সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন হৃদয় (২৪-১১-২০১১ ০৩:২৭)

টপিকঃ ডুম থ্রি গেমের ইঞ্জিন ওপেন সোর্স করা হল

জন ডি কারম্যাক, বিখ্যাত গেম প্রোগ্রামার, যাঁকে ডুম থ্রি গেম ইঞ্জিন এবং কোয়েক গেম ইঞ্জিনের ডেভেলপার হিসাবে সকলেই চেনে, তাঁর ডুম থ্রি গেম ইঞ্জিন "id Tech 4" জিপিএল লাইসেন্সের অধীনে ওপেন সোর্স হিসাবে আত্মপ্রকাশ করেছে। এর সোর্স বর্তমানে github এ রয়েছে


ইতিপূর্বেও তাঁর কোয়েক থ্রি ইঞ্জিন ওপেন সোর্স করা হয়েছিল। যার উপর ভিত্তি করে Open Arena তৈরি হয়েছে।

ডুম থ্রি গেমটি চলত id Tech 4 ইঞ্জিনে, ডুম থ্রি এর সোর্স রিলিজ হয়নি, ইঞ্জিনের সোর্স রিলিজ হয়েছে। অতএব ডুম থ্রি গেম সামনে উবুন্টু রিপোতে পাওয়া যাবে এমন আশা যাঁরা করছেন তাঁদের হতাশ হতে হবে। তবে ডুম থ্রি ইঞ্জিন সোর্স রিলিজ যে তবে অদূর ভবিষ্যতে এর সমতুল্য বা এর থেকেও জোশ কোন ওপেন সোর্স গেমের জন্মের ইঙ্গিত দেয় সে কথা বলাই বাহুল্য।

"No ship should go down without her captain."

হৃদয়১'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ডুম থ্রি গেমের ইঞ্জিন ওপেন সোর্স করা হল

এই গেমটা খেললেই আমার মাথা সিরিয়াস ঘুরাইতো আর বমি বমি লাগতো notlistening কারণ কি?

Rhythm - Motivation Myself Psychedelic Thoughts

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: ডুম থ্রি গেমের ইঞ্জিন ওপেন সোর্স করা হল

আমারো মাথা ঘুরাতো।তবে প্রচন্ড নেশা ছিল।আমার মনে আছে আমি তখন ক্লাম সেভেন এ পড়তাম।সাময়িক পরীক্ষা থাকতো ২.০০ টা থেকে।১২.৩০ পর্যন্ত খেলে রেডি হতাম পরীক্ষা দিতে যাওয়ার জন্য।

Re: ডুম থ্রি গেমের ইঞ্জিন ওপেন সোর্স করা হল

আহমাদ মুজতবা লিখেছেন:

এই গেমটা খেললেই আমার মাথা সিরিয়াস ঘুরাইতো আর বমি বমি লাগতো notlistening কারণ কি?

ঠিক কেন হয় সেটা বলতে পারব না, শুধু এটুকু জানি এইটা একটা বিশেষ ধরণের মোশান সিকনেস, যেটা Doom sickness নামেও পরিচিত।

forhan লিখেছেন:

আমারো মাথা ঘুরাতো।তবে প্রচন্ড নেশা ছিল।আমার মনে আছে আমি তখন ক্লাম সেভেন এ পড়তাম।সাময়িক পরীক্ষা থাকতো ২.০০ টা থেকে।১২.৩০ পর্যন্ত খেলে রেডি হতাম পরীক্ষা দিতে যাওয়ার জন্য।

আমারও গেমটা দারুণ লাগত, খালি এই মাথা ঘোরানোর জন্য ভয় পেয়ে খেলা ছেড়ে দিয়েছিলাম। sad

"No ship should go down without her captain."

হৃদয়১'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত