সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন তার-ছেড়া-কাউয়া (১৫-১১-২০১১ ১৯:৫৬)

টপিকঃ আমার আরব আমিরাত সফর

অনেক ঝুটঝামেলা করে আমার এবং আমার স্ত্রীর পাসপোর্ট করেছিলাম। উদ্দেশ্য ছিলো আমার শ্বশুরালয় ভ্রমণ। অবশেষে সেই দিনটি চলে এলো। ফ্লাইট ছিলো সকাল নয়টায়। রিপোর্টিং ছয়টার সময়। এত ভোরে গাড়ি পাওয়াও মুশকিলের ব্যাপার। এজন্যে আগের দিন একটা সিএনজি স্কুটার ঠিক করে রেখেছিলাম। সেটাতে করে সময় মতই পৌছে গেলাম বিমান বন্দরে। ঢাকার বিমান বন্দর লিখলাম, কারণ নতুন নামটা বললেই কেন জানি কনফিউজড হয়ে যাই। অভ্যস্ত হতে পারি নাই এখনো। কাস্টমসে এক পরিচিতের কল্যাণে কোন ভ্যাজাল ছাড়াই পার হয়ে গেলাম। অনেকবার বিমানবন্দরে এলেও এসব এলাকাতে আগে কখনো আসতে পারি নাই। সবকিছুই নতুন।  ইমিগ্রেশন পার হওয়ার সময় সেই লেভেলের খাজুরা আলাপ শুরু করলো ইমিগ্রেশন অফিসার।
‘আপনারা হাসবেন্ড-ওয়াইফ? কোথায় পরিচয়? কিভাবে পরিচয়? একই ইউনিভার্সিটিতে পড়তেন? জানেন আমারও না আপনার সাবজেক্টটা খুব ভালো লাগে.....’।

যাই হোক, খাজুরা আলাপ করে ইমিগ্রেশন থেকে বের হয়ে ওয়েট করতে থাকলাম। টেনশনে আমার অবস্থা খারাপ। আগে কখনো প্লেনে চড়ি নাই। একদা প্রচুর গেম খেলতাম। তখনও ভুলেও কখনো ফ্লাইট সিমুলেটর টাইপ গেম খেলতাম না। খালি মাথা ঘুরাইতো খেললে। টেনশনে বার বার পেট মোচড় দিচ্ছে। আমার একাধিকবার প্লেনে-চড়া এক্সপার্ট স্ত্রী পাশ থেকে অভয় দিয়ে বললো,
‘আহহা তুমি এতো টেনশন করতেসো কেন? টেকওফের সময় একটু চাপ লাগে। টেকওফের পরে কান বন্ধ হয়ে যায়। আর ল্যান্ড করার সময় একটু গা গুলায়। আর মাঝে মাঝে এয়ার পকেটে ঢুকে গেলে ঝাকি খায়, তখন একটু বমি বমি লাগে। তাছাড়া আর কোন সমস্যাই হয় না। টেনশন করোনাতো।’
ওর কথা শুনে আরো জোরে জোরে পেট মোচরানো শুরু করলো। আমি টয়লেটে দৌড় লাগালাম। বোর্ডিং এর ঠিক আগে আগে আরও একবার টয়লেটে গেলাম। প্লেনে ওঠার আগে সবার সাথে কথা বলে নিলাম। প্লেনে ওঠার ব্রিজটা দেখে আমার ,সদরঘাটে লঞ্চে ওঠার ব্রিজগুলোর কথা মনে পরে গেলো। বাইরে দেখলাম দুরে কাতার এয়ারওয়েজের একটা বিরাট প্লেন দাঁড়িয়ে আছে। আমাদের এয়ার অ্যারাবিয়ার প্লেনটাকে সেই তুলনায় খুব ছোট মনে হলো।
https://lh4.googleusercontent.com/-E6zclAslLTI/TsExwpIYe0I/AAAAAAAAAD0/g54FnQcITOI/s640/SAM_0868.jpg

প্লেনের ভিতর ঢুকে দেখি পুরা বাজার টাইপ অবস্থা। মাত্র দুই কলাম সিট। প্রতি কলামে পাশাপাশি তিনটা করে সিট। সিটগুলাও চিপাচিপা। আরো ভয়াবহ ব্যাপার হচ্ছে, সিটগুলো পিছনের দিকে খুব বেশি হলে বিশ ডিগ্রী বাকানো যায়। এর বেশি বাকানো যায় না। সিনেমায় দেখা দৃশ্যের সাথে কোন মিল খুজে না পেয়ে আমার মেজাজ চরম খারাপ হয়ে গেলো। মেজাজ আরো বেশি খারাপ হলো যখন শুনলাম এরা নাকি খাবার ফ্রী দেয় না। কিনে খেতে হয়। কারণ এটা একটা বাজেট এয়ারলাইন্স। যার সোজা বাংলা হচ্ছে, এইটা হইলো ৯ নাম্বার লোকাল বাস টাইপ সার্ভিস। থুক্কু সিটিং লোকাল (দাঁড়ানো যাত্রী নেয় না)। হজ্জ্ব যাত্রীদের প্রচুর চাপ থাকার কারণে বাধ্য হয়ে এটার টিকেট কিনতে হয়েছে।

একটু পরে মোবাইল বন্ধ করার নির্দেশ দেয়া হলো। কারণ প্লেন রানওয়েতে ওড়ার জন্য চলা শুরু করবে। কে শোনে কার কথা? বেশির ভাগ যাত্রীই দেখি ফোনে কথা বলতেছে। ‘হ ভাই, যাইতাছি। হজ্জ্বে। এইতো হবায় পেলেনে উঠালাম। হ হ ইঞ্জিন স্টার্ট দিছে। অহনি উড়বো। দোয়া কইরেন ভাই। ভাবীরে সালাম দিয়েন............’। কাছে এসে রীতিমতো ধমক দিয়ে দিয়ে সবার ফোন বন্ধ করালো এয়ারহোস্টেসরা।
(চলবে)

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

চলুক.... hug

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

সুন্দর লিখেছেন। হাল্কা পাতলা কিছু ছবিও শেয়ার করতে পারেন। আর ঘটনা যেহুতু সত্য তাই "বটগাছ" বিভাগে পোস্ট করা যেতে পারে।

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

দ্যা ডেডলক লিখেছেন:

সুন্দর লিখেছেন। হাল্কা পাতলা কিছু ছবিও শেয়ার করতে পারেন। আর ঘটনা যেহুতু সত্য তাই "বটগাছ" বিভাগে পোস্ট করা যেতে পারে।

দুঃখের ঘটনা বা একান্ত কথাবার্তা থাকলে বটগাছে পোস্ট দেই। আর তা নাহলে এখানেই লিখি। ভ্রমণেও পোস্ট করা যেত অবশ্য। একটা ছবি দিলাম আপনার পরামর্শ অনুযায়ী।

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

তার-ছেড়া-কাউয়া লিখেছেন:

দুঃখের ঘটনা বা একান্ত কথাবার্তা থাকলে বটগাছে পোস্ট দেই।

হুম আমার ভুল হয়েছে। "ভ্রমণ" বিভাগ সঠিক হতো। আর ছবির জন্য ধন্যবাদ।

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

লেখা নাইস হয়েছে, কিপিটাপ  thumbs_up আমার কুনো প্লেন জার্নিতেই কুনো সমস্যা হয় নাই কেন জানি। বেপুক ঘুম দিয়েছি দুই সিটে শুয়া tongue খালী বোর লেগেছিলো ১৪ ঘণ্টার জার্নি দেখে। পরের পর্ব গুলোতে আরো ছবি চাই। আর কাতার এয়ারওয়েইজ রক্স  thumbs_up

Rhythm - Motivation Myself Psychedelic Thoughts

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

প্লেন পর্যন্ত ভালই লাগলো। পরবর্তী পর্বের প্রতি আকর্ষন তৈরী হয়েছে। আসাদুজ্জামান ভাইকে ধন্যবাদ।

তার-ছেড়া-কাউয়া লিখেছেন:

অনেক ঝুটঝামেলা করে আমার এবং আমার স্ত্রীর পাসপোর্ট করেছিলাম।

ভাই, আপনার সেই টপিকের কথা মনে পড়ে গেল। nailbiting

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

আহমাদ মুজতবা লিখেছেন:

লেখা নাইস হয়েছে, কিপিটাপ  thumbs_up আমার কুনো প্লেন জার্নিতেই কুনো সমস্যা হয় নাই কেন জানি। বেপুক ঘুম দিয়েছি দুই সিটে শুয়া tongue খালী বোর লেগেছিলো ১৪ ঘণ্টার জার্নি দেখে। পরের পর্ব গুলোতে আরো ছবি চাই। আর কাতার এয়ারওয়েইজ রক্স  thumbs_up

ভাই, আলসেমী করে ছবি দেই না। প্লেন দেখে যেমন ইম্প্রেসড হবো ভাবছিলাম, তেমন ইম্প্রেসড হই নাই। অবশ্য আমার একটু সমস্যা আছে। সহজে ইম্প্রেসড হইনা। যাওয়ার সময় অতটা খারাপ লাগে নাই। কিন্তু আসার সময় পাশের যাত্রী এমন পেইন দিছে যে সারা রাত জাইগা জাইগা আসছি। আপনি ভাগ্যবান মানুষ।

প্লেন পর্যন্ত ভালই লাগলো। পরবর্তী পর্বের প্রতি আকর্ষন তৈরী হয়েছে। আসাদুজ্জামান ভাইকে ধন্যবাদ।

ধন্যবাদ ভাই। একেতো আমি অলস, তার উপর যে ছবিই দিতে যাই, সেখানেই দেখি হয় আমি আছি, নাইলে আমার বৌ আছে, নাইলে দুইজনই আছি। এই জন্য বিরক্ত হয়ে ছবি দিচ্ছি না।

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

স্টার্টিং টা চমৎকার করেচেন ভাই।

প্লেনে ওঠার ব্রিজটা দেখে আমার ,সদরঘাটে লঞ্চে ওঠার ব্রিজগুলোর কথা মনে পরে গেলো।

lol2 lol2 lol2 lol2 lol2 চ্রম কথা বলছেন একটা....
প্লেনে চড়তে যাইনি এখনো। আপনার স্টোরীটাই ভরসা এখন, চালিয়ে যান।

স্রোতের বিপরীতে উদ্যত!

১০

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

হুম, আসাদ ভাইয়ের কাছে এরকম একটা ধারাবাহিক লেখা আমাদের আরো আগেই পাওনা হয়ে গিয়েছিল। ধন্যবাদ।

১১ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন তার-ছেড়া-কাউয়া (১৪-১১-২০১১ ২৩:৪৪)

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

দ্যা_থটমেকার লিখেছেন:

স্টার্টিং টা চমৎকার করেচেন ভাই।

প্লেনে ওঠার ব্রিজটা দেখে আমার ,সদরঘাটে লঞ্চে ওঠার ব্রিজগুলোর কথা মনে পরে গেলো।

lol2 lol2 lol2 lol2 lol2 চ্রম কথা বলছেন একটা....
প্লেনে চড়তে যাইনি এখনো। আপনার স্টোরীটাই ভরসা এখন, চালিয়ে যান।

ধইন্যবাদ। ভয় লাগতেছে। প্লেনে উঠতেই যত কথা লিখা ফেলাইলাম। পুরা সফরের কাহিনী শেষ করতে পারবো বইলা মনে হইতাছে না  sad sad আর প্লেনে ওঠার ব্রিজগুলা কিন্তু আসলেই সদরঘাটের লঞ্চে ওঠার ব্রিজগুলার মতন। পার্থক্য একটাই এই ব্রিজের সাইডগুলো গ্লাস দিয়ে কাভারড, আর সদরঘাটেরটা খোলা।

জেলাল লিখেছেন:

হুম, আসাদ ভাইয়ের কাছে এরকম একটা ধারাবাহিক লেখা আমাদের আরো আগেই পাওনা হয়ে গিয়েছিল। ধন্যবাদ।

ভাই, লেখার শেষে লিখছি 'চলবে'। কিন্তু আরেকটা কথা লেখা উচিত ছিলো ব্র্যাকেটে। সেইটা হচ্ছে, 'ধাক্কায় ধাক্কায়'। ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য জেলাল ভাই।

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

১২

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

ভাই, সবে তো মজা পাওয়া শুরু করছিলাম, আর আপনি একটুতেই বিরতি নিয়ে নিলেন,...
আরেকটু বড় লেখা চাই...
অপেক্ষায় রইলাম ।

You are the one who thinks that i didn't get the point, so do i think of you...what a coincidence!!

১৩

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

ওহ্‌! শ্বশুর বাড়ি জায়গাটায় যাওয়াটা এত ঝামেলার? kidding চালিয়ে যান ভাই । আর ছবি দেন যে কোনো একটা ; কেউ না থাকুক ভাবীর ছবি থাকলেই চলবে  hehe (জাস্ট কিডিং)।

কিছু বাধা অ-পেরোনোই থাক
তৃষ্ণা হয়ে থাক কান্না-গভীর ঘুমে মাখা।

উদাসীন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৪

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

তার-ছেড়া-কাউয়া লিখেছেন:

থুক্কু সিটিং লোকাল (দাঁড়ানো যাত্রী নেয় না)

সিটিং লোকেলেও তো আজকাল লোক দাড়িয়ে নেয় (আপনার প্লেনের কথা বলি নাই, বাসের কথা বললাম)। বাস্তব কাহিনীটা পড়ে আপনার জন্য কষ্ট হবার দরকার ছিলো। কিন্তু নিচের লাইনটা দেখে বড়ই হাসি পেল  big_smile

তার-ছেড়া-কাউয়া লিখেছেন:

সিনেমায় দেখা দৃশ্যের সাথে কোন মিল খুজে না পেয়ে আমার মেজাজ চরম খারাপ হয়ে গেলো।

আমাকে কোথাও পাবেন না।

১৫

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

faysal_2020 লিখেছেন:

ভাই, সবে তো মজা পাওয়া শুরু করছিলাম, আর আপনি একটুতেই বিরতি নিয়ে নিলেন,...
আরেকটু বড় লেখা চাই...
অপেক্ষায় রইলাম ।

চাকরিবাকরি নিয়া চরম পেইনে আছি। এর জন্য এই হাল sad sad

উদাসীন লিখেছেন:

ওহ্‌! শ্বশুর বাড়ি জায়গাটায় যাওয়াটা এত ঝামেলার? kidding চালিয়ে যান ভাই । আর ছবি দেন যে কোনো একটা ; কেউ না থাকুক ভাবীর ছবি থাকলেই চলবে  hehe (জাস্ট কিডিং)।


যদি বিয়া না কইরা থাকেন , তাইলে আপনারে একখান বরদোয়া দেই। বরদোয়া= বর হইবার দোয়া। তারপর আরও দোয়া করি , যাতে আপনে একটা প্যাথেটিক বাজেট-এয়ারলাইন্সে কইরা শ্বশুরবাড়ি যান।

পলাশ মাহমুদ লিখেছেন:

সিটিং লোকেলেও তো আজকাল লোক দাড়িয়ে নেয় (আপনার প্লেনের কথা বলি নাই, বাসের কথা বললাম)। বাস্তব কাহিনীটা পড়ে আপনার জন্য কষ্ট হবার দরকার ছিলো। কিন্তু নিচের লাইনটা দেখে বড়ই হাসি পেল  big_smile

ঠিক বলছেন। সিটিং লোকাল অনেক আগেই চিটিং লোকাল হয়ে গেছে। তবে কথা হচ্ছে, টেকঅফের পড়ে অনেক পাবলিক টয়লেটে যাওয়ার জন্য লাইন ধরে দাঁড়ায় ছিলো। তখন প্লেনটাকে নয় নম্বর চিটিং লোকালই মনে হচ্ছিলো  tongue

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

১৬ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন microqatar (১৫-১১-২০১১ ২০:২৪)

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

কাতার এয়ার লাইন্স তো ৫ স্টার সার্ভিস , ফ্রি খানা দানা সাথে ফ্রী হার্ড পানিয় ( তওবা তওবা  big_smile) ( আপনার ছবি বলছে কাতার এয়ার লাইন্স)। হে হে হে আর পরিচিতি এযার হোস্টেস পেয়ে গেলেতো কোন কথাই নাই।  tongue_smile
আমার অভিজ্ঞতা বলে এযার এরাবিয়ার খানা-দানা পেইড সার্ভিস , শূধু মাত্র একবার নরমাল পানি দেয় ফ্রী তে।
এনিওয়ে, আরব আমিরাতে কোথায় আছেন জানান দিয়েন।

রক্তের গ্রুপ AB+

microqatar'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

১৭

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

পরের পর্ব পড়তে দারুণভাবে আগ্রহী  big_smile

....

১৮

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

microqatar লিখেছেন:

কাতার এয়ার লাইন্স তো ৫ স্টার সার্ভিস , ফ্রি খানা দানা সাথে ফ্রী হার্ড পানিয় ( তওবা তওবা  big_smile) ( আপনার ছবি বলছে কাতার এয়ার লাইন্স)। হে হে হে আর পরিচিতি এযার হোস্টেস পেয়ে গেলেতো কোন কথাই নাই।  tongue_smile
আমার অভিজ্ঞতা বলে এযার এরাবিয়ার খানা-দানা পেইড সার্ভিস , শূধু মাত্র একবার নরমাল পানি দেয় ফ্রী তে।
এনিওয়ে, আরব আমিরাতে কোথায় আছেন জানান দিয়েন।

প্লেনে ওঠার সময় পাশে দাঁড়ানো কাতার এয়ারের ছবিটা তুলেছিলাম। এয়ার অ্যারাবিয়াতে পানিও ফ্রী দেয়না। পাচশো মিলি= তিন দিরহাম  nailbiting । আবুধাবিতে ছিলাম ভাই। তবে দেশে চলে আসছি।

রাসেল আহমেদ লিখেছেন:

পরের পর্ব পড়তে দারুণভাবে আগ্রহী  big_smile

ধন্যবাদ। পরের পর্ব পাবেন এইখানে

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

১৯

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

তার-ছেড়া-কাউয়া লিখেছেন:

আবুধাবিতে ছিলাম ভাই। তবে দেশে চলে আসছি।

আরে কাউয়া ভাই আমিও তো আবুধাবিতে আছি। হায়! কাউয়া দেখার চান্সটা মিস হইয়া গেল। (মাখাএন)
আবার আইলে গো বা মাইরেন।

রক্তের গ্রুপ AB+

microqatar'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

২০

Re: আমার আরব আমিরাত সফর

সুখপাঠ্য  thumbs_up

প্লেনের ভিতর ঢুকে দেখি পুরা বাজার টাইপ অবস্থা। মাত্র দুই কলাম সিট। প্রতি কলামে পাশাপাশি তিনটা করে সিট। সিটগুলাও চিপাচিপা। আরো ভয়াবহ ব্যাপার হচ্ছে, সিটগুলো পিছনের দিকে খুব বেশি হলে বিশ ডিগ্রী বাকানো যায়। এর বেশি বাকানো যায় না

তাইলে বাংলাদেশ বিমান  thumbs_down আর জিএমজিকে  thumbs_down কি বলবেন।তবে হ্যা এমিরেটস রকস । thumbs_up

seeming is being