সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সাইদুল ইসলাম (১৪-১১-২০১৩ ১৬:০৫)

টপিকঃ মিসাইল

সাবমেরিন ভ্রমনের স্বপ্ন দেখা বাদ দিন বরঞ্চ এক প্লেট বিরিয়ানির সাথে  ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে বসুন    hug hug

http://i.imgur.com/jv0Kyjc.png

হ্যা আজকের বিষয় ক্ষেপণাস্ত্র বা মিসাইল( Missile)।আধুনিক সমরাস্ত্রে ক্ষেপণাস্ত্র বা মিসাইল( Missile) গুরুত্বপুর্ণ ভূমিকা পালন করে। ক্ষেপণাস্ত্র হচ্ছে স্ব-প্রণোদিত (সেলফ প্রপেলড) সিস্টেম।

ক্ষেপণাস্ত্র চারটি অংশ নিয়ে গঠিত: টার্গেটিং অথবা গাইডেন্স, ফ্লাইট সিস্টেম, ইঞ্জিন এবং ওআর হেড।  মিসাইল সাধারনত ভুমি থেকে ভুমি এবং আকাশ থেকে ভুমি, আকাশ থেকে আকাশ, আকাশ থেকে ভূমি অথবা অ্যান্টি-স্যাটেলাইট এ ব্যবহার করা হয়।

যেভাবে এল মিসাইলঃ-

সম্ভবত অথবা ধারনা করা হয় বিশ্বে রণাঙ্গনে প্রথম রকেট তথা মিসাইল প্রযুক্তির ব্যবহার হয় ভারতীয় উপমহাদেশে। এ প্রযুক্তিটি প্রথম ব্যবহার করেন টিপু সুলতান। তবে ফায়ার ড্র্যাগন  নামক মিসাইল চীনারা প্রথম ব্যবহার করে।এছাড়া ১৭৯৯ সালে টিপু সুলতানের সঙ্গে ব্রিটিশদের সর্বশেষ যুদ্ধ হয়। তুরুখানালি নামক স্থানে সংঘটিত এ যুদ্ধে টিপুর বাহিনী দুর্ভাগ্যজনকভাবে পরাজিত হয় এবং নিহত হন টিপু সুলতান। ফলে টিপু সুলতানের ব্যবহৃত প্রায় সাতশ’ এর অধিক রকেট ও নয়শ’ এর অধিক রকেটের উপকরণ ব্রিটিশদের হাতে চলে যায়। উইলিয়াম কংগ্রিভ নামের এক ইংরেজ সেনাপতি এগুলো ইংল্যান্ডে নিয়ে যান। ব্রিটিশরা এগুলোকে পরীক্ষা ও গবেষণা করে কারিগর পদ্ধতি জেনে যায়। ব্রিটিশরা টিপুর রকেট নকল করে কংগ্রিভ রকেট তৈরি করে টিপুর বিরুদ্ধেই ব্যবহার করেছিল। আর আজকের আধুনিক মিসাইল তারই ধারাবাহিকতায় তৈরি। তবে আধুনিক মিসাইল আবিষ্কার ব্রিটিশরা নয় দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় জার্মানরা করে। ভি-১ (ক্রুজ) ও ভি-২ (ব্যালিস্টিক) নামে এই মিসাইলগুলো দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ব্যবহার করা হয়েছিল। তবে মিসাইল ধারণাটি এসেছিল মূলত কামানের গোলা নিক্ষেপ করাকে কেন্দ্র করে।

যেভাবে কাজ করে (সংক্ষেপে)
মিসাইলে ওয়ারহেড থাকে যা লক্ষ্যবস্তুকে ধ্বংস করে। মিসাইলে কম্পিউটার গাইডেড সিস্টেম থাকে যার মাধ্যমে সেটিকে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। ওয়ারহেডে থাকে হাই এক্সপোসিভ । আর মিসাইলের জ্বালানি হিসেবে থাকে সলিড বা লিকুইড লো এক্সপ্লোসিভ জেট ফুয়েল যাকে প্রোপোল্যান্ট বলে। পালা বা দূরত্বের ভিত্তিতে মূলত তিন ধরনের মিসাইল রয়েছে স্বল্প, মাঝারি ও দূরপাল্লার মিসাইল।

