সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন শামীম (১৬-০৭-২০১৩ ১৪:১৮)

টপিকঃ জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

বেশ কিছুদিন যাবৎ একটা লাইটওয়েট ডিস্ট্রিবিউশন খুঁজছিলাম। এরই ধারাবাহিকতায় Zorin OS 7 Lite নামিয়ে পরীক্ষা করলাম। এটি মূলত উবুন্টু ১৩.০৪ এর উপর ভিত্তি করে বানানো তবে ডেস্কটপ এনভায়রনমেন্ট হিসেবে LXDE ব্যবহার করা হয়েছে। যথারীতি আর সব লাইট ডিস্ট্রিবিউশনের মত লাইভ সিডিতে হালকা প্রোগ্রামগুলোই রাখা আছে। তবে হার্ডডিস্কে ইনস্টল করলে অন্য যে কোন প্যাকেজ ইনস্টল করে নেয়া যায়।
এই রিভিউয়ে শুধুমাত্র এটার লুক এন্ড ফিলের দিকটা তুলে ধরার চেষ্টা করেছি। কিছু স্ক্রিনশট দিয়ে। বুট করার পর প্রথম যে স্ক্রিনটা আসবে সেটা দেখেই একটা পরিচিত ভাব জাগবে। বামদিকের নিচের কোনায় জোরিনের আইকন সহ মেনু, তারপাশে অ্যাপ্লিকেশন লঞ্চ বার, যাতে গুগল ক্রোম, ফাইল ব্রাউজার (PCManFM) এবং তার পাশে অডাশিয়াস মিডিয়া প্লেয়ার(Audacious) আইকন দেখা যাচ্ছে। এছাড়া প্যানেলের ডানদিকে অডিও, ব্যাটারি (ল্যাপটপ বলে), ঘড়ি এবং শাটডাউন বাটনও আছে। লাইভ সিস্টেমের ডেস্কটপে ইনস্টল করার একটা শর্টকাট দেয়া আছে।
http://2.bp.blogspot.com/--EYkyr9xxG0/UeRBORalNkI/AAAAAAAACGQ/knLvBoDR1_k/s1600/zorin-os-lite-7_01.jpg
ডিফল্টভাবে খুব বেশি প্রোগ্রাম এতে দেয়া নাই। উপরের চিত্রে প্রথম আইটেম Accessories এ ৮টি অ্যাপ্লিকেশন দেখা যাচ্ছে।

গুগল ক্রোমে বাংলা ঠিকমত দেখানোর জন্য লাইভে .fonts নামক একটা ফোল্ডারে পছন্দের বাংলা ফন্টগুলো রেখে দিলেই হয়। নিচের শটটা নেয়ার সময়ে ক্রোমে বাংলা দেখানোর জন্য আদর্শলিপি, সোলাইমানলিপি ইত্যাদি ফন্ট সিলেক্ট করে দিয়েছিলাম। এছাড়া ফাইল ব্রাউজারটার ডিফল্ট আইকন থীমটাও বেশ চমৎকার -- ডেস্কটপ, বর্ডার, আইকন সবকিছুতেই নীলের ছড়াছড়ি।
http://3.bp.blogspot.com/-a53OxC94OWo/UeRBO_rMfmI/AAAAAAAACGY/qSwo14Gx7qo/s1600/zorin-os-lite-7_02.jpg

এরপরে স্টার্ট মেনুতে কী কী প্রোগ্রাম ডিফল্টভাবে দেয়া আছে তা দেখি। গ্রাফিক্সে গিম্পের মত ভারী কিছু নাই। সিম্পল স্ক্যান হল স্ক্যানারের ইন্টারফেস।
http://3.bp.blogspot.com/-wz0yeAC6DjE/UeRBKqUM1UI/AAAAAAAACGI/VpufbP1DX4o/s1600/zorin-os-lite-7_03.gif

ইন্টারনেটের স্ক্রিনশটটা বাদ পড়ে গেছে। তবে সেখানে গুগল ক্রোম, পিজিন (মেসেঞ্জার/চ্যাট) ছাড়াও আরেকটা ব্রাউজার ইনস্টলার নামক স্পেশাল জোরিন অ্যাপ দেয়া আছে। এই স্পেশাল অ্যাপটার স্ক্রিনশট পরবরতীতে দেয়া হয়েছে।

অফিস প্রোগ্রাম হিসেবে হালকা কিছু দেয়া আছে। এতে শুধু টেক্সট ডকুমেন্ট খোলার ব্যবস্থা রাখলেও ডিফল্টভাবে স্প্রেডশীট প্রোগ্রাম দেয়া নাই।
http://2.bp.blogspot.com/-dZRX9elDKHE/UeRBPJJViRI/AAAAAAAACGc/sMAQEjbn7zY/s1600/zorin-os-lite-7_04.gif

সাউন্ড আর ভিডিও প্লেয়ারগুলো সাধারণ চাহিদা পূরণ করার জন্য যথেষ্ট। এগুলো মিডিয়া ফাইল প্লে করতে পারবে।
http://2.bp.blogspot.com/-GT3R1EmIhF8/UeRBP3IMQVI/AAAAAAAACGo/1gf14Lfy82s/s1600/zorin-os-lite-7_05.gif

সিস্টেম টুলগুলো সবই পরিচিত। তবে এখানে শেষের দুইটা জোরিনের নিজস্ব কিছু টুইক। যার স্ক্রিনশট পরবর্তীতে দেয়া হয়েছে।
http://3.bp.blogspot.com/-mhoK8V3cL8g/UeRBQsMmM6I/AAAAAAAACGw/4txXCPd_bNU/s1600/zorin-os-lite-7_06.gif

প্রেফারেন্সে সবই পরিচিত হলেও, এখানে ব্যবহারবান্ধবতার জন্য বেশ কিছু অতিরিক্ত অ্যাপস বাই ডিফল্ট দেয়া আছে বলে মনে হল। এখানকার কাস্টমাইজ লুক এন্ড ফিল-এর স্ক্রিনশট সবশেষে আছে। এছাড়া ওপেনবক্স কনফিগারেশন ম্যানেজার থেকেও লুক এন্ড ফিল পরিবর্তন করা যায়।
http://1.bp.blogspot.com/-yQ6PST8z7_8/UeRBRI3SJNI/AAAAAAAACG0/7Y1EWD8TljU/s1600/zorin-os-lite-7_07.gif

ফাঁকা ডেস্কটপে ডান ক্লিকে যেই মেনু আসে সেটাতে খুব বেশি কিছু আইটেম না থাকলেও কোন ফোল্ডার সিলেক্ট করে ডান মাউস ক্লিকে বেশ কিছু চমৎকার অপশন আসে, যার শট নিচে দেয়া হল।
http://3.bp.blogspot.com/-_U9NHgDO2E0/UeRBR7Sw1FI/AAAAAAAACHA/LjVqYN4jUC8/s1600/zorin-os-lite-7_08.gif

এছাড়া ইমেজ ফাইলের উপর ডান ক্লিকে মেনুটার আইটেমগুলো পরিবর্তন হয়ে যায়। এভাবে অন্য ধরণের ফাইলের জন্যও উপযুক্ত অপশনগুলো আসে।
http://1.bp.blogspot.com/-0Nn3YXaDSbA/UeRBRyTl7qI/AAAAAAAACHE/T3a1yoaDEZI/s1600/zorin-os-lite-7_09.gif

