সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন উদাসীন (১০-০৫-২০১৩ ১৫:৪৯)

টপিকঃ মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

শিল্পের গাঢ়  সমঝদার না হওয়া সত্ত্বেও
গেল হপ্তায় ল্যুভর গিয়েছিলাম মোনালিসা দেখতে।
সবার মুখে তার এত এত প্রশংসা
ভেবেছিলাম তাকে দেখামাত্রই
আমার হৃদয়ে তোলপাড় পড়ে যাবে।
ভালবাসি ভালবাসি বলে শরীরের রক্তকণিকাগুলো
দ্বিগবিধিক ছোটাছুটি শুরু করে দিবে।
আর আমি
হৃদক্রিয়া বন্ধ হতে যাওয়া রোগীর মতো
বুকের বাম পাশে হাত চেপে তার সামনে বসে পড়বো।

কিন্তু কাছে গিয়েই আমি অবাক হলাম।
মোনালিসা! এই কি মোনালিসা?
ফ্যাঁকাসে রদ্দি মারা চেহারা
দেখলেই যাকে মনে হয় অনেক দিন ধরে
রক্তশূণ্যতাই ভুগছে। ভ্রু ছাড়া চোখ দুটো
যার মুখমন্ডলে এনে দিয়েছে ডাকাতের বেশ।

মোনালিসা! এই সেই মোনালিসা?
হৃদয় চঞ্চল করে দেয়া এই কি সেই রমণী?
কই ভদ্রমহিলাতো আমাকে একটুও টলাতে পারেনি!
কই আমিতো একফোঁটাও ব্যাকুল হইনি!
আমি আবার দৃষ্টি ফেরালাম।
পূর্ণাঙ্গ চোখে তাকালাম সরাসরি তার ঠোঁট জোড়া লক্ষ্য করে।
এবং আমি চমকে উঠলাম।
এতো আমার অতি পরিচিত ওষ্ঠ যুগল
মোনালিসার ঠোঁটে নাজিয়া এ যে তোমারই হাসি!
দূর-দূরান্ত থেকে এসে মানুষ তাহলে তোমারই হাসি কেনে?

তোমারই একটুখানি হাসি, প্রিয় নাজিয়া
ওই ভয়ংকর দর্শন মহিলাটিকে দেখো কেমন প্রেমময় করে দিলো!
অথচ তুমি নিজেই এমন প্রেমহীন নিষ্ঠুর হয়ে থাকলে!

“যে ব্যক্তি ক্ষুধার্তকে অন্নদান করে, আল্লাহপাক তাকে জান্নাতে ফল খাওয়াবেন। যে তৃষ্ণার্তকে পানি পান করায়, আল্লাহ তাকে জান্নাতে শরবত পান করাবেন। যে কোন দরিদ্রকে বস্ত্র দান করে আল্লাহপাক তাকে জান্নাতে পোষাক দান করবেন”। (তিরমিযী)

Re: মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

আপনার কবিতাটা কিন্তু আমার বেশ লেগেছে। clap
তবে, বানান আর আঞ্চলিকতা পরিহার করবেন, কেমন? আমি কিছু শুদ্ধ করে দিলাম।
অনেক শুভকামনা থাকলো।

কিছু বাধা অ-পেরোনোই থাক
তৃষ্ণা হয়ে থাক কান্না-গভীর ঘুমে মাখা।

উদাসীন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

চমৎকার অনুভূতি ! কবিতা ভালো হয়েছে !

জানি আছো হাত-ছোঁয়া নাগালে
তবুও কী দুর্লঙ্ঘ দূরে!

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

ন অনেক ভালো লেগেছে ভাইয়া......
নাজিয়া টা কে? wink wink

ভালোবাসা উষ্ণতা জাগায় বটে......
তবে এ কাজটি দ্রুততার সাথে করে ভদকা.......

Re: মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

কবিতার শেষটুকু দারুন।  clap

কোথায় জানি পড়েছিলাম: ভিঞ্চি আসলে সেলফ পোট্রেট করেছিলেন -- বা এই ধরণের কাছাকাছি একটা কিছু।

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

বর্তমান যুগের সব কবিই মনে হয় জীবনে একবার করে হলেও মোনালিসাকে নিয়ে লিখে!!!! big_smile
ভালো লিখেছেন!!  clap

Re: মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

উদাসীন লিখেছেন:

আপনার কবিতাটা কিন্তু আমার বেশ লেগেছে। clap
তবে, বানান আর আঞ্চলিকতা পরিহার করবেন, কেমন? আমি কিছু শুদ্ধ করে দিলাম।
অনেক শুভকামনা থাকলো।

ধন্যবাদ ভাই।
তবে এটাকে কবিতা ভাবছেন কেন !!!
খুব বেশী হলে গবিতা (কবিতার মতো দেখতে কিছু একটা) বলতে পারেন।

“যে ব্যক্তি ক্ষুধার্তকে অন্নদান করে, আল্লাহপাক তাকে জান্নাতে ফল খাওয়াবেন। যে তৃষ্ণার্তকে পানি পান করায়, আল্লাহ তাকে জান্নাতে শরবত পান করাবেন। যে কোন দরিদ্রকে বস্ত্র দান করে আল্লাহপাক তাকে জান্নাতে পোষাক দান করবেন”। (তিরমিযী)

Re: মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

লাইনগুলো যে ভাঙা,
ছড়া নয় বুঝি তা,
সহজিয়া গদ্যে,
কবিতার গভীরতা।  clap

ছড়াবাজ'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

ছড়াবাজ লিখেছেন:

লাইনগুলো যে ভাঙা,
ছড়া নয় বুঝি তা,
সহজিয়া গদ্যে,
কবিতার গভীরতা।  clap

ছন্দে ছন্দে দিলেন বুঝি বাঁশ মেরে....

“যে ব্যক্তি ক্ষুধার্তকে অন্নদান করে, আল্লাহপাক তাকে জান্নাতে ফল খাওয়াবেন। যে তৃষ্ণার্তকে পানি পান করায়, আল্লাহ তাকে জান্নাতে শরবত পান করাবেন। যে কোন দরিদ্রকে বস্ত্র দান করে আল্লাহপাক তাকে জান্নাতে পোষাক দান করবেন”। (তিরমিযী)

১০

Re: মোনালিসার ঠোঁটে তোমার হাসি

হৃদয়হীনা নাজিয়া শ্বশুর বাড়ী চলে গেল।
আমার একটাই প্রশ্ন, প্রেম দিলিনা ভালো কথা তাই বলে কি বিয়াতে দাওয়াত পর্যন্ত দিবি না !! ??

“যে ব্যক্তি ক্ষুধার্তকে অন্নদান করে, আল্লাহপাক তাকে জান্নাতে ফল খাওয়াবেন। যে তৃষ্ণার্তকে পানি পান করায়, আল্লাহ তাকে জান্নাতে শরবত পান করাবেন। যে কোন দরিদ্রকে বস্ত্র দান করে আল্লাহপাক তাকে জান্নাতে পোষাক দান করবেন”। (তিরমিযী)