সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সেভারাস (২৫-০২-২০১৩ ২৩:৫৩)

টপিকঃ চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

গতকারল সারারাত নেট ছিল না, তখন বসে বসে লিখে ফেললামঃ

২০১১ সালের শুরুতে বিবিএ কোর্সের ইন্টার্নশীপ প্রোগ্রামের জন্য একটা অডিট ফার্মে জয়েন করি। এই ফার্মে জয়েন করার মূল লক্ষ্য ছিল যে পরে সিএ পড়বো। আজকে সেই সিএ পড়ার জন্য নিয়ম কানুন নিয়েই লেখছি যাতে ভবিষ্যতে কেউ যদি এই কোর্সে আসতে চায় সে একটা গাইডলাইন পাবে।

১) ভর্তি হওয়ার যোগ্যতাঃ
২০০৭ সালের আগে গ্রাজুয়েশন করার আগে এই কোর্সে আসা যেতো না। কিন্তু ২০০৭ সালে কাউন্সিল এর সদস্যদের অনুমতিক্রমে এইচএসসি বা এ লেভেল পাশ করার পরও এই কোর্সে আসা যায়। বর্তমানে এই কোর্সে আসার জন্য নিয়ম হলঃ
ক. এইচএসসি এর স্টুডেন্ট-দের জন্যঃ
এসএসসি আর এইচএসসি মিলিয়ে ১০ এর মধ্যে ৯ পয়েন্ট থাকা লাগবে। সাধারনত বিজ্ঞান বিভাগ আর বানিজ্য বিভাগের স্টুডেন্টদেরই নেয়া হয়।
খ. এ-লেভেল এর স্টুডেন্টদের জন্যঃ
এ-লেভেল এ ২টা বি আর ১টা সি থাকতে হবে কমপক্ষে।

২) কোর্সের সময়ঃ
গ্রাজুয়েশন করে আসলে ৩ বছর এর কোর্স, রেজিস্ট্রেশন এর দিন থেকে ৩ বছর গননা করা হয়। আর যারা গ্রাজুয়েশন করে নাই তাদের জন্যঃ
ক। এইচএসসি পাশ করা স্টুডেন্টদের ক্ষেত্রে ৪ বছর
খ। এ-লেভেল এর স্টুডেন্টদের যদি ৩ টা বিষয়ে এ থাকে তাহলে তাদের জন্য ৩.৫ বছরের কোর্স। কিন্তু ৩টা না থাকলে তখন আবার ৪ বছর এর কোর্স করতে হবে।

৩) ভর্তি হওয়ার নিয়মঃ
ভর্তি হওয়ার জন্য সাধারনত কোনো অডিট ফার্মের সাথে জড়িত হতে হয়। এজন্য অবশ্য আপনাকে ভর্তি পরীক্ষা দিতে হতে পারে। যেমন, বর্তমানে বাংলাদেশ ব্যাঙ্কের র্যা ঙ্কিং অনুযায়ী ১ নং অডিট ফার্ম একাউন্টিং, ইংরেজী, আইএফআরএস এর প্রশ্ন করে থাকে তাদের পরীক্ষায়। আবার বাংলাদেশ এর সবচেয়ে আলোচিত ফার্ম আরআরএইচ ও তাদের পরীক্ষায় এধরনের প্রশ্নই করে থাকে। এছাড়া অন্যান্য ফার্মে প্রশ্ন হিসাবে সাধারনত ইংরেজী নিয়েই বিভিন্ন প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। এই ভর্তি পরীক্ষায় পাশ করলে আপনাকে আবার ভাইভা দিতে হয় যেখানে মূলত আপনার সিএ পড়ার কারনই জিজ্ঞাসা করে থাকে। ভাইভায় পাশ করলেই আপনাকে অডিট ফার্মে নিয়োগ দিবে।

৪) রেজিস্ট্রেশন পাওয়ার নিয়মঃ
আপনি যখন একটি ফার্মে অংশ নিবেন তখন সাধারনত আপনাকে ট্রেইনি স্টুডেন্ট হিসাবে নিয়োগ দিয়ে থাকে। এরপর স্থান খালি হলে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করতে হয় একজন চার্টার্ড একাউন্টেন্ট এর সাথে কাজ করার জন্য। এই রেজিস্ট্রেষন এর গুরুত্ব হল আপনার যেদিন রেজিস্ট্রেশন হবে তার ১১ মাস এর মধ্যে আপনি কোনো পরীক্ষা দিতে পারবেন না। তাই যদি দেখা যায় যে ১০-১৫ দিনের জন্য আপনি পরীক্ষা দিতে পারছেন না, তখন উচিত হবে ম্যানেজমেন্টের সাথে কথা বলে রেজিস্ট্রেশন এগিয়ে নেয়া।

৫) পরীক্ষা পদ্ধতিঃ
বছরে দুবার পরীক্ষা হয়ঃ জুন এবং ডিসেম্বর মাসে। এই দুই মাস এ পরীক্ষা হওয়ার কারণ হল এই সময় অডিট এর কোনো কাজই থাকে না। জুন মাসের পরীক্ষা দেয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই আগের বছরের জুলাই মাসের আগেই রেজিস্ট্রেশন করে ফেলতে হবে। আর যদি ডিসেম্বর এর পরীক্ষা দিতে হয় তাহলে আগের বছরের ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। একবার পরীক্ষা দেয়ার পর পরের পরীক্ষা দিতে কোনো সমস্যা হবে না।

৬) পরীক্ষার ধাপঃ
সিএ তে এখন মোট তিনটা লেভেল আছে, একটি লেভেল সম্পূর্ন পাশ করে পরবর্তী লেভেল এ যেতে হয়। তবে একবার পরীক্ষা দিয়ে যদি কোনো বিষয়ে পাশ করে থাকেন তাহলে পরের বার আর সেই পরীক্ষা দিতে হয় নাঃ
ক) নলেজ লেভেলঃ
নলেজ লেভেল এ আছে মোট সাতটি বিষয়ঃ এসুরেন্স (অডিট), একাউন্টিং, বিজনেস ফাইনান্স, ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন, ট্যাক্স, বিজনেস এন্ড কমার্সিয়াল ল আর আইটি। এই লেভেল এর পরীক্ষায় সাধারন আপনার প্রাথমিক জ্ঞান এর পরীক্ষাই হয়। ট্যাক্স বাদে সব কয়টা পরীক্ষা মাত্র ১.৫ ঘন্টা এবং পরীক্ষার মান পূর্ন ১০০ মার্ক। প্রশ্ন এমন ভাবে আসে যেন পুরো সময়টাই লিখে যেতে হয়। ট্যাক্স পরীক্ষার সময় হল ৩ ঘন্টা। এই পরীক্ষায় কিছুটা সময় পাওয়া যায়, তবে এটাই চ্যালেঞ্জিং বিষয় কারন প্রতি বছরের ফিনান্স এক্টের সাথেই পাঠ্যসূচিতে পরিবর্তন আসে। এছাড়া বিভিন্ন সময়ের এসআরও গুলোও মনে রাখতে হয়। দুঃখের বিষয় হচ্ছে, আইটি সাব্জেক্টটা আসলেই খুব বাজে কারন এর সাথে আপনার আসল আইটির কোনোই সম্পর্ক নেই। আরেকটি দুঃখের কথা হচ্ছে, বিজনেস ফাইনাস হল অডিট, ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন, আইটি একাউন্টিং এর সংমিশ্রন। তবে আপনি যদি মাথা ঠান্ডা রেখে পরীক্ষা দিতে পারেন তাহলে খুব একটা কঠিন হবে না।
খ) এ্যাপ্লিকেশন লেভেলঃ
এ্যাপ্লিকেশন লেভেল এও আছে সাতটি বিষয়ঃ অডিট এন্ড এসুরেন্স, ফিনান্সিয়াল একাউন্টিং, বিজনেস স্টাডিজ, ম্যানেজমেন্ট একাউন্টিং, ট্যাক্স-২, করপোরেট ল আর আইটি এ্যাপ্লিকেশন। এই লেভেল এর পরীক্ষায় একটু জটিল প্রশ্ন আসে এবং মূলত তা আপনার একটি বিষয়ে আপনি আপনার জ্ঞান কিভাবে ব্যবহার করবেন তা দেখা হয়। এই লেভেল এর পরীক্ষায় ২.৫০ ঘন্টা সময় থাকে এবং ১০০ মার্ক উত্তর দিতে হয়। তবে মাঝে মাঝেই দেখা যায় ৪-৫ টা প্রশ্নই ১০০ মার্ক এর। অর্থাৎ প্রচুর লিখতে হয়।
গ) এডভান্স লেভেলঃ
এডভান্স লেভেল এ মোট চারটি বিষয় থাকে যার মধ্যে একটি হল কেস স্টাডিজ। কেস স্টাডিজ এর পরীক্ষা ৪ ঘন্টা হয়ে থাকে এবং প্রশ্ন হয় প্রায় ১০-২০ পাতার মত।

৭) কোচিং ক্লাসঃ
আপনি যখন প্রথমবার কোনো লেভেল এর পরীক্ষা দিবেন তার আগে আপনাকে অবশ্যই কোচিং ক্লাস করতে হয়। এই কোচিং ক্লাস প্রায় ৩ মাস ধরে চলে। বিরক্তের বিষয় হচ্ছে, এই কোচিং ক্লাস হয় অফিসের পর অর্থাৎ ৬-৯ টা এবং শুক্র শনিবারও ক্লাস হয়ে থাকে।

৮) অডিট কর্মঃ
আপনি যখন ফার্মের সাথে যোগ দিলেন তখন আপনাকে বিভিন্ন কোম্পানির কাজ নিরীক্ষা করতে পাঠানো হবে। এই নিরীক্ষা কর্মে আপনাকে সাহায্য করার জন্য অনেক সিনিয়র স্টুডেন্ট তো থাকবেই সাথে পাশ করে যাওয়া চার্টার্ড একাউন্টেন্টরাও থাকবে। তাই এই কাজ আসলে তেমন কঠিন না। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই আপনাকে বলে দেয়া হবে কি করতে হবে।

৯) কোর্সের ফিঃ
আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করার সময় ৩০,০০০ টাকা দিতে হবে। এই ফি এর মধ্যে আপনার প্রথম লেভেল এর বই আছে এবং কোচিং ক্লাস এর ফিও আছে। এরপর যখন পরীক্ষা দিবেন তখন পরীক্ষার ফি হিসাবে প্রতি বিষয়ের জন্য ১,৩০০ টাকা দেয়া লাগে। কিন্তু আপনি যদি ৭টা বিষয়ই দেন তাহলে ৮,৫০০ টাকা হয় মোট ফি। এরপর যখন নলেজ লেভেল পাশ করে এ্যাপ্লিকেশন লেভেল এ যাবেন তখন ১৫,০০০ টাকা দিয়ে কোচিং ক্লাস এর জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে হবে, আর বই কিনতে হবে ৪,৫০০ টাকা দিয়ে। আবার পরীক্ষা দেয়ার জন্য প্রতি বিষয়ে ৩,০০০ টাকা ফি দিতে হবে। আবারও আপনি যদি এক সাথে সব বিষয়ের পরীক্ষা দেন তাহলে ১৮,০০০ টাকা দিলেই হবে। এডভান্স লেভেল এর জন্যও ক্লাশ ফি ১৮,০০০ টাকা আর প্রতি বিষয়ের জন্য পরীক্ষা ফি ৫,০০০ টাকা। তবে সর্বমোট ১০,০০০ টাকা।

১০) পারিতোষিকঃ
সাধারনত আপনি যে ফার্মে কাজ করে থাকেন তারা আপনাকে হাত খরচ হিসাবে সামান্য পারিতোষিক দেয়া হয়ে থাকে। আইসিএবির নিয়ম অনুযায়ীঃ
ক) রেজিস্ট্রেশনের পর থেকে ১ বছর পর্যন্ত ৩,০০০ টাকা/প্রতি মাস
খ) রেজিস্ট্রেশনের ১ বছর পর থেকে ২ বছর পর্যন্ত ৩,৫০০ টাকা/প্রতি মাস
গ) রেজিস্ট্রেশনের ২ বছর পর থেকে ৩ বছর পর্যন্ত ৪,০০০ টাকা/প্রতি মাস
ঘ) রেজিস্ট্রেশনের ৩ বছর পর থেকে ৪,৫০০ টাকা/প্রতি মাস

১১) সামান্য হিসাবঃ
আপনি আপনার পুরো কোর্সের মধ্যে পাবেনঃ ৩,০০০*১২+৩,৫০০*১২+৪,০০০*১২= ১২৬,০০০ টাকা
আর আপনি যদি প্রতি দুবার পরীক্ষা দিয়ে দুটি লেভেল পাশ করেন তাহলে খরচ হবেঃ
৩০,০০০+৮,৫০০+৮,৫০০+১৫,০০০+১৮,০০০+১৮,০০০= ৯৮,০০০ টাকা
অর্থাৎ আপনার ২৮,০০০ টাকা সঞ্চয় হবে।  আর ২টা লেভেল পাশ করার পরই এখন বেশ ভালো চাকুরি পাওয়া যায়।

১২) বোনাসঃ
আপনি অডিট করার জন্য অনেক জায়গায় ঘুরতে যেতে পারবেন, যেমন সিলেট, চিটাগাং, কক্সবাজার, রাঙামাটি এবং অন্যান্য এবং তাও আবার অফিসের খরচে।

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

এটা বেশ লোভনীয় কিন্তু আজকাল সবাই বিবিএ এমবিএ এর প্রতি ঝোক দেখা যায় কিন্ত খরচ কম হবার পরেও এটা কেন পড়তে চায় না??
আনার জানা মতে চ্যানেল নাইনের মাদার কনসার্ন বিল্ড ট্রেডার্স এর একজন কর্মকর্তার বেতন ১০ লাখ টাকা। তার মধ্যে উনি নগদ পান ৮ লাখ বাকি ২ লাখ বাসা ভাড়া, একটি গাড়ি, মোবাইল বিল ও অন্যান্যতে কেটে নেওয়া হয়। তিনি কিন্তু সিএ পাস। এবং এই জবের জন্য তাকে বিদেশ থেকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে (মানে উনি সিএ করে আমিরাতে ৩ বছর ছিলেন)
সিএ করা নাকি অনেক ধৈর্যের ও পরিশ্রমের। কিন্তু এমন কম খরচ ও লোভনীয় জবের নিশ্চয়তা থাকলে সবার করা উচিৎ

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

ফায়ারফক্স লিখেছেন:

এটা বেশ লোভনীয় কিন্তু আজকাল সবাই বিবিএ এমবিএ এর প্রতি ঝোক দেখা যায় কিন্ত খরচ কম হবার পরেও এটা কেন পড়তে চায় না??
আনার জানা মতে চ্যানেল নাইনের মাদার কনসার্ন বিল্ড ট্রেডার্স এর একজন কর্মকর্তার বেতন ১০ লাখ টাকা। তার মধ্যে উনি নগদ পান ৮ লাখ বাকি ২ লাখ বাসা ভাড়া, একটি গাড়ি, মোবাইল বিল ও অন্যান্যতে কেটে নেওয়া হয়। তিনি কিন্তু সিএ পাস। এবং এই জবের জন্য তাকে বিদেশ থেকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে (মানে উনি সিএ করে আমিরাতে ৩ বছর ছিলেন)
সিএ করা নাকি অনেক ধৈর্যের ও পরিশ্রমের। কিন্তু এমন কম খরচ ও লোভনীয় জবের নিশ্চয়তা থাকলে সবার করা উচিৎ

আপনার প্রশ্নের উত্তরটা হচ্ছে, পাশ করা অনেক কঠিন বলে অনেকেই করতে চায় না। যেমন গতবার প্রথম লেভেল পাশ করেছিল ৪০২ জন, কিন্তু এদের মধ্যে ২ জন বোধহয় দ্বিতীয় লেভেল একেবারে পাশ করতে পেরেছে। এবার আর গত বার মিলে প্রথম লেভেল পাশ করেছে প্রায় ৬৫০ কিন্তু দ্বিতীয় লেভেল পাশ করেছে ৬০ জনও না। এথেকেই বোঝা যায় যে দ্বিতীয় লেভেলটা অনেক কঠিন।
বেতনের কথা বললে আমি বলবো যে, অবশ্যই এই ক্ষেত্রে অনেক বেশি বেতন পাবেন আপনি যদি পাশ করতে পারেন এবং এই পাশের ফল আপনার কর্মে প্রতিফলিত হয়। একজন কোয়ালিফাইড চার্টার্ড একাউন্টেন্ট এর প্রাথমিক বেতন কম করে হলেও ১ থেকে ১.২০ লাখ এর মধ্যে।
মোদ্দা কথা, ধৈর্য এই ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় ক্ষমতা। এটা না থাকলে আসলে পড়ে লাভ নেই। কারন পাশ করা না করা খুব কম সময়ই আপনার ভালো পরীক্ষার উপর নির্ভর করে।

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

সেভারাস লিখেছেন:

আপনার প্রশ্নের উত্তরটা হচ্ছে, পাশ করা অনেক কঠিন বলে অনেকেই করতে চায় না।

হ্যাঁ আমার এক মামাও একসময় সিএ পড়তেন কিন্তু পুরোটা পাশ করতে পারেননি। কিন্তু তারপরও তিনি এখন বাংলাদেশের একটি নামকরা প্রতিষ্ঠানের একটি শাখার চিফ এ্যাকাউন্টেন্ট পোস্টে আছেন শুধুমাত্র সততা আর অধ্যাবসায়ের কারণে। তবে এখন হয়তো আগের তুলনায় প্রতিযোগিতা অনেক বেশি তাই বেশিরভাগ মানুষ কঠিন রাস্তাটি ছেড়ে সহজ উপায়ে অল্প সময়ে শিক্ষাজীবন পার করে যেতে চায়...

অ আ ই ঈ উ ঊ ঋ এ ঐ ও ঔ
ক খ গ ঘ ঙ চ ছ জ ঝ ঞ ট ঠ ড ঢ ণ ত থ দ ধ ন প ফ ব ভ ম য র ল শ ষ স হ ক্ষ ড় ঢ় য়
ৎ ং ঃ ঁ

আলোকিত'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

খুব সুন্দর তথ্যবহুল টপিক  thumbs_up। এখানে একটা কথা বলে রাখি, ভালো ফার্মে মাসিক এলাওয়েন্স উপরের উল্লখিত হারে দিলেও বেশ কিছু ফার্মেই এটা মেইনটেইন করে না  sad

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

দারুন টপিক thumbs_up ধন্যবাদ ভাইয়া।

আগে সিএ পড়ার ইচ্ছা ছিল, কিন্তু আইসিএমএ এর কিছু প্রশ্ন দেখে আর ইচ্ছা নেই। ফিন্যান্স ই আমার কাছে সহজ মনে হয়, দেখি সিএফএ শেষ করতে পারি কিনা।

One can steal ideas, but no one can steal execution or passion. - Tim Ferriss

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

অপরিচিত লিখেছেন:

দারুন টপিক thumbs_up ধন্যবাদ ভাইয়া।

আগে সিএ পড়ার ইচ্ছা ছিল, কিন্তু আইসিএমএ এর কিছু প্রশ্ন দেখে আর ইচ্ছা নেই। ফিন্যান্স ই আমার কাছে সহজ মনে হয়, দেখি সিএফএ শেষ করতে পারি কিনা।

ভাই কি বাংলাদেশে থাকেন? আমারও তো সিএফএ করার ইচ্ছা ছিলো কিন্তু বাংলাদেশ থেকে করা যায় কি? এবং এখানে কি প্রোফেশনাল এক্সপেরিয়েন্স লাগে (যদি লাগে সেটা কি বাংলাদেশ থেকে পাওয়া যাবে?) ?

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

অসাধারণ একটা টপিক। thumbs_up টপিকের বিষয় বস্তু যেমন সুন্দর, লেখাটাও হয়েছে ভাল। যাদের আগ্রহ আছে তাদের কাজে লাগবে।

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

arnob216 লিখেছেন:
অপরিচিত লিখেছেন:

দারুন টপিক thumbs_up ধন্যবাদ ভাইয়া।

আগে সিএ পড়ার ইচ্ছা ছিল, কিন্তু আইসিএমএ এর কিছু প্রশ্ন দেখে আর ইচ্ছা নেই। ফিন্যান্স ই আমার কাছে সহজ মনে হয়, দেখি সিএফএ শেষ করতে পারি কিনা।

ভাই কি বাংলাদেশে থাকেন? আমারও তো সিএফএ করার ইচ্ছা ছিলো কিন্তু বাংলাদেশ থেকে করা যায় কি? এবং এখানে কি প্রোফেশনাল এক্সপেরিয়েন্স লাগে (যদি লাগে সেটা কি বাংলাদেশ থেকে পাওয়া যাবে?) ?

হ্যাঁ ভাইয়া, বাংলাদেশ এ। আপনার সাথে তো একবার দেখাও করতে চেয়েছিলাম মনে হয় tongue
আমারো পুরো ধারনা নেই ভাইয়া। আমি এক স্যার এর কাছ থেকে শুনেছিলাম, স্যার বর্তমানে সিএফএ লেভেল ১ শেষ করেছেন এবং বর্তমানে দেশে থেকেই লেভেল ২ এর জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। স্যার এর কাছ থেকে বিস্তারিত জেনে কনফার্ম করবো ভাইয়া smile

One can steal ideas, but no one can steal execution or passion. - Tim Ferriss

১০ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সেভারাস (২৭-০২-২০১৩ ০১:৫৮)

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

অপরিচিত লিখেছেন:

ভাই কি বাংলাদেশে থাকেন? আমারও তো সিএফএ করার ইচ্ছা ছিলো কিন্তু বাংলাদেশ থেকে করা যায় কি? এবং এখানে কি প্রোফেশনাল এক্সপেরিয়েন্স লাগে (যদি লাগে সেটা কি বাংলাদেশ থেকে পাওয়া যাবে?) ?

আমি একটূ আগেই বাসায় আসছি। একটু পর আপনার সিএফএর আপডেট শেয়ার করছি।

আপডেটঃ সিএ যেমন বাংলাদেশি একটা পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন ডিগ্রি, সিএফএ ও একটা পোস্ট গ্রাজুয়েশন ডিগ্রি। তবে পার্থক্য হচ্ছে, সিএ পাশ করে অন্য কোনো দেশ এ আপনি যদি সিএ হিসাবে কাজ করতে চান তাহলে সেই দেশ এর সিএ এর তত্ত্বাবধানকারী প্রতিষ্ঠান এ কিছু বিষয়ে পরীক্ষা দিতে হয় যেমনঃ আইন আর কর। কিন্তু সিএফএ বিষয়টি আন্তর্জাতিক ডিগ্রি বলে এই ডিগ্রি অর্জনের পর আপনি অন্য দেশ এ গিয়ে এই ডিগ্রি দেখিয়ে কাজ করতে পারবেন।

সিএ কোর্সের সাথেই যেমন আপনাকে একটা প্রতিষ্ঠানের সাথে সংযুক্ত থাকতে হয়, সিএফএ কোর্সের ক্ষেত্রে নিয়মটা একটূ ব্যতিক্রম। এখানে আপনি পরীক্ষা দিতে পারবেন চাকুরী করা ছাড়া। কিন্তু একটি নির্দিষ্ট সংখ্যক বছর কাজ না করলে ডিগ্রি পাবেন না।

সিএফএ যেহেতু একটা আন্তর্জাতিক ডিগ্রি, তার খরচও তেমন অনেক বেশি। আপনাকে প্রায় ৩০০০-৪০০০ ডলার খরচ করতে হবে যদি আপনি সব পরীক্ষা একবারে পাশ করে যান। অর্থাৎ ২.৫-৩.২ লাখ টাকা লাগবে।

এখানেও তিনটা লেভেলঃ লেভেল ১, লেভেল ২ আর লেভেল ৩। লেভেল ১ এর জন্য বছরে দুবার পরীক্ষা দেয়া যায়। আর লেভেল ২ আর লেভেল ৩ এর জন্য বছরে একবারই পরীক্ষা দেয়া যায়।

প্রথম দুটি লেভেল এ আপনার শুধু এমসিকিউ আসবে। কিন্তু লেভেল ৩ তে শুধু রচনামূলক প্রশ্নই আসবে। এজন্য আমাদের ক্ষেত্রে হয়তো লেভেল ৩ কঠিন লাগতে পারে।

প্রফেশনাল এক্সপেরিয়েন্স এর যে নিয়মটা আছে তা বাংলাদেশ থেকেও পাওয়া যায়, কারন আমার এক কাজিন একবারেই প্রতি লেভেল সর্বোচ্চ মার্কসহ পাশ করেছেন এবং উনি বাংলাদেশ এই একটী ব্যাঙ্ক এ চাকুরী করতেন। কথা প্রসঙ্গে, এই কাজিন কে সিএফএ সন্থা তাদের প্রধান কার্যালয়ে নিয়ে গিয়ে সংবর্ধনা দিয়েছে রেকর্ড মার্কস পাওয়ার জন্য।

পরীক্ষাও খুব সম্ভবত দেয়া যায়। আগে আমার কাজিন যখন পরীক্ষা দিতো তখন মালয়েশিয়া গিয়ে দিতে হতো। তবে এখন নাকি বৃটিশ কাউন্সিলে পরীক্ষা দেয়া যায় বলে আমি শুনেছি।

আর কিছু যদি জানতে চান তাহলে জিজ্ঞাসা করতে পারেন, আমি পরবর্তীতে জেনে জানাবো।

১১

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

@সেভারাস ভাই সুন্দর একটা ইনফরমেটিভ লেখার জন্য ধন্যবাদ আপনাকে।
আচ্ছা এমন কি কোন কনডিশন আছে যে সিএ পড়তে হলে অবশ্যই মেজর সাবজেক্ট  এ অ্যাকাউন্টিং থাকতে হবে এবং সিএফএর ক্ষেত্রে ফিন্যান্স?
সিএফএর আপডেট এর অপেক্ষায় রইলাম।

The dream is not that you see in sleep , dream is which does not let you sleep.

১২

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

অনেক ধন্যবাদ সেভু ভ্রাতা hug hug hug

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৩

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

মাহফুয লিখেছেন:

আচ্ছা এমন কি কোন কনডিশন আছে যে সিএ পড়তে হলে অবশ্যই মেজর সাবজেক্ট  এ অ্যাকাউন্টিং থাকতে হবে এবং সিএফএর ক্ষেত্রে ফিন্যান্স?

সিএফএ বা সিএ পড়ার জন্য কোনো নির্দিষ্ট বিষয় থাকতে হবে এমন কোনো নিয়ম নেই।

সিএফএর আপডেটটা রাতের মধ্যে পেয়ে যাবেন। উইন্ডোজ মাত্র ইন্সটল শেষ হল।

১৪

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

আচ্ছা ভাই আমার একটি তথ্য দরকার সেটি হলো সিএ এর পাশাপাশি  মাষ্টার্স পড়তে কি কোন নিষেধাজ্ঞা আছে নাকি?

ছোট হও, কিন্তু লক্ষ্য উচ্চ হোক;
বড় এবং উচ্চ হয়ে নিম্নদৃষ্টিসম্পন্ন শকুনের মত হওয়ায় লাভ কি?

১৫ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সেভারাস (২৭-০২-২০১৩ ০১:৫৮)

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

শংকর লিখেছেন:

আচ্ছা ভাই আমার একটি তথ্য দরকার সেটি হলো সিএ এর পাশাপাশি  মাষ্টার্স পড়তে কি কোন নিষেধাজ্ঞা আছে নাকি?

নিষেধাজ্ঞা যা আছে তা শুধু কাগজে কলমে। তাছাড়া তা আপনি কোন ফার্মে আছেন তার উপরও নির্ভর করে। ফার্ম যদি আপনাকে অনুমতি দেয় পরীক্ষা দেয়ার জন্য তাহলেই আপনি পরীক্ষা দিতে পারবেন (এটা আবার লিখিত পাওয়া যাবে না কারন এটা যে নিয়ম বহির্ভূত)।


উপরে আপডেট করে দিলাম

১৬

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

ফায়ারফক্স লিখেছেন:

সিএ করা নাকি অনেক ধৈর্যের ও পরিশ্রমের।

হ, আমি দুই বছর করে খ্যান্ত দিসি  hairpull

মুইছা দিলাম। আমি ভীত !!!

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৭

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

ফারহান খান লিখেছেন:
ফায়ারফক্স লিখেছেন:

সিএ করা নাকি অনেক ধৈর্যের ও পরিশ্রমের।

হ, আমি দুই বছর করে খ্যান্ত দিসি  hairpull

আপনি দু বছর করে ক্ষ্যান্ত দিয়েছেন কেন জানতে পারি বিস্তারিত?

১৮

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

সেভারাস ভাই CFA এবং ACCA নিয়েও যদি আলোচনা কতেন তাহলে খুভ উপকার হতো।।

১৯

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

অনেক তথ্যবহুল টপিক । অনেকেরই কাজে আসবে

আর পড়তে মন চায় না........... বহুত পড়ছি
শুধু এমবিএ টার জন্য একটু শখ লাগে পড়তে

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
<script type="text/javascript" src="http://www.golpokobita.com/embeds/baaaE6.js?layout=hori&h=360&w=567"></script>

২০

Re: চার্টার্ড একাউন্টেন্টসি

বালক লিখেছেন:

সেভারাস ভাই CFA এবং ACCA নিয়েও যদি আলোচনা কতেন তাহলে খুভ উপকার হতো।।

আপনি বোধহয় দেখেননি আমি সিএফএ নিয়ে যতদূর জানি লিখেছি। আর এসিসিএ সম্পর্কে আমার জ্ঞান শুন্যের কোঠায়