নিশ্চয়ই ভাবছেন যে স্ক্রিনশট নেয়ার জন্য কোন সফটওয়্যার ব্যবহার করেছি! ঠিকই দেখেছেন, কোনো মেনুতেই স্ক্রিনশট নেয়ার কিছু নাই। তাই ভাবলাম এর জন্য কোনোকিছু লাইভ অবস্থায়ই ইনস্টল করে নেয়া যায় কি না। তখন সিনাপ্টিক মেনুতে স্ক্রিন দিয়ে সার্চ দিয়ে দেখি একটা ইনস্টলড প্রোগ্রাম আছে, যা কিনা কমান্ড লাইনে স্ক্রিনশট নেয়। তাড়াতাড়ি গুগলের শরনাপন্ন হলাম। নেট থেকে এটার কমান্ডগুলো সার্চ করে বের করে ফেললাম। তাই স্ক্রিনশট নিতে আলাদা কোনো সফটওয়্যার লাগেনি। লাইভ সিস্টেম থেকেই নিতে পেরেছি।
http://3.bp.blogspot.com/-1_wab8AbfEY/UeRBTXj5lMI/AAAAAAAACHQ/IlYIduapo6I/s1600/zorin-os-lite-7_10.gif

নিচের স্ক্রিনশটটা খেয়াল করুন। কমান্ড লাইন scrot দিয়ে সহজে স্ক্রিনশট নেয়ার জন্য ডেস্কটপে দুইটা লাঞ্চার বানিয়ে নিয়েছি। একটাতে ৫ সেকেন্ড ডিলে আরেকটাতে এরিয়া ক্যাপচারের সিনটেক্স দেয়া। জোরিনে সাধারণ মিডিয়া দেখানোর কোডেকগুলো দেয়া আছে। নিচের স্ক্রিনশটে ছবি এবং ভিডিও চলছে দেখা যাচ্ছে।
http://3.bp.blogspot.com/-PYzSOil5B7E/UeRBWA9cKMI/AAAAAAAACHY/9cfheM-Elg4/s1600/zorin-os-lite-7_11.jpg

এরপর জোরিনের স্পেশাল যে তিনটি অ্যাপ মেনুতে দেখেছিলাম সেগুলোর সাথে একটু পরিচিত হই। নিচে ওয়েব ব্রাউজার ম্যানেজার দেখা যাচ্ছে যা ইন্টারনেট মেনুতে ছিল। এতে ইনস্টল থাকা ক্রোম আনইনস্টল এবং অন্য তিনটি ব্রাউজার ইনস্টলের অপশন আছে। সরাসরি ক্লিক করে করা যাবে -- যা নতুনদের জন্য যথেষ্ট ব্যবহার বান্ধব বলেই মনে হয়। এছাড়া আরো কিছু এক্সট্রা সফটওয়্যারে বেশ কিছু চমৎকার অ্যাপ ইনস্টলের সরাসরি বাটন দেয়া আছে। ওয়াইন হল লিনাক্সে উইন্ডোজ প্রোগ্রাম রান করার একটা উপায়।
http://3.bp.blogspot.com/-IkRaOkNrxiM/UeRBYMdjRlI/AAAAAAAACHg/_i8LfIYloiw/s1600/zorin-os-lite-7_12.jpg
জোরিনের মূল উদ্দেশ্যই ছিল উইন্ডোজ লুক এলাইক করে উবুন্টু বানানো। অবশ্য একই উদ্দেশ্যে উবুন্টুর আরো ফর্ক আছে। এরা দেখি লুক চেঞ্জার নামে একটা অ্যাপ দিয়ে রেখেছে। যাতে উইন্ডোজ ২০০০ আর ম্যাক ওএস এক্স লুক দেয়া যাবে বলে দেখাচ্ছে। অর্থাৎ ডিফল্ট লুকটা উইন্ডোজ ২০০০ এর মত!

