানে বন্ধ) নামক এক ফেক আইডি ধারি তার ফ্রেন্ড সংখ্যা বাড়াতে এই কাজ করে ছিল। ফেক বিষয় নিয়ে আলোচনার কোন মানে দেখি না।

আর বিশ্বকাপ নিয়ে বাংলাদেশে অশ্লীলতা করতেছে হলো মডেল নাইলা নাঈম। একের পর এক দেশের পতাকার বিকিনি পড়ছেন। তাকে নিয়ে তো কিছু লিখলেন না ?


ঐ নারীর ছবি আমার চোখে পড়েনি পড়লে হয়তো অবশ্যই বলতাম।
আর বর্তমান মেসি এর ঘটনাটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। এই রকম অহরহ ঘটনা ঘটতেছে। সেইটা বুঝানোর জন্যই আমি আমার নিজের জীবন থেকে বাস্তব ঘটনা বলেছি।

আমি একজন স্বাধারণ মানুষ। গুছিয়ে মনের ভাব করতে পারিনা। তাই অনেকের কাছেই অপছন্দনীয়।
www.hostastro.com
www.islamforu.com

Re: প্রিয় খেলোয়ারের জন্মদিনে ভক্তের আকাঙ্খা

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:

আর বিশ্বকাপ নিয়ে বাংলাদেশে অশ্লীলতা করতেছে হলো মডেল

দাদারে নিজের দলের পতাকা ওয়ালা বিকিনী দেইখ্যা বেটিরে সাহসী মনে হইছিলো........ big_smile big_smile যখন দেখাগেলো উনি আরেক ছবিতে আজর্েন্টিনার পতাকাও জড়াইছে তখন সেইটা অশ্লীলতা  big_smile big_smile, আর আফার প্রচারে আমাদের মতো কিছু নিবেদিতপ্রান কমর্ী বাহিনীই যথেষ্ট......। আমাদের শেয়ারিং......মতামত....নিন্দা....এগুলোই ওনাকে চরমভাবে ইন্সপায়াড করবে.....এবং ভবিষ্যত খেলায় ওনার ড্রেস বিকিনীতে নেমে যাবে কনফামর্। তানাহলে কে চিনতো ওই বেটিরে....

টিপসই দিবার চাই....স্বাক্ষর দিতে পারিনা......

Re: প্রিয় খেলোয়ারের জন্মদিনে ভক্তের আকাঙ্খা

মেহেদী হাসান লিখেছেন:

দাদারে নিজের দলের পতাকা ওয়ালা বিকিনী দেইখ্যা বেটিরে সাহসী মনে হইছিলো

ব্রাজিলের ড্রেস যখন পড়ে ছিল তখন কোন অশ্লীল ছিল না (কারণ তখন নাভী দেখা যায় নাই )  roll

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত