২১ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ফায়ারফক্স (০৮-০৭-২০১৩ ২০:৪৫)

Re: মধ্যরাতের স্ট্রেইনজার!

ঠেকায় না পড়লে আমরা বাঙালীরা কিছুই শিখি না

আমি ছোট থেকে ইংলিশ ভয় পেতাম। মোটা মোটা গ্রামার বই থেকে দূরে থাকতে পছন্দ করতাম।
অথচ কোন কালেই আমার ইংলিশ বুঝতে বা বলতে সমস্যা হয় নি
এর পর নেট ইউজের পর যখন মুভি নামানো শুরু করি তখন ইংলিশ আরও ভালো লাগে
২০১০ এ দিকে আমি ব্রিটিশ কাউন্সিলে ইংলিশ কোর্স করার জন্য ভর্তি পরীক্ষা দেই
প্রথম পরিক্ষাতেই লেভেল ৩ পাই, যা এক কথায় অসম্ভব নতুনদের জন্য
যারা একের পর এক কোর্স করে তারাই প্রোমোটেড হয়ে এই লেভেলে আসে
এখানে ক্লাস শুরুর পর আমি জানতে পারি ব্রিটিশ ও এমিরিকান এক্সসেন্টের তফাৎ

প্রথম প্রথম ব্রিটিশ ইংলিশ শুনলে হাসি পেত, পরে ব্রিটিশ ইংলিশে মোহাবিষ্ট হয়ে যাই
ওখানে অসাধারণ কিছু টিচার পাই, তাদের ২জন আমাকে বলেছেন আমি কীজন্য এই কোর্স করতে এসেছি??
এই কোর্স তোমার আইএলস জন্য সহায়ক না এবং তোমার এই কোর্স দরকার আছে বলে মনে করিনা
যখন বললাম আমি মোটেই আইএলস করব না বা বিদেশ যাবার কোন ইচ্ছাই নেই
শুধু ভাষা বোঝা ও সংকৃতি সাথে পরিচিত হতেই এখান আসা, অবাক হয়ে বলেছিলেন সেটাই হওয়া উচিৎ কিন্তু এখানে আগত ৯৫% এর লক্ক্ষ্য অন্য। এক স্যার বলেছিলেন আপনি যদি বাংলাদেশী বাংলা শেখার জন্য রাশিয়া যান লাভ আছে?? সেরকম ইংলিশ অবশ্যই ইংল্যান্ড থেকে শিখতে হবে এমিরিকান রা মূল ইংলিশ চর্চা করেন না। আসলেই ৪০০ বছরের এমেরিকার ইতিহাস বলতে রাজনৈতিক নেতা ছাড়া অন্য সব কিছুই নেই তেমন   বিদেশীরাই (ইমিগ্রেটেড) তাদের এগিয়ে নিয়ে গেছে
আমি মনে করি প্রক্টিস প্রাকটিস ও প্রাকটিস.........  এছাড়া উপায় নেই, ভুল হলেও বলে যেতে হবে।
ভোকাবোলারি বাড়াতে হবে
মুভি, ডকু এসব কিছু হেল্প করতে পারে।

২২

Re: মধ্যরাতের স্ট্রেইনজার!

মুজ্জি ভাই, এটা আপনার জীবনের বাস্তবিক অভিজ্ঞতা এবং এটি পড়ে অনেক কিছুই শেখার আছে।

হে আল্লাহ, তুমি সকলের মঙ্গল কর; তোমার রহমতের আশ্রয়ে আশ্রিত কর..... আমীন
সঠিক পদ্ধতিতে ওয়ার্ডপ্রেস ইন্সটল করুন এবং আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটটিকে সুরক্ষিত রাখুন

কাজী আলী নূর'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

২৩

Re: মধ্যরাতের স্ট্রেইনজার!

ফায়ারফক্স লিখেছেন:

এমিরিকান রা মূল ইংলিশ চর্চা করেন না

এখানে মূল ইংলিশ কোনটা বুঝালেন? ইংরেজীর ইতিহাস সম্পর্কে কতটুকু জানেন? মূল ইংলিশের গোড়া ধরে টানতে গেলে জার্মানী যেতে হবে। শিখবেন জার্মানী গিয়ে ইংরেজী ভাষা? যখন থেকে ইউরোপে ব্রিটিশ কলোনীতে ইংরেজীর ব্যপক চর্চা এবং ব্যবহার শুরু হয় তখন এমেরিকাতেও চলছিলো। এমেরিকার জন্মের আগের যেই ইংরেজী সেটা পুরাপুরি ভাবে জার্মানিক ছিলো এবং তার কিছুই আমরা এখন ব্যবহার করি না শুধু বেশ কিছু শব্দ ছাড়া।

Rhythm - Motivation Myself Psychedelic Thoughts

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

২৪

Re: মধ্যরাতের স্ট্রেইনজার!

টপিক দেখছি মধ্যরাতের রোমাঞ্চ থেকে ইংলিশ ভাষার দিকে গড়িয়েছে। hehe hehe
আমি মনে করি গ্রামারেটিক্যাল দক্ষতার চেয়ে উচ্চারণভঙ্গি (এক্সেন্ট) বেশী গুরত্বপুর্ন। একটা সমাজে মিশতে হলে আমি মনে করি এক্সেন্ট সবচেয়ে বড় প্রাভবক। এমনকি গায়ের রং এর চেয়েও বড়।

অন্যদের কথা কি বলব, এক দেশের ভেতরেই শুধু বচন ভঙ্গীর জন্য লোকজনকে আলাদা করা হয় এবং হেয় করা হয়। ঢাকার আশে পাশে মফস্যল এলাকায় উত্তর এবং দক্ষিনবঙ্গের লোকজনকে কিভাবে ট্রিট করে সেটা অনেকেরই জানার কথা। অত দুরে যেতে হবে না, ছোটবেলায় যখন মামা বাড়ি (মুন্সিগঞ্জ টঙ্গিবাড়ী) যেতাম ঠা্ট্টা সম্পর্কের আত্মীয়দের সবচেয়ে ফেবারিট টপিক ছিল আমার এক্সেন্ট। গজারিয়ার লোকজন নাকি "চউড়া", তাই আমাদের চউড়া কথা তাদের কাছে চুরান্ত কৌতুকের বিষয়! একই জেলার দুই থানাতে যদি এই অবস্থা হয় তাহলে পৃথিবীর দুপ্রান্তে দু দেশের মধ্যে কি অবস্থা হবে ভাবলে শিউরে উঠতে হয়।

বলার অপেক্ষারাখে না যে এখানে রাইট-রং বলে কিছু নেই। এটা নিতান্তই মেজরেটি-র একটা ব্যাপার। কিন্তু এটা যে কত বড় ডিফারেন্স করে দিতে পারে সেটা বলে শেষ করা যাবেনা।

২৫ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন হাতি (০৯-০৭-২০১৩ ১৫:০১)

Re: মধ্যরাতের স্ট্রেইনজার!

আমার তেমন কেও বিদেশে থাকে না।অনেক প্রশ্ন আছে আমার আপনাদের কাছে।মনে হয় একটা খুলতে হবে

ইংলিশ তেমন পারি না  hairpull sad মনে হয় একটা টপিক খুলে ফিরেফক্স,মুজতবা etc ভাই দের কাছ হতে পরামর্শ নিতে হবে

জানতে চাই অনেক কিছু

২৬

Re: মধ্যরাতের স্ট্রেইনজার!

দেশের বাইরে গিয়ে ও শান্তি নেই।