সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন দ্যা ডেডলক (২০-১০-২০১২ ২২:৪৮)

টপিকঃ ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

যারা দেশের বাইরে থাকেন তাদের কাছে থ্রিডি মুভি দেখা পানি-ভাত। কিন্তু বাংলাদেশে তেমনটা নয়। পিচ্চি কাল হতে বর্তমান পর্যন্ত ডেডু মিয়ার জীবনে থ্রিডি এর প্রভাব নিয়ে আলোচনা করবো।

http://i.imgur.com/ABsS9.jpg

স্টেজ ১.০

যখন স্কুলে ছিলাম সেই সময় খবরের কাগজের ৩য় পাতায় ইয়া বড় বড় বিজ্ঞাপন দিত "কিনে নিন থ্রিডি থিয়েটার - হয়ে যান লাখপতি ...... প্রতি এলাকায় ডিস্ট্রিবিউটর নিয়োগ চলছে।" সাথে  ইয়া বড় ডাইনোসরের ছবি। ছবিতে দেখা যেত টিভি হতে ডাইনোসর বের হয়ে আসছে। আর বাচ্চারা কালো চশমা পরে গালে হাত দিয়ে হা করে তা দেখছে। বিজ্ঞাপন দেখে এটা আমার দেখার খায়েশ হলো। কিন্তু এলাকায় হাতাপাতা খুঁজেও এর দেখা পেলাম না। 

সেই সময় থাকতাম কলাবাগানে (সেই সময় এলাকাতে চার-পাঁচটি কলা গাছ দেখা গেলেও এখন আর নাই)। তখন ঢাকার সবচেয়ে বড় বৈশাখী মেলা বসতো কলাবাগান ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। সেই বার মেলা দেখতে দেখতে একেবারে শেষ মাথায় দেখলাম যে দশ ফিট বাই সাত ফিট সাইজের স্টলে থ্রিডি থিয়েটার বসেছে। ২০ টাকা করে টিকিট। দাঁড়ালাম লাইনে। আগের শো শেষ হবার পরে ঢুকলাম। প্রথম সারিতেই জায়গা পেলাম। মোট বিশটির মতো সিট। সব সিট পুরন হয় নাই দেখে অপেক্ষা। সামনে দেখলাম ২১/২৪ ইঞ্চি সাইজের ইয়া বড় একটা টিভি। আর দোকান একেবারে শেষ মাথায় হবার কারণে পর্দা ভেদ করে বৈশাখ এর বিকালের তীব্র রোদ ঢুকছিল। শুরুর এক মিনিট আগে সবাইকে রঙ্গিন চশমা দেওয়া হলো। শেষ হলো অপেক্ষা শুরু হলো মুভি। মনে করে ছিলাম  ডাইনোসরের ছবি হবে কিন্তু ইন্দুর এর সিনেমা (যতদূর মনে পরে) । ইন্দুর একবার এই দিকে লাফায় আবার আবার আরেক দিকে লাফায় - সামনে ঝাঁপায়। চশমা খুলে দেখাল যে ঘোলা তেমন ভালো দেখা যায় না। বড় বড় পিক্সেল।  আর চশমা পড়ে দেখলাম যে টিভি হতে কিছু বের হচ্ছে কিনা।  কিন্তু কিছুই বের হছে না। ভালো ভাবে বোঝার আগেই ১০ মিনিটের শো শেষ।

তখন আমার কাছে মনে হয়ে ছিল যে, কোন কিছু বের হয় নাই। দূর ছাই থ্রিডি। ২০ টাকা মাঠেই মারা গেল। ভগ্ন মনে বাড়ির পথে যাত্রা করলাম।

স্টেজ ১.৪৫

কলেজে পদার্থ বিজ্ঞান পড়তে গিয়ে আবারো থ্রিডি এর সম্মুখীন হলাম। যেমনঃ ত্রিমাত্রিক আয়ত স্থানাংক  ব্যবস্থায় কোন ভেক্টর। প্রায় ঘন্টা খানিক  ম্যাডাম ত্রিমাত্রিক অবস্থা নিয়ে পাঠ্যপুস্তক এর বাইরে আলোচনা করেছিলেন। যার সারমর্ম ছিল, যার দৈর্ঘ্য প্রস্থ আছ তা ২ডি আর যার দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও উচ্চতা তা হলো 3D।

স্টেজ ১.৯৫

কলেজে থাকতে একবার পিচ্চি কাজিনদের নিয়ে shamoli তে অবস্থিত শিশু মেলাতে গেলাম। । হাল্কা পাতলা কিছু রাইডে চড়ে। ড্রাগন পাহাড়ে উঠলাম। সেখান থেকে দেখলাম যে এক ছোট ঘরের সামনে পোলাপানদের লাইন লেগে আছে। নামার পরে দেখলাম যে সেই বিখ্যাত থ্রিডি থিয়েটার। স্কুল লাইফের ফ্লপ শোর কথা মনে পরে গেল। তাও রিক্স নিয়ে আবারো পোলাপানদের সাথে বসে থ্রিডি শো দেখলাম। নাহ, এবারে পয়সা উসুল 3D ইফেক্ট বোঝা যাচ্ছে। এক বিজ্ঞানী তার ল্যাবে বিভিন্ন পরীক্ষা করছিলেন তা নিয়ে গল্প। আমার পিছে এক হাফ প্যান্ট পরা বালক জোরে সাউন্ড হলেই আআআআআ বলে চিৎকার করছিল, তার ফলে আমার মনে হচ্ছিল ইহা একটা এক্সট্রা 3D সাউন্ড ইফেক্ট।

(চলবে...)

[লেখার ভাষা কঠিন হয়ে গেল কিনা জানাবেন]

পরের পর্ব ডেডু মিয়ার থ্রিডি শ্রবণ (পার্ট-২)

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:

যখন স্কুলে ছিলাম সেই সময় খবরের কাগজের ৩য় পাতায় ইয়া বড় বড় বিজ্ঞাপন দিত "কিনে নিন থ্রিডি থিয়েটার - হয়ে যান লাখপতি ...... প্রতি এলাকায় ডিস্ট্রিবিউটর নিয়োগ চলছে।" সাথে  ইয়া বড় ডাইনোসরের ছবি। ছবিতে দেখা যেত টিভি হতে ডাইনোসর বের হয়ে আসছে। আর বাচ্চারা কালো চশমা পরে গালে হাত দিয়ে হা করে তা দেখছে। বিজ্ঞাপন দেখে এটা আমার দেখার খায়েশ হলো।

এটা মাইক্রোসেলের বিজ্ঞাপন ছিল। ওরা যখন প্রথম থ্রিডি আনে তখন বাণিজ্য মেলায় তা প্রদর্শন করে। বিজ্ঞাপন দেবার ২-১ বছর আগের ঘটনা। তখন আমি আর এক ফ্রেন্ড মিলে এই থ্রিডি শো দেখার জন্য লাইন ধরে ছিলাম। লাইনে দাড়িয়ে থাকতে থাকতে হঠাৎ দেখি আমার ভাই তাদের বন্ধুদের নিয়ে আসছে। কি না কি হয় তাই আমি বিশাল সাহস করে ভাইয়াকে হাত উচিয়ে টাটা দেই। এমন একটা ভাব যে বড় ভাই কোন ব্যাপার না। এদিকে মনে মনে ভাবি, "খোদা! আমাকে এখন বন্ধুদের সামনে ধমক না দিলেই হয়"। পরে লাইনটা আমি ছেড়ে দিই ভাইয়া ও তার বন্ধুদের জন্য আর ভাব দেখিয়ে বলি, "এমনি দাড়িয়েছিলাম, ৩ডি দেখার কোন ইচ্ছা নেই"। তারপর আমরা টো টো করে বাণিজ্য মেলা ঘুরি। এরপর কখনও আর ৩ডির এটেমপ্ট করা হয়নি।

Feed থেকে ফোরাম সিগনেচার, imgsign.com
ব্লগ: shiplu.mokadd.im
মুখে তুলে কেউ খাইয়ে দেবে না। নিজের হাতেই সেটা করতে হবে।

শিপলু'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:

[লেখার ভাষা কঠিন হয়ে গেল কিনা জানাবেন]

মটেও না।

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:

(চলবে...)

চলে যেন তাই আগেই তেল দিয়ে রাখলাম। big_smile

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

চলতে থাকুক, আমিও তেল দিয়ে রাখলাম big_smile

Seen it all, done it all, can't remember most of it.

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

চলুক  big_smile

  Tenacity - Focus - Discipline - Repetition

   Sabbir's Blog 

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

বুড্ড ছুট লেকা  sad আরো বড় দেন , মজা পাচ্ছিলাম

মুইছা দিলাম। আমি ভীত !!!

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

সেম ঘটনা আমার সাথেও। তখন আমি নাইন কি টেন এর ছাত্র। ঘুরতে গিয়েছিলাম বগুড়া প্যালেস মিউজিয়ামে।
ওখানে ঘুরতে ঘুরতে একসময় চোখে পরলো থ্রীডি লেখা সাইনবোর্ডটি। ছবিতে দেখা যাচ্ছে একটা ডায়নোসর টিভির গ্লাস ভেঙ্গে বের হয়ে আসতেছে। আর ভেতর থেকে অদ্ভুত অদ্ভুত সব শব্দ আসতেছে। থ্রীডি সম্পর্কে খুব একটা ধারনা ছিল না তখন, তাই গেটে দাঁড়ানো গার্ডকে জিজ্ঞেস করলাম ভেতরে কি, বা কি হয় এটা দিয়ে ? সে বললো ভেতরে থ্রীডি মুভি দেখানো হচ্ছে। দেখে মনে হবে স্কীন থেকে জন্তু জানোয়ার বের হয়ে আসতেছে। টিকিট ২০ টাকা। শুনে আমার আগ্রহ জন্মালো থ্রীডিটা কি জিনিস দেখার। আমি আর আমার এক ফ্রেন্ড ছিলাম। দুইজন মিলে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়ে ভেতরে গেলাম। আজ ডায়নোসর বের হয়ে আসলে ধইরা বাড়ি নিয়া আসুম। ব্যাপক প্রস্তুতি। ভেতরে ৯/১০ খান চেয়ার সারি করে সাজানো। সানে ৩০ বা ৪০ ইঞ্চির বিশাল টিভি। ঘর অন্ধকার করে রাখা হয়েছে। সব গুলান সিট ভরে গেলে আমাগো একটা করে কালো রঙ্গের চশমা দেয়া হলো, চশমার আবার দুপাশে ছোট চাকা লাগানো এডজাস্ট করার জন্য। চশমা চোখে দিয়া বসলাম। থ্রীডি মুভি চালু হলো। ডায়নোসরের ক্লিপ। ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়া আছি ডায়নোসর ধইরা নিয়া যামু। কিন্তু দেখি ডায়নোসর আর বের হয়ে আসে না, একবার চশমা খুলে আবার চশমা লাগিয়ে টেস্ট করি দেখি। কোন বিশেষ পার্থক্য পলক্ষিত হইলো না, ওখানে দাঁড়িয়ে থাকা একজনলোক বললাম, ভাই কিছুই তো বের হয় না। সব একই রকম লাগে। সে আমার চশমা খানা নিয়া চাকা ঘুরাইয়া কি সব এডজাস্ট করে আমারে ফেরত দিল। তারপরেও দেখি একই অবস্থা। পাশের জনরে জিগাইলাম, ভাই আপনার কি কিছু বের হয়ে আসতেছে ?  tongue
সে বললো তারও নাকি কিছুই বের হচ্ছে না, এরকম করতে করতেই কিছু বোঝার আগেই সব শেষ হয়ে গেল। বিরস মুখে রুম থেকে বের হয়ে আসলাম। ২০ টাকাটাই জলে গেল। তারচেয়ে বড় দুঃখ বাসায় একটা ডায়নোসর পোষার সখ ছিল, সেটা আর মিটলো না  big_smile
পরেরবারের অভিজ্ঞতা ছিল এর প্রায় পাঁচ -ছয় বছর পরে। দিনাজপুর স্বপ্নপুরীতে গিয়েছিলাম। ওখানে দেখলাম থ্রীডি বসিয়েছে, টিকিট ৫০ কি ৭০ ছিল, ঠিক মনে নাই। যাই হোক। আবারো থ্রীডি দেখার সখ মাথা চাড়া দিয়ে উঠলো। অন্ধকার ঘর, চেয়ার সাজানো আছে। সানে দেয়ালে একটা সাদা পর্দা। চেয়ার সব ভরে গেলে আমাগো সবাইরে একটা করে কালো চশমা দেয়া হলো। এটাতে আগের চশমার মত চাকা টাকা কিছু নাই। সব ফিক্সড করা। শুরু হলো থ্রীডি ক্লিপ চালানো। পেছন থেকে দুইপাশ থেকে প্রজেক্টরের মাধমে একসাথে পর্দায় আলো ফেলা হচ্ছে, স্কীনে গাছে কয়েকটা বান্দর লাফলাফি করতেছে। ছবি বেশ ঘোলা। চশমা খুলে দেখার চেস্টা করলাম। আরো ঘোলা দেখায় আর ডবল ডবল লাগে সব কিছু। কিছুক্ষন পর বান্দরগুলা আমাগো দিকে গাছের ফলগুলো ছিড়ে ছিড়ে ছুড়তে লাগলো। এবার মনে হচ্ছিল সত্যিই যেন ওগুলো বের হয়ে আসতেছে। চশমা খুলে দেখলাম, নাহ এবার কিছু মনে হচ্ছে না। খুব অল্প সময়েই থ্রীডি ক্লিপখানা শেষ হলো।
এই ছিল আমার প্রথম থ্রীডি অভিজ্ঞতা। খুব ভাল ছিল না কোয়ালিটি। তাও একটা অভিজ্ঞতা হয়েছে যে এটা কি জিনিস। এটাই অনেক  love love
বগুড়া আইসা ধুমাইয়া গল্প জুরাইলাম বন্ধুবান্ধবের কাছে থ্রীডিতে কি কি দেখাছি  tongue tongue

Domain Registration | Hosting Solution | Web Development
99.9% Uptime Guarantee | 24/7 Live Support | SSD Server.
Best Domain Hosting Company in Bangladesh

রাজিব আহসান'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন দ্যা ডেডলক (১৯-১০-২০১২ ০৮:৪৫)

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

@শিপলু
ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য

@রাজিব আহসান
আপনি তো আমার চেয়ে বড় লেখা পোস্ট করেছেন। প্লাস নেন।

@অমিত ০০৭
ধন্যবাদ

আরণ্যক লিখেছেন:

চলে যেন তাই আগেই তেল দিয়ে রাখলাম।

ধন্যবাদ

ফারহান খান লিখেছেন:

বুড্ড ছুট লেকা  sad আরো বড় দেন , মজা পাচ্ছিলাম

বড় লেখা পোলাপানেরা পড়ে না। পার্ট-২ টা এর চেয়ে বড় হবে বলে আশা রাখি।

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

আপনার থ্র্যীডি দর্শন অভিজ্ঞতা ভাল লাগলো।

১০

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

এত ছোট লেখা, খেলুম না। পরের পর্ব আরো বড় চাই।

১১

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:

বড় লেখা পোলাপানেরা পড়ে না। পার্ট-২ টা এর চেয়ে বড় হবে বলে আশা রাখি।

হে হে, তয় একট্টু বেশিই ছুটু হয়ে গেছে। পার্ট-২ এর অপেক্ষায় থাকলাম।

সারিম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১২ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন তার-ছেড়া-কাউয়া (১৯-১০-২০১২ ০৯:৪৩)

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

ভালো টপিক করেছেন। তবে অনেক বেশি ছোট হয়ে গেছে। লেখার ভাষা কঠিন মনে হয় নাই।

প্রথম থ্রিডি যখন দেখি, তখন মনেহয় ক্লাস এইট বা নাইনে পড়ি। গুলশানের ওয়ান্ডার-ল্যান্ডে। আপনাদের মতই চশমা পরে বসে গেলাম। একটা সর্পের অভিযান জাতীয় একটা ১৫ মিনিটের মুভি। এনিমেটেড। মুভমেন্টগুলো অনেক বেশি লাইভ মনে হয়েছিলো সাধারণ সিনেমার তুলনায়। তবে অভিজ্ঞতাটা আমার জন্যে সুখকর হয়নি। কারণ আমার চোখে সমস্যা আছে (তখন জানতাম না অবশ্য)। বেশি মুভিং অবজেক্ট দেখতে গেলেই কষ্ট হয়। তাই মুভির মাঝে মাঝেই চশমা খুলে রাখছিলাম। আশা করি বসুন্ধরার থ্রিডী মুভিও দেখবো না neutral

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

১৩

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

আমিও প্রথম দেখেছিলাম কোন এক মেলায়। তখন ক্লাস ফাইভ কী সিক্স এ পড়ি। সব দেখি ছুটে আসছে। নিজের অজান্তেই হাত দিয়ে সামনে ধরার চেষ্টা করি। এরপর চশমা খুলে দেখি কিছু নেই। সবই একই ওই দশ মিনিটের কেস।

আমাকে আমার মতো থাকতে দাও,আমি নিজেকে নিজের মতো গুছিয়ে নিয়েছি,যেটা ছিল না ছিল না সেটা না পাওয়া ই থাক,সব পেলে নষ্ট জীবন।

১৪

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

থ্রীডির সাথে প্রথম পরিচয় ছোটবেলায় একটা থ্রীডি কার্ডের মাধ্যমে আর আব্বুর থেকে পাওয়া সাধারণ জ্ঞান smile

পরে যখন মেরিডিয়ান চিপস নতুন বের হলো তখন এর ভিতর গোল্লা কি একটা জানি দিতো খেলার জন্য, এর মাঝে কোন কোনটা আবার থ্রীডি হইতো আর আমার বন্ধুদের মধ্যে একমাত্র আমি এইটা পাইছিলাম  big_smile

এরপর থেকে নিজে গবেষণা করে থ্রীডি কিভাবে বানায় (মানে ঐ কার্ডের গুলা) আবিষ্কার করে নিজেকে বিজ্ঞানী বলে ঘোষণা দিয়ে দিলাম  donttell

   নেই, আছে এবং নৈবচ নৈবচ . . . . .
   দেশ, দশ, দুনিয়া তথা বিশ্ব ব্রম্মান্ড হইতে নহে ষাইফ ঋাষেল আপাতত ফেসবুক হইতে আনা গাইয়েবুন

১৫

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

গুলশানের ওয়ান্ডার ল্যান্ডে ৩ডিতে ডায়নাসোর দেখার কত্ত শখ আছিলো , কিন্তু যতবার ই যাইতাম গেইটের কাছ থাইক্কা ঘুইরা আইতাম  cry cry । বর্তমানে পুরা পার্ক ই তো নাই হুনলাম  sad

আমার প্রথম ৩ডি দেখার অভিজ্ঞতা  love love

আফনের কাহিনী ভালা পাইলাম  hehe ২ য় পার্ট কুন দিন আইবো ...........

নিবন্ধিতঃ১১/০৩/২০০৯ ,নিয়মিতঃ১০/০৩/২০১১, প্রজন্মনুরাগীঃ১৯/০৫/২০১১ ,প্রজন্মাসক্তঃ২৬/০৯/২০১১,
পাঁড়ফোরামিকঃ২২/০৩/২০১২, প্রজন্ম গুরুঃ০৯/০৪/২০১২ ,পাঁড়-প্রাজন্মিকঃ২৭/০৮/২০১২,প্রজন্মাচার্যঃ০৪/০৩/২০১৪।
প্রেম দাও ,নাইলে বিষ দাও

১৬ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আমি হিমু (১৯-১০-২০১২ ১৫:০৭)

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

সবার লেখা পড়ে মনে হচ্ছে আমিই সবার পিছনে পড়েছি। বাংলাদেশে থাকতে থ্রিডি দেখার চেষ্টা করা হয়নি বা দেখার সৌভাগ্যও হয়নি। সর্বপ্রথম থ্রিডি দেখি ফিনল্যান্ডে,কোন একটা মুভি দেখতে গিয়েছিলাম সিনেমা হলে,তার পর থেকে নিয়মিতই দেখি তবে এদের মাঝে বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল থ্রিডিতে লাইভ দেখার এক্সপেরিয়্যান্সটা দারুন।

থ্রিডির একটা জিনিস বিরক্তিকর! সেটা হচ্ছে ভারী চশমা,অন্তত আমার কাছে ভালো লাগেনা,তার পরে আছে চশমার ব্যাটারি রিচার্জের ঝামেলা। তবে সেটাও সম্ভবত আর বেশিদিন থাকছেনা। বাজারে অলরেডি আপডেটেট প্রোডাক্টগুলো এসেছে।

থাকুক তোমার একটু স্মৃতি থাকুক,
একলা থাকার খুব দুপুরে...
একটি ঘুঘু ডাকুক !

১৭

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

আমি হিমু লিখেছেন:

সবার লেখা পড়ে মনে হচ্ছে আমিই সবার পিছনে পড়েছি। বাংলাদেশে থাকতে থ্রিডি দেখার চেষ্টা করা হয়নি বা দেখার সৌভাগ্যও হয়নি। সর্বপ্রথম থ্রিডি দেখি ফিনল্যান্ডে,কোন একটা মুভি দেখতে গিয়েছিলাম সিনেমা হলে,তার পর থেকে নিয়মিতই দেখি তবে এদের মাঝে বিশ্বকাপ ফুটবলের ফাইনাল থ্রিডিতে লাইভ দেখার এক্সপেরিয়্যান্সটা দারুন।

থ্রিডির একটা জিনিস বিরক্তিকর! সেটা হচ্ছে ভারী চশমা,অন্তত আমার কাছে ভালো লাগেনা,তার পরে আছে চশমার ব্যাটারি রিচার্জের ঝামেলা। তবে সেটাও সম্ভবত আর বেশিদিন থাকছেনা। বাজারে অলরেডি আপডেটেট প্রোডাক্টগুলো এসেছে।
এইতো গত সপ্তাহে একটা ৫৫



আপনার চাইতে ব্যাকডেটেড আমি।  tongue আমার থ্রিডি দেখার এক্সপেরিয়েন্স নিজের ল্যাপিতে ক্রস আই করে  tongue

মুইছা দিলাম। আমি ভীত !!!

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৮

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

দেশে কখনও ৩ডি সিনেমা দেখি নাই। তবে ওসাকা ইউনিভার্সাল স্টুডিওতে প্রথম দেখার সুযোগ হল। ২০০৫ এ জাপানেই থাকতাম। ওসাকা গিয়েছিলাম একটা পেপার প্রেজেন্ট করতে। ফেরার দিন বিকালে ফ্লাইট, আর হোটেল থেকে চেক আউট করে ওখানে পৌছাতে পৌছাতে দুপুর ১টা। ইউনিভার্সাল স্টুডিওতে ঢোকার পর সব রাইড ফ্রী হলেও প্রতিটার সামনে বিশাল লাইন। মাত্র ৪/৫টা রাইডে চড়ে এসেছিলাম। পরবর্তীতে কোনগুলোতে চড়েছি শুনে যারা আগে গিয়েছে তারা বলেছে কোন অভিজ্ঞতা ছাড়াই আমরা (আমি + বউ) ঠিকঠাক মতই সবচেয়ে হিট রাইডগুলোতে উঠেছি। স্পাইডার ম্যান রাইডের সামনে বিশাল লাইন। আমরাও ধৈর্য্যশীলদের মত দুই ঘন্টা লাইনে দাঁড়িয়ে তারপর ১৫ মিনিটের রাইড নিয়েছিলাম।

এটা ৩ডি না বরং আসলে একটা ৫ডি শো ছিল। প্রতি সারিতে ৪ জন করে ৫ সারির একটা গাড়িতে উঠতে হয়েছিলো। চোখে ৩ডি চশমা। ওটাতে করে আমরা স্পাইডারম্যান আর ড. অক্টোপাসে মারামারি কাভার করতেছিলাম। আমাদের বাহন একটা ফ্লাইং বাস। এক সময় স্পাইডারম্যান সামনের কোনায় এসে বসে কথাবার্তা বলল। চশমা খুলে দেখি সামনের স্ক্রিনেই আসল ছবি, কিন্তু ৩ডি চশমার কারণে মনে হচ্ছে এইতো সামনেই বসে আছে। এরপর ড. অক্টোপাস আমাদের আক্রমন করলো। ওর শুড়গুলো দিয়ে যখন গুতাতে আসছিল মনে হচ্ছিলো কপালে ঢুকিয়ে দেবে। ভয়ে সবাই ডানে বায়ে মাথা সরিয়ে ফেলছিলাম, চারপাশে চিৎকারও চলছিলো। ভয় বেশি লাগলেই চশমা খুলে দেখে নিচ্ছিলাম।

আমাদের বাহনটা এর সাথে সাথে টানেলের মত একটা জায়গা দিয়ে যাচ্ছিলো। আর চশমা খুলে দেখার সুবাদে জানি, সেই টানেলের দেয়ালেই ৩ডি প্রজেকশনগুলো চলছিলো। কাজেই মুভির ক্যারেক্টারের মত আমরাও পুরা মোশনের মধ্যে ছিলাম।

ড. অক্টোপাসের আক্রমনে পুরা বাহনটা ঝটকা লেগে কেঁপে উঠছিলো। তারপর আমাদের ইঞ্জিন উড়িয়ে দিল। আমরা অনেক উঁচু থেকে পড়ে যাচ্ছি। জি-ফোর্সের কারণে পেছনের সিটে আঠার মত পিঠ আঁটকে আছে, পড়ার সময়ে মুখে বাতাসের ঝাপটা লাগছে। চশমা খুলে দেখি আমাদের বাহনটাকে মোটামুটি প্রায় খাড়া করে ফেলেছে আসলেই, আর চোখের সামনের দেয়ালে (নাকি মেঝেতে) প্রজেক্শন চলছে। নিশ্চয়ই মোশন আনার জন্য বাতাস আর ঝাকি দেয়ার মেকানিজম আছে।

এই সময়ে স্পাইডারম্যানের জালে আটকা পড়লাম। ফুল স্পিডে পড়তে পড়তে সেইরকম ব্রেক করে থামলাম। শরীর সামনের দিকে বেল্ট ছিড়ে বের হয়ে যেতে চাচ্ছিলো। যা হোক স্পাইডারম্যানের জালটা কিছুটা ফ্লেক্সিবল হওয়াতে রক্ষা। তারপর আরেকটা জালদিয়ে ধরে আমাদেরকে সহি সালামতে গ্রাউন্ডে নামিয়ে দিল।

আসলেই দূর্দান্ত ছিল সেই রাইডটা।

এর পরে আরও দুইবার এরকম ৩ডি+ (অর্থাৎ ৪ডি) রাইডে চড়েছি টোকিওর ডিজনি আইল্যান্ড বা ডিজনি সী তে --- বউ সহ গিয়েছিলাম প্রতিটাতে। তবে কোনটাই ইউনিভার্সাল স্টুডিওর স্পাইডারম্যানের মত অত টান টান হার্টবিট মিস করানোর মত না। আমি পরে কোথায় জানি রিভিউ পড়েছিলাম - ইউনিভার্সাল স্টুডিওর স্পাইডারম্যান আসলেই সেরা। দেশে হয়তো দেখতে যাবো -- তারপর তুলনা করতে পারবো।

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৯

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

আরে ধুর। টাইটেল দেখে মনে করলাম সিনেপ্লেক্সের "থিরি-ডি"র রিভিউ। তবে লেখা ভালো হয়েছে।

Calm... like a bomb.

২০ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন দ্যা ডেডলক (২০-১০-২০১২ ১৩:০৬)

Re: ডেডু মিয়ার থ্রিডি দর্শন (পার্ট-১)

@শামীম
স্যার। আপনার লেখাটি আলাদা নিজের টপিকে। অসাধারণ একটা লেখা। এখানে থাকলে হারিয়ে যাবে। plz লেখাটি আলাদা টপিকে দিন কিছু ছবি সহ।

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত