সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন রহস্য মানব (০১-০৬-২০১৩ ১৭:৩৮)

টপিকঃ এবং পুনশ্চ পর্ব-১

[ নিত্যান্তই গল্পের স্বার্থে কিছু কথা এবং শব্দ এই গল্পে যুক্ত করা হয়েছে যা জীবনেরই অংশ , আপনাদের যদি ভালো না লাগে জানাবেন সেই ক্ষেত্রে পরবর্তি পর্বগুলো আর শেয়ার করব না। ]

আষাঢের শুরুতেই গর্ভবতী মেঘের জরায়ু ছিড়ে ভূমিষ্ট হলো শিশু বৃষ্টি কণার , তারা হাসছে , ভাসছে, খেলছে,নাচছে তারপর ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে পড়ছে।ঘরের দাওয়ায় বসে একমনে বৃষ্টির এই ছেলেমানুষী খেলা দেখছে ফেলানী।মাঝে মাঝে হাত বাড়িয়ে বৃষ্টি ধরার চেষ্টাও করছে।ভেজা হাত গড়িয়ে পানিতে জামা কাপড়ও ভেজাচ্ছে ফেলানী।বিগত জ্যৈষ্ঠের তাপের কারণে পানি মাটিতে পড়ার প্রায় সাথে সাথেই শুকিয়ে যাচ্ছে।মাঝে মাঝে হেসে উঠছে ফেলানী।এই বস্তির প্রায় সবাই ঘরের ভেতর এখন।শুধু ফেলানী বাইরে বসে আছে।ফেলানীদের ঘরের সামনে উঠানের মতো একটু জায়গা আছে।জায়গাটিতে ঘর ওঠেনি কারণ দুটি গাছ ছেয়ে আছে সম্পূর্ণ জায়গাটাতো বটেই ঝুপড়িরও কিছু অংশ।বস্তিটা উত্তর দক্ষিণে সারিবদ্ধ।ফেলানীদের ঝুপড়ি থেকে পূবে গাছ দুটোপেরিয়েই একটা ময়লার স্তুপ ।শহুরে মানুষদের ফেলে দেয়া বর্জ্য প্রতিদিন পৌরসভার নীল রঙের একটা গাড়ি এখানে ফেলে দিয়ে যায়।ময়লার ঢিপি জমতে জমতে ছোট খাটো টিলার আকৃতি নিয়েছে।প্রতিদিনই ময়লা ফেলে যাবার পর দুর্গন্ধে এলাকার বাতস ভারী হয়ে ওঠে।বস্তিবাসীরা তা টেরই পায় না।
ময়লা মানুষের জীবনে ময়লার স্তুপ। পৌরসভার নীল গাড়িটা এলেই বস্তির বৈধ অবৈধ শিশুরা দৌড়ে যায় ঢিপিটার কাছে।সাথে যায় কিছু লোম ওঠা কুকুর।সবাই এক সাথে খুঁজতে থাকে হরেক রকম জিনিস।কুকুরের দল খোঁজে হাঢ়াড্ডি,বোম্বে সুইটস অথবা মিষ্টির বাক্স, আর শিশুরা খোঁজে মাথার ভাঙ্গা ক্লিপ, ক্ষয়ে যাওয়া স্যান্ডেল,পিওর স্যাটিসফেকসনের পর ফেলে দেয়া হরেক রঙের কনডম, যা পরবর্তীতে বেলুন হয়ে এই বস্তির ছেলে মেয়েদের হাতে হাতে ঘোরে।বস্তির নিকৃষ্ট শিশুর দল অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে নীল গাড়িটার জন্য, ফেলানীও ওদের সাথে যায় তবে কিছুর খোঁজে নয় , কিছু পাবার আশায়।নীল গাড়িটার ড্রাইভার প্রতিদিনই ফেলানীকে একটা ম্যাংগো চকলেট দেয়।ফেলানী অবাক হয়ে যায় প্রতিদিনই লোকটাকে দেখে।একদিনও লোকটার ভুল হয় না চকলেট আনতে । ড্রাইভার গল্প করে ফেলানীর সাথে , ফেলানী খুব মজা পায় তার ধলা চাচার সাথে গল্প করতে, ধলা চাচা নামটা ফেলানীর দেওয়া ।কারণ লোকটির সাদা বর্ণ , আর ফেলানীও জানে না আসলে তার ধলা চাচা একজন ধবল রোগী।পৌরসভার গাড়ী চলে যাবার পরপরই একটি লোকাল ট্রেন যায়।ট্রেনলাইন চলে গেছে সোজা উত্তর-দক্ষিণ বস্তি থেকে গজ বিশেক দূর দিয়ে।ফেলানীর দুটো বিষয়ের প্রতি বড় কৌতুহল।
এক ট্রেন লাইন আর দ্বিতীয় আকাশ । ট্রেন লাইন যেমন দূরে তাকালে মন হয় মিশে গেছে কিন্তু ধরতে গেলে ধরা যায় না আকাশের ব্যাপারটাও ঠিক তাই। এই বিষয়গুলি ফেলানীর ক্ষুদ্রবুদ্ধিতে বড় বিষ্ময় ঠেকে।দিনে বস্তিবাসী সবাই প্রায় রিলাক্স মুডেই চলে।
কাজ কর্ম খুব একটা নেই বা নেয় না। সবাইএখানে ওখানে বসে গল্প করে,টুকটাক রান্না বান্না করে । যেমন এখনই দূরে রেল লাইনের পাশে আকন্দের ঝোপে কয়েকজন মহিলা বসে গল্প করছে।তাদের হালকা কথা ভেসে আসছে – ‘" এলায় নয় , এলায় নয় ।আতোত খোলেন বাহে ’ " কাট আপ।
দৃশ্য চেঞ্জ।
সন্ধ্যার পর এই বস্তিতেই এই রেললাইনেই দেখা যায় অন্য দৃশ্য।বাজার বসে।কাঁচা মাংসের বাজার।বস্তির মেয়েরা কাঁচা মাংসখন্ডের মতো নিজেদের উপহার দেয় দুপেয়ে ক্ষুধার্ত কুকুরের কাছে । বাতাসে যৌনতার গন্ধ ছড়ায় দালালের দল ।ওয়ান টাইম নিশিকন্যা পাওয়া যায় এখানে ।সেকেন্ড হ্যান্ড বোতলও পাবেন অল্প দামে। এভাবেই ভোর অব্দি। যারা খদ্দের পায় তাদের খাবার জোটে । যারা পায় না তারা থাকে অভুক্ত । অবশ্য আঁধারের এ দৃশ্য আঁধারেই ঢাকা এমন নয় । দিনেও দেখা যায় কোন ঘরের দুয়ারে আছে খিল।শহরের উচ্চ ব্যাক্তিরা জিহ্বা বের করে আসে নারী শরীর খাবার জন্য । এভাবেই চলে পতীতা পল্লী অর্থাৎ বস্তিবাসীদের জীবন।
দৃষ্টি দেয়া যাক ফেলানীর দিকে।

( চলবে  )

মানুষ মাত্রই মরন শীল , কিন্ত নশ্বর নয় ।।

Re: এবং পুনশ্চ পর্ব-১

ভালো হচ্ছে। একমাত্র সাহিত্য না বোঝা 'মগা' -ই এটাকে খারাপ বলবে। এসব আমাদের নিত্যকার জীবনের অংশ। এড়িয়ে যাওয়ার উপায় নেই মোটেও  sad

কিছু বাধা অ-পেরোনোই থাক
তৃষ্ণা হয়ে থাক কান্না-গভীর ঘুমে মাখা।

উদাসীন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: এবং পুনশ্চ পর্ব-১

নিঃশ্বাস নিতে ভুলে গিয়েছিলাম তোমার গল্প পড়ে রমা ... পরের অংশ কখন পাবো? isee

তাসনিম।মুন্নী

Re: এবং পুনশ্চ পর্ব-১

অসাধারন সূচনা। অন্য পর্বগুলোর অপেক্ষায় থাকলাম।

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: এবং পুনশ্চ পর্ব-১

পড়ার সময় পরবর্তি লাইন পড়ার প্রতি আকর্ষন অনুভব করছিলাম। চালিয়ে যান। thumbs_up

Re: এবং পুনশ্চ পর্ব-১

তাসনিম.মুন্নী লিখেছেন:

নিঃশ্বাস নিতে ভুলে গিয়েছিলাম তোমার গল্প পড়ে রমা ... পরের অংশ কখন পাবো? isee

Exactly:),Its amazing.

Re: এবং পুনশ্চ পর্ব-১

সবাইকে ধন্যবাদ ।
৭৫ % সম্মতি পেয়েছি এরসাথে ২৫% আপত্তিও আছে ভাবতাছি কি করব আজকের দিনটা না হয় থাক কালকে না হয় ঠিক করা যাবে । তবে গল্পের শেষ দৃশ্যপটটা অনেক সুন্দর হয়েছে , পড়ে আমার নিজেরই অনেক কষ্ট লেগেছে আশাকরি আপনাদেরো ভালো লাগবে।

মানুষ মাত্রই মরন শীল , কিন্ত নশ্বর নয় ।।

Re: এবং পুনশ্চ পর্ব-১

আপেক্ষায় খালাম পরের পর্বের জন্য

কাজকে বলেন নামাজ আছে, নামাজ কে বলবেন না কাজ আছে.......
premium Place
xpassplace

Re: এবং পুনশ্চ পর্ব-১

ত্রিনিত্রির রাশিমালা লিখেছেন:
তাসনিম.মুন্নী লিখেছেন:

নিঃশ্বাস নিতে ভুলে গিয়েছিলাম তোমার গল্প পড়ে রমা ... পরের অংশ কখন পাবো? isee

Exactly:),Its amazing.

same here