টপিকঃ প্রথম ডিভোর্স কেস।

যেদিন টুইন টাওয়ার ধ্বংস হয়, সেদিন
একলোক অফিসে যায় নাই। সে ৯৭ তলায়
কাজ করতো।
সেদিন তাঁর এক
গার্লফ্রেন্ডকে নিয়ে সে শহর
থেকে দূরে হোটেলে ছিল। তাঁর মোবাইল
ছিল অফ।
তো দুর্ঘটনার পর তাঁর
স্ত্রী তাকে বারবার ফোন দিচ্ছিল।
পড়ে যখন সেই লোক ফোন অন করে,
সাথে সাথেই তাঁর স্ত্রী ফোন
করে জিজ্ঞাসা করে, " তুমি কই?
তুমি ঠিক আছো তো? তোমার কিছু হয় নাই
তো?"
তো লোকটা ধমকি দিয়ে তাঁর
স্ত্রীকে বলে, "
তোমাকে না বলেছি কাজের সময় ফোন
দিবে না। আমি এখন অফিসে ব্যস্ত
আছি।"
এটাই ছিল দুর্ঘটনার পর প্রথম ডিভোর্স কেস।

Re: প্রথম ডিভোর্স কেস।

lol2

নির্মল হাসির জোক । খুব হাসলাম ।

Re: প্রথম ডিভোর্স কেস।

ফোরামের কৌতুক ফোরামেই মেরে দিলেন...??
এই কৌতুকটা আমারই অনুবাদ করা...... যদিও কৌতুক লেখা কঠিন কাজ কিন্তু আমি এক ইংলিশ জোক থেকে আইডিয়া নিইয়ে এটা লিখেছি বা বলা যেতে পারে অনুবাদ করেছি
http://forum.projanmo.com/post576384.html#p576384

ছোট একটা জোকের জন্য টপিক করতে মন চায়নি এখন দেখা যায় সেটাই উচিৎ ছিল

Re: প্রথম ডিভোর্স কেস।

ফায়ারফক্স লিখেছেন:

ফোরামের কৌতুক ফোরামেই মেরে দিলেন...??
এই কৌতুকটা আমারই অনুবাদ করা...... যদিও কৌতুক লেখা কঠিন কাজ কিন্তু আমি এক ইংলিশ জোক থেকে আইডিয়া নিইয়ে এটা লিখেছি বা বলা যেতে পারে অনুবাদ করেছি
http://forum.projanmo.com/post576384.html#p576384

ছোট একটা জোকের জন্য টপিক করতে মন চায়নি এখন দেখা যায় সেটাই উচিৎ ছিল

আপনার কথা থেকেই বুঝা যাচ্ছে যে আপনাদের দুজনের পোস্ট কাকতাল হতে পারে। কারণ আপনাদের দুজনের ব্যবহৃত শব্দের মধ্যে অনেক পার্থক্য আছে। এছাড়া এমনও হতে পারে যে দুজনই ইংরেজীটা পড়েই সেটার অনুবাদ করছেন। আর যেহেতু আপনার পোস্টটি কোনো হাসির বাক্সের পোস্টের মধ্যে ছিল না সেহেতু এটা অনেকের নজর নাই আসতে পারে। তাই বলা যায়, এখানে যা অপাঙতেয় তা হচ্ছে আপনার এই কর্কষ সুরে কথা বলাটা। একটা কাকতাল ব্যপারে এতো জল ঘোলা করা আপনার মত সিনিয়র মানুষের একেবারেই অনুচিত।

Re: প্রথম ডিভোর্স কেস।

মজা পেলাম অনেক।  lol2

কারো আশা নষ্ট করবেন না, হয়তো এই আশাই তার শেষ সম্বল।

Re: প্রথম ডিভোর্স কেস।

এখানে আরও যা অপাঙতেয় তা হচ্ছে আপনার ফোরামে ফেরত আসা...

Re: প্রথম ডিভোর্স কেস।

lol2 lol2 lol2 lol2 lol2 lol2

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর

Re: প্রথম ডিভোর্স কেস।

lol
মজার ছিলো।।।

ডিজিটাল বাংলাদেশে ত আর সাক্ষরের নিয়ম চালু নাই।সবটায় দেখি বায়োমেট্রিক।তাই আর সাক্ষর দিতে পারলাম না।দুঃখিত।