সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আশিফ শাহো (০৮-০৮-২০১৩ ১২:০৭)

টপিকঃ পুরানো স্মৃতিকথা

সালটা সম্ভবত ২০০১ তখন ক্লাস ফাইভে পরি, একটা মেয়ে খুব জ্বালাইতো, ক্লাসে খোচাখুচি থেকে শুরু করে সবখানেই। নাম রিমা, পাবনার ভাঙ্গুরা উপজেলায় থাকি তখন, আব্বু তখন বড়ালব্রীজ শাখা অগ্রনীব্যংকের ম্যানেজার। মেয়েরা ছেলেদের থেকে একটু দ্রুতই ম্যাচিরউর হয়, বোকা আমি কিছুতেই পেরে উঠতাম না, একদিন ছোট ভাইকে নিয়ে ওদের স্কুলে (তখন ক্লাস সিক্সে এবং আমি বয়েজ স্কুলে এবং সে গার্লস স্কুলে) গেলাম ম্যাজিক শো দেখতে, আমাকে একা পেয়ে গালে একটা কষে থাপ্পর দিয়ে দৌড়িয়ে পালিয়ে গেল, আমি গালে হাত দিয়ে হতভম্ব হয়ে দাড়িয়ে থাকলাম  neutral

যথারীতি বন্ধুদের কাছে সাহায্য প্রার্থনা করলাম উল্টা তারা আমাকে নিয়ে অনেক হাসাহাসি করতে লাগলো  brokenheart আমার জেদ চেপে গেল, ওদিনই বিকেলে খেলছিলাম মাঠে, দেখি ও যাচ্ছে প্রাইভেট পড়ে। আর কই যাবে দৌড়ে গিয়ে কিল ঘুষি মেরে আমার মতই শুকনা (আমি আগে থেকেই শুকনা আরকি) মেয়েটার হারহাড্ডি গুরো করে দেয়ার মত অবস্থা। বেচারা মাঠের মধ্যে কেঁদেই ফেললো আমি আর কিছু না বলে মাঠের মাঝখানে চলে আসলাম। বন্ধুরা ঘটনার আকস্মিকতা সহ্য করার পর আমাকে বললো পালাই যাইতে। আমি বললাম বিনা কারনে মারি নাই যাবো না। খেলা ভন্ডুল হয়ে গেল। মেয়েটা কাদতে কাদতে বাড়ি চলে গেল। একটু চিন্তা হল যে যদি তার বাড়িতে বলে দেয় কিন্তু আমার মেজাজ সেরকম গরম ছিল, হাজার হলেও এতগুলা মেয়ের মধ্যে চর মেরেছে। এলাকার লোকজনও হতভম্ব হয়ে গেল কিন্তু কিছু বললো না কেউ হয়তো ভেবেই পাচ্ছে না শান্তশিষ্ট পোলাপানগুলার আজ হলটা কি!

আজ অনেকদিন পর পুরাতন বন্ধুদের কথা মনে পরছে, বসে বসে পুরাতন দিনগুলোর কথা ভাবছি, কতইনা মধুর ছিল সে দিনগুলো, আব্বুর শাসন বাদ দিলে সবকিছুই রঙ্গিন ছিল, এখনকার শহরের ছেলে মেয়েরা ওরকম দিন শুধু স্বপ্নেই ভাবতে পারবে। ভাঙ্গুরা থাকতে আসলেই অনেক মজা করেছি, নৌকা করে নদী পার হয়ে টাকা না দিয়ে পালাইছি, রাস্তা দিয়ে ভ্যান যাচ্ছে দৌড়ে উঠে বসে থেকেছি আবার যেই ভ্যানচালক টের পেয়ে গেছে সাথে সাথে দৌড়ে পলায়ন, মাঠে বসে বসে কাচা ধানের শিশ চাবিয়েছি আরও কতকি  dream

বেশকিছুদিন আগে ভাঙ্গুরার এক পুরোনো বন্ধুর সাথে দেখা হয়েছিল, ওর কাছেই শুনলাম রিমার একটা মেয়ে হয়েছে এতদিনে স্কুলে যাওয়ার কথা  love, একটা ফোন নম্বর ছিল কথা বলা হয় নাই কোনদিন সেটা দিয়ে সেটাও হারিয়ে ফেলেছি, থাকলে হয়তোবা পিচ্চির সাথে কথা বলা যে   sad

ফিলিংস লাইক বুড়া হয়ে গেলাম নাকি  dontsee

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

ক্লাশ সেভেন এ পড়া ছেলে এত ম্যাচিউরড লেখা কিভাবে লিখলে ভেবে পেলাম না ৷   ghusi

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন জেলাল (০৮-০৮-২০১৩ ০৪:৩৪)

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

আশিফ শাহো লিখেছেন:

সালটা সম্ভবত ২০১১ তখন ক্লাস ফাইভে পরি

ইলিয়াস লিখেছেন:

ক্লাশ সেভেন এ পড়া ছেলে এত ম্যাচিউরড লেখা কিভাবে লিখলে ভেবে পেলাম না ৷   ghusi

হে হে, বেচারা বুড়ো হয়ে গিয়েছে। tongue তাই সালটা মনে রাখতে পারে নি। lol

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

ইলিয়াস লিখেছেন:

ক্লাশ সেভেন এ পড়া ছেলে এত ম্যাচিউরড লেখা কিভাবে লিখলে ভেবে পেলাম না ৷   ghusi

আমারো একই প্রশ্ন... waiting

তাসনিম।মুন্নী

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

হা হা হা ! মজা পেলাম আপনার পিচ্চিকালের কাহিনী পড়ে । আসলেই......... ছোটকালের স্মৃতি গুলো কেন যে এত মধুর হয় ! ইয়ে, টাইপো মিস্টেক টা জলদি শুধরাইয়া নেন ।

জানি আছো হাত-ছোঁয়া নাগালে
তবুও কী দুর্লঙ্ঘ দূরে!

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

আসিফ ভাই কি এখন ক্লাস সেভেনে পড়েন  thinking

বর্তমান স্বাক্ষর দিলাম
[img]http://i.imgur.com/bF7Lr.jpg[/img]  ফেসবুকে আমি
https://www.facebook.com/rafik.topu?ref=tn_tnmn

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

ক্লাস সেভেনে এখন ভর্তি হতে পারলে খারাপ হত না, ভাঙ্গুড়া বেড়াতে যাওয়া যেত  blushing

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

কিছুই তো বুঝলাম না,,,কনফিউজড! !!

স্নিগ্ধ শুভ্রতায় আমি. . . . .

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

নুশরাত লিরা লিখেছেন:

কিছুই তো বুঝলাম না,,,কনফিউজড! !!

ইয়ে মানে আসলে উপরে যে সালটা দেখা যাচ্ছে ২০০১ ওটা প্রথমে ভূলে ২০১১ লিখে রেখেছিলাম  donttell

১০

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

নস্টালজিক হয়ে গেলুম sleeping

We are born naked, wet and hungry. Then things get worse.

সামির রহমান'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

১১

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

গ্রামের পুরোনো দিন গুলো আসলেই অনেক মজার ছিল।

সালেহ আহমদ'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

১২

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

এই কথা আর বইলেন না। একবার এক মেয়ে বন্ধুকে তো রাগের ঠেলায় পুকুরে চুবিয়ে মেরেই ফেলেছিলাম, সেই ছোটবেলায়!
অ:ট: হটাত করে আশিফ শাহোর ব্যাক্তিগত ওয়েবে একটু গুতা দিলাম। নিজের হারকিউলিস বডি নিয়া বড্ড টেনশিত ছিলাম। এখন খুব টেনশন ফ্রী লাগছে!!!

১৩

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

Sumir লিখেছেন:

নিজের হারকিউলিস বডি নিয়া বড্ড টেনশিত ছিলাম। এখন খুব টেনশন ফ্রী লাগছে!!!

টেনশন তো গেল এবার আপনার মরনের পালা, ফোরামে এমন কেই আছে যাকে দেখলে আমার নিজেকে বডিবিল্ডার মনেহয়, এখন তার ছবি আপনাকে দেখানো তো দেখতেছি আমার দায়িত্ব  hehe


সালেহ আহমদ লিখেছেন:

গ্রামের পুরোনো দিন গুলো আসলেই অনেক মজার ছিল।

আসলেই, ওইদিনগুলো আর ফিরে পাওয়া সম্ভব না!

সামির রহমান লিখেছেন:

নস্টালজিক হয়ে গেলুম sleeping

  tongue

১৪ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আশিকুর_নূর (০৮-০৮-২০১৩ ২২:৫১)

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

বুঝছি, আন্টির ফোন নাম্বার দেও। তোমার লেইগা সুপারিশ করি

১৫

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

আশিকুর_নূর লিখেছেন:

বুঝছি, আন্টির ফোন নাম্বার দেও। তোমার লেইগা সুপারিশ করি

hehe  hehe
মানে তো বুচ্ছি ... ...

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৬

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

কিলাস নাইনে এক মাইয়ারে মাইরা স্যরের হাতে সিরাম মাইর খাইছিলাম রে ভাই  dontsee

নিবন্ধিতঃ১১/০৩/২০০৯ ,নিয়মিতঃ১০/০৩/২০১১, প্রজন্মনুরাগীঃ১৯/০৫/২০১১ ,প্রজন্মাসক্তঃ২৬/০৯/২০১১,
পাঁড়ফোরামিকঃ২২/০৩/২০১২, প্রজন্ম গুরুঃ০৯/০৪/২০১২ ,পাঁড়-প্রাজন্মিকঃ২৭/০৮/২০১২,প্রজন্মাচার্যঃ০৪/০৩/২০১৪।
প্রেম দাও ,নাইলে বিষ দাও

১৭

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

আশিকুর_নূর লিখেছেন:

বুঝছি, আন্টির ফোন নাম্বার দেও। তোমার লেইগা সুপারিশ করি

মিয়া লাইনে আসেন, ভাই বেরাদার মানুষ আপনি বুড়া হয়ে যাইতেছেন এখনো বিয়াশাদী করেন না লাগছেন আমার পেছনে  donttell

১৮

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

শামীম লিখেছেন:

মানে তো বুচ্ছি ... ...

গুরু জনে কী বুঝছে ঝাতি জানতে চায়।

আশিফ শাহো লিখেছেন:

মিয়া লাইনে আসেন, ভাই বেরাদার মানুষ আপনি বুড়া হয়ে যাইতেছেন এখনো বিয়াশাদী করেন না লাগছেন আমার পেছনে  donttell

আমি লাইনেই আছি, সিরিয়াল ব্রেক করি নাই এখনও big_smile

আশিকুর_নূর'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

১৯

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

আশিকুর_নূর লিখেছেন:
শামীম লিখেছেন:

মানে তো বুচ্ছি ... ...

গুরু জনে কী বুঝছে ঝাতি জানতে চায়।

বলায়াই ছাড়বা  kidding

নুর, আন্টির ফোন নাম্বার দিও, আমরা তোমার জন্য সুপারিশ করবো।

মেজবানি দাওয়াতে যে সার্ভ করে তাকে ডেকে আমাকে আর এক পিস দেন - বলতে লজ্জ্বা পায় দেখে, লোকে বলে অমুক ভাইজানের প্লেটে এক পিস আন্ডা দাও (ইত্যাদি) .... .... তখন অমুক ভাইজানও বলবে, আরে না না, নুর ভাইয়ের পাত খালি, ওনার প্লেটে দাও  tongue_smile

২০

Re: পুরানো স্মৃতিকথা

শামীম লিখেছেন:

বলায়াই ছাড়বা  kidding

মেজবানি দাওয়াতে যে সার্ভ করে তাকে ডেকে আমাকে আর এক পিস দেন - বলতে লজ্জ্বা পায় দেখে, লোকে বলে অমুক ভাইজানের প্লেটে এক পিস আন্ডা দাও (ইত্যাদি) .... .... তখন অমুক ভাইজানও বলবে, আরে না না, নুর ভাইয়ের পাত খালি, ওনার প্লেটে দাও  tongue_smile

আপনার মনে হয় তাইলে আরো একপিস দরকার  neutral neutral
(ভুল ত্রুটি নিজ গুনে ক্ষমা করবেন আশা করি)

আশিকুর_নূর'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত