টপিকঃ চোখ জুড়ানো গারো পাহাড়

শেরপুরের শ্রীবরদী উপজেলার সীমান্তবর্তী গারো পাহাড় মেঘালয়ের পাদদেশে। এখানে অবারিত সবুজের সমারোহ প্রথম দেখাতেই মন কেড়ে নেবে কারো। গারো পাহাড় কত যে মনোমুগ্ধকর না দেখলে বিশ্বাসই করবেন না কেউ। কিংবদন্তি রয়েছে, প্রাচীনকালে এখানে এক রাজা বাস করতেন। তার নামেই এ পাহাড়ের নাম হয়েছে রাজার পাহাড়। গারো পাহাড়ে যতগুলো পাহাড় রয়েছে তার মধ্যে এটির উচ্চতা সবচেয়ে বেশি। এ পাহাড়ের চূড়ায় রয়েছে বিশাল সমতল বিরান ভূমি। এখান থেকে মেঘালয় যেন আরো কাছে মনে হয়। রাজার পাহাড় ঘেষে যে জনপদ তার নাম 'বাবেলাকোনা।' অসংখ্য উচুঁ নিচু টিলায় ঘেরা এক চমৎকার গ্রাম। প্রাচীনকাল থেকে এখানে গড়ে উঠেছে জনবসতি। বাবেলাকোনায় গারো, হাজং, কোচ অধ্যুষিত উপজাতিদের ভিন্ন ভিন্ন সংস্কৃতির বৈচিত্র্যপূর্ণ্য জীবনধারা। উপজাতিদের সংস্কৃতি সংরক্ষন ও চর্চার কেন্দ্রগুলোও দেখার জন্য আকর্ষনীয় জায়গা। বাবেলাকোনা কালচারাল একাডেমি, ট্রাইবাল ওয়েল ফেয়ার এসোসিয়েশন অফিস (টিডব্লিও), জাদুঘর, লাইব্রেরি, গবেষনা বিভাগ, মিলনায়তন এর অন্যতম নিদর্শন। এখান থেকে উপজাতিদের সম্পর্কে অনেক কিছুই জানা যাবে। এখানকার একমাত্র নদীর নাম ঢেউফা। বর্ষাকালে ঢেউফা নদী জোয়ারে কানায় কানায় ভরে উঠে। কিন্তু দিনের শেষে ভাটা পড়ে। শুকিয়ে যায়। তবে খরস্রোতা এ নদীর পানির গতি কখনোই কমেনা। সারা বছরই হেঁটে পার হওয়া যায়।তবে গেল ক'বছর ধরে এ নদীর দু'পাশে দুটি ব্রীজ নির্মিত হওয়ায় এখন আর নদীতে নামতে হয়না। বাবেলাকোনা উপজাতিদের কারুকার্যমন্ডিত ধর্মীয় গীর্জা, মন্দিরসহ রয়েছে অসংখ্য প্রাকৃতিক নিদর্শনের সমাহার। এছাড়াও এখানে রয়েছে ওয়ার্ল্ড ভিশন, বিট অফিস, বিজিবি ক্যাম্প এবং রাবার বাগান। দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে বাসে বা যে কোনো যানবাহনে আসা যায় শেরপুর শহরে। এখান থেকে মাত্র ৩৪ কিলোমিটার দূরে শ্রীবরদীর কর্ণঝোরা বাজার। বাস, টেম্পুসহ যে কোনো যানবাহনে আসা যায় মনোমুগ্ধকর নয়ানিভিরাম স্থান রাজার পাহাড় থেকে বাবেলাকোনায়। পাশেই রয়েছে অবসর কেন্দ্র। রাত হলে সেখানে থাকার জন্য রয়েছে নিরাপত্তা বেষ্টিত আবাসিক। কম খরচে কম সময়ে এ গারো পাহাড় আপনাকে দেবে অনাবিল আনন্দ।


Submitted By: www.StyleNews24.com

Re: চোখ জুড়ানো গারো পাহাড়

কয়টা ছবি দিলে ভাল হত।

বেকুবে কয় কি?

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: চোখ জুড়ানো গারো পাহাড়

মেহেদী হাচান লিখেছেন:

কয়টা ছবি দিলে ভাল হত।

কপি-পেস্ট, তাই ছবি নাই।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: চোখ জুড়ানো গারো পাহাড়

মরুভূমির জলদস্যু লিখেছেন:
মেহেদী হাচান লিখেছেন:

কয়টা ছবি দিলে ভাল হত।

কপি-পেস্ট, তাই ছবি নাই।

সব জাইগার ছবি দেখতে ভালোই লাগে, কিবলেন?

বেকুবে কয় কি?