সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন রাশেদুল ইসলাম (২৭-০৭-২০১৩ ০১:২৭)

টপিকঃ থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

মাঝে মাঝে চিন্তা করি, যদি এমন একটা ডিভাইস থাকতো যেটা মানুষের চিন্তা রেকর্ড করতে পারে। তাহলে মানুষ যা চিন্তা করতো তাই সংরক্ষন করা যেত।
ধরুন আপনার জীবনের খুবই বিরল কিছু মুহূর্ত আছে যেগুল আপনি সংরক্ষণ করতে চান। অন্য কারো সাথে শেয়ার করতে চান। কিন্তু সেই বিরল মুহূর্তের কোন ভিডিও আপনার কাছে রেকর্ড করা নেই, তাকে হয়তো আপনি বলে বোঝাতে চেষ্টা করবেন। কিন্তু যদি আপনি সেই মুহূর্তটির একটি ভিডিও তাকে দেখাতে পারতেন। তাহলে তাকে হয়তো আপনি সুন্দরভাবে বোঝাতে পারতেন যে আপনার ওই সময় কি রকম অনুভূতি হয়েছিল।
ঠিক তেমনি ধরুণ, একজন চিত্র-পরিচালক কথা। যার মাথায় এই মুহূর্তে দুর্দান্ত একটি গল্পের প্লট আছে। কিন্তু ওই গল্প বাস্তবে সুটিং করার মত এবিলিটি তার নেই অথবা অভিনেতা নেই। তার হাতে যদি ওই ডিভাইসটা থাকতো, তাহলে সে ওই ডিভাইস দ্বারা তার মাথায় থাকা সেই গল্পটি বাস্তবে রূপ দিতে তার কোন সময়ই লাগতো না। তাহলে অন্তত সিনামায় একটা রেনেসাঁ হবে তাতে কোন সন্দেহ নেই।
পৃথিবীর বড় বড় স্টুডিওর এত এত ভিএফএক্স ইফেক্টর এর রাত দিনের এত পরিশ্রম বেঁচে যেত। মুহূর্তেই তৈরি হত হাই-ক্লাইম্রাক্স সমৃদ্ধ অসাধারন সব মুভি। যা দেখে পৃথিবীর মানুষ এক নতুন অভিজ্ঞতা নিয়ে বাসায় ফিরত।
অথবা ধরুন আপনি একজন স্পাই। আপনি আপনার প্রিয় মাতৃভূমির জন্য অত্যন্ত বিপদজনক একটা মিশনে শত্রু বুহ্য ভেদ করে তাদের আস্তানায় গেলেন। সেখান থেকে আপনি অতি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য নিয়ে দেশে ফিরলেন। আপনার বসকে ওই ডিভাইস দ্বারা ভিডিওগুলো দেখালেন। পরবর্তী সময়ে যা অনান্য স্পাইদের কাজে দিবে।
আবার ধরুন আপনার প্রিয়তম/প্রিয়তমা আপনাকে স্যাকা দিয়ে চলে গেল। smile আপানার যেহেতু সৃতি আছে, সেহেতু আপনি ইচ্ছা করলেই সেগুলো ভিডিও আকারে সংরক্ষন করতে পারছেন।
এমন একটা মুহূর্তের কথা চিন্তা করুন, আপনি রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে আছেন। আপনার সামনে একটা মারাত্মক এক্সিডেন্ট ঘটে গেল। টিভিতে যখন এই সংবাদ প্রচারিত হবে তখন আপনার ওই মুহূর্তের সৃতি অনেক মুল্যবান সাংবাদিকদের কাছে।
অথবা আপনি রাতের আকাশের দিকে তাকিয়ে তারা দেখতে ভালোবাসেন। আপনি চাঁদহীন অন্ধকার আকাশের দিকে তাকিয়ে আছেন। হঠাৎ আপনি একটা UFO দেখতে পেলেন। আপনার কথা কেউ বিশ্বাস করল না, আপনি তাদেরকে আপনার সৃতির একটা ভিডিও ক্লিপ দেখিয়ে দিলে।
তবে আমার যা ধারনা, এটা সবচেয়ে বেশী কাজে আসবে ওই চিত্রপরিচালকদের।

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

হলে মন্দ হতো না।

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

খারপ না আমারো মনে হয় পোস্টা পড়ে ।

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

এই রকম হলে ভালয় হতো।

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

এই জিনিস থাকলে নির্ঘাত আমার জন্য টাইট্যান গ্রাফিক্স কার্ড লাগতো অন্তত  ছয় সাতটা। উদ্ভট উদ্ভট চিন্তা করি কিনা  big_smile big_smile

এখনও শিখছি। আরো শিখতে চাই। পরে নাহয় শেখানো যাবে। আপাতত শেয়ার করতে পারি

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

আসলে এটা খুবই রিষ্কি চিন্তা। wink
এটা দিয়ে চাইলেই আপনি যখন ঘুমিয়ে থাকবেন তখন কেউ আপনার ব্রেন হ্যাক করে ক্রেডিট কার্ডেট পিন নাম্বার, গার্লফ্রেন্ডের ফোন নাম্বার, ইমেইল এড্রেস হ্যান ত্যান নানা কিছু হাতিয়ে নেয়া যাবে।
ব্যাপারটা তখন কি দাড়াবে ? wink
তারথেকে বড় কথা, একজন মানুষের ব্রেনের সবকিছু যদি আপনি জেনে যান, তাহলে সেই মানুষটি আপনার সামনে প্রায় উলঙ্গ। একজন মানুষের প্রাইভেসী নষ্ট করাটা বড় ধরনের অপরাধ wink

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

titan গ্রাফিস দিয়ে কাজ হবে না।Quadro 12GB লাগবে। hehe
এইরকম একটা gadget ডরেমন কার্টুন ছিল wink wink

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

সাইন্স-ফিকশন বইগুলোতে প্রায়ই এটাইপ গ্যাজেটের কথা থাকে। এখন কথা হল, এসব তথ্য নিউরণ থেকে বের করতে ব্রেন ফুটো করে ( dontsee ) যে নিউরাল কানেকশন বসাতে হবে, তা করতে কি কেউ রাজি হবে? তার উপর মাথার উপরে মেশিন/হাবিজাবি নিয়ে মানুষ ঘুমাবে কিভাবে?

একখানা অফ-টপিক লিংকু : http://en.wikipedia.org/wiki/Paprika_(2006_film) http://facebookemoticons.com/images/pacman.png

"Monsters are merely those which cross a certain line. Customs, laws, justice, taboos--They cross those lines, fully aware that they exist."

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সদস্য_১ (২৭-০৭-২০১৩ ০৩:৫৯)

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

এ ধরনের ডিভাইস ইতিমধ্যেই বানানো হয়েছে।এর জন্য মাথায় ফুটোও করতে হয়না! ইইজি সেন্সরের একটা হেড সেট লাগালেই হয়। যদিও টেকনলীটা এখনো নভিস পর্যায়ে আছে। নিকট ভবিস্বৎে এটার উন্নতি হলে তখন গ্রাফিক্সের মত কমপ্লেক্স প্যাটার্ন ডিটেক্ট এবং রেকর্ড করা সম্ভব হবে।

তবে এটার সাইডএফেক্টের কথা ভাবাই যায়না। এমনিতেই আমার বাস করি সাভাইলেন্স সোসাইটিতে। অফিস আদালতে, রাস্তার মোড়ে মোড়ে ক্যামেরায় সবকিছু সর্বক্ষন রেকর্ড হয়। মানুষের মনের ভেতরে যেটুকু নিজের বলে আছে সেটাও আর থাকবেনা।  angry

১০

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

সদস্য_১ লিখেছেন:

এ ধরনের ডিভাইস ইতিমধ্যেই বানানো হয়েছে।এর জন্য মাথায় ফুটোও করতে হয়না! ইইজি সেন্সরের একটা হেড সেট লাগালেই হয়। যদিও টেকনলীটা এখনো নভিস পর্যায়ে আছে। নিকট ভবিস্বৎে এটার উন্নতি হলে তখন গ্রাফিক্সের মত কমপ্লেক্স প্যাটার্ন ডিটেক্ট এবং রেকর্ড করা সম্ভব হবে। angry

এইরকম কিছু আছে সেটা জানি। কিন্তু সেটা দিয়ে যেটুকু রেকর্ড করা যায় তা খুবই ঝাপসা আসে। আরও কি কি যেন সীমাবদ্ধতা আছে।

১১

Re: থিংক রিডার ডিভাইস (যদি এমন হত)

এরকম একটা ডিভাইস থাকলে আমার মতো খুশি আর কেউ হতো না! আমার মাথায় যে পরিমাণ আইডিয়া আসে, সেগুলো লিখে রাখতে গেলেও প্রচুর ঝামেলা, থিংক রিডার থাকলে অনেককিছু সহজে স্টোর করা যেত।

তবে মেহদী ভাইয়ের বক্তব্য পড়ে চিন্তায় পড়ে গেলাম। একটা সমাধান হতে পারে এরকম- যার মস্তিষ্ক তিনি সরাসরি কমান্ড না দিলে থিংক রিডার কোনো কাজ করবে না। এটা করা গেলে হ্যাকিংএর ঝামেলা থেকে মুক্ত থাকা যাবে।

আমার সকল টপিক

কোনো কিছু বলার নেই আজ আর...