সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আরণ্যক (০৪-০৯-২০১১ ০১:১৭)

টপিকঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

ঘটনার পেছনের ঘটনা!
বেশ কয়েক বছর আগের কথা। HSC পরীক্ষা দিয়েছি। বাবার চাকরীর সুবাদে রংপুরে থাকি। মাথায় কবিতার ভূত। তাই বলে আবার ভেবে বসবেন না, যে আমি কবি! কবিতা ভালো লাগে, কবিতা পড়ি। কবিতা যে খুব ভালো বুঝি তাও না। বিশেষ করে অনেক আধুনিক কবিদের কবিতা বুঝতেই পারি না। সহজ-সরল কবিতা গুলো ভালো লাগে। যে কবিতা গুলো ভালো লাগে সে গুলি একটি খাতায় তুলে রাখি। আপনাদের অনেক লজ্জার সাথে জানাচ্ছি, সেই খাতায় অনেক বিখ্যাত কবিদের নামের সাথে আস্তে আস্তে আমার নামও উঠতে থাকল। তবে আমি আগেই বলেছি আমি কবি না। কবিতার নামে আমার মত অশিক্ষিত একজন যে এলেবেলে লেখা গুলি লিখত সে গুলি যে একেবারেই অখাদ্য তাও বুঝতাম। কিন্তু ঐ যে মাথায় কবিতার ভূত। তবে আমার কবিতা ছিল একান্তই আমার। আমি আজ পর্যন্ত কখনই কাউকে নিজের লেখা কবিতা (!) পড়ে শুনায় নি। আমি যে কবিতা লিখি (!!) তাই কেউ জানে না। অবশ্য বিশেষ এক জন আছেন, যিনি ব্যাতিক্রম। যাই হোক, এটি ছিল ঘটনার পেছনের ঘটনা। এবার আসল ঘটনায় আসা যাক।

আসল ঘটনা!!
এই যখন আমার অবস্থা, এমন সময় খবর পেলাম আমার পাড়ার এক বড় ভাই (ধরি তার নাম সনি) যিনি ঢাকায় পড়ালেখা করেন- ঈদের ছুটিতে বাসায় এসেছেন; তিনি নাকি ঢাকায় দারুণ কবিতা লেখা শিখেছেন। সবাইকে তার লেখা কবিতা পড়ে শুনিয়ে তাক লাগিয়ে দিচ্ছেন। সাথে সাথে পাড়ায় বেশ কিছু নতুন কবির জন্ম হয়ে গেল। তারা নিয়মিত সনি ভাইয়ের কাছে যেতে লাগল। বিভিন্ন দিক নির্দেশনা এবং কবিতা বিষয়ক জ্ঞান লাভ করে ধন্য হতে লাগল। খবরটা শুনে খারাপ লাগল, কারন প্রতি এলাকায় এমন কিছু লোক থাকে না, যারা মুখের কথায় প্রায় সব পারে কিন্তু বাস্তবে প্রায় কিছুই পারে না। আমাদের সনি ভাই ছিলেন ঠিক তেমনি। যাই হোক, আসল অবস্থা জানতে একদিন নিজে গেলাম সনি ভাইয়ের আড্ডায়। গিয়ে দেখি অবস্থা ভয়াবহ। সনি ভাই নিজের ইচ্ছা মত, সঠিক, বেঠিক কবিতা সম্পর্কে বলে যাচ্ছেন, নতুন কবিরা খুব আগ্রহ নিয়ে তা শুনছে। শুধু তাই না, অনেকে কবিতা লিখে নিয়ে এসেছে, আর সনি ভাই সে গুলি ঠিক করে দিচ্ছেন, পরামর্শ দিচ্ছেন। অনেক কবি এবং তাদের কবিতা সম্পর্কে মন্তব্য করছেন। তার মতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও কাজী নজরুল ইসলাম ছাড়া অন্য কোন কবির কবিতা আসলে ঠিক মত কবিতাই হয় না। আমি আমার প্রিয় কবি জীবনানন্দ দাসের কথা বলতেই এমন ভাবে উড়িয়ে দিলেন যে, খুব খারাপ লাগল। এদিকে আবার বড় ভাই, সরাসরি কিছু বলতেও পারছি না। মনে মনে বুদ্ধি ঠিক করলাম। তারপর নিরীহ ভাবে বললাম, 'ভাইয়া আমি একটি কবিতা লিখেছি, কালকে নিয়ে আসব, আপনি যদি একটু দয়া করে দেখে দিতেন..।' সনি ভাই উদার ভঙ্গিতে হাত নেড়ে বললেন- নিয়ে এসো।

পরের দিন একটি সাদা কাগজে নীচের কবিতা লিখলাম-

বলেছিনু ‘ভুলিব না’ যবে তব ছল ছল আখিঁ
নীরবে চাহিল মুখে। ক্ষমা কোরো যদি ভুলে থাকি।
সে যে বহু দিন হল। সেদিনের চুম্বনের’ পরে
কত নববসন্তের মাধবীমঞ্জুরী থরে থরে 
শুকায়ে পড়িয়া গেছে, মধ্যাহ্নের কপোতকালিন
তারি’ পরে কান্ত ঘুম চাপা দিয়ে এল গেল চলি
কত কাল ফিরে ফিরে। তব কালো নয়নের দিঠি
লজ্জাভয়ে, তোমার সে হৃদয়ের স্বাক্ষরের’ পরে
চঞ্চল আলোক ছাড়া কতকাল প্রহরে প্রহরে
বলায়ে গিয়েছে তুলি, .............

বিকাল বেলা, ভরা মজিলসে, ভক্ত পরিবেষ্টিত অবস্থায় সনি ভাইয়ের হাতে কবিতাটি তুলে দিলাম, আর বললাম কবিতার একটা নাম দিয়ে দিতে। সনি ভাই কাগজটি হাতে নিয়ে কবিতা পড়লেন; ভ্রুটি একটু কুঁচকালেন, তারপর আমার দিকে তাকিয়ে বললেন- ‘দেখ তুমি চেষ্টা করেছ ভালোই, তবে তোমার এটাকে কোন মতেই ঠিক কবিতা বলতে পারছি না। এখানে তো প্রথম লাইনেই ভুল- “যবে তব” কখনই হতে পারে না। আসলে তোমাদের সমস্যা কি জানো- তোমরা কবিতায় কিছু কঠিন কঠিন শব্দ ঢুকাতে পারলে, আর বাক্যের শেষ শব্দ গুলিতে মিল দিলেই মনে কর কাবিতা হয়ে গেল। আসলে কবিতা এত সহজ না। তোমার এটা কোন কবিতাই হয়নি। ইত্যাদি ইত্যাদি।’ সনি ভাইয়ার কথা শুনে হা হা করে হাসতে শুরু করলাম। আমার হসি শুনে সাবাই অবাক হয়ে আমার দিকে তাকল, দু এক জন নতুন কুবি আমার উপর বেশ বিরক্ত তাদের গুরুর কথায় হাসার জন্য। এ দিকে আমি কোন মতে হাসি থামিয়ে বললাম ‘সনি ভাই, এটা আসলে আমার কবিতা না। এটা রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের “কৃতজ্ঞতা” কবিতার প্রথম অংশ টুকু। আপনি আসলেই কবিতা বুঝেন কি না, তা পরীক্ষার করার জন্য নিজের নামে লিখে এনেছিলাম।’

   এরপর আর সে দিনের আড্ডাটা আর জমলো না। সনি ভাইয়ের হঠাৎ মনে পড়ে গেল বাসায় তার জরুরি কাজ আছে। এরপর আমি খুব আশ্চর্যের সাথে দেখলাম এই ঘটনার পরে আমাদের পাড়ায় নতুন কবির সংখ্যা এবং কবিতা লেখার আগ্রহ দু’টাই দ্রুত কমে গেল।


লেখাটা পড়ার জন্য ধন্যবাদ। তবে একটা কথা আমি অবশ্যই শিকার করব যে, সনি ভাইকে সবার সামনে লজ্জিত করা ঠিক হয়নি। আসলে তখন বয়স কম ছিল, অনেক কিছুই বুঝতাম না। এখন হলে অবশ্যই এমন করতাম না। কারণ এখন জানি “শত্রুকেও অন্যের সামনে অপমান করতে নেই।”

বি.দ্র: আর একটা কথা আমার বানান খুব ভুল হয়, তারপর আবার বাংলা ভালো টাইপ করতে পারি না। হয়তো অনেক ভুল আছে, ভুল গুলিকে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। ধন্যবাদ।

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

হা হা হা  lol lol
অস্থির অস্থির...

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

চমৎকার লেখা। লেখাটায় আপনার মধ্যকার একটা বিনয়ী ভাব প্রকাশ পেয়েছে, যেটা ভালো লাগলো.......।

অন্তহীন এই পথ চলার শেষ কোথায়?

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

আরণ্যক লিখেছেন:

নিজে গেলাম

হেডলাইন সাবধানে দেন। আমি আপনার পোস্ট না পড়ে, শুধু হেডলাইন দেখেই আপনাকে গালি দিয়েছিলাম।

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আরণ্যক (০৪-০৯-২০১১ ০২:৪৮)

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

alse লিখেছেন:
আরণ্যক লিখেছেন:

নিজে গেলাম

??? 

alse লিখেছেন:

হেডলাইন সাবধানে দেন। আমি আপনার পোস্ট না পড়ে, শুধু হেডলাইন দেখেই আপনাকে গালি দিয়েছিলাম।

 
শিরোনাম সাবধানেই দিয়েছি। (!!!) চিহ্ন গুলি লক্ষ্য করুন। আগে ছিল "কবিতায় ভুল" তা পরিবতর্ন করে এটা দিয়েছি।  আর পোস্ট না পড়ে শুধু শিরোনাম দেখেই গালি দিবেন কেন? whats_the_matter whats_the_matter

বুদ্ধিমানরা তো আগে সব কিছু যাচাই করে, চিন্তা-ভাবনা করে তারপর মন্তব্য বা কাজ করে। তাই না? মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ। দেখি অন্যরা কি বলে nailbiting nailbiting  nailbiting   ভালো থাকবেন।

আর আপনাকে ফোরামে স্বাগতম  hug  hug আপনি কিন্তু আপনার নাম বাংলায় পরিবতর্ন করতে পারেন। এখানে বাংলায় যে নাম চান তা উল্লেখ করুন।

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

শিরোনাম দেখে গালি দেওয়ার কিছু খুজে পেলাম না। => !!!! <= এই চিহ্ন থেকেই বোঝা যাচ্ছিলো লেখক কি বলতে চায়!

ভালো লাগে না।। আগের চেয়ে অনেক বদলেছি, শিখেছি সত্যিকারের ভালোবাসা কি করে
বাসতে হয়।। তাই কেউ বাসুক আর নাই বাসুক আমি তো ভালোবাসতে পারি।।

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন শান্ত বালক (০৪-০৯-২০১১ ০৮:০২)

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

সনি ভাইকে তো ভালই শিক্ষা দিয়েছিলেন ভাই। big_smile
লেখাটা প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ভাল লেগেছে। গুছিয়ে খুব সুন্দরভাবে লিখেছেন। ধন্যবাদ ভাই।

আরণ্যক লিখেছেন:

লেখাটা পড়ার জন্য ধন্যবাদ। তবে একটা কথা আমি অবশ্যই শিকার করব যে, সনি ভাইকে সবার সামনে লজ্জিত করা ঠিক হয়নি। আসলে তখন বয়স কম ছিল, অনেক কিছুই বুঝতাম না। এখন হলে অবশ্যই এমন করতাম না। কারণ এখন জানি “শত্রুকেও অন্যের সামনে অপমান করতে নেই।”

সবচেয়ে ভাল লেগেছে এই কথাগুলো। smile

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আরণ্যক (০৪-০৯-২০১১ ১০:১৩)

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

প্লাবন, অন্তহীন, আগন্তুক মিলন সবাইকে ধন্যবাদ  smile

আর শান্ত বালক ভাইকে আমার টপিক এ পোস্ট করতে দেখে মাথা ঘুরে গেছে  surprised
তার মতো সম্মানিত ফোরামিস্ট কিনা আমার লেখায়...  নিজেকেও সম্মানিত লাগছে। blushing blushing blushing 

@ শান্ত বালক: কথাগুলো আমি বিশ্বাস করি

আরে আরে শান্ত বালক ভাই আমাকে রেপু দিছে  surprised খেয়ালই করিছলাম না  yahoo yahoo yahoo

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন অর্জুন (০৪-০৯-২০১১ ১১:৫৪)

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

আরণ্যক লিখেছেন:
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

লেখাটা পড়ার জন্য ধন্যবাদ। তবে একটা কথা আমি অবশ্যই শিকার করব যে, সনি ভাইকে সবার সামনে লজ্জিত করা ঠিক হয়নি। আসলে তখন বয়স কম ছিল, অনেক কিছুই বুঝতাম না। এখন হলে অবশ্যই এমন করতাম না। কারণ এখন জানি
“শত্রুকেও অন্যের সামনে অপমান করতে নেই।”

কথাটি খুব ভাল লাগলো। আসলে আমরা বেশিরভাগ সময় নিজেকে জাহির করতে গিয়ে অন্যকে ছোট করি । কিন্তু যিনি বিচক্ষণ তিনি সবাইকে সমীহ করার চেষ্টা করেন ।
ধন্যবাদ ভাই ।

আমি এক অন্যন্য মানুষ, আমার আত্নিক  ক্ষমতা অসীম,
সারা পৃথিবী আমার, যেখানে দরকার সেখানে যাব,
যা প্রয়োজন তাই নেব,জাতি,ধর্ম ,বর্ণ, গোত্র,নির্বিশেষে মানুষের কল্যাণ করব ।

১০

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

ভালো লাগল। ঘটনা এবং লেখা, দুটোই।

আমি বাংলায় ভালোবাসি
আমি বাংলাকে ভালোবাসি

১১

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

হা হা হা
দারুণ মজার ঘটনা।

১২

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

কিছু সৃতি..................মনে পরে.................  crying

roll

১৩

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

নতুন পণ্ডিত লিখেছেন:

কিছু সৃতি..................মনে পরে.................  crying

 

কি মনে পরে ভাই। আপনি আমার সেই ভাই না তো। hehe hehe hehe

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

১৪

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

হা হা হা মজা পাইলাম lol2

সব কিছু ত্যাগ করে একদিকে অগ্রসর হচ্ছি

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৫

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

এই সনি ভাইদের মত কবিদের যন্ত্রনায় আমি তো আধুনিককালের কবিদের লেখা কবিতা পড়া ছেড়েই দিয়েছি।

"তুমি নির্মল কর, মঙ্গল কর মলিন মর্ম মুছায়ে। তব পূণ্য কিরন দিয়ে যাক মোর মোহ-কালিমা ঘুছায়ে, মলিন মর্ম মুছায়ে"।-রজনীকান্ত সেনের এই গানটি মনকে ক্ষণিকের জন্যে হলেও নিয়ে যায় সকল লোভ লালসার উর্দ্ধে এক আধ্যাতিক চেতনায়।

১৬

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

হো হো দারুণ বুদ্ধি তো আপনার। thumbs_up
ভাল কাজ করেছেন।আর আপনার শেষের আগের প্যারার সাথে ১০০% একমত

"আমি তোমাদেরকে ভয়,ক্ষুধা এবং ধন সম্পদ,জীবন ও ফল ফসলের ক্ষয়ক্ষতি দ্বারা অবশ্য পরীক্ষা করব।তুমি শুভ সংবাদ দাও ধৈর্যশীলগণকে- যারা তাদের উপর বিপদ আপতিত হলে বলে-'আমরা তো আল্লাহরই এবং নিশ্চিতভাবে তাঁর দিকেই প্রত্যাবর্তনকারী'।"--- সূরা বাকারা(১৫৫,১৫৬)
তাই আমার মনে হয়,খারাপ অবস্থায় থাকলেও, আমাদের কারোরই হতাশ হওয়া উচিত না। smile

১৭ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আরণ্যক (০৪-১০-২০১১ ২০:২২)

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

concept লিখেছেন:

হো হো দারুণ বুদ্ধি তো আপনার। thumbs_up
ভাল কাজ করেছেন।আর আপনার শেষের আগের প্যারার সাথে ১০০% একমত

ধন্যবাদ ভাইয়া।

সৌমিত্র বিশ্বাস লিখেছেন:

এই সনি ভাইদের মত কবিদের যন্ত্রনায় আমি তো আধুনিককালের কবিদের লেখা কবিতা পড়া ছেড়েই দিয়েছি।

  না না কবিতা ছাড়বেন না। shame shame shame 

mizvibappa লিখেছেন:

হা হা হা মজা পাইলাম lol2

  smile

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

১৮

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

আপনার লেখার স্টাইলটা ঝাক্কাস।
কাহিনিটা যতটুকু ভাল লেগেছে তার চেয়ে লেখার স্টাইলটা অনেক বেশী ভাল লেগেছে।

ম্যাচের কাঠি নিজেও জানেনা যে তার মধ্যে আগুন আছে।
আমরা প্রত্যেকেই ম্যাচের কাঠির মতো।
আগুনটা বের করতে শুধু একটা ঘষা দরকার।

১৯

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

আকীক লিখেছেন:

আপনার লেখার স্টাইলটা ঝাক্কাস।
কাহিনিটা যতটুকু ভাল লেগেছে তার চেয়ে লেখার স্টাইলটা অনেক বেশী ভাল লেগেছে।

  সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ, যে আপনার ভালো লেগেছে। আকীক ভাই ভালো থাকবেন।

"সংকোচেরও বিহ্বলতা নিজেরই অপমান। সংকটেরও কল্পনাতে হয়ও না ম্রিয়মাণ।
মুক্ত কর ভয়। আপন মাঝে শক্তি ধর, নিজেরে কর জয়॥"

২০

Re: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কবিতায় ভুল!!!

ভালো লাগলো।ধন্যবাদ।

অল্প কিছু শব্দের মাধ্যমে অনেক সওয়াব পেতে হাদীস অনুযায়ী নিচের শব্দগুলোই যথেষ্ট।
সুবহানাল্লাহ,আলহামদুলিল্লাহ,লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, আল্লাহু আকবার ।
অর্থ:-  আল্লাহু সুমহান , আল্লাহ-র জন্যই সমস্ত প্রশংসা,আল্লাহু ছাড়া কোনো ইলাহ নেই,আল্লাহ বিরাট ( মহান ) ।

imran ahmed'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত