টপিকঃ মেরাজ এর ঘটনা-১ সীরাতুন্নবী (সাঃ) ৫৯

আগের পর্ব সীরাতুন্নবী (সাঃ) ৫৯ মদীনার ছয়জন পুণ্যশীল মানুষ

সেই বছরই অর্থ্যাৎ নবুয়তের একাদশ বর্ষের শাওয়াল মাসে রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হযরত আয়েশা সিদ্দিকা (রাঃ) সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। হযরত আয়েশার বয়স ছিল তখন মাত্র ছয় বছর। হিজরতের আগের বছর শাওয়াল মাসে হযরত আয়েশা স্বামীগৃহে গমণ করেন। সেই সময় তাঁর বয়স ছিল নয় বছর।

মেরাজ এর ঘটনা

নবী সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের দাওয়াত ও তাবলীগের সাফল্য এবং তাঁর এবং ইসলামের অনুসারীদের প্রতি অত্যাচার নির্যাতন মাঝামাঝি পর্যায়ে চলছিলো, দুর দিগন্তে মিটিমিটি জ্বলছিল তারার আলো, এমনি সময়ে মেরাজের রহস্যময় ঘটনা ঘটলো। এই মেরাজ কবে সংঘটিত হয়েছিলো ? এ সম্পর্কে সীরাত রচয়িতাদের মধ্যে মতবিরোধ রয়েছে। যেমন-

(এক) তিবরানী বলেছেনঃ যে বছর রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে নবুয়ত দেয়া হয় সে বছরই।
(দুই) ইমাম নববী ও ইমাম কুরতবী লিখেছেনঃ নবুয়তের পাঁচ বছর পর।
(তিন) হিজরতের ষোল মাস আগে অর্থ্যাৎ নবুয়তের দ্বাদশ বছরে রমযান মাসে।
(চার) নবুয়তের দশম বর্ষের ২৭শে রজব। আল্লামা মুনসুরী এ অভিমত গ্রহণ করেছেন।
(পাঁচ) হিজরতের আগে এক বছর দুই মাস আগে, অর্থ্যাৎ নবুয়তের ত্রয়োদশ বর্ষের মহররম মাসে।
(ছয়) হিজরতের এক বছর আগে অর্থ্যাৎ নবুয়তের ত্রয়োদশ বর্ষের রবিউল আউয়াল মাসে।

উল্লেখিত বক্তব্য সমুহের মধ্যে তিনটি বক্তব্যকে সঠিক বলে মেনে নেয়া যায়। পাঞ্জেগানা নামাজ ফরজ হওয়ার আগে হযরত খাদিজা (রাঃ) এর ইন্তেকাল হয়েছিল আর এ ব্যাপারে সবাই একমত যে, পাঞ্জাএগানা নামাজ মেরাজের রাতে ফরজ করা হয়। এর অর্থ হচ্ছে যে, হযরত খাদিজার মৃত্যু মেরাজের আগে হয়েছিল। তাঁর মৃত্যু নবুয়তের দশম মাসের রমজান মাসে হয়েছিল বলে জানা যায়। কাজেই মেরাজের ঘটনা এর পরেই ঘটেছে আগে নয়। শেষোক্ত তিনটি বক্তব্যের কোনটিকে কোনটির উপর প্রাধান্য দেয়ার মত, তার কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি। কোরআন হাদীসে বর্ণিত এ সম্পর্কিত বিবরণ উল্লেখ করব।

ইবনে কাইয়েম লিখেছেন, সঠিক বর্ণনা অনুযায়ী জানা যায় যে, নবী সাইয়্যেদুল মুরসালিনকে স্বশরীরে বোরাকে তুলে হযরত জিব্রাঈল (আঃ) এর সঙ্গে মসজিদে হারাম থেকে প্রথমে বাইতুল মোকাদ্দাস পর্যন্ত ভ্রমন করানো হয়। প্রিয় নবী রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সেখানে মসজিদের দরজার খুঁটির সাথে বোরাক বেঁধে যাত্রা বিরতি করেন এবং সকল নবীর ইমাম হয়ে নামাজ আদায় করেন।

এরপর সে রাতেই তাঁকে বাইতুল মোকাদ্দাস থেকে প্রথম আসমানে নিয়ে যাওয়া হয়। রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হযরত আদম (আ) কে দেখে সালাম করেন। হযরত আদম (আ) তাঁকে মারহাবা বলে সালামের জবা দেন। তাঁর নবুয়তের স্বীকারোক্তি করেন। সে সময় আল্লাহ তাআলা হযরত আদম (আ) এর ডানদিকে নেককার ও বামদিকে পাপীদের রুহ রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে দেখান। এরপর তিনি দ্বিতীয় আসমানে যান। দরজা খুলে দেওয়া হয়। প্রিয় নবী রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সেখানে হযরত ইয়াহিয়া ইবনে যাকারিয়া (আঃ) এবং হযরত ঈসা ইবনে মরিয়ম (আঃ) কে দেখে সালাম করেন। তাঁরা সালামের জবাব দিয়ে প্রিয় নবী রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নবুয়তের কথা স্বীকার করেন। রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এরপর যান চতুর্থ আসমানে। সেখানে তিনি হযরত ইদ্রিস (আঃ) দেখে সালাম করেন। তিনি সালামের জবাবে মোবারকবাদ দেন এবং তাঁর নবুয়তের কথা স্বীকার করেন।

এরপর তাঁকে পঞ্চম আসমানে নেয়া হয়। সেখানে তিনি হযরত হারুন (আ) দেখে সালাম দেন। তিনি সালামের জবাবে মোবারকবাদ দেন এবং তাঁর নবুয়তের কথা স্বীকার করেন।

রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এরপর নেয়া ষষ্ঠ আসমানে। সেখানে হযরত মুসা ( আঃ) এর সাথে সাক্ষাৎ হয়। তিনি সালাম করেন। হযরত মুসা (আঃ) মারহাবা বলেন এবং নবুয়তের কথা স্বীকার করেন। নবী মুরসালিন সামনে অগ্রসর হলেন, এ সময় হযরত মুসা কলিমুল্লাহ (আঃ) কাঁদতে লাগলেন। এর কারণ জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বললেন, একজন নবী যিনি আমার পরে আর্বিভুত হয়েছেন তাঁর উম্মতেরা আমার উম্মতের চেয়ে বেশী সংখ্যায় বেহেশতে যাবে।

রসুলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কে এরপর নিয়ে যাওয়া হয় সপ্তম আসমানে। সেখানে হযরত ইব্রাহিম (আঃ) এর সাথে তাঁর দেখা হয়। তিনি তাঁকে সালাম করেন। তিনি জবাব দেন, মোবারকবাদ দেন এবং তাঁর নবুয়তের কথা স্বীকার করেন।


{চলবে}

পুর্ব প্রকাশ

Re: মেরাজ এর ঘটনা-১ সীরাতুন্নবী (সাঃ) ৫৯

মেরায আমার খুব পছন্দের একটা ঘটনা। এটা একমাত্র ঘটনা যা আমাকে নামায পড়ার সময় (যা কদাচ হয়ে থাকে) আল্লাহ-রাসুলের কথা স্মরণ করায়। আমরা তাশাহুদ পড়ে থাকি মেরাযকে স্মরণ করে। মেরায আমাদের আদব-কায়দা শেখায়। হোস্ট-গেস্ট এর আচরণ কী হবে তার খুব ভাল উদাহরণ এখান থেকে পাওয়া যায়।

ইলিয়াস ভাইকে ধন্যবাদ এমন একটা বিষয় পোস্ট করাতে। (যদিও ব্যক্তিগতভাবে 'সীরাতুন্নবী' শব্দটায় আমার আপত্তি আছে; কিছু মনে করলেন না আশা করি)।

কত কি শিখতে ইচ্ছা করে। এখনও শেখা হলো না কিছুই।

লেখাটি CC by-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মেরাজ এর ঘটনা-১ সীরাতুন্নবী (সাঃ) ৫৯

'মেরায' আমারো পছন্দনীয় একটা বিষয়। ইলিয়াস ভাই পরবর্তী পর্বগুলোর অপেক্ষায় থাকলাম।
বাই দ্য ওয়ে, 'সীরাতুন্নবী' শব্দটায় কী সমস্যা?

কিছু বাধা অ-পেরোনোই থাক
তৃষ্ণা হয়ে থাক কান্না-গভীর ঘুমে মাখা।

উদাসীন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: মেরাজ এর ঘটনা-১ সীরাতুন্নবী (সাঃ) ৫৯

ধন্যবাদ cslraju

cslraju লিখেছেন:

(যদিও ব্যক্তিগতভাবে 'সীরাতুন্নবী' শব্দটায় আমার আপত্তি আছে; কিছু মনে করলেন না আশা করি)।

বিষয়টি ব্যাখা করলে ভাল লাগতো। নাহ মনে করার কি আছে ।  hug

Re: মেরাজ এর ঘটনা-১ সীরাতুন্নবী (সাঃ) ৫৯

পরবর্তী পর্বের জন্য অপেক্ষায় থাকলাম!

ওয়েব হোস্টিং | রিসেলার হোস্টিং | অনলাইন রেডিও হোস্টিং
টেট্রাহোস্ট বাংলাদেশ - www.tetrahostbd.com

Re: মেরাজ এর ঘটনা-১ সীরাতুন্নবী (সাঃ) ৫৯

টেট্রাহোস্ট লিখেছেন:

পরবর্তী পর্বের জন্য অপেক্ষায় থাকলাম!

আপনার আগ্রহের জন্য ধন্যবাদ। অপেক্ষা করুন শীঘ্রই পাবেন।  hug