টপিকঃ আজ(১৩ নভেম্বর) থেকে বিপিএল শুরু হচ্ছে

বাংলাদেশের ফুটবল আবারো জেগে উঠবে বিপিএল এর মধ্যে দিয়ে তার প্রত্যাশা করি আমরা।

http://paimages.prothom-alo.com/resize/maxDim/340x1000/img/uploads/media/2012/11/11/2012-11-11-19-48-50-50a001227bc2b-08.jpg
আজ শুরু ষষ্ঠ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে এটিই সবচেয়ে বড় কৌতূহল। গত পাঁচবারের চারবারই চ্যাম্পিয়ন আবাহনী। প্রথম তিনবার আবাহনীর শিরোপা জয়ের পর চতুর্থ মৌসুমে সেই সাফল্যধারায় ছেদ টেনেছিল শেখ জামাল। গতবার আবারও ট্রফি হাতে নিয়েছে আবাহনী। এবারও এই দুই দল শিরোপার অন্যতম দাবিদার। তবে কাগজে-কলমে সেরা ফেডারেশন কাপজয়ী শেখ রাসেলের ওপরই এবার আলোটা সবচেয়ে বেশি।
ঘরোয়া ফুটবলে একসময় আবাহনী-মোহামেডান ছিল ‘এক বনে দুই রাজা’। সময়ের স্রোতে মুক্তিযোদ্ধা, শেখ জামাল, বিজেএমসি এসেছে। বেশ কয়েক বছর বড় দলের তকমা গায়ে নিয়ে কাটালেও এখন পর্যন্ত লিগে সেরা দুইয়ে থাকতে পারেনি শেখ রাসেল। তবে এবার সেরা দল গড়ে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে শেখ রাসেল। এবারের লিগে তাই পরিষ্কার ফেবারিট বলে দেওয়া কঠিন।
লিগ শুরুর আগে প্রতিবারই থাকে অনেক প্রত্যাশা। স্থানীয় খেলোয়াড়েরা ভালো খেলবেন, বিতর্কহীন রেফারিং, পাতানো খেলামুক্ত লিগ...। কিন্তু মৌসুম শেষে খেরো খাতায় রয়ে যায় অপূর্ণতা। তবে আসল যে চাওয়া—ফুটবলাররা ভালো খেলবেন—তা এবার ফেডারেশন কাপে খানিক পূরণ হয়েছে। ফুটবলারদের জন্য বাড়তি প্রেরণা ৮ নভেম্বর ফেডারেশন সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন ঘোষিত ‘ভিশন ২০২২’। কাতার বিশ্বকাপে বাংলাদেশ খেলার স্বপ্ন দেখছে—ফুটবলারদের জন্য এটি তো উজ্জীবনী মন্ত্রের কাজ করেই।
ঢাকার ফুটবলে অনেক দিনই বিদেশি ফুটবলারের ছড়াছড়ি। সবাই যে খুব উঁচু মানের তা নয়। তবে ব্যতিক্রম তো আছেই। ফেডারেশন কাপে বেশ কজনই আলাদাভাবে নজর কেড়েছেন। তাদের মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য—শেখ রাসেলের হাইতিয়ান মিডফিল্ডার সনি নর্দে। ফেডারেশন কাপে জাতীয় দলের খেলোয়াড়দেরও অনেকে ফিরে পেয়েছেন নিজেদের। দুঃস্বপ্নের মতো দুটি মৌসুম কাটিয়ে স্ট্রাইকার এমিলি যেমন ফিরেছেন পরিচিত ঔজ্জ্বল্যে। ফেডারেশন কাপে শেখ রাসেলকে চ্যাম্পিয়ন করার পথে করেছেন টুর্নামেন্ট সর্বোচ্চ ৭ গোল।
নাম বাংলাদেশ লিগ, তবে ষষ্ঠ মৌসুমেও এটি মূলত ঢাকাকেন্দ্রিকই হয়ে আছে। এবারও লিগে ভেন্যু বাড়ল না। গতবার বিজেএমসি ভেন্যু করেছিল টাঙ্গাইলকে, এবার তারা তা বাতিল করেছে। মুক্তিযোদ্ধার কল্যাণে এবার গোপালগঞ্জকে নতুন ভেন্যু হিসেবে পাওয়া গেল, নইলে লিগটা শুধু ঢাকা আর ফেনীতেই সীমাবদ্ধ হতে পড়ত।
তবে সবচেয়ে বড় ঘাটতি, নয় দলের ষষ্ঠ লিগটা হয়ে পড়ল বেশ সংক্ষিপ্ত। লিগের অঙ্গহানি করে শেষ মুহূর্তে নবাগত কক্স সিটি সরে দাঁড়িয়েছে। ফলে প্রতি দল ম্যাচ পাচ্ছে মাত্র ১৬টি করে। অথচ আগের পাঁচটি লিগে দলের সংখ্যা কখনো ১১-এর নিচে নামেনি। এবার ম্যাচ কমে যাওয়ায় খেলা হবে সপ্তাহে চার দিন।
আজ প্রথম দিনে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বিকেল পাঁচটায় নামছে চ্যাম্পিয়ন আবাহনী। প্রতিপক্ষ ফেনী সকার। ফেডারেশন কাপের শেষ আট থেকে বিদায় নেওয়া আকাশি-নীলরা চায় শুভসূচনা, এই ম্যাচ দিয়ে বাংলাদেশের ফুটবলে অভিষেক হবে আবাহনীর নতুন ইরানি কোচ আরদেশির পোরনেমাতের।
পেশাদার লিগের ষষ্ঠ আসরের আরেকটি বিশেষত্ব, ফরাশগঞ্জ-রহমতগঞ্জ দ্বিতীয় স্তরে নেমে যাওয়ায় এবার পুরান ঢাকার কোনো দল নেই।
http://www.prothom-alo.com/detail/date/ … ews/304974

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: আজ(১৩ নভেম্বর) থেকে বিপিএল শুরু হচ্ছে

সব সময়ে চ্যাম্পিয়ন শেখ রাশেল বা শেখ জামাল বা শেখ কামাল দল, আর এক সময়ে ছিলো আবাহনী আর মোহামেডান যুদ্ধ, সবার র ছাদে ছাদে দেখা যেত আবাহনী আর মোহামেডানের লক্ষ লক্ষ পতাকা, মাঠে ছিলো দর্শক ভর্তি আর আজ ? এখন যদি কেহকে বলেন এক সময়ে ছাদে দেখা যেত আবাহনী আর মোহামেডানের লক্ষ লক্ষ পতাকা সবাই বলবে আষাড়ে গল্প ...............