টপিকঃ স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

জ্বী ঠিকই ধরেছেন --- এটা কার্বাইড কিংবা ফর্মালিন দেয়ার যোগ্য কোনো ফল নহে বরং জেমস বন্ড মুভির কথাই বলছি। ... ... ... ... ন ... না না না ... ... কোনো মুভি রিভিউও না এটা। শুধু আজকে আমার সিনেপ্লেক্সে এই সিনেমা শোনার অভিজ্ঞতাটা শেয়ার করবো।

হ্যাঁ দেখার নয়, শোনার অভিজ্ঞতা, সিনেপ্লেক্সেই। কাহিনী একটু লম্বাই বটে --- জ্বী জ্বী আমার কাহিনীর কথা বলছি স্কাইফলের নয়।

গত উইকএন্ডে বউকে নিয়ে গিয়েছিলাম আর্মি স্টেডিয়ামে, সেখানে লাইভ এস এ টিভি'র উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখলাম, মশাদেরকেও আপ্যায়ন করে এলাম। গত রাতে আবার বাসায় ফিরে দেখি উনি ইউটিউবে অ্যানি ফ্রাংকস ডায়েরি মুভি দেখছেন। এর পর আজকেও যখন আবার সিনেপ্লেক্সে মুভি দেখতে চাইলো আমার চক্ষু তো চড়কগাছ! কাম কাজ নাই, প্রফেশনাল ডেভেলপমেন্ট নাই .... খালি মুভি! আমার অত ফালতু সময় নাই --  ঐ সময়ে ঘুমাইলেও লাভ, টিভি দেখলেও লাভ অন্তত হুদাই অতগুলা টাকা খরচ করা লাগবে না। আমারে ভুজুং ভাজুং দেয় -- বলে মুভির টিকিট ১২৫ কি ১৪০ হবে; আমার বিলক্ষন মনে আছে আগেরবার স্পাইডার ম্যান থ্রিডির সময়ে ৩৭০ করে নিয়েছিলো ... ... ... ...

আমার আপত্তি কি আর ধোপে টেকে! বাসার পাশেই বসুন্ধরা শপিং মল তথা সিনেপ্লেক্স। উনি চলে গেলেন মুভির টিকিট কাটতে। আমার উপর কড়া নির্দেশ যে ফোন পেলে সেই অনুযায়ী চলে যেতে -- ঘাড়ে একটাই মাথা কাজেই ... ... ...। টিকিট পাইলেন - টেলিভিষন বা স্নো হোয়াইট নাকি চোরাবালি কোনটারই না পেয়ে স্কাইফলের টিকিট কেটেছেন, সিনেমা শুরু হতে আরও দেড় ঘন্টার বেশি বাকী --- বাসা থেকে ওটা ৩ মিনিটের হাঁটা পথ হলেও বাসায় আসবেন না বরং ঐ সময়ে উনি ইভিনিং ওয়াক করবেন নিচের মোস্তফাতে। জ্বী ঠিকই শুনেছেন -- নাম শুনে খ্যাত লাগলেও, গত ১২ই জানুয়ারী থেকে বসুন্ধরার বেসমেন্টে চালু হওয়া মোস্তফা মার্ট সিঙ্গাপুরের খুব বড় একটা শপিং মলের শাখা। এখানে জিনিষপাতিও সেইরকম পাওয়া যায়।

যা হোক, ৭টা ০৫ মিনিটে শুরু হবে সিনেমা, আমি গিয়ে দুইজনে পোনে ৭টাতেই ঢুকে পড়লাম।  টিকেট প্রতিজন ২২৫ টাকা। সাথে সাথে তো আর হলে ঢুকতে দেয় না --- আগের শো শেষ হওয়ার পর ক্লিনাররা বের হল, তারপর আমরা ঢুকলাম।

চুপচাপ বসে চোখ বন্ধ করে রাখলাম। আমি দেখুম না তো দেখুমই না .... .... হুঁহ্ ।

শুধু জাতীয় সংগীতের সময়ে চোখ খুলে দাঁড়িয়েছি। বাকী সময় চোখ বন্ধ। তাই শুধু শুনেছি।

ইন্টারভেলের আগের পর্বের মাঝামাঝি সময়ে মনে হল কোথায় জানি নাক ডাকার শব্দ পাচ্ছি। কিছুক্ষন পর আবার, এবার আস্তে করে বামে ঘুরে চোখ পিট পিট করে খুলে আমার পাশের ব্যক্তির দিকে তাকালাম -- কান্ডটা ঐ ভদ্রলোকেরই। হিংসাই লাগলো --- এই কষ্টকর খাড়া চেয়ারে বসে, কানফাটানি ডলবি সাউন্ডেও কত আরামে ঘুমিয়ে নাক ডাকে! surprised সাথে সাথে বউকে দেখালাম  hehe --- দেখো খালি আমিই না, আমার চেয়েও সরেষ লোক আছে!

আবার চোখ বন্ধ, কিন্তু ১০ মিনিট পর পাশে একটু নড়াচড়ার আভাস পেয়ে তাকিয়ে দেখি নাহ উনি আবার ঢুলু ঢুলু চোখে দেখছেন -- আবার ঘুমাবেন হয়তো। এর কিছুক্ষন পর ইন্টারভেল। আমি একটু ফ্রেশরুমে যাবো, পাশের লোককে পার হয়ে বের হতে হবে। দেখলাম উনি আধা জাগন্ত অবস্থায় -- পা বাড়িয়েও দাঁড়াতে হল, কারণ ওনার পাশে ওনার সঙ্গীনিও চোখ বন্ধ করে ঘুমাচ্ছেন। ওনাকে একটু ইশারায় বললাম, যে ম্যাডামকে একটু পা সরাতে বলুন। উনিও সঙ্গীনিকে ডেকে তুললেন। ফ্রেশরুম থেকে সিটে ফেরত আসার সময়েও আরেকবার একইভাবে ভদ্রলোকের সাহায্য নিয়ে ওনার সঙ্গীনিকে জাগাতে হয়েছিলো।

আবার চোখ বন্ধ করে মটকা মেরে বসে আছি। তবে মাঝে মধ্যে বামপাশের ভদ্রলোকের নাক ডাকার শব্দও পাই। এর মধ্যে একবার মোবাইল বের করে ঘড়ি দেখার সময়ে ডানে বউয়ের পাশের দুটো সিট ফাঁকা দেখলাম --- বউ বললো তাঁর দুই পাশে দুই চিড়িয়া। একজন আমি - চোখ বন্ধ, আর পাশের দুইজনের কথা শুনে বুঝেছে ওরা না জেনেই এই হলে ঢুকেছে এবং হাফটাইমে ভেগে গেছে!!

মুভি শেষ হলে বউ আমারে গুতা দিয়ে বলে চোখ খুলে ওঠ যাই। জাতীয় পতাকা আর ইন্টারভেলের পর এই আরেকবার স্ক্রিনের দিকে তাকালাম যখন কলাকুশলীদের নাম দেখাচ্ছে। জিজ্ঞেস করলাম - তাহলে এম ফুলের দোকানে কাজ নিয়েছে। ও বললো না এম তো মারা গেছে আগের এ্যাকশনে। ওহহো, তাইতো কোথায় জানি পড়েছিলাম স্কাইফলে এম মারা যায় ... ... ... গত কয়েকদিন কাজের চাপে প্রায় পুরা সময়েই হয় কম্পিউটার নাইলে প্রজেক্টরের দিকে তাকিয়ে থাকতে হয়েছে, তাই এই আড়াই ঘন্টা চোখ বন্ধ রেখে বেশ আরামই লাগলো -- আর মুভির আবহ সংগীত যে একটা ব্যাপার সেটাও অনুভব করতে পারলাম অন্যমাত্রায়।

এই প্রসঙ্গে মনে পড়লো বেশ অনেকদিন আগে ঢাকায় বেড়াতে আসা ছোট্ট চাচাতো ভাইয়ের অনুরোধে তাকে নিয়ে গিয়েছিলাম খোঁজ দ্যা সার্চ দেখতে। সেবারও চোখ বন্ধ রেখেছিলাম শুরুতে। কিন্তু সিনেমা শুরুর একটু পরেই চোখ খুলে দেখতে বাধ্য হয়েছিলাম -- হল ভর্তি দর্শকের হাসাহাসিতে নিজেকে বঞ্চিত করতে মন মানে নাই - অনন্ত জলিল রকস্। আর আজকের রাতের শো বলেই হয়তো অর্ধেকের বেশি সিট খালি ছিল (যদিও চোরাবালি বা অন্য সিনেমাগুলোর টিকিট পায় নাই) - তখন ক্লান্ত চোখে স্ক্রিনের দিকে তাকাতে এম্নিতেই ইচ্ছা করছিলো না।

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

lol2 lol2  হলে গিয়ে ঘুম ! সাংঘাতিক বেপার

মুইছা দিলাম। আমি ভীত !!!

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

ফারহান খান লিখেছেন:

lol2 lol2  হলে গিয়ে ঘুম ! সাংঘাতিক বেপার

আপনার মন্তব্য দেখে মনে পড়লো যে, আম্মার কাছে শুনেছিলাম, সেই আমলে ওনাদের এক প্রতিবেশি (সম্পর্কে ওনার পাড়াতো মামা) প্রতিদিন স্থানীয় সিনেমা হলে ম্যাটিনিতে ঢুকে ঘুমাতো। কারণ, হলে ফ্যান ছিল ... বাসায় ছিল না (সম্ভবত ১৯৬০ সালের আশেপাশের ঘটনা)।  kidding

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

ক্রিটিক আর বক্স অফিস রিভিউতে তোলপাড় এই মুভি লইয়া, আর আপনে ঘুমাইলেন!!!!   surprised আগেই দেইখা ফেলসেন নিচ্চই!!!  thinking তাই কন!!!  isee

গর্ব এবং আশায় ভরা বুক! কাঁধে কাঁধ, হাতে হাত, সমুন্নত শির!
আমি তুমি সবাই মিলে এক, একই লাল সবুজের কোলে সবার নীড়।

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

কিছুক্ষন আগেই দেখে শেষ করে কেবল প্রজন্মে ঢুকে দেখি এই পোস্ট ...
লল ... ঘুম ???
হে হে  মজা পাইলাম ...

শ্রাবন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

কাজ টি ঠিক করেন নাই। স্কাইফল অসাধারণ এক মুভি ছিল।

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

যাপিত সময় লিখেছেন:

ক্রিটিক আর বক্স অফিস রিভিউতে তোলপাড় এই মুভি লইয়া, আর আপনে ঘুমাইলেন!!!!   surprised আগেই দেইখা ফেলসেন নিচ্চই!!!  thinking তাই কন!!!  isee

ঘুমাইনাই তো! চোখ বন্ধ করে বসে ছিলাম। ঘুমাইতে পারলে আরাম হইতো  wink। নাহ্ এখনও দেখি নাই, ভবিষ্যতে কোন সময় দেখবো হয়তো। dream

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:

কাজ টি ঠিক করেন নাই। স্কাইফল অসাধারণ এক মুভি ছিল।

এটাতে পরবর্তীতে আমার প্রবল বিরোধীতা এবং অনিচ্ছা সত্বেও আমাকে টানাটানি করা কমার সম্ভাবনার ক্ষেত্র তৈরী হল। যদিও আগে একবার স্কাইফল দেখার ইচ্ছা জানিয়েছিলাম, কিন্তু আজ আমি মুভি দেখে সময় ও অর্থ নষ্ট না করার কথা বলেছিলাম। একান্তই সঙ্গী দরকার হলে, ওর বড় ভাইকে নিয়ে যেতে বলেছিলাম (আমাদের একই ভবনে থাকে)-- কারন সে-ও মুভি পাগল।

আমার মেজ ফুফা দক্ষিনবঙ্গের মানুষ। ওনার বাসায় গেলে জোর জবরদস্তি করে খাওয়াতো -- এটাই ওদিকের কালচার; লাজুক গেস্ট না না বলবে আর হোস্ট খাতির করবে ---- কিন্তু আমাদের ওখানের কালচার সেরকম না, টেবিলে খাবার দিয়ে দেয়া হবে সব - হোস্ট সাধারণত কোনো জোরাজুরি করে না, নিজ দায়িত্বে নিয়ে আরামমত খাও। দাওয়াত দিলে ফুফা নিজে খাওয়া দাওয়া তদারকি করেন - আমি যতই বলি আর না, ততই প্লেট উপুর করে খাবার দেয় -- যেন জীবনে কোনদিন খাই নাই, ওনার ওখানেই জীবনের খাওয়া খেয়ে নিতে হবে। তো একবার এইরকম এক আযাবের দাওয়াতে আমি এইরকম জোরাজুরির এক পর্যায়ে শান্ত ভাবে ফুফাকে বললাম আমি আর খাব না, সম্ভব না, দিয়েন না।

কিন্তু কে শোনে কার কথা। আবার প্লেটে পাহাড়ের মত উঁচু করে খাবার দিল। আমি সুন্দর ভাবে এক কোনা দিয়ে আগে যতটুকু বাকী ছিল, ততটুকুই শুধু খেয়ে চুপ চাপ উঠে পড়লাম। ফুফা তো তাজ্জব -- কী ব্যাপার? কী ব্যাপার!!
তখন আমি শান্ত গলায় বললাম -- আপনাকে আমি আগেই মানা করেছিলাম; আমার পক্ষে আর খাওয়া সম্ভব না - বলে হাত ধুতে চলে গেলাম।

-- এতে কাজ হয়েছিলো। এর পর কোনো দাওয়াতে খাতির করার জন্য আরেকটু নেন টাইপের কথাবার্তা বললেও জোর করে দেয়ার মত আযাব সৃষ্টি করেনি ফুফা। শুধু আমি নয় বরং আত্মীয় স্বজন সবাই এতে সেই আযাবের হাত থেকে পরবর্তীতে বেঁচে গিয়েছিলো।

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন মরুভূমির জলদস্যু (২৬-০১-২০১৩ ১০:৩৮)

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

বোরিং কাহীনি।
না না, আপনারটা না শামীম ভাই, স্কাইফলের কথা বলছি। আপনারটাতো রক +
বন্ড সিরিজের সবচেয়ে বাজে কাহীনি মনে হয় এইটাই।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

আজব পাবলিক! টাকা দিয়ে চোখ বন্ধ করে সিনেমা না শুনে সেটা দিয়ে আইস্ক্রীম খাইলেই পারতেন। আর মোস্তফা মার্কেটের নামটা চরম খ্যাত টাইপের হইলেও দোকান একখান বটে। তবে জুতা কিনতে গিয়ে হতাশ হইছি। নিজে হাসপাপিজ পরিধান করে গিয়েছিলুম বিধায় ব্যাপক ভাবে ছিলুম। কিন্তু ওদের জুতার অংশে গিয়ে চক্ষু চড়কগাছ। হাসপাপিজ ওদের সবচেয়ে কমদামী ব্র্যান্ড surprised বেশির ভাগ জুতার দাম ১০০০০টাকার উপরে  brokenheart

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

১০

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

শামীম লিখেছেন:

-- এতে কাজ হয়েছিলো। এর পর কোনো দাওয়াতে খাতির করার জন্য আরেকটু নেন টাইপের কথাবার্তা বললেও জোর করে দেয়ার মত আযাব সৃষ্টি করেনি ফুফা। শুধু আমি নয় বরং আত্মীয় স্বজন সবাই এতে সেই আযাবের হাত থেকে পরবর্তীতে বেঁচে গিয়েছিলো।

lol thumbs_up দারুণ কাজ করেছেন।

সুপাঠ্য লেখার জন্য ধন্যবাদ।

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

১১

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

আমার মনে হয় না কাহানি টা সত্যি! বউয়ের সাথে হলে কি ঘুম আসে.............

দুরন্ত পথিক

১২

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

দারুন কাজ করেছেন শামীম ভাই  thumbs_up  আমি সিনেমাহলে গিয়ে এই বন্ড মুভি না দেখে বাসায় ল্যাপিতে DVDrip নামিয়ে দেখেছি, ড্যানিয়েল ক্রেগরে দেখলেই আমার ভুয়া মনে হয়, সে বন্ড চরিত্রে আসার পর থেকে বন্ড মুভির প্রতি আকর্ষণ হারিয়ে ফেলেছি।

মুক্ত অভি'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৩

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

মরুভূমির জলদস্যু লিখেছেন:

বোরিং কাহীনি।
না না, আপনারটা না শামীম ভাই, স্কাইফলের কথা বলছি। আপনারটাতো রক +
বন্ড সিরিজের সবচেয়ে বাজে কাহীনি মনে হয় এইটাই।

ডায়লগ যা শুনেছি তাতে আমারও তা-ই মনে হয়েছে - তার-ছেড়া-কাউয়া এবং বেস্ট হাফদের সহ স্পাইডারম্যান থ্রিডি দেখার আগে এখানে দেখেছিলাম অ্যাভেঞ্জারস, সেখানেও ডায়লগে প্রচুর হিউমার ছিল -- পাবলিকও হাসতেছিলো -- এইখানে পাবলিক সব চুপচাপ আর মাঝে মাঝে নাক ডাকানির শব্দ। তবে সাউন্ড শুনে বুঝেছি চরম গোলাগুলি ছিল।

তার-ছেড়া-কাউয়া লিখেছেন:

আজব পাবলিক! টাকা দিয়ে চোখ বন্ধ করে সিনেমা না শুনে সেটা দিয়ে আইস্ক্রীম খাইলেই পারতেন। আর মোস্তফা মার্কেটের নামটা চরম খ্যাত টাইপের হইলেও দোকান একখান বটে। তবে জুতা কিনতে গিয়ে হতাশ হইছি। নিজে হাসপাপিজ পরিধান করে গিয়েছিলুম বিধায় ব্যাপক ভাবে ছিলুম। কিন্তু ওদের জুতার অংশে গিয়ে চক্ষু চড়কগাছ। হাসপাপিজ ওদের সবচেয়ে কমদামী ব্র্যান্ড surprised বেশির ভাগ জুতার দাম ১০০০০টাকার উপরে  brokenheart

আরে বাবা ... আমিও তো বলেছিলুম সিনেমা না দেখে চল বরং কোরিয়ান খাবারের দোকানটায় সুশি খাই। আমার কথা টিকে নাই। আমার আপত্তি সত্বেও টিকিট তো দেড় ঘন্টা আগেই কাটা হয়ে গিয়েছিলো। আমি হইলাম গিয়া বডিগার্ড - আমার সিনেমা দেখা-ট্যাখা বা ইচ্ছা-অনিচ্ছার মূল্য কোথায়! সিনেমা হলে না ঢুকলে বডিগার্ডের দায়িত্ব -- কেমনে কি! আর টিকিট যেহেতু আগেই কেটেছে, ঐ টাকা দিয়ে খাওয়া দাওয়ার করার উপায় নাই।
মাথার উপর পাহাড়সম কাজের লোড। গতকাল কাজ করার চরম মুডে ছিলাম - কাজও দৌড়ায় দৌড়ায় আগাচ্ছিলো। এই ডিস্টার্বেন্সের কারণে দেখো -- কাজের মুডের দফারফা। অকাজে বড় একখান পোস্ট লিখে ফেললাম  crying

Shah Imran লিখেছেন:

আমার মনে হয় না কাহানি টা সত্যি! বউয়ের সাথে হলে কি ঘুম আসে.............

আমার বিবাহের বয়স ১০ বছরের মত। আর আমি ঘুমাইনিতো। খালি মুভি দেখবো না বলে চোখ বন্ধ করে বসে ছিলাম -- আড়াই ঘন্টা চোখ বন্ধ করে বসে থাকাতেও অনেক কষ্ট হয়েছে। তবে পাশের নাক ডাকানি পার্টি পুরা বিষয়টাকে বেশ ইন্টারেস্টিং করে ফেলেছিলো  lol

মুক্ত অভি লিখেছেন:

দারুন কাজ করেছেন শামীম ভাই  thumbs_up  আমি সিনেমাহলে গিয়ে এই বন্ড মুভি না দেখে বাসায় ল্যাপিতে DVDrip নামিয়ে দেখেছি, ড্যানিয়েল ক্রেগরে দেখলেই আমার ভুয়া মনে হয়, সে বন্ড চরিত্রে আসার পর থেকে বন্ড মুভির প্রতি আকর্ষণ হারিয়ে ফেলেছি।

সিনেপ্লেক্সে মুভি দেখার মজাই আলাদা। তবে একমাত্র অসুবিধা হল ইচ্ছামত pause দেয়া যায় না।

এককালে বন্ড মুভি খুব আকর্ষনীয় লাগতো - ইদানিং তেমন একটা ভালো লাগে না। বিশেষত ডবল জিরো এজেন্ট ইচ্ছামত মানুষ মেরে ফেলবে -- সে-ই আল্টিমেট বিচারক -- এই কনসেপ্টটাই ইদানিং বদহজম হয়।

এছাড়াও যেসব সিনেমাতে হিরোই একমাত্র মানুষ আর সব মানুষ কীটপতঙ্গ - তাদেরকে ইচ্ছামত ঠুস্ ঠাস্ মেরে ফেলে সেগুলো ইদানিং ভাল লাগে না। খুবই একপেশে দৃষ্টিভঙ্গি! সেজন্য গালফ ওয়ার, ভিয়েতনাম ওয়ার নিয়ে সিনেমাগুলোও ভালো লাগে না।

FYI: আমি মুভি নামাই না -- সম্ভবত সেগুলো আইনসঙ্গত নয়।

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৪

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

শামীম লিখেছেন:

জ্বী ঠিকই শুনেছেন -- নাম শুনে খ্যাত লাগলেও,

এ কথাটা কেটে দেন। মোস্তফা হযরত মোহাম্মদ সাল্লালাহু আলাইহিওয়াসাল্লামের নাম। একে ক্ষ্যাত উপাধি দেয়া উচিত না।

এম. মেরাজ হোসেন
IQ: 113
http://www.iq-test.cc/badges/4774105_3724.png

১৫

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

শামীম লিখেছেন:

FYI: আমি মুভি নামাই না -- সম্ভবত সেগুলো আইনসঙ্গত নয়।

বাহ বাহ! আপনি আর রিং ভাইকে দেখলাম এরকম। দারুণ। clap

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

১৬

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

মেরাজ০৭ লিখেছেন:
শামীম লিখেছেন:

জ্বী ঠিকই শুনেছেন -- নাম শুনে খ্যাত লাগলেও,

এ কথাটা কেটে দেন। মোস্তফা হযরত মোহাম্মদ সাল্লালাহু আলাইহিওয়াসাল্লামের নাম। একে ক্ষ্যাত উপাধি দেয়া উচিত না।

নাহ্ কাটবো না। আমি নবীজির (স:) নাম নিয়ে কিছু বলিনি, বলেছি একটা দোকানের নাম নিয়ে।
জব্বার কাকুকে নিয়ে এ্যাত কথা হয়, কিন্তু জব্বার - আল্লাহর এক নাম ---- তখনও তাহলে মানা করবেন কি?
কুদ্দুস কে কুদ্দুইচ্ছা ইত্যাদি কত কিছু বলা হয় -- এটাও আল্লাহর এক নাম।
লেট-লতিফ --- এটাও বলা যাবে না। লতিফও -- আল্লাহর নাম।

-- স্পর্শকাতরতা থাকলে সবজায়গাতেই থাকা উচিত।

রেফারেন্স: http://en.wikipedia.org/wiki/Names_of_God_in_Islam

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৭

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

শামীম লিখেছেন:

সিনেপ্লেক্সে মুভি দেখার মজাই আলাদা। তবে একমাত্র অসুবিধা হল ইচ্ছামত pause দেয়া যায় না।

সহমত, এখনো পর্যন্ত যদিও সিনেপ্লেক্সে গিয়ে একটা মুভিও দেখা হলোনা  sad

মুক্ত অভি'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৮

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

শামীম লিখেছেন:
মেরাজ০৭ লিখেছেন:

এ কথাটা কেটে দেন। মোস্তফা হযরত মোহাম্মদ সাল্লালাহু আলাইহিওয়াসাল্লামের নাম। একে ক্ষ্যাত উপাধি দেয়া উচিত না।

নাহ্ কাটবো না। আমি নবীজির (রঃ) নাম নিয়ে কিছু বলিনি, বলেছি একটা দোকানের নাম নিয়ে।
জব্বার কাকুকে নিয়ে এ্যাত কথা হয়, কিন্তু জব্বার - আল্লাহর এক নাম ---- তখনও তাহলে মানা করবেন কি?
কুদ্দুস কে কুদ্দুইচ্ছা ইত্যাদি কত কিছু বলা হয় -- এটাও আল্লাহর এক নাম।
লেট-লতিফ --- এটাও বলা যাবে না। লতিফও -- আল্লাহর নাম।

-- স্পর্শকাতরতা থাকলে সবজায়গাতেই থাকা উচিত।

রেফারেন্স: http://en.wikipedia.org/wiki/Names_of_God_in_Islam

আমি জব্বার কাগুরে কাগু কইলেও ক্ষ্যাত নাম এইটা বলিনাই। আমি আর আব্দুল কুদ্দুসকেও কখনো কুদ্দুইস্সা বলিনাই। কারন কাউকে শুধু কুদ্দুস বলা যায়না।

এম. মেরাজ হোসেন
IQ: 113
http://www.iq-test.cc/badges/4774105_3724.png

১৯

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

আমার যতদূর মনে পড়ে, যতবারই আমি সিনেপ্লেক্সে মুভি দেখতে গিয়েছি, ততবারই আমি পুরোটা সময় ঘুমিয়েছি। শুধু পপকর্ণ আর ড্রিংকস খাওয়ার সময়টুকু কোনমতে চোখ খুলে রাখতাম ভদ্রতার কারনে।  donttell

২০

Re: স্কাইফল শ্রবন অভিজ্ঞতা

মুভির শুরুটা সুন্দর ছিল ... ইস্তানবুল , টার্কি :p

শ্রাবন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত