টপিকঃ কমোডনামা-২

কমোড দেখেননি এমন লোক খুঁজে পাওয়া বাংলাদেশে অসম্ভব নয়। আর কমোডের ব্যবহার কিভাবে করতে হয় জানেন না সেরকম লোকেরও অভাব নাই দেশে। তবে কমোড সঠিকভাবে ব্যবহারের তরিকা জানেনা বিদেশেও এরকম লোক পাওয়া যায় বলেই মনে হয়। না না প্রবাসী বাঙালী না, একেবারে প্রথম বিশ্বের আসল এবং খাঁটি বিদেশীর কথাই বলছি। সেজন্যই জাপানে টয়লেটের দরজার ভেতরের দিকে কিংবা কমোডের ঢাকনার উপরে, অথবা টয়লেটের ভেতরে এমন কোন জায়গায় - যেখানে সহজে চোখে পড়ে: এই ছবির মত নির্দেশাবলী দেখতে পাওয়া যায়।

http://1.bp.blogspot.com/-SPQYssrHElw/Tu0HlnAA7_I/AAAAAAAABIs/iMzLfkHt-jE/s1600/4916207630_96026d602e_o.jpg

http://4.bp.blogspot.com/-VkJNizYWAxQ/Tu0H0EJHVTI/AAAAAAAABI0/oKn538OEIvk/s1600/japanese-toilet-signs-and-rules-in-japan.jpg

কমোড ব্যবহার না জানা কোন অপরাধ নয়। মায়ের পেট থেকে কেউ এটা ব্যবহার শিখে আসে না, বরং এই জীবনে কোনো না কোনো সময় শিখেছে সবাই। শেখার আগেই এর মুখোমুখি হলে ওজু করার মত সিরিয়াস কাহিনী জন্ম নিতে পারে। আবার "হোটেলে ত্যাগের জায়গা খুঁজে না পেয়ে মোজার মধ্য ইয়ে করে সেটা ছুড়ে বাইরে ফেলতে গিয়ে চলন্ত/ঘুরন্ত ফ্যানে আটকানো এবং দেয়ালে ডিজাইন' -- এই টাইপের গন্ধযুক্ত কাহিনীও জন্ম নিতে পারে; কিংবা, চড়ে বসে পা পিছলে ভেতরে পড়ে যাওয়া, চড়তে গিয়ে কমোড ভেঙ্গে ফেলা, চড়তে সফল কিন্তু এইম করতে বিফল -- এই ধরণের বিদঘুটে কাহিনী ঘটাও অস্বাভাবিক নয়। তাই আমাদের কমোড ওয়ালা টয়লেটের মধ্যেও এমন সচিত্র ব্যবহার বিধি স্টিকি করা বাস্তবসম্মত চিন্তা। বিশেষত যে সকল জায়গায় কিছু ব্যবহারকারী কাছে কমোড নতুন বস্তু হতে পারে সেখানে এরকম শিক্ষনীয় নির্দেশাবলী লাগানো বাধ্যতামূলক করা যেতে পারে। এই মুহুর্তেই এমন জায়গার উদাহরণ মনে পড়ছে: মাঝরাতে কিংবা দুপুরে খাওয়া দাওয়া করানোর জন্য দুরপাল্লার বাস থামে এমন হোটেল/রেস্টুরেন্টে, বড় বড় শপিং সেন্টারের টয়লেট, বিভিন্ন জেলা শহরে আবাসিক হোটেল এবং রেস্টুরেন্ট।

নতুন কাউকে এক কথায় কমোডের ব্যবহারের তরিকা জানাতে চাইলে এক কথায় বলা যায়, ছোট বাচ্চাদের টয়লেট করার জন্য যেমনভাবে ওদের পটি ব্যবহার করানো হয়, কমোডে বড়রা ওভাবেই কাজ করে। জাপানের এয়ারপোর্টগুলোতে কিংবা শপিং সেন্টারে কোনো কোনো পাবলিক টয়লেটের ভেতরে কিভাবে কমোড ব্যবহার করতে হবে সেটার একটা হাইজিন গাইডলাইনও দেয়া থাকতো। যেমন কোথাও কোথাও পাশে এন্টিসেপ্টিক জেল দেয়া থাকতো। সেই জেল একটা টিস্যূ পেপারে নিয়ে কমোডের সিটটা মুছে তারপর ব্যবহার করার নির্দেশাবলী দেয়া দেখেছি। আবার কোথাও পাশের ঝুলানো জায়গা থেকে কমোডের সিটের উপর দেয়ার জন্য আতিকায় মালা আকৃতির টিস্যূ দেয়া থাকতো। বসার সময় সরাসরি সিটের উপর না বসে টিস্যূ বিছিয়ে বসতে হয়, আর কাজ শেষে ওটাও ফ্লাস করে বাই বাই করতে হয়। এতে চর্মরোগ বা অন্য কোনো ধরণের ইনফেকশন কমোডের রিমের মাধ্যমে একজন থেকে আরেকজনে ছড়িয়ে পড়া রোধ হতে পারে। দেশেও সবসময় কমোড, বিশেষত অফিসে বা শপিং বা অন্য কোথাকার বারোয়ারী কমোড ব্যবহারের সময় ওর সিট বরাবর টিস্যূ পেপার বিছিয়ে নেই সকলে।

কেউ কেউ বলেন কমোডের ভেতরের পানি ছিটকে এসে গায়ে লাগে যেটা আপত্তিজনক। এটা ঠেকানোর বুদ্ধি পেয়েছিলাম আমার বসের কাছ থেকে। উনি কাজ শুরুর আগে সিট বরাবর টিস্যূ বিছানোর পর কিছু টিস্যূ আবার কমোডের পানিতে ফেলেন। এতে পরবর্তীতে পানি ছিটকে আসতে পারে না।

চরম উন্নত দেশ জাপানে এধরণের নির্দেশাবলী দেখে অবাক হলেও কারণটা জানলে অতটা অবাক হবেন না। জাপানে সাধারণত সবজায়গাতেই প্যান জাতীয় টয়লেট ব্যবহৃত হয়। তবে সেই প্যান বলতে আমাদের দেশে বহুল ব্যবহৃত প্যান বুঝলে ভুল হবে। জাপানীরা সব দিকেই ইউনিক। তাই প্যানগুলো এবং এটা ব্যবহারের তরিকাও ইউনিক (কমোডনামা-১ এ লিখেছিলাম কিছুটা)। দেখুন নিচের ছবি আর নির্দেশাবলী দেখে এটার অভিনবত্ব কিছুটা আঁচ করতে পারেন কি না।

http://4.bp.blogspot.com/--yQ71hr-zMA/Tu0IM6D3fTI/AAAAAAAABI8/FStNlzIzFDY/s1600/toilet.jpg

http://3.bp.blogspot.com/-hQ7sttkAb0Q/Tu0IX18S71I/AAAAAAAABJE/WIqAbnsRYw4/s1600/images.jpeg

http://4.bp.blogspot.com/-3SFmD0iyKeU/Tu0Ig0SC2sI/AAAAAAAABJM/M91DXXHO8LE/s1600/how+to+use+japanese+toilet.jpg

http://3.bp.blogspot.com/-4JdxD2tW4aY/Tu0LvS_9fpI/AAAAAAAABLE/qQPZuH0QPg4/s1600/japanese-toilet.jpg

এবার নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন কেন ওখানে কমোড ব্যবহারের নির্দেশাবলী জরুরী হতে পারে। তবে আমাদের দেশেই সাধারণ প্যান জাতীয় টয়লেট ব্যবহারের মূল কারণ বা রহস্য অনেকেরই অজানা, যা ফিল্ড লেভেলে কাজ করতে গিয়ে ভালভাবেই টের পেয়েছিলাম। আবার এমন কাহিনীও জানি, যে চাচা মিয়াকে স্যানিটারী ল্যাট্রিন ব্যবহারের কথা জিজ্ঞেস করতেই ভাবের উত্তর "এ্যাঁ! আমারে কি অত বোকা পাইছো যে এ্যাত সুন্দর বনজঙ্গল ছেড়ে ঐ ঘুপচির মধ্যে ইয়ে করতে ঢুকবো!' কাহিনী তো এখানেই শেষ না, আমার কাজের সুপারভাইজার অত্যন্ত উচ্চশিক্ষিত এবং ভাল ছাত্র ছিলেন। কিন্তু উনিই আমি জয়েন করার কিছুদিন আগে এক বাসায় গিয়ে টয়লেটের পাইপে পানি জমে আছে দেখে সেটা লাঠি দিয়ে গুতিয়ে ভেঙ্গে দিয়েছিলেন!! অবশ্য এতে ওনার দোষ খোঁজা ঠিক না, কারণ বাসার টয়লেটের প্যানের পাইপের নিচের দিকে যে পানি জমা থাকে, সাধারণত: কেউই সেটা তদন্ত করে দেখে না, আর স্কুল বা কলেজ লেভেলে সকলের পাঠ্য কোনো বই পুস্তকেও স্যানিটারী ল্যাট্রিন কেন স্যানিটারী বা স্বাস্থ্য সম্মত সেটার ব্যাখ্যা দেখেছি বলে মনে পড়ছে না।

খোলা জায়গায় ইয়ে করলে সেটা দুর্গন্ধের জন্য যেমন অস্বাস্থ্যকর তেমনি এটা থেকে বিভিন্ন পোকামাকড়, কিংবা পশুপাখি বা সরাসরি কোন মাধ্যমে ক্ষতিকর অসুখ বিসুখ সৃষ্টিকারী জীবানু অন্য মানুষকে সরাসরি বা খাবার সংক্রমিত করে অসুস্থ করতে পারে। তাই খোলা জায়গার বদলে গর্ত করে সেখানে ইয়ে করলে কিছুটা রক্ষা। এতে পশু বা সরাসরি আক্রান্ত হওয়ার (পায়ের তলায় পরা, হোঁচট বা পিছলিয়ে এর উপর পতিত হওয়া ইত্যাদি আরকি) সম্ভাবনা বিলীন হয়ে যায়। কিন্তু তা সত্বেও পোকামাকড় (মাছি ইত্যাদি) সেখান থেকে জীবানুবাহক হতেই পারে, আর দুর্গন্ধের কথাও সহজে ভুলে থাকা মুশকিল। তাই এর হাত থেকে রক্ষার জন্য অত্যন্ত সহজ একটা পদ্ধতি হল পানি'র তালা বা ওয়াটার সিল। যার মূল অংশ হল ইংরেজী U অক্ষরের মত আকৃতির একটা পাইপ যাতে পানি ভর্তি করা থাকে। এর এক দিক ইয়ে করার দিকে আর আরেকদিক থাকে মলমূত্র জমা হওয়ার স্বাস্থ্যসম্মত গর্তে। স্বাস্থ্যসম্মত গর্ত হল এমন এক গর্ত যেখান থেকে পোকামাকড় বের হওয়ার কোন রাস্তা থাকে না ফলে ওগুলো মলমূত্রের জীবানু বহন করে এসে ভিলেনগিরী করতে পারে না। ঐ গর্তের গন্ধ এবং অন্য গ্যাস বের হওয়ার জন্য একটা লম্বা পাইপ দেয়া থাকে যার মাথা অনেক উঁচুতে থাকে এবং সেদিক দিয়ে পোকার আসা যাওয়া ঠেকাতে মশারী দেয়া থাকে, বৃষ্টির পানি আসা আটকানোর ব্যবস্থা থাকে। কাজেই ঐ পথে বাতাস ছাড়া কিছু আসা যাওয়া করতে পারে না।

তাহলে মলমূত্র এই গর্তে ঢোকে কিভাবে? উত্তর হল ডুব সাঁতার দিয়ে। ঐযে ওয়াটার সিল আছে সেটার একপাশে ইয়ে এসে পানিতে পড়ে তারপর এদিক থেকে আরও পানি ঢাললে তার ধাক্কায় ময়লাটা U এর নিচের দিকে ডুব দিয়ে অপর বাহু দিয়ে বের হয়ে গর্তের মধ্যে পরে। কিন্তু যতই ডুব সাঁতার দিক, স্বাভাবিক অবস্থায় এর মধ্যের পানি শুকানোর কোনো উপায় নাই। ফলে ইধারকা মাল উধার করতে ডুব সাঁতার ছাড়া উপায় নাই। আমরা পানি ঢেলে বা ফ্লাশ করে ইধারকা মাল (মল) উধার করলেও উধারের পোকামাকড় ডাইভ দিয়ে ডুব সাতারের পর ইধার আসতে তেমন একটা উৎসাহ কিংবা সাহস পায়না, তাই পোকামাকড় পুরাপুরিই ভিলেনী করার সুযোগবঞ্চিত থাকে। আর উধারের গন্ধও ইধারে আসা ঠেকিয়ে দেয়া হয় এভাবে। নিচের ছবিটা দেখলে অতি পরিচিত প্যানের মধ্যে সেই ওয়াটার সিলের ব্যবহারটা বুঝতে পারা সহজ হবে।

http://3.bp.blogspot.com/-kBmfwxjNsnU/Tu0I-c0Q24I/AAAAAAAABJU/ZtWHtESdd5g/s1600/p112c.jpg

http://4.bp.blogspot.com/-AhSiHZJv4og/Tu0JEjt3M3I/AAAAAAAABJc/wvLCrD6TqQ8/s1600/p113.jpg

http://3.bp.blogspot.com/-n54DIDT_hs4/Tu0JTOHmeBI/AAAAAAAABJk/Ypk9ve2czyA/s1600/briggs_1.jpg

তবে আমরা যতই নিচু প্যানওয়ালা টয়লেটে অভ্যস্থ হই না কেন কমোড অনেক বেশি আরামদায়ক, কারণ এতে প্যান পদ্ধতির মত হাটু মুড়ে বসতে হয় না। তাইতো হতদরিদ্রদেরকেও কম বাজেটে কমোড বানানোর তরিকা জানিয়ে বই পত্তর পাওয়া যায়। নিচের ছবিগুলো একটা বই থেকে নেয়া। দেখছেন কারবার, ওখানে কিন্তু এই টয়লেটগুলোর নিচে ওয়াটার সিল (বা ট্র্যাপ / Trap) নাই। তবে এরকম করে কমোড বানিয়ে সেখানে ইচ্ছা করলেই লাগিয়ে নেয়া যায়।

http://2.bp.blogspot.com/-LsSkWnCvj_0/Tu0Jf8iaJ6I/AAAAAAAABJs/TDyeFP9H5bs/s1600/LowCostCommode-01.jpg
http://2.bp.blogspot.com/-_cfXb4wWYsU/Tu0JmqUUVMI/AAAAAAAABJ0/R6SmtscfhmQ/s1600/LowCostCommode-02.jpg
http://1.bp.blogspot.com/-fbg7qkZgGU8/Tu0JuE4p3rI/AAAAAAAABJ8/4p2jaeTN7sw/s1600/LowCostCommode-03.jpg
http://4.bp.blogspot.com/-SCLEZ5mVwok/Tu0J0FPdTQI/AAAAAAAABKE/dIaIv1vUla4/s1600/LowCostCommode-04.jpg

উপরের ছবিগুলো আফ্রিকা মহাদেশের কোন এক দেশের একটা প্রজেক্টের ছবি। আমাদের দেশে ঝোপ ছেড়ে ছোট ঘরে ঢুকতে চায়না - এমন ব্যক্তি আছে তা তো আগেই বলেছি। আবার অনেকেই কমোডের পটি সিস্টেমের সুখের চেয়ে আগের পরিচিত পদ্ধতি ব্যবহার করতে চায়। এখন উভয় পক্ষকে খুশি রাখার জন্য এ অঞ্চলের ব্যবসায়ীদের প্রচেষ্টার অন্ত নাই। তাইতো নিচের ছবির মত হাইব্রীড সিস্টেম বানিয়েছে। প্যান আর কমোড দুই ধরণের ব্যবহারকারীই এটাতে ত্যাগের সুখ লাভ করতে পারবেন!

http://1.bp.blogspot.com/-MIeLBKSxntg/Tu0KCrMUfwI/AAAAAAAABKM/9vKb8RoJQro/s1600/Pedestal-squat-toilet.jpg

আমি জাপানে যেই এ্যাপার্টমেন্টে থাকতাম ওখানকার কমোড ছিল নিচের ছবির মত। পানির কল বা স্প্রে না থাকলে কি হবে, হাত ধোয়ার জায়গা আছে!! টেকনোলজি হিসেবে চিন্তা করলে এটা আহামরি কিছু না। ফ্লাশ করার পর ভালভ খুলে গিয়ে পানি ভেতরেই পরতো, সেটাকেই অতিরিক্ত পাইপ যুক্ত করে বাইরে নিয়ে আসা হয়েছে।

http://1.bp.blogspot.com/-0FJhm9vLwY0/Tu0KMABZTMI/AAAAAAAABKU/1hEr8QtoZs0/s1600/05-toilet.jpg

http://4.bp.blogspot.com/-Hm-6t7Gxx2o/Tu0KVMtsUWI/AAAAAAAABKc/nU-Ax2aCX38/s1600/800px-Ballcock.svg.png

টিস্যূ পেপার দিয়ে আমার হয় না, তাই  টয়লেটে ব্যবহারের জন্য গোছলখানা থেকে একটা লম্বা পাইপ দিয়ে স্প্রে (হ্যান্ড শাওয়ার) লাগিয়ে নিয়েছিলাম। দেশের কমোডের সাথে হ্যান্ড শাওয়ার কিংবা বদনার ব্যবস্থা থাকে, যেটা জাপানে খুব মিস করতাম। আমার ধারণা আরো অনেক লোকই এই ব্যাপারটা মিস করতো, তাই অতীতে বিডেট বা বিডে নামক ধৌতকরার এক প্রকার কমোড মূল কমোডের পাশাপাশি ব্যবহার ব্যবহার করা হয়। এটা মূলত ফরাসী আবিষ্কার, তবে বাংলাদেশেও দুই এক জন এমন সিস্টেম করেছে এমন কথা শুনি ডেভেলপারদের কাছ থেকে।

http://3.bp.blogspot.com/-WxcH5phn92M/Tu0KygN20uI/AAAAAAAABKk/M1Cd5Yhba7o/s1600/447px-Bidet_side.jpg

না না ভয় পাওয়ার কিছু নাই। এক জায়গায় ত্যাগ করে আরেক জায়গায় উঠে এসে ধৌত করতে হবে না। বর্তমানে একেবারে মনমত টু-ইন-ওয়ান বিডে টয়লেট পাওয়া যাচ্ছে। সত্যি বলতে কি এই বিডেগুলো আমি এখনও খুব মিস করি। বেশি ব্যাখ্যার দরকার নাই ছবি দেখেন। কাজ শেষে সুইচ টিপলেই একটা পাইপ বের হয়ে গরম পানির ধারা দিবে। এই পানির গতি, তাপমাত্রা কিংবা নজেলের প্রকৃতি সবই নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

http://3.bp.blogspot.com/-d8onJ6ub8pg/Tu0LCSDxS4I/AAAAAAAABKs/VIKTMGjsylM/s1600/Bidet2.jpg

http://2.bp.blogspot.com/-Riww0YPwnJc/Tu0LRgGoA0I/AAAAAAAABK0/PqBEOi6dOHY/s1600/japanese-toilet2.jpg

সাধারণ কমোডের উপরের সিটটাকে পাল্টিয়ে নিয়ে ওটাকেই এই ধরণের বিডে টয়লেটে পরিবর্তন করা যায়। এটা লাগাতে ফ্লাশ ট্যাংকের জন্য থাকা পানির লাইন আর একটা ইলেক্ট্রিক পাওয়ার লাইন লাগবে।

http://3.bp.blogspot.com/-rkliz_BBNKg/Tu0LZ0ZcGHI/AAAAAAAABK8/UivckZpt2Ck/s1600/japanese-bidet12726607892591.jpeg

২০০১ সালে সুইজারল্যান্ডে একবার ইউরোপের খ্যাতনামা Geberit কম্পানির কারখানায় যাওয়ার সুযোগ হয়েছিলো শিক্ষা সফরে। সেখানে প্রথম এই রকম অত্যাধুনিক বিডে দেখেছিলাম। তবে ব্যবহার করার সুযোগ হয়েছে আরো কয়েকবছর পরে জাপানে। জাপানে উল্টা প্যান দেখে যা কিছুই ভাবেন না কেন, সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে থাকা সবচেয়ে বড় বাথরুম ফিটিংস কারখানা Toto কিন্তু জাপান থেকেই যাত্রা শুরু করেছিলো (১৯১৭ সালে)।

ছবি সংগ্রহের সূত্রসমূহ:
http://www.asianjoke.com/wp-content/upl … -japan.jpg
http://farm5.static.flickr.com/4114/491 … 602e_o.jpg
http://dadsprimalscream.files.wordpress … toilet.jpg
http://dadsprimalscream.files.wordpress … toilet.jpg
http://www.mikesblender.com/how%20to%20 … toilet.jpg
http://www.spaciousplanet.com/images/wo … 92591.jpeg
http://gallerydejavu.com/wp-content/upl … toilet.jpg
http://en.wikipedia.org/wiki/Bidet
http://donkeymon.net/donkeymon/images/g … toilet.jpg
http://www.toddswanderings.com/wp-conte … Toilet.jpg
http://www.ecosanres.org/pdf_files/Toil … ompost.pdf
http://en.wikipedia.org/wiki/Flush_toilet
http://outsiderjapan.pbworks.com/f/1297 … Bidet2.jpg
http://www.terrylove.com/fh.htm
http://helid.digicollection.org/en/d/Jh0210e/3.3.6.html
http://www.totousa.com/WhyTOTO/AboutTOTO/History.aspx
http://green-living-made-easy.com/toto-toilets.html

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: কমোডনামা-২

ওরে ভাই। যা দেখাইলে আর লিখলেন এখন থেকে বস্লেত আপনার নির্দেশনা মনে পড়ে যাবে , হা হা ।  lol2

খুব মচতকার লাগছে ভাইচা, ব্যাপুক বুন্যদুন হৈচে যদিও হাসির বাক্সা নহে  lol






.

মুইছা দিলাম। আমি ভীত !!!

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: কমোডনামা-২

ওরে টেকনলোজী... মারাত্নক লাগলো ভাইয়া

Rhythm - Motivation Myself Psychedelic Thoughts

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: কমোডনামা-২

শেষ পর্যন্ত টয়লেট নিয়া..........কেমন জানি গা ঘিন ঘিন করতাছে শামীম ভাই

ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য.......

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর

Re: কমোডনামা-২

লেখক হিসাবে নাম করবেন আপনি , এইটা নিয়া বই চাপাইতে পারেন >>(মজা করলাম)
ধন্যবাদ শামিম ভাই http://forum.projanmo.com/img/avatars/45.gif

এই ব্যাক্তির সকল লেখা কাল্পনিক , জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিল পাওয়া গেলে তা সম্পুর্ন কাকতালীয়, যদি লেখা জীবিত অথবা মৃত কারো সাথে মিলে যায় তার দায় এই আইডির মালিক কোনক্রমেই বহন করবেন না। এই ব্যক্তির সকল লেখা পাগলের প্রলাপের ন্যায় এই লেখা কোন প্রকার মতপ্রকাশ অথবা রেফারেন্স হিসাবে ব্যবহার করা যাবে না।

Re: কমোডনামা-২

ছবি-Chhobi লিখেছেন:

শেষ পর্যন্ত টয়লেট নিয়া..........কেমন জানি গা ঘিন ঘিন করতাছে শামীম ভাই

ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য.......

শেষ পর্যন্ত কেন হবে, আগেও লিখেছি। এই পোস্টের নিচেই দেখেন "সম্পর্কিত বিষয়'-এ ওটার লিংক ধরিয়ে দেবে ফোরামের ইঞ্জিন।

আর হেলথ ইঞ্জিনিয়ারিং এ আমাদেরকে ৩টা বিষয় নিয়ে কাজ করতে হয় -- নিরাপদ পানি সরবরাহ, স্বাস্থ্যসম্মত পয়ঃনিষ্কাশন এবং স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি। এই তিনটি বিষয়ই না থাকলে একটা সমাজে স্বাস্থ্যগত সমস্যা দুর হবে না। শুধু আর্সেনিক এবং জীবানুমুক্ত পানি পেলেই হবে না, যদি খোলা জায়গায় পায়খানা হয় তবে জীবানু সংক্রমন হবেই। আবার পানি নিরাপদ হল, স্যানিটারী ল্যাট্রিন হল কিন্তু ঠিকমত হাত ধুয়ে খাবার খায় না কিংবা নখ ছোট রাখে না, ভাল ভাবে ধুয়ে ফল খায় না - ইত্যাদি হাইজিন এডুকেশন না থাকলেও দেখা যাবে সুস্থ থাকা যাচ্ছে না।

এটা সেটারই টেকনোলজিক্যাল ব্যাপার স্যাপারগুলো জানানোর জন্য সচেতনতা মূলক পোস্ট। একটু খারাপ লাগলেও আমাদের জন্য জরুরী বিষয়।  hug

এই পোস্টটি আগে সচলায়তনে দিয়েছিলাম, ওখানে এ সংক্রান্ত মজার এবং ইনফরমেটিভ কিছু মন্তব্য, ভিডিও পাবেন।  big_smile

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন দ্যা ডেডলক (২০-১২-২০১১ ১৩:০৩)

Re: কমোডনামা-২

১। হে হে হে । প্রথম বার কমোড ব্যবহার কথা মনে করলে এখনো হাসি পায়। প্রথম দিন এর চারপাশ দিয়ে ঘুরছি কিন্তু কিছু করি নাই  hehe টেনশনে হাল্কা জর এসে গিয়ে ছিল। কিন্তু পর দিন বাধ্য হয়ে এতেই  ইয়ে করতে হয়ে ছিল  nailbiting ।  আর এখন কোন কারনে প্যান ব্যবহার করতে হলে অসস্তি লাগে।

২। পরের পর্বে ইসলামিক পদ্ধতিতে কমোডে কিভাবে প্রসাব, এস্তেঞ্জা ও ইয়ে করার পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করলে খুশি হব। কমোড ব্যবহার করে কিভাবে নাপাক হওয়া হতে দূরে থাকা যায়, তা নিয়ে আলাদা টপিকে আলোচনা করলে খুশি হতাম।

৩। ঢাকনা বন্ধ করে ফ্লাশ করা উচিৎ তা আপনার লেখাতে দেওয়া উচিৎ ছিল।

৪। বাংলাদেশীদের উচ্চতা  ১৫৫ cm থেকে ১৭৫ cm । তাই তাদের কমোডের উচ্চতা কেমন হওয়া উচিৎ ?

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: কমোডনামা-২

@ডেডলক ভাই,
১। প্যানে আমারো কষ্ট লাগে।  donttell

২। পরের পর্ব বলে কিছু হবে কি না জানিনা। তবে আমার লেখাগুলোর মধ্যে ইসলামিক পদ্ধতি সংক্রান্ত ব্র্যান্ডিং থাকে না, থাকবে না। ইসলাম যতটুকু বুঝি তাতে এটা একটা অসাধারণ জীবন দর্শন - এটাকে বিভিন্ন কায়দা কানুনের কাতারে নামিয়ে আনতে চাই না। এছাড়া ঐ ধরণের ব্র্যান্ডিং এড়িয়ে গিয়ে অযথা কুটতর্ক কিংবা ভুল করে ভুল জিনিষ শেখানোর দায় এড়ানোই উত্তম মনে করি।

তবে আমার যে বস পানির ছিটা এড়াতে টিস্যূ ফেলা শিখিয়েছিলেন উনি চরম পরহেজগার মানুষ। হ্যাঁ, ... ... ওনার বিরাট দাড়ি আছে এবং সর্বদা টুপি ব্যবহার করেন।

৩। "ঢাকনা বন্ধ করে ফ্লাশ করা উচিৎ' -- এটা কেন তা আমার জানা নাই। আমি নিজে সবসময়ই ঢাকনা খুলে ফ্লাশ করার পক্ষপাতি  hehe। আপনার কথার সপক্ষে কিছু বলেন - তাতে আমরাও শিখতে পারি।   thinking

৪। ভাল ভাল উৎপাদকগণই কমোডের উচ্চতা সংক্রান্ত গবেষণা করে সে অনুযায়ী ভাল ভাল কমোড বানাচ্ছেন। আমার ধারণা সোফার সিটের উচ্চতার মত কমোডের উচ্চতাও ব্র্যান্ড ভেদে কিছুটা ভিন্ন। মনে হয়, হাঁটু মুড়ে আরামে বসা এবং বসা অবস্থায় পা মাটিতে আরামদায়ক চাপে বিশ্রামে রাখতে পারাটাই মূল শর্ত হতে পারে।  smile

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন invarbrass (২০-১২-২০১১ ১৩:৫০)

Re: কমোডনামা-২

আহা! বিদে-র কথা মনে করিয়ে দিলেন  love  love  love

শুধুমাত্র বিদের কারণে সকালে বাসার টয়লেট বাদ দিয়ে ইউনিভার্সিটিতে যেতাম... তাও আবার আমার মতন সাধারণ গাকসেই আম-ডাক্তারদের জন্য নির্ধারিত সাধারণ টয়লেটে না, এক্কেবারে সুপারভাইযার সেনসেইদের এক্সক্লুসিভ তোয়রে-তে হামলা চালাতাম...  worried উনাদের টয়লেটে এক্সটেন্ডেড ভার্সন বিদে ছিলো কিনা...  tongue বিদে ছাড়াও ছিলো হট সীট (শীতকালের জন্য), টয়লেটের মধ্যে ছিলো ব্লোয়ার এবং ভ্যাকুয়াম সাক্সন... (ইহা বিশেষ স্থলে হ্যান্ড ড্রায়ারের মত কাজ করে - হ্যান্ডস ফ্রী অবশ্যই  tongue ) আহা!  love এমনকি পৈটিক দুর্যোগ মোকাবেলার জন্য বিশেষ ইকুইপমেন্টও মওজুদ ছিলো ওগুলোতে - পারফিউম ডিসপেন্সার ছিলো, এমনকি বিদঘুটে শব্দ ধামাচাপা দেওয়ার জন্য স্পীকারও ছিলো - ইহাতে জেপপ আইডল আয়ুমী হামাসাকী-র
কনসার্ট পরিবেশিত না হইলেও নায়াগ্রা প্রপাতের মত বিকট কানফাটানো শব্দে ফ্লাশ হবার ভুয়া সাউন্ড পিলে চমকে দিতো... জাপাণী খাবারদাবার মনে হয় ব্যাকটেরিয়াদের খুব বেশী পছন্দ না, তাই পৈটিক গোলোযোগ তেমন হতো না - তবুও দৈনিক রুটিন করে টয়লেটের সব ফীচারগুলো টেস্ট করতাম - ভবিষ্যৎে যদি দরকার পড়ে! big_smile

অদ্য বিশেষ করিয়া মনে পড়িতেছে হোস্টেলের ঠিক পাশে অবস্থিত মুভি থিয়েটারের বাথরুমটির কথা - উহার বিদে-টি ডিস্কো লাইটের মতন চরকী খাইতে পারিতো, রিমোট টিপিয়া নি:সৃত জলধারা চিকন নাকি মোটা হইবে, স্ট্রেট হিটিং হইবে নাকি pulsate করাইবেন, সফটপ্রেসার নাকি হার্ডপ্রেসার ইত্যাদি হাইড্রোডাইনামিক্স বিষয়ক পরীক্ষানিরীক্ষা চালানো যাইতো   love love love   আহারে...    brokenheart

ইদানীং ভারতে বিদে মোটামুটি জনপ্রিয়তা পাইতেছে। সালমান শাহরুখের সংগে অদূর ভবিষ্যতে বিদেও আমাদের বংগদেশীয় শৌচাগারে আগ্রাসন চালাইবে বলিয়া মনে হইতেছে...  big_smile জাপানী টেকনোজীর জুড়ি নাই!  clap  lol

৩। "ঢাকনা বন্ধ করে ফ্লাশ করা উচিৎ' -- এটা কেন তা আমার জানা নাই। আমি নিজে সবসময়ই ঢাকনা খুলে ফ্লাশ করার পক্ষপাতি  । আপনার কথার সপক্ষে কিছু বলেন - তাতে আমরাও শিখতে পারি।

ব্যবহার করার সময় ছাড়া সবসময় টয়লেট লিড নামিয়ে রাখা উচিৎ। ফ্লাশ করার সময় পানি ছিটকে পড়ার সম্ভাবনা থাকে। এছাড়া টয়লেট লিড খোলা থাকলে aerosolization হয় - water vapor-এ ভর করে fecal bacteria, ফাংগাস ইত্যাদি প্রাণীরা হাওয়াই জাহাজে উড়ে বেড়াণোর ফ্রী টিকেট পেয়ে যায়। (একই ঘরে তো আমরা টুথব্রাশ-ও রাখি নাকি?  nailbiting)

Calm... like a bomb.

১০ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন শামীম (২০-১২-২০১১ ১৪:০২)

Re: কমোডনামা-২

@invarbrass ভাই,
আপনার সেনসেইরাতো বেশ কামেল বান্দা দেখা যায়। ইঞ্জিনিয়ারিং‌এর সেনসেইদের আলাদা টয়লেট দেখিনি।

গরম রীমের কথা আগের পর্বে লিখেছিলাম জন্য এখানে আর উল্লেখ করি নাই। হ্যাঁ বিভিন্ন রকম স্প্রে-হেড শুধু সুইচ টিপেই পরিবর্তন করাটা বেশ মজার ছিল। তবে বিপুল বিক্রমে চেষ্টা চরিত্র করার আওয়াজ আড়াল করার জন্য তোয়রে'র সাউন্ড ফীচার কখনো খেয়াল করি নাই।  smile

পানির গতি নিয়ন্ত্রণের অপশন প্রদত্ত কন্ট্রোল প্যানেলের ছবিতেই বোঝা যাচ্ছে।  big_smile

আজকে বিডিনিউজ২৪ এ টেকনোলজিতে টয়লেট নিয়ে ফীচার এসেছে:
টয়লেট দেবতাকে তুষ্ট করতে...  big_smile

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১১

Re: কমোডনামা-২

যাদের কপালে ভবিষ্যতে জাপান ভ্রমণ আছে তাদের জন্য কালচারাল টিপস:

"বিদে" শব্দটি বহুল প্রচলিত হইলেও বস্তুটির টেকনিকাল নাম ওয়াশলেট (washlet, জাপানীতে ওয়াশুরেত্তো)

জাপানে ৩ প্রজাতির টয়লেট প্রচলিত আছে:
কুমিতোরী - আমাদের গ্রামবাংলার আপামর জনতা উহা বহু আগেই আবিষ্কার করিয়া বসিয়া আছে।
সুইসেন - ইহা সাধারণ পশ্চিমা টয়লেট।
ওয়াশুরেত্তো - আশির দশকে জাপাণের বিখ্যাত টোটো কোম্পানী (গুল মারিতেছি না, বিশ্বাস না হইলে এইখানে চাপুন) ইহা প্রস্তুত করিয়া দুনিয়া উল্টাইয়া ফালাইছিলো।

ওয়াশুরেত্তো ব্যবহার প্রণালী আগেভাগেই জানিয়া রাখা ভালো। বুঝার সুবিধার জন্য শামীম ভাইয়ের টয়লেটের ছবিখানি পুনরায় প্রদর্শিত হইলো:
http://2.bp.blogspot.com/-Riww0YPwnJc/Tu0LRgGoA0I/AAAAAAAABK0/PqBEOi6dOHY/s1600/japanese-toilet2.jpg
উপরের ছবিতে নীল রংয়ের মধ্যম চাপবোতামটি খেয়াল করুন। উহার তলদেশে দেখুন সরল ইংরাজী ভাষায় লিখিত আছে "SPRAY" - এবং বাস্তবিকই কোথা হইতে ক্ষীণ জলধারা নির্গত হইতেছে। তদুপরি, উক্ত চাপবোতামের উপরে জাপানী ভাষায় লিখা আছে "ও-শিরি" - ইহার শব্দার্থ হইলো "মহামান্য পশ্চাদ্দেশ"। আবার দেখেন, বোতামের উপরার্ধে সুনিপুণ হস্তে ইংরাজী "W" অক্ষরটি অংকিত আছে। এই গুপ্ত সংকেতের মাজেজা আপনাদের উপরই ছাড়িয়া দিলাম (ইহা যে আর্টিস্ট মহাশয়ের নামের আদ্যাক্ষর না সেই ব্যাপারে নিশ্চিত থাকিতে পারেন)

মহামান্য পশ্চাদ্দেশের দক্ষিণ পার্শ্বে অবস্থিত আছে নারীসুলভ গোলাপী বর্ণের আরেকখানি চাপবোতাম - ইহাই হইলো জগৎজোড়া খ্যাতিবিশিষ্ট সেই প্রকৃত "বিদে"। অবলোকন করুন বোতামের মধ্যিখানে একজন মহিলা উপবিষ্ট আছেন। এছাড়া খেয়াল করুন, বোতামের তলদেশে একটি তিমি মৎস (ইহা অবশ্য চেহারা দেখাইতে শরম পাইতেছে) জলজ নি:শ্বাস ছাড়িতেছে।

আগেভাগেই জানাইয়া দেই, ৩য় চাপবোতামের গূঢ় সংকেতের অর্থ আমিও জানি না, অতএব ইহার শানেনুযুল জানিতে চাহিয়া লজ্জা দিবেন না। তবে, একদা কম্পাসব্যতীত গণনা করিয়া এই সিদ্ধান্তে উপনীত হইয়াছিলাম যে: ওশিরি এবং বিদে নির্গত জলধারার মধ্যে ৫-৬ ডিগ্রী (গিভ & টেক ০.৫ ডিগ্রী) সুক্ষ পার্থক্য রহিয়াছে... অতএব, আমার হাইপোথীসিস হইলো, উক্ত বস্তুদ্বয় দুইটি ভিন্ন প্রত্যংগের জন্য প্রস্তূত করা হইয়াছে  thinking

সুতরাং, ওশিরি এবং বিদে ব্যবহার করার পূর্বে ইহাদের উপযোগীতা ভাবিয়া লইবেন...  cool

Calm... like a bomb.

১২ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন দ্যা ডেডলক (২০-১২-২০১১ ১৪:৩৬)

Re: কমোডনামা-২

শামীম লিখেছেন:

তবে আমার লেখাগুলোর মধ্যে ইসলামিক পদ্ধতি সংক্রান্ত ব্র্যান্ডিং থাকে না, থাকবে না। ইসলাম যতটুকু বুঝি তাতে এটা একটা অসাধারণ জীবন দর্শন - এটাকে বিভিন্ন কায়দা কানুনের কাতারে নামিয়ে আনতে চাই না। এছাড়া ঐ ধরণের ব্র্যান্ডিং এড়িয়ে গিয়ে অযথা কুটতর্ক কিংবা ভুল করে ভুল জিনিষ শেখানোর দায় এড়ানোই উত্তম মনে করি।

কি দোয়া পরতে হবে এই কথা আমি জানতে চাচ্ছি না। কোন সিস্টেম প্রয়োগ করলে ১০০% সিওর থাকা যাবে যে নাপাকি হচ্ছে না। যেমন, কমোড সাওয়ার কিভাবে ধরা উচিৎ ?  dontsee

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

১৩ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আকীক (২০-১২-২০১১ ২৩:২১)

Re: কমোডনামা-২

শামীম ভাই কি কমোডের উপর অনার্স মাষ্টার্স করছেন?

ম্যাচের কাঠি নিজেও জানেনা যে তার মধ্যে আগুন আছে।
আমরা প্রত্যেকেই ম্যাচের কাঠির মতো।
আগুনটা বের করতে শুধু একটা ঘষা দরকার।

১৪

Re: কমোডনামা-২

ওরে ভাই শেষ পরযন্ত এইডার পিছে লাগলেন কে।এইডা তো শান্তির জিনিশ জানেন তো---
ভোগে নয় ত্যাগেই সুখ lol lol lol lol lol lol lol

সুমন্ত দাশ big_smile

১৫

Re: কমোডনামা-২

যথার্থই বিজ্ঞানের টপিক। কিভাবে 'ইয়ে' তার জন্যও পড়াশোনা করতে হবে।  angry
আমার বাসায় মোশান একটিভেটেড ফ্লাস ছিল, সেটাতে বেশী নড়াচড়া করলে আগেভাগেই ফ্লাস চালুহয়ে যেতে।  hairpull
ঘুমোচোখে অপ্রস্তুত অবস্থায় ফ্লাসে আওয়াজে মাঝে মধ্যে ভয়ে পেয়ে যেতাম! শেষে একদিন রেগে বারি দিয়ে সেন্সের বারোটা বাজিয়ে দিয়েছি।
কিছু কিছু ক্ষেত্রে অন্তত টেক না ব্যাবহার করাই ভাল।

১৬

Re: কমোডনামা-২

সত্যিই অনেক knowledge বাড়ল। ধন্যবাদ।

নিজেকে কেমন বোকা বোকা লাগে,,,,

১৭

Re: কমোডনামা-২

শামীম ভাইকে ধন্যবাদ গুরুত্তপূর্ণ একটা বিষয় নিয়ে লেখার জন্য... thumbs_up thumbs_up


invarbrass লিখেছেন:

যাদের কপালে ভবিষ্যতে জাপান ভ্রমণ আছে তাদের জন্য কালচারাল টিপস:

"বিদে" শব্দটি বহুল প্রচলিত হইলেও বস্তুটির টেকনিকাল নাম ওয়াশলেট (washlet, জাপানীতে ওয়াশুরেত্তো)
......

আপনার টিপস সঠিক এবং মজাদার হইয়াছে... big_smile

washlet ব্যবহার করে আসলেই আরাম...বাংলাদেশে ফেরত যাওয়ার সময় জাপান থেকে আর কিছু না হোক, এই জিনিস নিবই নিব... lol lol lol

" তবু রোজ রাতে আমি চেয়ে দেখি, আহা, থুরথুরে অন্ধ পেঁচা অশ্বত্থের ডালে বসে এসে, চোখ পাল্টায়ে কয়: 'বুড়ি চাঁদ গেছে বুঝি বেনোজলে ভেসে?' "

১৮

Re: কমোডনামা-২

pagolmon লিখেছেন:

শামীম ভাইকে ধন্যবাদ গুরুত্তপূর্ণ একটা বিষয় নিয়ে লেখার জন্য... thumbs_up thumbs_up
.....
....

washlet ব্যবহার করে আসলেই আরাম...বাংলাদেশে ফেরত যাওয়ার সময় জাপান থেকে আর কিছু না হোক, এই জিনিস নিবই নিব... lol lol lol

খেয়াল রাখবেন যে জাপানেরগুলো ১১০ ভোল্টে চলে। এখানে ২২০ ভোল্ট।
সরাসরি ২২০ ভোল্টের পাইলে তো ভাল, নাহলে একটা ছোট স্টেপ আপ ট্রান্সফরমার / অ্যাডাপ্টার ব্যবহার করতে হবে এখানে।

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৯

Re: কমোডনামা-২

চমৎকার পোস্ট! একবার টয়লেটের ফ্লাসটা ঠিকমত কাজ না করাতে খুলে উল্টে-পাল্টে দেখেছিলাম। তখনি কিছু জ্ঞানলাভ হয়েছিলো big_smile ট্রাপের ব্যাপারটাও জানতাম। তবে এখানে পড়ে আরো পরিষ্কার হলো। প্যানে বসতে অনেকের অজুহাত হলো - ইয়ে বেগ নাকি ঐভাবে না বসলে ভালো আসে না tongue তবে মোটাসোটা মানুষদের জন্য বিরাট সমস্যা যেমন, আমার বাবা-মা। উনারা কমোড ছাড়া চলতেই পারেন না। বিদেটা বেশ কৌতুহল উদ্দীপক! তবে মনে হচ্ছে না এতে পশ্চাদ্দেশে লেগে থাকা আবর্জনা পুরোপুরি ধুয়ে যাবে! thinking ব্যবহার করিনি; করলে হয়তো বুঝতে পারতাম। অবশেষে শামীম ভাই কে ধন্যবাদ বিষয়গুলি জানানোর জন্য thumbs_up

কিছু বাধা অ-পেরোনোই থাক
তৃষ্ণা হয়ে থাক কান্না-গভীর ঘুমে মাখা।

উদাসীন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

২০

Re: কমোডনামা-২

কলকাতার এক ভাংগা হোটেলের ভাংগটা টয়লেটে (এর সিটটা আবার কাঠের ছিলো) lol  একটা সেমি বিদে টাইপ জিনিস ব্যাবহারের সু্যোগ হয়েছিলো। ভালো জিনিস।  thumbs_up


উদাসীন লিখেছেন:

বিদেটা বেশ কৌতুহল উদ্দীপক! তবে মনে হচ্ছে না এতে পশ্চাদ্দেশে লেগে থাকা আবর্জনা পুরোপুরি ধুয়ে যাবে! thinking

আবর্জনার ও ত কিছু কোয়ালিটি আছে।  big_smile  কিছুই না হইলে বিদে এবং আপনার হস্তদয় মিলিত উপায়ে  আবর্জনার একটা গতি করিবেই।   big_smile

I am not far, but alone. Like a pair of rail tracks in winter morning.............