এবার একটু মাতব্বরী করার পালা। প্যানেলে ডান ক্লিক করলে যে মেনু আসে সেখান থেকে এতে আরো কিছু আইটেম যোগ করা যায়। আমি কিবোর্ড লাঞ্চার লাগালাম। তারপর সেটা আবার কাস্টমাইজ করে (২/৩ ক্লিক করে লাগে) সেটাতে বাংলা (প্রভাত) কীবোর্ড যোগ করে নিলাম। এরপর সব জায়গাতেই চমৎকার বাংলা লিখতে পারলাম। মাউস ক্লিক ছাড়াও কীবোর্ড থেকে shift+caps lock দিয়ে লেআউট পরিবর্তন করা যায়। আর এই স্ক্রিনশটের সময়ে ব্যাকগ্রাউন্ড ইমেজ পাল্টে রং দিয়ে দিয়েছি।
http://3.bp.blogspot.com/-rMo6OibyMpk/UeRBae3b5KI/AAAAAAAACHo/teFGICT6Xd0/s1600/zorin-os-lite-7_13.jpg

লুক চেঞ্জারটা পরীক্ষা করে দেখতে ইচ্ছা হলে ম্যাকে চাপ দিলাম। এতে লগ-আউট হয়ে লগইন করতে বললো। জেনে রাখা ভাল, লগইনএর সময়ে ইউজার নেম = live আর পাসওয়র্ড = ফাঁকা রাখতে হবে।
http://2.bp.blogspot.com/-KheM6m3zfjo/UeRBbuii_wI/AAAAAAAACHw/UQex62EUPxA/s1600/zorin-os-lite-7_14.gif

লগআউট করার স্ক্রিনটা সাধারণ LXDE এর মতই। তবে এটাতে উপরে লুবুন্টু সেশন লেখা দেখে বেশ মজাই লাগলো।
http://2.bp.blogspot.com/-p4Eqay_DneE/UeRBcjz_P0I/AAAAAAAACH4/z8UrBRncQvA/s1600/zorin-os-lite-7_15.png

এবার দেখুন ম্যাক-লুক। প্যানেল উপরে আর নিচে একটা ডক। ডকের রহস্য ভেদ করতে এতে ডান ক্লিক করে প্রেফারেন্সে ঢুকে বেশ কিছু কাস্টমাইজেশনের অপশন আছে দেখা গেল। আমি ডিফল্ট ডকটাকে এখানেই সামান্য একটু পরিবর্তন করেছি।
http://3.bp.blogspot.com/-gSId-DOP5Fk/UeRBfMV2J2I/AAAAAAAACIA/FrhD4fSvoqI/s1600/zorin-os-lite-7_16.png

লুক এন্ড ফিল পরিবর্তনের জন্য বেশ কিছু অপশন দেয়া আছে। ডিফল্ট জোরিন থিম, আইকন, রং, মাউস পয়েন্টার সহ বিভিন্ন জিনিষ পাল্টে বেশ অনেকগুলো অপশন ব্যবহার করা যায়, যা নিচের স্ক্রিনশটে দেখতে পাবেন।
http://4.bp.blogspot.com/-SYjCeiXh-N8/UeRBiQeJStI/AAAAAAAACII/4gx7HCY-Igk/s1600/zorin-os-lite-7_17.png

সব মিলিয়ে জোরিন ওএস ৭ লাইট বেশ ভালই লাগলো। আমি ইতিমধ্যেই অফিসের ডেস্কটপের একটা পার্টিশনে এটা ইনস্টল করেছি। তারপর প্রক্সি, নেট, নেটওয়র্ক প্রিন্টার সেটিং করে এটাতে লিব্রে অফিস সহ আরো কিছু সফটওয়্যার ইনস্টল করে নিয়েছি। এটাতে সমস্যা হল, প্রয়‌োজনীয় সফটওয়্যারগুলো পেতে ভাল ইন্টারনেট কানেকশন লাগবে। তাছাড়া প্রক্সি সেট করাটা খুব একটা সহজ না (এটা lxde এর বৈশিষ্ট) - অব্শ্য খুব একটা কঠিন কিছুও না। পুরাতন, কম রিসোর্স সম্পন্ন মেশিনের জন্য আধুনিক কিন্তু কম চাহিদাসম্পন্ন একটা সম্পুর্ন অপারেটিং সিস্টেম চাইলে জোরিন লাইট একটা ভাল চয়েস হতে পারে।

লিংকসমূহ:
জোরিন হোমপেজ: http://zorin-os.com/index.html
ডিস্ট্রোওয়াচে জোরিন: http://distrowatch.com/?newsid=07948
ডাউনলোড Zorin OS 7 Lite (৭৮৬ মেগাবাইট): http://zorin-os.com/lite.html
টরেন্ট: ডাউনলোড টরেন্ট

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

হে হে আসাদ ভাইয়ের ছবি দেখে নিলাম।  cool অনেক ধন্যবাদ শামীম ভাই।  thumbs_up

এবার ধীরে সুস্থে টপিক পড়ে মন্তব্য করব। neutral

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

আরণ্যক লিখেছেন:

হে হে আসাদ ভাইয়ের ছবি দেখে নিলাম।  cool অনেক ধন্যবাদ শামীম ভাই।  thumbs_up

এবার ধীরে সুস্থে টপিক পড়ে মন্তব্য করব। neutral

আসাদ ভাইয়ের ছবি দেখতে তার নিজের আত্মকথন টপিকে গেলেই হয়।  smile

টপিক পাঠের পরের মন্তব্যের অপেক্ষায়।  waiting

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

ভালো রিভিউ দিয়েছেন। আমার একটা বছর দশেকের পুরোনো সিস্টেম স্টোর রুমে বসে পঁচছে। সেটাতে জরিনা বিবিকে সেট করবো নাকি চিন্তা করছি।  thinking

কিছু বাধা অ-পেরোনোই থাক
তৃষ্ণা হয়ে থাক কান্না-গভীর ঘুমে মাখা।

উদাসীন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

ভাল লাগলো রিভিউ ।

আচ্ছা লিনাক্সে কি বিভিন্ন সফটওয়ার এর সেটাপ ফাইল ব্যাকআপ রাখা যায় না ?
যাতে নেট ছাড়াই প্রোগ্রাম ইনস্টল করা যায় ।

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

সেলিম রাজ লিখেছেন:

আচ্ছা লিনাক্সে কি বিভিন্ন সফটওয়ার এর সেটাপ ফাইল ব্যাকআপ রাখা যায় না ?
যাতে নেট ছাড়াই প্রোগ্রাম ইনস্টল করা যায় ।

হ্যা অবশ্যই যায় আপনি /var/cache/apt/archives  এর ভিতরের আপনার সব ডাউনলোডকৃত সফট্ওয়্যার .deb আকারে পাবেন ওই  ফাইলগুলা কপি করে  রাখলেই হয় । তবে আরো বেস কয়েকটা উপায় আছে ।

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

সেলিম রাজ লিখেছেন:

ভাল লাগলো রিভিউ ।

আচ্ছা লিনাক্সে কি বিভিন্ন সফটওয়ার এর সেটাপ ফাইল ব্যাকআপ রাখা যায় না ?
যাতে নেট ছাড়াই প্রোগ্রাম ইনস্টল করা যায় ।

ব্যাকআপ রাখা যায়। তবে এটাকে কখনই উৎসাহিত করি না। কারণ তখন একটা প্রবণতা সৃষ্টি হবে এর-ওর কাছ থেকে কিংবা সিডি কিনে প্রোগ্রাম নিয়ে আসার ---- এটা সিকিউরিটির জন্য একটা হুমকি, কারণ আপনি যার কাছ থেকে আনছেন তাঁর সোর্স বা উনি কি এটার মধ্যে ক্ষতিকারক বা গোয়েন্দা কোড ঢুকিয়ে দেয়নি - এর গ্যারান্টি নাই। তাই সর্বদা সরাসরি রিপোজিটরি থেকে ডাউনলোড করি বা করাটা উৎসাহিত করা হয়। রিপোজিটরি প্রতিনিয়ত আপডেট হয়, তাই আগের সংরক্ষিত প্রোগ্রামটা হয়তো ইনভ্যালিড হয়ে যেতে পারে।

তবে নেট বিচ্ছিন্ন কেউ যদি প্রতিবার নিজের ব্যবহারের জন্য রাখতে চায়, তাহলে ব্যাকআপ নিয়ে রাখতে পারে -- সেক্ষেত্রে আপডেটেড ইনডেক্স ফাইলকে ওভাররাইড করিয়ে (ফোর্স ভার্সন) পুরাতন ভার্সন ইনস্টল করাতে হবে (যা করা দুই তিন ক্লিকের ব্যাপার বলেই জানি)।

একবার একটা প্রোগ্রাম সেটআপ করলে সেটার ইনস্টলারগুলো ডাউনলোড হয়ে /var/cache/apt/archives নামক ফোল্ডারে থাকে। আমি অফিস আর বাসায় যখন একই ওএস ব্যবহার করতাম তখন বাসায় আপডেট করে সেই ফাইলগুলো পেনড্রাইভে করে অফিসে নিয়ে অফিসের পিসি আপডেট করে ফেলতাম (তখন অফিসে ডাউনলোড ব্লক করা ছিল)। এক পিসি থেকে অন্য পিসিতে একই ফোল্ডারে ফাইলগুলো কপি করে আপডেট চালালে নতুন করে ডাউনলোড ছাড়াই ইনস্টল হয়ে যাবে। ভাল হয় যদি /var/cache/apt ফোল্ডারটা পুরা কপি করে অন্য পিসিরটা রিপ্লেস করেন। সিস্টেমে কারিগরী করার এই কাজ করতে এডমিনিস্ট্রেটিভ/রুট পাসওয়র্ড লাগবে।

ফাইল ব্রাউজারটা এডমিন হিসেবে খুললে এই পেস্ট করার কাজ করা যাবে (কপি করতে রুট এ্যাকসেস লাগে না)। যেমন LXDE ডেস্কটপে ফাইল ব্রাউজারের নাম pcmanfm। তাই টার্মিনালে লিখতে হবে sudo pcmanfm। মিন্টে ফাইল ব্রাউজারের নাম nemo তাই লিখতে হয় sudo nemo। আগে ছিল nautilus, তাই লিখতে হত sudo nautilus ইত্যাদি। সাবধান, সিস্টেমের উপর মাতব্বরী করা ভাল না। smile

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

টরেন্ট লিংক থাকলে ভাল হত।

আলহামদুলিল্লাহ!

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

আমি ভার্চুয়াল বক্সে Debian 7 LXDE চালাচ্ছি। উবুন্টুর নোম এনভায়রনমেন্ট-এ যেমন sudo দিয়ে রুট এ্যাক্সেস পেতে হত, এখানে কেবল su লিখে কাজ করতে হয়। Debian বেটা sudo চেনে না।

কত কি শিখতে ইচ্ছা করে। এখনও শেখা হলো না কিছুই।

লেখাটি CC by-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১০

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

আরিফ হাসান লিখেছেন:

টরেন্ট লিংক থাকলে ভাল হত।

টরেন্ট খুঁজে য‌োগ করে দিলাম। এটা করতে গুগলে একবার সার্চ দেয়া ছাড়া আর কিছু করতে হয় না।

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১১

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

হাসান_সাঈদ লিখেছেন:

অনেক আগে একবার চালাইসিলাম। তখন  ভালো লাগে নি । আপনার রিভিউ টা পরে আবার চালানোর সখ জাগলো।

আমার বাসার ডেস্কটপে লিনাক্স মিন্ট অলিভিয়া ডাউনলোড করে তার উপর LXDE দিয়ে আরামে চালাচ্ছি। এই উবুন্টু ফর্কটা মূলত নামিয়েছিলাম, সরাসরি LXDE + উবুন্টুর সব সুবিধা থাকবে বলে। আমরা অন্য কাহিনী'র সমস্যা সমাধানটা মূল লক্ষ্য ছিল। ঐ মেশিনটাতে কোনো কারণে লিনাক্স মিন্ট হয়নি বা টেস্ট করিনি -- কিছু একটা সমস্যা ছিল, এখন মনে নাই; কিন্তু জোরিন দিয়ে সহজেই বুট করা গেছে, ইনস্টল হয়েছে ... ...।

১২

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

অনেক সুন্দর করে রিভিউ দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ । মিডিয়াফায়ারের লিঙ্গ দেন

আসো প্রযুক্তি সাথে প্রেম করি !!!
brpass.org

১৩

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

cslraju লিখেছেন:

Debian বেটা sudo চেনে না।

সুডো ইনস্টল/কনফিগার করে নিন।

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৪

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

অনেক অনেক আগে জোরিন ব্যবহার করেছিলাম , যদিও এখন ওপেনসোর্স এর ভুত মাথা থেকে নামিয়ে ফেলেছি । যে কাজ করি তাতে এসব চলে না  sad

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

১৫

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

সাইফুল_বিডি লিখেছেন:

অনেক অনেক আগে জোরিন ব্যবহার করেছিলাম , যদিও এখন ওপেনসোর্স এর ভুত মাথা থেকে নামিয়ে ফেলেছি । যে কাজ করি তাতে এসব চলে না  sad

কি এমন কাজ করেন যে আপনার ওপেনসোর্সের ভূত নামিয়ে ফেলেছেন?  smile

১৬

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

আশিফ শাহো লিখেছেন:

কি এমন কাজ করেন যে আপনার ওপেনসোর্সের ভূত নামিয়ে ফেলেছেন?


.net  perhaps ?  confused

১৭

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

দেখতে বেশ ভালোই লাগছে। অবশ্য দিনে দিনে দুর্বল হার্ডওয়্যারের পিসি কমছে। এক সময় ফ্রেন্ডের পিসিতে মিন্ট LXDE চালাতে হত।  big_smile যত ডিস্ট্রোই দেখি, এই  buggy  উবুন্টুর মায়া ছাড়তে পারিনা।  smile

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

১৮

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

আশিফ শাহো লিখেছেন:
সাইফুল_বিডি লিখেছেন:

অনেক অনেক আগে জোরিন ব্যবহার করেছিলাম , যদিও এখন ওপেনসোর্স এর ভুত মাথা থেকে নামিয়ে ফেলেছি । যে কাজ করি তাতে এসব চলে না  sad

কি এমন কাজ করেন যে আপনার ওপেনসোর্সের ভূত নামিয়ে ফেলেছেন?  smile

তেমন কিছুই না , তবে যে কাজ করি শেখানে এইসব হচ্ছে বাহুল্য , আর এইসব চালালে ২-৩ দিনের বেশী টেকা যাবে না । যদিও সামনে ওপেনসোর্স এ ফেরত আশার ইচ্ছে আছে , কিন্তু ভূত আগের মত নেই।

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

১৯

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

আমিও জোরিন ট্রাই করেছিলাম প্রায় বছরখানেক আগে। সেরকম ভালো লাগে নি। LXDE বেসজড Lubuntu বরং ভালো লেগেছে।

রিভিউয়ের জন্য ধন্যবাদ।

Put the fun back into programing, Code in Lazarus to create cross platform, easily deployable software. Visit:
A planet of Lazarus users

২০

Re: জোরিন ওএস ৭ লাইট রিভিউ

আদনান শামীম লিখেছেন:

আমিও জোরিন ট্রাই করেছিলাম প্রায় বছরখানেক আগে। সেরকম ভালো লাগে নি। LXDE বেসজড Lubuntu বরং ভালো লেগেছে।

আলে ভাই, ডিফল্ট ভাবে কোডেক দেয়া থাকলে লুবুন্টুই লিতাম।

অবশ্য লিব্রে অফিস যখন ডাউনলোড করতেই হল, লুবুন্টু নিলেও হত। যেটার রিভিউ দিয়েছি, সেটা কিন্তু আসলে লুবুন্টু'র ফর্ক -- অরিজিনাল জোরিনটা তো গ্নোম ডিইতে + সমস্ত ভারী প্রোগ্রামসহই চলে।

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত