টপিকঃ সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

আজ আমি সোলার প্যানেল থেকে কিভাবে বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয় সে বিষয়ে লেখার চেষ্টা করব। এবং সোলার প্যানেল থেকে সূর্য ডোবার পরও বিদ্যুৎ উৎপন্ন করা সম্ভব কি না সে বিষয়ে আমার নিজস্ব মতামত দেওয়ার চেষ্টা করব।

সূর্যের আলো সোলার প্যানেল এ থাকা সিলিকন,আর্সেনিক এবং অন্য ২/১ টা মৌলের মিশ্রণে তৈরি PNP তে আঘাত করে। ফলে pnp তে থাকা মৌলগুলোর পরমাণু থেকে ইলেকট্রন মুক্ত হয়ে নিচের চিত্রের ন্যায় ধনাত্মক প্রান্তের দিকে এবং হোলগুলো ঋনাত্তক প্রান্তের দিকে প্রবাহিত হয়। 
    আর ইলেকট্রন প্রবাহ মানেই বিদ্যুৎ প্রবাহ। এভাবেই সোলার প্যানেল থেকে বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয়। আর এটা একটি কন্ট্রোলার হয়ে যায় ব্যাটারিতে। রাত্রে ব্যাটারিতে সঞ্চিত বিদ্যুৎ দিয়ে বাল্ব, dc ফ্যান, tv ইত্যাদি চালানো হয়।

    আর রাত্রে যেহেতু সূর্যের আলো থাকে না সেহেতু সোলার প্যানেল থেকে কোন বিদ্যুৎও উৎপন্ন হয় না। বর্ষাকালে একটানা বৃষ্টির সময় এবং শীতকালে শৈত প্রবাহের সময় তাই এইভাবে বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয় না।
    আমি আজ থেকে প্রায় ১ বছর আগে থেকে চিন্তা ভাবনা শুরু করি কিভাবে রাত্রে ও সোলার প্যানেল থেকে বিদ্যুৎ উৎপন্ন করা যায়। ২০১০ এর সেপ্টেম্বরে আমি ঢাকা ছিলাম। সেই সুবাদে গ্রামীণশক্তি (মিরপুর) এবং ব্রাক এর হেড অফিস (মহাখালি) তে যাই এই বিষয়ে তারা আমাকে কারিগরি কোন সহযোগিতা করতে পারবে কিনা। কারণ এই দুই প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে সৌর বিদ্যুৎ এর ব্যাবহার বাড়ানোর জন্য নানা ধরনের প্রকল্প হাতে নিয়েছে। কিন্তু তারা আমাকে কোন প্রকার সহযোগিতা না করে পরিষ্কার জানিয়ে দিলো, “আমরা আপনাকে কোন ধরনের সাহায্য-সহযোগিতা করতে পারব না। আর তা ছাড়া আমাদের এ ধরনের কোন প্রকার ফ্যাসিলিটি ও নেই। পারলে আপনি নিজেই চেষ্টা করেন। আমাদের সময় নেই যে এই বিষয়ে মাথা ঘামাবো”।
    তারপর ও আমি নিজে নিজে অনেক খাটাখাটনি করেও বেশি দূর এগোতে পারিনি। কেন না একে তো আমার কাছে পর্যাপ্ত অর্থ ছিল না। আর প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি ও ছিল না।
    তো যাই হোক, আমার প্রজেক্টা ছিল কিভাবে সূর্য ডুবার পরও সোলার প্যানেল থেকে বিদ্যুৎ উৎপন্ন করা যায়। এটা হতে পারে বিভিন্ন ভাবে।
প্রথমত, বিকল্প কোন আলোর ব্যাবস্থা করা। আলোর তিব্রতা অবশ্যই ভালো মানের হতে হবে। এতে করে আপনি সোলার প্যানেল থেকে শুধুমাত্র ভোল্টেজ পাবেন। আলোর তিব্রতা যতো বেশি হবে ভোল্টও ও ততো বেশি পাবেন। আর শুধু ভোল্টেজ এ কোন কিছু চালানো যাবে না। এর জন্য ভোল্ট এর পাশাপাশি আপনার প্রয়োজন হবে অ্যাম্পেয়ার এর।
দ্বিতীয়ত, এমন একটা পেপার যাতে ফসফরাসের মতো রাত্রে ও আলো পাওয়া যাবে। কিন্তু ফসফরাসের আলো তো ঠাণ্ডা। আর আপনার এক্ষেত্রে মনে হয় গরম অর্থাৎ তাপ ছড়ানো আলো লাগবে।
তৃতীয়ত, ………………ধুর মনে পড়ছে না। অনেক দিন ঘাটাঘাটি করি না তো এই বিষয়ে তাই এত কিছু মনে নাই। অন্য আরেক দিন লিখব।
    প্রথম পদ্ধতি নিয়ে আমি নিজে অনেক ঘাটাঘাটি করেছি। ওই সময় আমি ভোল্ট আর অ্যাম্পেয়ার এর ব্যাপারটা এখনকার মতো অত ভালো বুঝতাম না। কিন্তু এখন এই বিষয়টা নিয়ে একটু মাথা ঘামাচ্ছি। আমি সেই সময় আলো পাওয়ার জন্য সাদা L.E.D ব্যাবহার করেছিলাম। এখন মনে হচ্ছে সাথে অতি-বেগুনি রশ্মি অথবা ইনফ্রারেড রশ্মি ব্যাবহার করা উচিত ছিল। তা হলে হয়তো কোন ফল পেলেও পেতে পারতাম।
    আপনারদের কি মতামত, তা অবশ্যই জানান।

বিঃ দ্রঃ- ইমেজ আপলোড এর সিস্টেম জানা না থাকায় কোন চিত্র ব্যাবহার করতে পারলাম না। এজন্য আমি আন্তরিক ভাবে দুঃখিত।

Re: সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

সোলার সেল যে পদার্থ দিয়ে তৈরী করা হয় তাতে যখন আলো বা ফোটন পরে তখন ফোটন ইলিউমিনেশন ঘটে। অর্থাৎ সোলার সেলের ম্যাটেরিয়ালের ভ্যালেন্স ব্যান্ড থেকে একটা ইলেকট্রন কন্ডাকশন ব্যান্ডে চলে আসে। এর ফলে একটা অতিরিক্ত ইলেকট্রন-হোল জোড়া তৈরী হয়। এটাই আউটার সার্কিটে সোলার কারেন্ট হিসেবে প্রবাহিত হয়। কিন্তু এ ঘটনা ঘটাতে আপতিত ফোটন কনিকার শক্তি সোলার সেলের ব্যান্ড-গ্যাপ শক্তির চেয়ে বেশি হতে হয়। তা না হলে আলো পড়লেও লাভ হয় না। এ কারণেই দুপুর বেলা সুর্য যখন ঠিক মাথার উপর থাকে তখন সবচেয়ে বেশি সৌর বিদ্যুত পাওয়া যায়।
এখন কথা হচ্ছে যে রাতে সম্ভব কিনা? জ্বী, রাতে সম্ভব। কিন্তু সে জন্য যে ওয়াটের আলো তৈরী করতে হবে তাতে ঘোড়ার চেয়ে দানার দাম বেশি পড়বে। তাছাড়া রাতে আলাদাভাবে আলো জ্বালাতে হলে তার জন্যও আলাদা পাওয়ার দরকার। ল্যাবে আমরা কাজ করার সময় দেখি যে, সোলার সেলের ক্যারেক্টারিস্টিক্স নির্ণয় করার মত যথেষ্ট বিদ্যুত তৈরী করতে এর উপর আলাদাভাবে ষাট ওয়াটের বাল্ব জ্বালাতে হয়। ল্যাবের ভিতর জ্বলে থাকা টিউবলাইটের আলোয় কাজ হয় না।

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

Re: সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

সোলার সেলে PN জংশনের উপর ফোটন আঘাত করার পরে কি ঘটবে ?

Re: সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

রাশেদুল ইসলাম লিখেছেন:

তো যাই হোক, আমার প্রজেক্টা ছিল কিভাবে সূর্য ডুবার পরও সোলার প্যানেল থেকে বিদ্যুৎ উৎপন্ন করা যায়। এটা হতে পারে বিভিন্ন ভাবে।
প্রথমত, বিকল্প কোন আলোর ব্যাবস্থা করা। আলোর তিব্রতা অবশ্যই ভালো মানের হতে হবে। এতে করে আপনি সোলার প্যানেল থেকে শুধুমাত্র ভোল্টেজ পাবেন। আলোর তিব্রতা যতো বেশি হবে ভোল্টও ও ততো বেশি পাবেন। আর শুধু ভোল্টেজ এ কোন কিছু চালানো যাবে না। এর জন্য ভোল্ট এর পাশাপাশি আপনার প্রয়োজন হবে অ্যাম্পেয়ার এর।
দ্বিতীয়ত, এমন একটা পেপার যাতে ফসফরাসের মতো রাত্রে ও আলো পাওয়া যাবে। কিন্তু ফসফরাসের আলো তো ঠাণ্ডা। আর আপনার এক্ষেত্রে মনে হয় গরম অর্থাৎ তাপ ছড়ানো আলো লাগবে।

কৃত্রিম অালোর তৈরীর জন্য তো এনার্জি লাগবে, সেই এনার্জি অাসবে কোথা থেকে? যদি কয়লা, তেল বা বিদ্যুৎ পুড়িয়ে অালোর ব্যবস্থা করতে হয়, তাহলে অার সৌরবিদ্যুতের সার্থকতা কোথায় রইল ?  বর্তমানে যে ভাবে এই সমস্যার সমাধান করা হয়, সেটা হল, দিনের বেলা সৌরবিদ্যুতের সাহায্যে লেড-এসিড বা নিকেল ক্যাডমিয়াম ব্যাটারি চার্জ করে নেওয়া হয়, এবং রাত্রে তা ব্যবহার করা হয়।

Life IS Neither TEMPEST, NOR A midsummer NIGHT'S DREAM, BUT A COMEDY OF Errors,
ENJOY AS U LIKE IT

Re: সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

ঠিক বলেছেন ভাই।

কাজকে বলেন নামাজ আছে, নামাজ কে বলবেন না কাজ আছে.......
premium Place
xpassplace

Re: সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

তার-ছেড়া-কাউয়া লিখেছেন:

বিঃ দ্রঃ- ইমেজ আপলোড এর সিস্টেম জানা না থাকায় কোন চিত্র ব্যাবহার করতে পারলাম না। এজন্য আমি আন্তরিক ভাবে দুঃখিত।

কিভাবে ছবি আপলোড করতে হয় তাহা নিচের লিংকে ক্লিক করলে বিস্তারিত পাবেন।
                      এখানে ক্লিক করুন

"নামাজ সকল খারাপ কাজ থেকে দূরে রাখে এবং মনকে পরিস্কার রাখে।"

নামাজ, রোযা সকল মুসলমানের জন্য ফরজ। সকলে রোযা রাখি, নামাজ পড়ি, আল্লাহর হুকুম পালন করি এবং রাসুল(সাঃ)-এর সুন্নাত আদায় করি।

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন রাশেদুল ইসলাম (১৩-০৬-২০১৩ ১৮:৫৭)

Re: সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

এত পুরানো টপিক এ পোস্ট করা উচিত না।

Re: সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

সুন্দর শেয়ার
সোলার প্যানেল আর উইন্ড টার্বাইন নিয়ে গতকালকেই এক বড় ভাইকে ১ ঘন্টার লেকচার দিলাম।আমাদের দেশে এর একটা সুন্দর ভবিষ্যৎ আছে কিন্তু আমরা এটাকে সঠিক ভাবে কাজে লাগাতে পারছি না অথচ বহির্বিশ্ব সোলার আর উইন্ডের উপরেই বেশি নির্ভরশীল।
আল্টিমেটলি উইন্ড নিয়ে আমার একটা প্রোজেক্ট আর থিসিস করা আছে গত সপ্তাহে অস্ট্রলিয়াতে এক স্যারের কাছে সাবমিট করেছি এখন দেখা যাক কি হয়।

মানুষ মাত্রই মরন শীল , কিন্ত নশ্বর নয় ।।

Re: সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

থিসিসটার বিষয়ে হাল্কা-পাতলা কিছু কি শেয়ার করা যাবে?

১০

Re: সৌর বিদ্যুৎ ও আমার নিজস্ব কিছু কথ।

রাশেদুল ইসলাম লিখেছেন:

এত পুরানো টপিক এ পোস্ট করা উচিত না।

Irony এর পরের পোস্ট টাই ৬ মাসের ব্যবধানে হয়েছে।  roll

সব কিছু লক্ষ্য করাই আমার অভিশাপ

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত