টপিকঃ ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?


৭১ এ ভারতের ভূমিকার জন্য আমরা বাঙ্গালিরা কৃতঙ্গ।তারা আমাদের ১ কোটি শরণার্থীদের আশ্রয় দিয়েছে, শেষ পর্যায়ে আমাদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলে যুদ্ধও করেছে। এ জন্য আমারা তাদের কাছে চির কৃতঙ্গ। তারা স্বাধীনতার পর হতেই আমাদের অকৃত্রিম বন্ধু বলে আসছে, আমরাও মাঝে মাঝে তা স্বীকার করি।
  কিন্তু সে বন্ধুত্বের মাঝে ভালবাসা নেই। আমরা ভাল বাসলেও ভারত আমাদের ভালবাসে না। ভাল বাসলে কোন বন্ধু কি অন্য বন্ধুর ক্ষতি করতে পারে?

তাহলে আমাদের বা এত প্রেম কেন আমাদের ভারতের জন্য?
ওরা সুযোগ পেলেই আমাদের ক্ষতি করছে তা হলে আমরা কেন ওদের বন্ধু বলে পরিচয় দেব?
বন্ধু বলেই কি নিজের ............ বন্ধুর সঙ্গে ভাগ করবো?( ইচ্ছে মত কল্পনা করে নিয়েন)

তাহলে আমাদের এত ভারত প্রেম কেন ভাই বাংলাদেশিরা?
পাছামেরে বন্ধুত্বের সম্পর্কর রাখতে চাইলে আমার বলার কিছু নাই। আর তা না হলে আমার কিছু কথা আছে।

আজ আপনার ৪-১০ বছরের বাচ্চা কে হিন্দিতে প্রশ্ন করেন: আপ তুম...... (ধুর মনে আসছে না) তুমি কেমন আছ? ও সুন্দর হিন্দিতে উত্তর দিবে। এর কারণ হল আপনার বাসার ডিশ লাইন ও অতিমাত্রার হিন্দি চ্যানেল ও হিন্দি ডোরেমন কার্টুন প্রিয়তা। কি ভায়া রাতে একটু সংবাদ দেখবেন ওমা......... বউ, বাচ্চা, মা, ভাবি মিলে বিচ্ছিরি ১০০০ পর্বে পদার্পণ হিন্দি সিরিয়াল দেখতে ব্যস্ত।
ওমা মুসলিম নাম ধারী খানদের ছিনামা বের হলেই আর যাবেন কয়। পাইরেসি আর যে করেয় হক দুইদিন পরে ল্যাপটপে সে সিনেমা।
ও  ভাই বাংলাদেশি আমাদের কটা চ্যানেল ওদের দেশে দেখায়?
উত্তর: একটাও না।
কটা ছিনেমা ওরা ওদের দেশে মুক্তি দেয়?
উত্তর: একটাও না।
তাহলে প্রতি বছর ওদের চ্যানেল দেখার জন্য আমাদের ০০০০০০০০ কোটি( সঠিক পরিসংখ্যান আমি জানি না, তবে অনেক) টাকা পে করছি।
আবার ওদের ছিনামা আমাদের হল গুলিতে মুক্তি দিচ্ছ?  ওদের সাংকৃতিক আগ্রাসনে আজ আমরা জের বার।

বাহ বাহ কি সুন্দর বন্ধুত্বের নির্দেশন, কি বলেন বাংলাদেশি ভাইরা।


এবার আসি তাদের সীমান্ত হত্যা বিষয়ে। ভাইরা বন্ধুকে কি কেও হত্যা করে?
সে যতই *** হক।
উত্তর: না।
আমি বলছিনা আমাদের মাঝে ***িরভাই মানুষ নায়। তাই বলে এত মানুষ হত্যা। এই সকলেই কি খারাপ ?
সেই ফেলানির কথা ভুলে যাননি নিশ্চয়? ভুলতেই পারেন আমরা সকলে উঠে ভারতের পানি ব্রাশ ও পেস্ট দিয়ে পরিষ্কার হয়, আবার শুতে যায় ভারতের এসি ছেড়ে। তো আমরা ভুলব নাতো কারা ভুলবে।   
তাহলে আমাদের ভাই আমাদের বোনদের হত্যাকারীদের সঙ্গে এত পিরিত মারায় আমরা কেমনে, রে ভাই বাংলাদেশি?


এবার আসুন ফারাক্কার পানি, তিস্তার পানির হিস্যা। তারা কি ভাবে  আমাদের ঠকাচ্ছে আমাদের ন্যায্য পাওনা হতে। অকৃত্রিম বন্ধু ভারতের একি বন্ধু সুলভ আচরণ। তাদের এই আচরণে আমরা আজ ভারত প্রেমে গদো গদো।

আজ আমাদের যুবকের হাতে PHENSEDYL বা ফেন্সিডিল বা ডালের বোতল তুলে দেবার নেপথ্যে রয়েছে ভারত। প্রতি বছর ফেন্সিডিল  বাবদ আমরা ভারতকে দিচ্ছি ৮০০ কোটি টাকারও বেশি।
@@@@আর আমার প্রশ্ন ভারতে কি সত্যি কেও খায় এই PHENSEDYL । না তাদের ডাঃ রা এটির প্রিসকেপশন করে এটির?
না তারা আমাদের বাংলাদেশের তরুণদের টার্গেট করে এটির উৎপাদন করে?
ভারতে যদি কেও না খায় তাহলে তারা এটির উৎপাদন কেন করছে?
এটিই কি তাদের আমাদের প্রতি বন্ধুত্বের নিদর্শন?

PHENSEDYL বা ফেন্সিডিল সম্পর্কে আরও জানতে ক্লিক করুন । 
http://forum.projanmo.com/topic44530.html


এইতো সম্প্রতি সুন্দর বনের কলিজায় রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্র করতে কি না উৎসাহ তাদের। আর তাদের উৎসাহে আমাদের শেখ পুত্রীও প্রেমে নিমগ্ন। আহ কি নিদারুণ প্রেম। 

রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ক্ষতি সম্পর্কর জানতে ক্লিক করুন     http://forum.projanmo.com/topic43730.html

আর ভারতের ক্রিকেট কে যারা সমর্থন করে, এমন কিছু কুলাঙ্গার আছে যারা ভারত বাংলাদেশ খেলা হলেও ভারতের পক্ষে ছাপট মারে। এদের ক্রিকেটারদের বাংলাদেশ সম্পর্কে বলা কথা গুলি একটু মনে রাখেন প্লিজ। 

মন্তব্য: নিজের মারান দিয়ে বন্ধুত্ব, আহ ভালয় তো কি বলেন । লাইলি মজনু, সিরি ফরহাত, রোমিও জুলিয়েট ফেল আমাদের ভারত প্রেমের কাণ্ডে।   
৫.২০pm ১১-৭-১৩   
https://www.facebook.com/golammaula.aka … 4098612853
বিহারি দের উর্দু প্রেম -- আর ইহুদিদের হিব্রু প্রেম https://www.facebook.com/golammaula.aka … 8231958773

গোলাম মাওলা , ভাবুক, সাপাহার, নওগাঁ

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

ভাদা দের দিলে চোট দিলেন...। খেক খেক...

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

যুদ্ধপরাধীদের বিচার বাধাগ্রস্ত করতেই এই লিখা রটানো হচ্ছে!
(ইমো দিলাম না, কোনটা হবে বুঝে নেন)

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন দ্যা ডেডলক (১১-০৭-২০১৩ ২৩:১৯)

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

gmakas লিখেছেন:

আমাদের ০০০০০০০০ কোটি( সঠিক পরিসংখ্যান আমি জানি না, তবে অনেক) টাকা পে করছি।

শূণ্য কোটি টাকা দিলে আপনার সমস্যা কি ?

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন মাহমুদ রাব্বি (১২-০৭-২০১৩ ১৫:৪৩)

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

মূলত তাদের সহযোগিতা না পেলে বাংলাদেশ নামের দেশটাই হতো না। আমরা যতই বলি না কেন বাংলা মায়ের দামাল ছেলেদের কারনে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা কিন্তু সত্য কথা হচ্ছে ভারতের কারনে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা। ভারত সক্রিয়ভাবে যুদ্ধ করা ছাড়াও মুক্তিবাহিনী ভারতই তৈরি করে। অস্ত্রশস্ত্র সব ভারত থেকে আসতো, প্রশিক্ষন কেন্দ্র ছিলো ভারতে। প্রায় সব কিছুই ভারত করেছিলো। সুতরাং তাদের কারনেই মূলত পেয়েছি স্বাধীনতা। তাই আমি কাট্রা ভারতীয় দালাল মানে ভাদা। ভারত যদি দশটা লাখি মারে তা হলেও সমস্যা নাই। ভারত মাতার জয় হোক। জয় হিন্দ।

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

বাংলাদেশ এ এমন কি অনুষ্ঠান বানানো হয় যে সেটা মানুষ দেখবে? ইত্যাদিও এখন পচা হয়ে গেছে, শুভেচ্ছা সেই কবে বন্ধ হয়ে গেছে। একই মিনার কার্টুন বোধহয় এখনও দেখানো হয়। এখানকার রিয়েলিটি শো গুলো থেকে যে সকল গায়ক গায়িকারা বের হয়ে আসে তা ঐ শোর পরের সিজনের আগেই লাপাত্তা হয়ে যায়। এখানকার কোনো কৌতুক শোই ভালো হয় না। নাভিদ ভাই এর শো কতজন বুঝতে পারে? ওটাতেও মানুষদের জোর করে হাসানো হয়। এখানে গানের প্রোগ্রামে জাজ থাকে হুমায়ূন আহমেদ এর মত লেখকরা, এটাই প্রমান করে সেই প্রোগ্রামের কেমন দাম। এছাড়া, রান্না বান্নার প্রোগ্রাম হয়ই না বলতে গেলে, যেখানে আমরা অনেকটা খাদ্য প্রিয় মানুষ। খেলা ধুলা টেলিভিশন এ দেখানোই হয় না। কার্টুন তো আগে উল্লেখিত মিনা ছাড়া আর কিছুই নাই। টিভি সিরিয়াল আগে হতো, কোথাও কেউ নেই, অয়ময়, বহুব্রীহি। কিন্তু এখন হয় গুলশান এভিনিউ এর মত প্রোগ্রাম। যা দেখলে মনে হয় ভারতীয়দের টাই তবে ১০০ ভাগ খারাপ মান সম্পন্ন।
শেষ কবে ভালো সিনেমা হয়েছিল তা হয়তো আপনি নিজেও বলতে পারবেন না, হাসির জন্য অনন্ত এর ছবি মানুষ দেখে, কিন্তু মুভিটা বানানো হয় একশন ফ্লিম হিসাবে। তাহলে বুঝেন এখানে সিনেমার মান কোথায় পড়ে আছে। পপি, মৌসুমীদের সিনেমার কোনো এ্যাডভার্টাইজমেন্ট দেখলেও আমার টিভির চ্যানেল পরিবর্তন করে ফেলি। এভাবে তো আর মানুষ এর মন জয় করা সম্ভব না।
তাই আগে আমাদের উন্নত হতে হবে, তারপর অন্যদের উন্নত জিনিষ থেকে বিরত থাকতে বলতে পারি। কোকো কোলা বাংলাদেশি না বলে তো আমরা আর শার্ক খাওয়ার উপদেশ দিতে পারি না, তাই না?

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

বাংলাদেশে তিন প্রকারের মানুষ অাছে, ভারতপ্রেমী, পাকিস্তানপ্রেমী ও বাংলাদেশপ্রেমী।

Life IS Neither TEMPEST, NOR A midsummer NIGHT'S DREAM, BUT A COMEDY OF Errors,
ENJOY AS U LIKE IT

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

অরিহন্ত লিখেছেন:

বাংলাদেশে তিন প্রকারের মানুষ অাছে, ভারতপ্রেমী, পাকিস্তানপ্রেমী ও বাংলাদেশপ্রেমী।


মাত্র ৩ প্রকার? সৌদী প্রেমী, আমেরিকা প্রেমী, চীন প্রেমী, রাশিয়া প্রেমী !! তবে এটা সত্য যে  ভারতপ্রেমী, পাকিস্তানপ্রেমী দের সংখ্যা অনেক অনেক বেশী

"We want Justice for Adnan Tasin"

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সীমান্ত ঈগল (মেহেদী) (১২-০৭-২০১৩ ১৪:৪০)

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

মাহমুদ রাব্বি লিখেছেন:

ভারত যদি দশটা লাখি মারে তা হলেও সমস্যা নাই। ভারত মাতার জয় হোক। জয় হিন্দ।

আপ্নার কথায় বাংলাদেশ যে স্বাধীন রাষ্ট্র, সার্বভৌমত্বের অধিকারী সেটা ফুটে উঠে না। আপনি পরোক্ষভাবে বাংলাদেশকে ভারতের গোলাম-ই মনে করছেন; যে গোলামের নিজস্ব স্বাধীনতা, স্বকীয়তা, জুলুমের প্রতিবাদ, নির্বিচারে সীমান্তে বাংগালী হত্যার প্রতিবাদ করার শক্তি নেই। এরকম দশটা লাথি ভারত আমাদের মারলেও সমস্যা নেই। ভারতের নি:শর্ত দালালীর কাছে আমাদের বাংগালী ভাইদের নির্বিচার হত্যার কোন দাম-ই আপনাদের নিকট নেই।
আপনার ভাষায় পরাধীনতা ও ভাদা নগ্নভাবে ফুটে উঠেছে। আপ্নার ভারত চলে যাওয়াটাই অধিক শোভন হবে বলে মনে হচ্ছে।

১০

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

মাহমুদ রাব্বি লিখেছেন:

মূলত তাদের সহযোগিতা না পেলে বাংলাদেশ নামের দেশটাই হতো না। আমরা যতই বলি না কেন বাংলা মায়ের দামাল ছেলেদের কারনে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা কিন্তু সত্য কথা হচ্ছে ভারতের কারনে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা। ভারত সক্রিয়ভাবে যুদ্ধ করা ছাড়াও মুক্তিবাহিনী ভারতই তৈরি করে। অস্ত্রশস্ত্র সব ভারত থেকে আসতো, প্রশিক্ষন কেন্দ্র ছিলো ভারতে। প্রায় সব কিছুই ভারত করেছিলো। সুতরাং তাদের কারনেই মূলত পেয়েছি স্বাধীনতা। তাই আমি কাট্রা ভারতীয় দালাল মানে ভাদা। ভারত যদি দশটা লাখি মারে তা হলেও সমস্যা নাই। ভারত মাতার জয় হোক। জয় হিন্দ।

বাংলাদেশে থেকে লাথি খাওয়ার চেয়ে ভারতে গিয়ে লাথি খান,,,,,আরো ভালো লাগবে!!!

স্নিগ্ধ শুভ্রতায় আমি. . . . .

১১

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

মাহমুদ রাব্বি লিখেছেন:

ভারতের কারনে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা।

  এই কথার সাথে দ্বিমত পোষন করছি, আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি আমাদের প্রয়োজনেই,  তা অর্জন করেছি কারো দয়ার দানে আমরা স্বাধীনতা পাইনি, পাক বাহিনীর সীমাহিন অত্যাচারই বাধ্য করে আমাদেরকে স্বাধীন হতে, আর একদিনেই দেশ স্বাধীন হয়নি

"We want Justice for Adnan Tasin"

১২

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

gmakas লিখেছেন:

  কিন্তু সে বন্ধুত্বের মাঝে ভালবাসা নেই। আমরা ভাল বাসলেও ভারত আমাদের ভালবাসে না। ভাল বাসলে কোন বন্ধু কি অন্য বন্ধুর ক্ষতি করতে পারে?

আমরা বলতে কাদের বোঝাচ্ছেন ? বাংলাদেশি সকল জনগন ?
ভারত বলতে ? ভারত সরকার ? নাকি ভারতের সাধারণ জনগন ?
আগে নিজে বুঝুন তারপর তত্ত্ব খাড়া করুন !

জানি আছো হাত-ছোঁয়া নাগালে
তবুও কী দুর্লঙ্ঘ দূরে!

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

১৩ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন red_devil (১২-০৭-২০১৩ ১৮:১০)

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

আউল লিখেছেন:

এই কথার সাথে দ্বিমত পোষন করছি, আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি আমাদের প্রয়োজনেই,  তা অর্জন করেছি কারো দয়ার দানে আমরা স্বাধীনতা পাইনি, পাক বাহিনীর সীমাহিন অত্যাচারই বাধ্য করে আমাদেরকে স্বাধীন হতে, আর একদিনেই দেশ স্বাধীন হয়নি


কি কন ভাই আপনে????
আমাদের প্রয়োজনে আমারা স্বাধীনতা পেয়েছি ঠিক কিন্তু কারো সহযোগীতা ছাড়া আমাদের এইটা অর্জন করা অসম্ভব ছিল।
তখন পাকিদের সাথে চীন,আমেরিকা ছিল।ভারত সার্পোট দেয়ার পর ই রাশিয়া আমাদের সার্পোট দেয় ।

সেভারাস লিখেছেন:

বাংলাদেশ এ এমন কি অনুষ্ঠান বানানো হয় যে সেটা মানুষ দেখবে? ইত্যাদিও এখন পচা হয়ে গেছে, শুভেচ্ছা সেই কবে বন্ধ হয়ে গেছে। একই মিনার কার্টুন বোধহয় এখনও দেখানো হয়। এখানকার রিয়েলিটি শো গুলো থেকে যে সকল গায়ক গায়িকারা বের হয়ে আসে তা ঐ শোর পরের সিজনের আগেই লাপাত্তা হয়ে যায়। এখানকার কোনো কৌতুক শোই ভালো হয় না। নাভিদ ভাই এর শো কতজন বুঝতে পারে? ওটাতেও মানুষদের জোর করে হাসানো হয়। এখানে গানের প্রোগ্রামে জাজ থাকে হুমায়ূন আহমেদ এর মত লেখকরা, এটাই প্রমান করে সেই প্রোগ্রামের কেমন দাম। এছাড়া, রান্না বান্নার প্রোগ্রাম হয়ই না বলতে গেলে, যেখানে আমরা অনেকটা খাদ্য প্রিয় মানুষ। খেলা ধুলা টেলিভিশন এ দেখানোই হয় না। কার্টুন তো আগে উল্লেখিত মিনা ছাড়া আর কিছুই নাই। টিভি সিরিয়াল আগে হতো, কোথাও কেউ নেই, অয়ময়, বহুব্রীহি। কিন্তু এখন হয় গুলশান এভিনিউ এর মত প্রোগ্রাম। যা দেখলে মনে হয় ভারতীয়দের টাই তবে ১০০ ভাগ খারাপ মান সম্পন্ন।
শেষ কবে ভালো সিনেমা হয়েছিল তা হয়তো আপনি নিজেও বলতে পারবেন না, হাসির জন্য অনন্ত এর ছবি মানুষ দেখে, কিন্তু মুভিটা বানানো হয় একশন ফ্লিম হিসাবে। তাহলে বুঝেন এখানে সিনেমার মান কোথায় পড়ে আছে। পপি, মৌসুমীদের সিনেমার কোনো এ্যাডভার্টাইজমেন্ট দেখলেও আমার টিভির চ্যানেল পরিবর্তন করে ফেলি। এভাবে তো আর মানুষ এর মন জয় করা সম্ভব না।
তাই আগে আমাদের উন্নত হতে হবে, তারপর অন্যদের উন্নত জিনিষ থেকে বিরত থাকতে বলতে পারি। কোকো কোলা বাংলাদেশি না বলে তো আমরা আর শার্ক খাওয়ার উপদেশ দিতে পারি না, তাই না?

আপনার সাথে পুরোপুরি একমত।আমাদের চ্যানেলে এড,খবর আর টকশো ছাড়া তো অন্য কিছু দেখায় না বললেই চলে।
ভারতে থেকে ও তামিলরা কিন্তু তাদের সংস্কৃতিকে অনেক উন্নত করতে পারছে।তাদের সিনেমাগুলো খুবই পপুলার।
আমাদের কে ও আগে তাই করতে হবে।

ভাবতে ভীষন অবাক লাগে............নেই আমি আর আগের মত

১৪

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

আউল লিখেছেন:

তবে এটা সত্য যে  ভারতপ্রেমী, পাকিস্তানপ্রেমী দের সংখ্যা অনেক অনেক বেশী

এর যথার্থ কারণ আছে বৈকি। বাংলাদেশের ভুখন্ড একসময় পুর্ব পাকিস্থান ছিল। তার আগে ছিল ভারত। তার আগে পুর্ব বঙ্গ।

যখন আমরা ভারতবর্ষের অংশ ছিলাম। তখন পুরোদেশটাই আমাদের ছিল। পাকিস্থানি, বাংলাদেশি নামে কোন টার্মই ছিল না।  ফরিদপুরে বসে করাচীর আত্নীয়র সাথে চিঠিতে যোগাযোগ হত। দেশ কিন্তু একটাই। চাইলেই যেকোন যায়গায় চলে যেতে পারতাম। এরকম অবস্থায় ব্রিটিশরা শাসন করেছে ২০০ বছর। বাংলাকে ভেঙে। এরপর বৃটিশ যখন চলে গেলে জিন্নাহ রাজনীতি করে গান্ধীকে বুঝিয়ে পাকিস্থানকরে ফেলল। আমরা আবার সঙ্গীহারা হলাম। এরপর আমরা বাংলাদেশের জন্ম দিলাম। আবার আলাদা হলাম।  আমার দাদা জীবনের বেশিরভাগ সময় ভারতের নাগরিকই ছিল। ৪৭ এর আগে এই ঢাকা, টাঙাইল, ফরিদপুর, বরিশালে যারা বাস করত তারা সবাই ভারতিই ছিল। ৪৭ এর পর হল পাকিস্থানি। ৭১ এর পর এখন বাংলাদেশি। ৪৭, ৭১ এ আমরা কম আত্নীয় হারাইনি।  এই ফিল থেকে কেউ যদি ভারতে ভালবাসে বা পাকিস্থানকে ভালবাসে তাহলে ঠিকই আছে। কিন্তু বাংলাদেশের চাইতে বেশি ভালবাসলে বা প্রায়োরিটি কম দিলে বুঝতে হবে দেশ ভাগের সময় সে ভুল যায়গায় চলে গেছে।

আমি প্রায়ই ভাবি, পশ্চিম বঙ্গ আর বাংলাদেশ যদি এক হতে পারত আবার। পুরনো নাটক সিনেমায় সবসময় দেখি ঢাকা, কলকাতা,  ফরিদপুরের নাম সমান ভাবে উচ্চারিত হচ্ছে। চাকরীর জন্য ঢাকার ছেলে কলকাতায় চলে যাচ্ছে। কলকাতার সাহেব শিকার করতে গাজীপুর চলে আসছে। আমরা এক ছিলাম। রাজনীতির কারণে আমরা আলাদা হয়েছি। আমরা আসলে আলাদা হতে চাই নি। আমরা আলাদা হব কি হব না তাই তো বুঝতাম না। এখনও বুঝি না। রাজনীতিবিদরাই এগুলো করে।

Feed থেকে ফোরাম সিগনেচার, imgsign.com
ব্লগ: shiplu.mokadd.im
মুখে তুলে কেউ খাইয়ে দেবে না। নিজের হাতেই সেটা করতে হবে।

শিপলু'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

১৫ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ফায়ারফক্স (১২-০৭-২০১৩ ১৯:২২)

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

এই ভাঙ্গনের পিছনের বড় প্রভাবক বা নিয়ামক হল ধর্ম ......... বুঝি না বুঝি এটা দিয়ে নাড়া দিলেই সোজা হয়ে বসি, ভাবি বক্তা আমাদের উপকার করছেন, আমাদের পূন্ন্য হচ্ছে
কারণ ছাড়াই ফেসবুকে ফটোশপ ছবিতে হাজার হাজার লাইক দেখলেই বোঝাযায়
তবে ভবিষ্যতে জাতী আরও হবে যেমন
এন্ড্রয়েড জাতী, আইওএস জাতী, এপল(আই) জাতী ডেভলপার জাতী
আজ আমার কথায় হাসতে পারেন কিন্তু এই বর্ডার এর বেরিয়ার বেশীদিন থাকবে না বিশ্বে ( আমাদের দেশের গ্যারান্টি দিতে পারি না  mad) ইইউ এর মত সারা পৃথিবীর সীমানা বিলুপ্ত হবে, কাগজের কারেন্সি বিলুপ্ত হবে
থাকবে শুধু ধর্ম নিয়ে দ্বন্দ্ব আর টেকনোলজি

১৬

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

৭১ এর পরে পাকিপ্রীতি বড়ই নিন্দনীয় , ভারত প্রীতি নয়। আমি ভারতীয় সংস্কৃতি ঠিক পছন্দ করি না , কিন্তু বাংলাদেশ হওয়ার পেছনে তাদের অবদান স্বীকার করি। যাই হোক হিসাবে ভারত কেই সাপোর্ট দেব , কেউ আওয়ামী বলুক আর নাই বলুক।
আমি কয়েক বছর ধরে দেখছি শিক্ষিতরা আওয়ামীকেই বেশী সাপোর্ট দিচ্ছে। আর অন্যরা বি এন পি ও পাকিস্তান কে।

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

১৭ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন বাংলারমাটি (১২-০৭-২০১৩ ২১:০১)

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

মাহমুদ রাব্বী লিখেছেন:

ভারত সক্রিয়ভাবে যুদ্ধ করা ছাড়াও মুক্তিবাহিনী ভারতই তৈরি করে।

ব্রাদার, মুক্তিযুদ্ধের নতুন ইতিহাস শিখলাম। কিন্তু, আপনার মত ধার্মিক ব্যাক্তি যখন বলছেন, মিথ্যা হইতেই পারে না। খালি মাথার মধ্যে একটা প্রশ্ন ঘুরতেসে। যুদ্ধের প্রথম প্রহরে যে মুক্তিবাহিনী প্রতিরোধ গড়ে তুলছিল, তাদের কি মুক্তিবাহিনী বলা যাবে? তারা তো ভারত থেকে প্রশিক্ষণ নেয় নাই। ভারতের অস্ত্র দিয়েও যুদ্ধ করে নাই।

আর একটা কথা বলতে চাই- পাকি প্রেমীরা দুড়ে গিয়া মর। আর ভরতের অন্ধ আনুগত্য কারিরা একটা প্রশ্নের জবাব দিয়ে যান-
স্বাধীনতার পরে গত ৪২ বছরে বাংলাদেশের প্রতি ভারতের ১টা জ্বি ভাই, মাত্র ১টা পজেটিভ স্টেপ দেখাবেন যেখানে ভারতের স্বার্থ ছিল না। আচ্ছা, স্বার্থের বিষয়টা তুলে ব্যাপারটা কঠিন করছি না। জাস্ট একটা পজেটিভ স্টেপ দেখান, মাত্র একটা।

ওহ, একটা তো আছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের টেস্ট স্টাটাস প্রাপ্তিতে। তারপর ...........

হুজুর কইছে, "কোরআন শরীফে আছে- তোমরা নামাজ থেকে বিরত থাক।" আমি তাই নামাজ পড়ি না। হুজুর যদি ইচ্ছা করে "অপবিত্র অবস্থায়" শব্দ দুটো বাদ দেয়, তার জন্য তো আমি দায়ী না।

১৮

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

@ বাংলার মাটি, এখানে একটা প্রেস রিলিজ আছে একেবারে টাটকা, ১ জুলাই ২০১৩ তারিখের। ইন্ডিয়া, চায়না, রাশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম এবং ব্রুনাই এর সাথে বাংলাদেশের রিলেশনশিপ নিয়ে এর চেয়ে অথেনটিক কোন জিনিস পেলাম না। ডকুমেন্টে দেখেন তো, "ভারতের জাষ্ট ১টা পজিটিভ ষ্টেপ" পান কিনা?

তবে আমি নিশ্চিত যে, আপনি পাবেন না। কারণ নিবন্ধ কোট করে বেশ কয়েকজন মিলে দেখানোর পরও আপনি অতীতে জিএসপি সুবিধা বাতিলের অনুরোধের অংশটুকু চোখে দেখেন নি।

You'll never reach your destination if you stop and throw stones at every dog that barks.

১৯ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন বাংলারমাটি (১২-০৭-২০১৩ ২২:২৬)

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

রিপন মজুমদার লিখেছেন:

বে আমি নিশ্চিত যে, আপনি পাবেন না। কারণ নিবন্ধ কোট করে বেশ কয়েকজন মিলে দেখানোর পরও আপনি অতীতে জিএসপি সুবিধা বাতিলের অনুরোধের অংশটুকু চোখে দেখেন নি।

জানেন যখন, তখন বেহুদা কষ্ট করলেন। আগের বারের মতই নির্দ্দিষ্ট করে কোট করতেন। তাহলে বুঝতে সুবিধা হত। না, থাক- তাহলে আবার আগের বারের মতই দড়ি কে সাপ প্রমাণের জন্য উঠে পরে লাগতেন। আমি হয়ত বলতাম, "রিপন ভাই, আপনার উচিৎ আপনার ছেলেকে বোঝানো, আপনার কথার অবাধ্য হলে আপনি শাস্তি দেবেন।"  আর আপনি এই বাক্যটায় আপনার ছেলেকে শাস্তি দেওয়ার অনুরোধ জানানো হইছে বলে চিল্লাচিল্লি শুরু করতেন। আমি আগেই বলেছিলাম, আমি ইংরেজি কম বুঝি। তাই বলে বাংলাও বুঝি না, এটা জানা ছিল না। উপরের বাক্যটা কিভাবে অনুরোধ সূচক বাক্য হয় সেটা বলে দিলেই কিন্তু ল্যাঠা চুকে যেত।

যদিও ঐ বিষয়টা নিয়ে কতা বলে অপটপিক বৃদ্ধি করা হচ্ছে তবুও বলছি-
দেখুন, আমার দৃষ্টিতে বাক্যটা তখনই অনুরোধ মনে হত যদি বাক্যটা এমন হত, "শ্রমিক অধিকারের পক্ষে যারা লড়াই করছেন বা প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে যাদের অমিল রয়েছে তাদের মতপ্রকাশের সুযোগ দেওয়া না হলে বাণিজ্য থেকে যে সাধারণ সুবিধাগুলো বাংলাদেশ পেয়ে থাকে, তাদের সেগুলো তুলে নেয়া উচিৎ।" মূল বাক্যটা কিন্তু এমন ছিল না। আপনার দেয়া অনুবাদ অনুসারে এমন ছিল-
"তারা শেখ হাসিনাকে এটাও বোঝাতে পারেন যে, বাণিজ্য থেকে যে সাধারণ সুবিধাগুলো বাংলাদেশ পেয়ে থাকে, সেগুলো তুলে নেয়া হবে যদি শ্রমিক অধিকারের পক্ষে যারা লড়াই করছেন বা প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে যাদের অমিল রয়েছে তাদের মতপ্রকাশের সুযোগ দেওয়া না হয়।"


যাই হোক, আপনার দেয়া লিংকে গেলাম। পড়লাম- স্বল্প ইংরেজি জ্ঞানে যা বুঝলাম তাতে "ভারত আমাদের মহা উপকার করতে যাচ্ছে। এখনও করে নাই, তবে করতে যাচ্ছে। মানে হল গিয়ে, জোড়ে একটা থাপ্পর দেওয়ার আগে বলতেছে, আমরা তোমার পাছায় লাত্থি তো আগেই দিছি এবার গালে থাপ্পর দিব। তোমাদের সাথে আলোচনা করে থাপ্পরের দাম নির্ধারণ করে তারপর থাপ্পর দিব।"
এইটা আমাদের সাত পুরুষের ভাগ্য। ভারত আগে লাত্থি দিছে  তবে দাম দেয় নাই। এইবার দাম দিতে চাচ্ছে। তাও আবার বাংলাদেশের অন্যতম বড় সমস্যা বিদ্যুৎ। এই থাপ্পর মেনে না নেয়া মহা বোকামি হবে। আমারই ভুল হইছিল। ভারতের এত বড় একটা মহান পদক্ষেপ অস্বীকার করে। এই থাপ্পর (বাঁধ), আর তার জন্য ক্ষতিপূরণ হিসেবে উচ্চ দামে বিদ্যুৎ পাওয়ার পরেও যাদের ভারত বিদ্বেষ যাবে না তাদের লাথি মেরে ফাকিস্তান পাঠানো উচিৎ। (এইতো আপনার লাইনে আসছি, তাই না?)

বাই দ্যা ওয়ে, থাপ্পরের মাত্র সম্পর্কে অবগত আছেন তো?

হুজুর কইছে, "কোরআন শরীফে আছে- তোমরা নামাজ থেকে বিরত থাক।" আমি তাই নামাজ পড়ি না। হুজুর যদি ইচ্ছা করে "অপবিত্র অবস্থায়" শব্দ দুটো বাদ দেয়, তার জন্য তো আমি দায়ী না।

২০ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন মাহমুদ রাব্বি (১২-০৭-২০১৩ ২১:৫১)

Re: ভারত প্রেম কি উথলে উঠছে?

নুশরাত লিরা লিখেছেন:
মাহমুদ রাব্বি লিখেছেন:

মূলত তাদের সহযোগিতা না পেলে বাংলাদেশ নামের দেশটাই হতো না। আমরা যতই বলি না কেন বাংলা মায়ের দামাল ছেলেদের কারনে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা কিন্তু সত্য কথা হচ্ছে ভারতের কারনে আমরা পেয়েছি স্বাধীনতা। ভারত সক্রিয়ভাবে যুদ্ধ করা ছাড়াও মুক্তিবাহিনী ভারতই তৈরি করে। অস্ত্রশস্ত্র সব ভারত থেকে আসতো, প্রশিক্ষন কেন্দ্র ছিলো ভারতে। প্রায় সব কিছুই ভারত করেছিলো। সুতরাং তাদের কারনেই মূলত পেয়েছি স্বাধীনতা। তাই আমি কাট্রা ভারতীয় দালাল মানে ভাদা। ভারত যদি দশটা লাখি মারে তা হলেও সমস্যা নাই। ভারত মাতার জয় হোক। জয় হিন্দ।

বাংলাদেশে থেকে লাথি খাওয়ার চেয়ে ভারতে গিয়ে লাথি খান,,,,,আরো ভালো লাগবে!!!

পরামর্শের জন্য ধন্যবাদ। জ্বি, ভাল লাগবে অনেক। আমি ধন্য হবো।


যারা বাংলাকে ভাগ করে নাপাকিস্থানের সাথে জোড়া লাগিয়েছিলো ১৯৪৭ এ সেইসব কু**র বাচ্চাদের যদি এখন পেতাম মাটিতে পিশে ফেলতাম। angry