টপিকঃ রাজার নীতি রাজনীতি

রাজার নীতি রাজনীতি





খেলাঃহাসিনা বনাম খালেদার বিগফাইট ম্যাচ
ভেনুঃ বঙ্গ বন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম
( স্মরণ কালের শ্রেষ্ঠ ম্যাচ, দলে দলে যোগ দিন)
------------------------------------------------------------------
ওহ রাজনীতিবিদরা তোমরা এত খারাপ কেন?
ক্ষমতার জন্য তোমরা যে কে কি করতে পার তাঁর সুন্দর প্রদর্শনী করছ। কিন্তু তোমাদের প্রদর্শনী ম্যাচের দরুন আমরা সাধারণ মানুষ আজ জেরবার। আমাদের যান বুকের খাঁচা হতে বের হয়ে গলায় এসে পড়েছে।
কেন যে তোমরা খেটে খাওয়া মানুষের কথা ভাব না। কেন যে তোমরা একটু দেশপ্রেমিক হতে পার না।

@@এই সময় একটি বিখ্যাত উক্তি খুব মনে পড়ছেঃ “ বাঙ্গালীরা শুধু ঠিক লাঠির কাছে”।( প্রশ্নঃ এই বিখ্যাত উক্তিটি কার)   
আমারও ঠিক এই কথা এখন মনে খুব পড়ছে। আবার মনে পড়ছে ১/১১র মঈন/ফখরুদ্দিন সরকারের কথা। এই ১/১১ সরকার গত জোট সরকারের আমলের দুর্নীতিবাজ আমলা মন্ত্রীদের যেমন বাঁশ ডলা দিয়েছিল তেমনি লিগ সরকারের দুর্নীতিবাজ প্রধান এবং মন্ত্রীদের সুন্দর একটা বাঁশ ডলা কামনা করছি।
>>বর্তমান প্রধান দুই মহিলাকে লাঠি পেটা করতে আবার ১/১১র মত একটা সরকার আবার কামনা করছি।

তোমাদের খুব মনে পড়ছে তোমাদের  মঈন/ফখরুদ্দিন। তোমারা আবার এস অন্য কারও রুপধরে। আবার একটা শুদ্ধি অভিজান পরিচালনা করতে হবে এই দেশের আম রাজনীতিবিদদের উপর।
>>>আমরা শান্তি চাই। রাস্তায় বের হবার অধিকার চাই। আমরা সুস্থ হয়ে বাবা মার কোলে আবার ফিরে আসতে চাই। পরিবার পরিজনের মুখে দুবেলা দু মুঠা খাবার তুলে দেবার জন্য কাজ করার নিশ্চয়তা চাই। 
>>কিন্তু দুই মহিলার চুলচুলি যতক্ষণ না থামছে তা কি সম্ভব?
>>সম্ভব নয়।

তাই এই দুই মাহিলার চুলচুলি ভাল মত সুযোগ ও  নিরপেক্ষতার জন্য এদের  জন্য একটা বিগ ফাইট আদলে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে একটা ম্যাচ আয়োজন করা হোক। এই ম্যাচ এর টিকিটের টাকা দিয়ে রাজপথে আহত ও নিহত পরিবারের জন্য ক্ষতি পুরন করা হবে( রাজ পথে যারা আহত ও নিহত হয়েছেন এই কয়েকদিনে তাদের প্রতি ও তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা ছাড়া আর কিছু জানানোর নাই, আর দুই নেত্রীর প্রতি ঘৃণা)।
তখন জনগণ গেলারি থেকে দেখবে তোমরা কেমন পার মারামারি বা চুলচুলি করতে।যে ভাল কেরবে জনগণ গেলারি হতে হাসিনা হাসিনা বা খালেদা খালেদা করে চিল্লাবে আনন্দে। জান্তব আনন্দে জনগণ হাসবে তোমাদের অবস্থা দেখে।
তোমাদের পরস্পরের খামচি আঘাত পাবার দৃশ্য দেখে আমরা জনগণ হাসব। তখন হয়তো তোমরা বুজবে আঘাত পেতে কেমন লাগে।
>>এখন যেমন তোমরা টিভির অগ্নিদগ্ধ বা পুলিশের গুলিতে নিহতদের নিউজ দেখে হাঁস।     
@@তাই আসুন একটা ম্যাচ আয়োজন করার জন্য এদের দুজনের কাছে প্রস্থাব করি।
   https://www.facebook.com/golammaula.aka … 0881373174
https://www.facebook.com/golammaula.aka … 7484659847

গোলাম মাওলা , ভাবুক, সাপাহার, নওগাঁ

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আউল (৩০-১১-২০১৩ ১২:৪৯)

Re: রাজার নীতি রাজনীতি

আগে রাজনীতি মানে ছিলো নীতির রাজা , আর এখন নীতিহীন রাজনীতি, ক্ষমতাকে পাকা পোক্ত করার জন্য যান প্রান দিয়ে চেস্টা করা, মরছে মানুষ তাতে কি?
সমাপ্রতিক ঘটনার উপর  আমি একটি পোস্ট করেছি এই রকমভাবে dontsee dontsee dontsee dontsee


নেতাদের এরেস্ট করবে ভালো কথা মামলা থাকলে যে কেহকে এরেস্ট করা যায় তবে তা মদ্য রাতে কেন? টিভি ক্যামেরা ভাংতে হবে কেন?? এটা যেন ঠিক মতিঝিলের গণহত্যার মতই মধ্য রাতের অভিযান যাতে টিভির ক্যামেরাও নিষিদ্ধ ছিলো !

এই সব কর্ম কান্ড হাজার বৎসরের  অসভ্যতাকেও ম্লান করে দিয়েছে, আসলে মহাজোট সরকারের মুল উদ্দেশ্য হচ্ছে বিরোধী দলের সকল ৩০০ নেতাকে গ্রেফতার করে রাখতে যাতে করে - বিদেশী চাপে বিরোধীধরকে নিয়ে যদি নির্বাচন করতেই হয়  - তবে সে ক্ষেত্রে নেতারা তা করতে করতে যেন না পারে সবাই তো জেলে - এই মহাজোট সরকার ঠিক সেই বিগত তত্বাবধায়ক সামরিক সরকারের মত করে বিএনপিকে মাইনাস করার ধান্দায় নেমেছে
সবাইকে যদি দেখা মাত্র মাত্র গুলি আর গ্রেফতার করা হয় তবে কার সাথে সংলাপ হবে? আর মহাজোট সরকারকে মনে রাখতে হবে এই সরকারই শেষ সরকার নয়, তাদের কাজ কর্ম পরবর্তিতে কোন সরকার এলে তারাও তা করবে........

অনেকে বলেন, বিরোধী দলের নেতা কর্মীদেরকে গ্রেফতার করার জন্যই সরকারী দল পরিকল্পিত ভাবে শাহবাগে বাসে আগুন দেয় -  যাতে করে এই মামলায় বিরোধী দলের ৩০০ সদস্যদের গ্রেফতার করা যায়, অথচ এই আওয়ামীলীগ বিরোধী দলে থাকাকালীন গান পাউডার দিয়ে মানুষ মেরেছে, সোনার গা হোটেল সামনে ডবল ডেকারে আগুন দিয়েছে, লগী বৈঠা দিয়ে মানুষ মেরেছে - কৈ সেই সময়েতো কেহকে দেখা মাত্র গুলি কিংবা গ্রেফতার করেনি !

শুনেছি শনিবারের বিএনপি নিহত নেতা কর্মীদের স্বরনে সভা করতে চেয়েছিলো - কিন্ত মহাজোট সরকার সেই সভা করার অনুমতি দেয়নি ,  আর বিরোধী দলও এই সববের প্রতিষোধ নিতে জনগনের উপর যুদ্ধ ঘোষনা করেছে

"We want Justice for Adnan Tasin"