দেশে দেশে মিসাইল যুদ্ধ

বিভিন্ন দেশের কাছে আছে শ'খানেক রকমের স্বল্প, মাঝারি ও দূরপাল্লার মিসাইল।সংক্ষেপে কিছুর আলচনা করা হল-রাডার ফাঁকি দিতে সক্ষম আলোচিত মার্কিন প্যাট্রিয়ট মিসাইলেরhttp://missiledefense.files.wordpress.com/2011/01/redduster1.jpg অনুরূপ সম্প্রতি ইরানও একটি মিসাইল তৈরি করেছে যেটি রাডার ফাঁকি দিয়ে দূরের লক্ষ্য বস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম।
এটির নাম নাসর।http://img42.imageshack.us/img42/6670/nasr1cruisemissile01.jpg তবে বর্তমান বিশ্বের কয়েকটি আলোচিত মিসাইল-
টোমাহক ক্রুজ মিসাইল http://i.imgur.com/g4KTOq4.jpg এটি যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি দূরপাল্লার মিসাইল। প্যাট্রিয়ট মিসাইল-এটি একটি এন্টি ব্যালিস্টিক মিসাইল। দূর থেকে উড়ে আসা যে কোনো ব্যালিস্টিক মিসাইল ধ্বংস করতে ব্যবহার করা হয়। এর মূল মালিক যুক্তরাষ্ট্র।

আল সামূদ-২-এটি ইরাক যুদ্ধে ব্যবহৃত সাদ্দামের রিপাবলিকান গার্ডের তৈরি মিসাইল।http://www.globalsecurity.org/wmd/world/iraq/images/alsamud2launch.jpg


হাতফ-হাতফhttp://preview.turbosquid.com/Preview/2011/04/25__17_08_42/hatf1view1.jpgd826fa0d-2a84-4e7d-980b-a51e1126d9aaLarge.jpg
সিরিজের মিসাইলগুলো ইরানের তৈরি। এ মিসাইলগুলো রাশিয়া ও চীনের সহায়তায় তৈরি করা হয়েছে।মিসাইলগুলো মাঝারি ও দূরপাল্লার।

অগ্নিhttp://images.indiatvnews.com/mainnational/India_displays_19868.jpg

পৃথ্বিhttp://en.newsbharati.com/Encyc/2012/10/4/22_10_45_41_Prithvi_missile_H@@IGHT_516_W@@IDTH_399.jpg এ মিসাইলের মালিক ভারত। এগুলো মধ্য ও দূরপাল্লার।

ভারতের অগ্নির বিপরিতে আছে পাকিস্থানের শাহিন সিরিজের মিসাইল।
https://static-secure.guim.co.uk/sys-images/Guardian/Pix/pictures/2010/11/30/1291119339799/A-nuclear-capable-ballist-007.jpg

হেসিউংফিংhttp://asienspiegel.ch/wp-content/uploads/2011/08/rakete.jpg 

স্কাই ব্লুhttp://farm3.staticflickr.com/2620/3816791677_c0a4804891_z.jpg
মিসাইল সিরিজের মালিক চীন।

আর-৩৬http://res.vtc.vn/media/vtcnews/2012/12/26/1-Russian-Topol-ICBM-missile.jpg বা

আর সিরিজের মিসাইলগুলু  রাশিয়ার, পরমাণু বোমা বহনে সক্ষম। http://www.astronautix.com/graphics/r/r36fammw.jpg

স্ট্রিংগার মিসাইলhttp://www.defense.gov/dodcmsshare/homepagephoto/2006-09//hires_IMG_4381b.jpg কাঁধে বহনযোগ্য এ মিসাইলের কার্যকর ব্যবহার দেখা যায় আফগান-রাশিয়া যুদ্ধে। আফগান মুজাহিদরা রাশিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবহার করে।http://graphics8.nytimes.com/images/2009/05/21/world/asia/21lede_stinger.afghan.480.jpg


কাশাম রকেটhttp://www.indynewsisrael.com/wp-content/uploads/2011/04/hamas_kassams.jpg ফিলিস্তিনি সংগঠন হামাসের,এ মিসাইল ইসরাইলের বিরুদ্ধে ব্যাপকভাবে ব্যবহার করে।

শাহাব মিসাইলhttp://www.acig.org/artman/uploads/01015279shahab-3b_001.jpg ইরানের আবিষ্কার। শাহাব সিরিজের মিসাইলগুলো পুরো মধ্যপ্রাচ্য অতিক্রম করে ইসরাইলে আঘাত হানতে সক্ষম। সে সঙ্গে এগুলো পারমাণবিক বোমা বহণের যোগ্য।

জেরিকো http://bm.img.com.ua/berlin/storage/orig/1/1d/02a78d7d1f2055122aeca1377c2371d1.jpg এটি ইসরাইলের তৈরি। ইরানের শাহাবের বিকল্প হিসেবে এটা তৈরি করা হয়েছে। এটিও শাহাবের অনুরূপ মধ্যপ্রাচ্য পাড়ি দিয়ে ইরান বা এশিয়ার যে কোনো দেশে আঘাত হানতে সক্ষম।

...আমার বাংলাদেশের নৌ-বাহিনির কাছে আছে চায়নিজ় প্রযুক্তিতে তৈরী C-802মিসাইলhttp://4.bp.blogspot.com/-jdNSLzNzxbQ/UQpxeU4rAcI/AAAAAAAADFc/jwDzA-5pFSg/s1600/C-802+YJ83+Bangladesh.jpg

আর বাংলাদেশ সেনাবাহিনী HJ-8 ও Baktar-Shikan ট্যাঙ্ক-বিধ্বংসী-ক্ষেপণাস্ত্র
http://2.bp.blogspot.com/-Pi_Bdp7RJSg/T1OkE0nJkdI/AAAAAAAAAFQ/iP_Eu8M5Vcw/s1600/pic1.jpg


এই ট্যাঙ্ক-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্রটি অনেক জায়গা থেকে অনেক ভাবে নিক্ষেপ করা যায়। সাঁজোয়া যান, জীপ, ছোট পিকাপ ট্রাক, হেলিকাপ্টার, এমন কি ২-৩ জন সৈন্যের একটি দল  কাঁধে বহন করে বহন ও নিক্ষেপ করতে পারে। এতোগুলো ঝুঁকির উৎস কে এড়িয়ে ট্যাঙ্করে পক্ষে অগ্রসর হয়ে অন্য দেশে প্রবেশ প্রায় অসম্ভব। আর যদি কোন দেশ সেটা করতে চেষ্টা করে তাহলে নিঃসন্দেহে ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতির সন্মুখীন হবে। যেমনটা ২০০৬ সালে ইজরায়েল লেবাননে প্রবেশের সময় পড়েছিল। ঐ যুদ্ধে বহুসংখ্যক(৪০-৬০ টি) ইসরাইলি ট্যাঙ্ক (যা পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে সুরুক্ষিত) ধ্বংস বা ক্ষতিগ্রস্থ হয়। এতোটা ক্ষতির মধ্যে পড়বে ইসরাইল সেটা ভাবতেও পারেনি।পরে ক্ষতি মেনে নিয়ে পিছুহটে আত্মরক্ষা করে।


এই হল ক্ষেপণাস্ত্র ! ভাল থাকুন শুভ রাত্রি  smile

টপিকের ছবি ও তথ্যসুত্র ইন্টারনেট, এছাড়া উইকিপিডিয়া,তাছাড়া অনেকগুলু সাইট দেখে লিঙ্ক দেয়া সম্ভব হল না

۞ بِسْمِ اللهِ الْرَّحْمَنِ الْرَّحِيمِ •۞
۞ قُلْ هُوَ اللَّهُ أَحَدٌ ۞ اللَّهُ الصَّمَدُ ۞ لَمْ * • ۞
۞ يَلِدْ وَلَمْ يُولَدْ ۞ وَلَمْ يَكُن لَّهُ كُفُوًا أَحَدٌ * • ۞

Re: মিসাইল

অসাধারণ পোস্ট দাদা+  clap

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সমালোচক (১৪-১১-২০১৩ ০১:২৩)

Re: মিসাইল

এতদিনে কাজের পোষ্ট আসতেছে...... এরপরের টপিক যুদ্ধ বিমান নিয়ে দিয়েন আমার পছন্দ  সুখেই - ৪৭

http://2.bp.blogspot.com/_AzW-lM6z9jE/SOglZlnRpBI/AAAAAAAAARE/SQFgOgIvnzQ/s400/su-47-2.jpg

  “যাবৎ জীবেৎ সুখং জীবেৎ, ঋণং কৃত্ত্বা ঘৃতং পিবেৎ যদ্দিন বাচো সুখে বাচো, ঋণ কইরা হইলেও ঘি খাও.

Re: মিসাইল

বাংলাদেশ কোন কোন মিসাইল ব্যবহার করে?

আমার সকল টপিক

কোনো কিছু বলার নেই আজ আর...

Re: মিসাইল

দারুণ একটি টপিক। পরবর্তী পর্বগুলোর অপেক্ষায় থাকলাম।  clap

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মিসাইল

অস্ত্র নিয়ে পোস্ট দেখতে ভালো লাগলো, ভাবতেই উইয়ারড লাগে যে এগুলা এক একটা মিসাইল দিয়ে কতো নিরীহ মানুষ মেরে ফেলা যায় বা মেরে ফেলা হয়। আাসুন ধ্বংসাত্নক জিনিশকে না বলি

Rhythm - Motivation Myself Psychedelic Thoughts

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন invarbrass (১৪-১১-২০১৩ ০৯:১০)

Re: মিসাইল

মজার টপিক! মারণাস্ত্র নিয়ে টপিক আমারও প্রিয় - রিভলবার থেকে বা ট্যাংক / ব্যাটল ক্রুযার সবই গিলে ফেলি।  tongue

বিশ্বে রণাঙ্গনে প্রথম রকেট তথা মিসাইল প্রযুক্তির ব্যবহার হয় ভারতীয় উপমহাদেশে। এ প্রযুক্তিটি প্রথম ব্যবহার করেন টিপু সুলতান।

আমার জানামতে মিসাইলের ইতিহাস আরো প্রাচীন। প্রায় ১০০০ বছর আগে চীনারা সারফেস স্কিমিং মিসাইল টেকনলজী ডেভেলপ করেছিলো। ওই মিসাইলের ওয়ারহেড ছিলো আগুন। অগ্নি-মিসাইল নিক্ষেপ করে চাইনীজরা কয়েক কিলোমিটার দূরের শত্রু জাহাজে আগুন ধরিয়ে দিতে পারতো। পরবর্তীতে খৃস্টান জেসুইট মিশনারীরা প্রাচীন চায়নাতে ধর্ম প্রচারে গেলে ওই টেকনলজী সম্পর্কে ইউরোপে জানান। তবে চীনা ওয়ার-ইণ্ডাস্টৃ এসব ব্যাপারে খুব সিক্রেসী মেইনটেন করতো। তাদের ফায়ার মিসাইলের মেকানিজম, ম্যানুফ্যাকচারিং প্রসেস ইত্যাদি বিদেশীদের থেকে তো বটেই, এমনকি নিজেদের সাধারণ মানুষ বা রাইভাল ওয়ারলর্ডদের থেকেও এসব ট‌্রেড সিক্রেট রাখতো। তবে এটার ব্যাপারে রেফারেন্স পাচ্ছি না (গুগল করলে ঘুরেফিরে কেবল দংফেং আসছে  worried )

Calm... like a bomb.

Re: মিসাইল

চমৎকার টপিক, অনেক কিছু জানা হল।  thumbs_up

IMDb; Phone: OnePlus 8T; PC: Windows 10 Pro 64-bit

Re: মিসাইল

অনেক কিছু জানতে পারলাম আপনার পোস্টের মাধ্যমে

১০

Re: মিসাইল

পাইছি!  big_smile
আলাদা টপিকে দিয়ে দিলামঃ ফায়ার ড্র্যাগন সারফেস-স্কিমিং ক্রুয মিসাইল

Calm... like a bomb.

১১

Re: মিসাইল

অনেক কিছু শিখতে পারছি আপনার পোস্টা পড়ে । ধন্যবাদ

১২

Re: মিসাইল

ভয়ংকর মিশাইল ......

সুন্দর টপিক

ফোরামে আবারও পুরোদ্যমে ফিরে আসার জন্য ধন্যবাদ

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর

১৩

Re: মিসাইল

দারুন টপিক,,,,,

স্নিগ্ধ শুভ্রতায় আমি. . . . .

১৪

Re: মিসাইল

তথ্যবহুল পোষ্ট। তবে মারনাস্ত্র সম্পর্কিত যে কোন তথ্যই ভয়াবহ এবং পড়ার পরে প্রচন্ড রকম শংকিত বোধ করি।

রিং'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৫

Re: মিসাইল

চমৎকার পোস্ট করার জন্য + রইল। সাইদুল ভাইকে আবার ফোরাম মাতানোর জন্য অভিনন্দন।

তবে বিরিয়ানির টপিকটা পুরা অমানবিক ছিল। crying

১৬

Re: মিসাইল

সুন্দর টপিক... smile তবে মিসাইল গুলোর আরও বিশদ বর্ণনা দিয়ে এটাকে মেগা টপিক বানানো যেত...।

অনিশ্চয়তার পৃথিবীতে অনিশ্চয়তার মাঝে ডুবে আছি।

১৭

Re: মিসাইল

সাইদুল ইসলাম পুরা ফাটিয়ে ফেলেছে।

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

১৮

Re: মিসাইল

সর্বপ্রথম মেটাল সিলিন্ডার রকেট ব্যবহার করে টিপু সুলতান।

In 1792, the first iron-cased rockets were successfully developed and used by Hyder Ali and his son Tipu Sultan, rulers of the Kingdom of Mysore in India against the larger British East India Company forces during the Anglo-Mysore Wars.

উইকিপিডিয়া

১৯

Re: মিসাইল

সত্যিই অসাধারন টপিক  big_smile

  Tenacity - Focus - Discipline - Repetition

   Sabbir's Blog 

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত