৬১

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

জাসু ভাই লিংক দিতে ভুলে গিয়েছেন, তাই আমিই দিলাম: Revolution OS Film

[video (flash player not installed)]

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

৬২

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

ইসসস , যদি এদেশের মানুষের windowsটা টাকা দিয়ে কেনা লাগত তাহলে বুঝতাম এদের কত মায়া ।
আসলে লিনাক্স যে কি একটা জিনিস এটা সে কোনদিনও বুঝবেনা যে এটার সম্পর্কে ভালভাবে জানেনি।
আমি লিনাক্সের নতুন ইউজার না। অনেকদিন ধরেই এটা use করছি। শুধু আবেগের জন্য বলছিনা।
আমার আগের কম্পিউটার ব্যাবহারের experience আর এখনকার experienceএর মধ্যে বিস্তর পার্‌থক্য।
এখন অনেক শান্তিতে আছি।

ম্যাচের কাঠি নিজেও জানেনা যে তার মধ্যে আগুন আছে।
আমরা প্রত্যেকেই ম্যাচের কাঠির মতো।
আগুনটা বের করতে শুধু একটা ঘষা দরকার।

৬৩

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

mr.linux লিখেছেন:

আমার আগের কম্পিউটার ব্যাবহারের experience আর এখনকার experienceএর মধ্যে বিস্তর পার্‌থক্য।

ব্যাপারটা হচ্ছে অভ্যাস, আমি এখন উবুন্তু উইন্ডোজ সবখানেই চলতে পারি, অথচ আমার কত অভিযোগ ছিল আগে, এটা কঠিন এটা সমস্যা হ্যান ত্যান  smile
এখন মনেহয় জানালা ছাড়তে পারলে বাচি। যদি টুক করে কেউ ঢুকে পরে তো আমার ফাইলপাতি শেষ  nailbiting কিলগার এর ভয়ে উইন্ডোজে মিনিমাম ১৫ রকম সতর্কতা জারি করা আছে তাও শান্তি পাই না sad
কিন্তু জানালা ছাড়া হবে না আমার, *** অ্যডোবি  angry angry

৬৪

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

আশিফ শাহো লিখেছেন:
mr.linux লিখেছেন:

আমার আগের কম্পিউটার ব্যাবহারের experience আর এখনকার experienceএর মধ্যে বিস্তর পার্‌থক্য।

ব্যাপারটা হচ্ছে অভ্যাস, আমি এখন উবুন্তু উইন্ডোজ সবখানেই চলতে পারি, অথচ আমার কত অভিযোগ ছিল আগে, এটা কঠিন এটা সমস্যা হ্যান ত্যান  smile
এখন মনেহয় জানালা ছাড়তে পারলে বাচি। যদি টুক করে কেউ ঢুকে পরে তো আমার ফাইলপাতি শেষ  nailbiting কিলগার এর ভয়ে উইন্ডোজে মিনিমাম ১৫ রকম সতর্কতা জারি করা আছে তাও শান্তি পাই না sad
কিন্তু জানালা ছাড়া হবে না আমার, *** অ্যডোবি  angry angry

সহমত আমি ও এজন্যই জানালা ছাড়তে পারি না

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

৬৫ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন কলম কবির (১৭-০৮-২০১১ ১৪:১০)

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

শামীম লিখেছেন:

জাসু ভাই লিংক দিতে ভুলে গিয়েছেন, তাই আমিই দিলাম: Revolution OS Film

লিংকটা আমি উপরে দিয়েছিলাম, সাথে সাবটাইটেলটা মিডিফায়ারে আপলোড করে দিয়েছিলাম। কিন্তু ভিডিও এমবেড করে দেই নাই, তাই তেমন কারও চোখেই পড়ে নাই (তাছাড়া আমার বিরক্তিকর কমেন্টগুলা আদৌ কেউ পড়ে কিনা সেইটা গবেষণার বিষয়  sad)

if ($কম্পিউটার != "উইন্ডোজ" && $লিনাক্স != "উবুন্টু" && $ইন্টারনেট != "ফেসবুক") {print 'I am a real user !';}

নিউরোন তরঙ্গের লগবই

কলম কবির'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

৬৬

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

@যারা জানালা ছাড়তে পারেন না তাদেরকে

আমিও একসময় উইন্ডোজ ব্যবহারকারী ছিলাম। লিনাক্স যখন ব্যবহার শুরু করি তখন অনেক কিছুই জানতাম না। এমনকি প্রোগ্রামিং করার জন্যও ভিজুয়াল বেসিক ছাড়া অন্য কিছুর কথা চিন্তা করতে পারতাম না। আর এখন লিনাক্সেই প্রোগ্রামিং করি। কষ্ট করে হলেও পিএইচপি, জেকুয়েরী, কোডইগনাইটার শিখে নিয়েছি।

আপনারা এডোবির প্রোডাক্ট ব্যবহার করেন তাই হয়তো উইন্ডোজের বিকল্প পাচ্ছেন না কিন্তু লিনাক্সের বিকল্প প্রোডাক্ট গিম্প, স্ক্রাইবাস ব্যবহার করতে থাকুন পাশাপাশি। লিনাক্স ও.এস যেমন উইন্ডোজের পাশাপাশি শিখে গেছেন তেমনি এগুলিও পারা সময়ের ব্যাপার মাত্র। এখানে মাইক্রোসফটের কৃতিত্ব নেই।

যেমন আমি মাঝে মাঝে ডেস্কটপে গেম খেলি-ওয়ারক্রাফট, এজ অব এম্পায়ার - উইন্ডোজে। মোটামুটি সব বিকল্প ব্যবহারে অভ্যস্ত হলেও গেমের ক্ষেত্রে পারিনি। তাই উইন্ডোজ আমার কাছে এখন গেমিং কনসোল ও.এস. কারন সব কোম্পানি গেম ডেভেলপ করে উইন্ডোজের জন্য। ফাকে ফাকে লিনাক্সের গেমগুলি ও খেলি। আশা করি যখন কোম্পানিগুলি লিনাক্সে তাদের গেম পোর্ট করবে তখন আর উইন্ডোজে বসা লাগবে না। অবশ্য উইন্ডোজে বসি সপ্তাহে হয়তো ১/২ ঘন্টা।

লিনাক্স নিয়ে লিখছি বাংলাতে আমার ব্লগে

৬৭

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

‌প্রথমদিকে আমিও জানালা ছাড়তে পারতাম না।
আস্তে আস্তে লিনাক্সে দাখিল হয়েছি। এখন আর কোন কাজেই জানালাতে ঢুকতে হয়না।

ম্যাচের কাঠি নিজেও জানেনা যে তার মধ্যে আগুন আছে।
আমরা প্রত্যেকেই ম্যাচের কাঠির মতো।
আগুনটা বের করতে শুধু একটা ঘষা দরকার।

৬৮

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

এক একজন এক এক কারণে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করে। কেউ লিনাক্স ভালো লাগে বলেই ঝোঁকে পড়ে করে, কেউ মনোপলির কারণে, কেউ বা পাইরেসি এড়ানোর জন্য, কেউ বা রেড হ্যাট অ্যাফিলিয়েটেড কোন সংস্থার কাজে, কেউ বা নিজস্ব কিছু অসুবিধার জন্য।

আমার কথা বলতে গেলে পাইরেসি এড়ানো, এবং ইউস করার ক্ষেত্রে কিছু ঝামেলা দেখা দেয়। তুলনায় লিনাক্সে অনেক কাজ সহজে হয়। তার মানে এই না যে উইন্ডোজ খারাপ, উইন্ডোজ আমার  ক্ষেত্রে স্যুটেবল নয়, যার যেমন পছন্দ। তবে পাইরেসির ক্ষেত্রে এই নিজস্ব পছন্দের অপশানটা থাকা উচিত নয়, লিনাক্সে ওয়াইনে ক্র্যাকড ফটোশপ চালানোও পাইরেসি। কিন্তু এর জন্য দোষ তো লিনাক্সের নয়, দোষ ব্যবহারকারীর।

অতএব শুধু পাইরেসি ইস্যুতে নয়, যদি বিরোধিতা করতে হয় তাহলে আমজনতার সুবিধা বুঝে কারণ দেখাতে হবে, যে সুবিধা উইন্ডোজ থেকে লিনাক্সে কিছু বেশিই আছে।

"No ship should go down without her captain."

হৃদয়১'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

৬৯ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন মুশাফ (১৭-০৮-২০১১ ১৮:২৫)

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

জাহিদ সুমন লিখেছেন:

এরপরও কি বলবেন সহাবস্থান সম্ভব?

হ্যাঁ, সহাবস্থান সম্ভব।

বাজারের এক গুড় ব্যবসায়ী বিনামূল্যে গুড় দিচ্ছে। বাজারের অন্য চিনি ব্যবসায়ীর জন্য সেটা বিস্তর মাথা ব্যথার কারণ। সে গুড় ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করলো। নাহয় তার চিনির ব্যবসা মার খাবে। আমি ভোক্তা। আমি শরবত খাব। সেটা চিনি দিয়ে খেতে পারি, গুড় দিয়েও খেতে পারি। আরও ১০ জন ভোক্তা আছে। তাদের অনেকের চিনি পছন্দ, কারও কারও গুড় ভালো লাগে। এখন গুড়-চিনির দ্বন্দ যদি হতে হয় সেটা ব্যবসায়ীদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকা উচিৎ। ভোক্তা লেভেলে কেন আসবে? গুড়ের গুণমুগ্ধ ভোক্তা স্বপ্রণোদিত হয়ে গুড়ের প্রচারণা চালাতে পারে। কিন্তু তাতে যুদ্ধংদেহী মনোভাব কেন থাকবে? চিনির ভোক্তাদের গুড় গেলানোকে কেন সে যুদ্ধ মনে করবে?

যাদের যুদ্ধ তাদের মধ্যে থাকতে দিন। নিজেদের মধ্যে সহাবস্থান রাখুন। এই টপিকে আমি একটা ভিডিও পোস্ট করেছি যেখানে উইন্ডোজ সেভেনের সাথে একটা লিনাক্স বেজড ওএস এর তুলনা করা হয়েছে। এই ভিডিওতে বিপক্ষ ওএসকে এতটুকু খাটো না করে যোরিন ওএস এর ডেভলপাররা নিজেদের ওএস এর ফিচারগুলো তুলে ধরেছে। স্টিভ বালমারের লিনাক্স বিরোধীতা সেখানে নেই, মার্ক শাটলওয়ার্থের সফটওয়্যার দর্শনও সেখানে নেই। কিন্তু বাজি ধরে বলতে পারি ভিডিওটা দেখে অনেক উইন্ডোজ ব্যবহারকারী যোরিন ওএস ব্যবহার করতে আগ্রহী হবে। এর জন্য যুদ্ধ করা লাগবে না।

৭০

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

মুশাফ লিখেছেন:
জাহিদ সুমন লিখেছেন:

এরপরও কি বলবেন সহাবস্থান সম্ভব?

হ্যাঁ, সহাবস্থান সম্ভব।

বাজারের এক গুড় ব্যবসায়ী বিনামূল্যে গুড় দিচ্ছে। বাজারের অন্য চিনি ব্যবসায়ীর জন্য সেটা বিস্তর মাথা ব্যথার কারণ। সে গুড় ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করলো। নাহয় তার চিনির ব্যবসা মার খাবে। আমি ভোক্তা। আমি শরবত খাব। সেটা চিনি দিয়ে খেতে পারি, গুড় দিয়েও খেতে পারি। আরও ১০ জন ভোক্তা আছে। তাদের অনেকের চিনি পছন্দ, কারও কারও গুড় ভালো লাগে। এখন গুড়-চিনির দ্বন্দ যদি হতে হয় সেটা ব্যবসায়ীদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকা উচিৎ। ভোক্তা লেভেলে কেন আসবে? গুড়ের গুণমুগ্ধ ভোক্তা স্বপ্রণোদিত হয়ে গুড়ের প্রচারণা চালাতে পারে। কিন্তু তাতে যুদ্ধংদেহী মনোভাব কেন থাকবে? চিনির ভোক্তাদের গুড় গেলানোকে কেন সে যুদ্ধ মনে করবে?

যাদের যুদ্ধ তাদের মধ্যে থাকতে দিন। নিজেদের মধ্যে সহাবস্থান রাখুন। এই টপিকে আমি একটা ভিডিও পোস্ট করেছি যেখানে উইন্ডোজ সেভেনের সাথে একটা লিনাক্স বেজড ওএস এর তুলনা করা হয়েছে। এই ভিডিওতে বিপক্ষ ওএসকে এতটুকু খাটো না করে যোরিন ওএস এর ডেভলপাররা নিজেদের ওএস এর ফিচারগুলো তুলে ধরেছে। স্টিভ বালমারের লিনাক্স বিরোধীতা সেখানে নেই, মার্ক শাটলওয়ার্থের সফটওয়্যার দর্শনও সেখানে নেই। কিন্তু বাজি ধরে বলতে পারি ভিডিওটা দেখে অনেক উইন্ডোজ ব্যবহারকারী যোরিন ওএস ব্যবহার করতে আগ্রহী হবে। এর জন্য যুদ্ধ করা লাগবে না।

সুন্দর বলেছেন! খুবই ভাল যুক্তি। যার চিনি দরকার সে টাকা দিয়ে চিনি খাবে।
যার গুড় দরকার সে গুড় খাবে।
তবে একটাই অনুরোধ থাকবে চিনি খেকোদের কাছে ওটা যেন চুরি করে না খায়, টাকা
দিয়েই কিনে খায়।
ভোক্তাদের যুদ্ধের কি‌ছু নাই। তবে কিছু ভোক্তা যদি অবৈধভাবে চিনি খায় তাহলে
ওই এলাকার ভোক্তাজাতের উপর অপবাদ পরতে পারে।
তাই তারা চাইবে কেউ যেন অবৈধভাবে চিনি না খায়।
টাকা দিয়ে যতখুশি চিনি ‌খাক, সমস্যা নাই।

ম্যাচের কাঠি নিজেও জানেনা যে তার মধ্যে আগুন আছে।
আমরা প্রত্যেকেই ম্যাচের কাঠির মতো।
আগুনটা বের করতে শুধু একটা ঘষা দরকার।

৭১ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন রিং (১৮-০৮-২০১১ ০০:২৬)

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

মাহমুদ রাব্বি লিখেছেন:

কেন যে আপনারা উইন্ডোজের সাথে উবুন্টু, ঝন্টু , মন্টুদের তুলনা করেন বুঝি না। খাড়ান , এক চোট হাইসা লই আগে। lol2
শুনেন , হাজার বার বলেন লিনাক্স ভাইরাসমুক্ত তারপরেও  মানুষ পথ ভুলে লিনাক্সে গেলেও ইউজার ফ্রেন্ডলীনেসের কারনে আবার ফিরে আসে উইন্ডোজের ছায়াতলে।

আমি আপনার মতানুযায়ী ""খরতপ্ত রাজপথে'' হাঁটছি প্রায় একযুগ যাবৎ। সুশীতল ছায়াতলে বসে থাকার ক্ষমতা আমার কম্পিউটার ব্যবহার জীবনের শুরুতেই আমার বাবা বা আমার নিজের লাইসেন্সড সফটওয়্যার ব্যবহারের আর্থিক সক্ষমতা ছিলো না। আর তদুপরি যে দেশের মানুষের দু'বেলা দু'মুঠো অন্ন জোটাতে বিদেশী দাতাদের কাছে সরকারকে বা প্রকারান্তরে আমার নিজেকেই হাত পাততে হয়। সেখানে ""ঋণ করে ঘি'' খাওয়ার মতো বিলাসীতার যৌক্তিকতা আমি অতীতেও দেখতে পাইনি, বর্তমানেও পাচ্ছি না আর ভবিষ্যৎকালেও পাবো না।

সারিম লিখেছেন:

বুঝেন তাইলে, বাংলাদেশের ওপেনসোর্স সেনানীরা চিল্লাই যে বিং চলে লিনাক্সে, ওইদিকে গুগল সার্ভে চলে মাইক্রোসফটের সার্ভারে। আমার টার্গেট ছিল মাসনুন ভাইয়ের কমেন্টটা

মাসনুন লিখেছেন:

+Abhi Aditya এইবার বোঝেন মানুষ সীমিত জ্ঞান নিয়ে কিভাবে লাফালাফি করছে এটা নিয়ে । যেখানে টেক ক্রাঞ্চ এর মত অনলাইন জার্নাল ব্যখ্যা করে জানিয়েছে বিং লিনাক্সে চলে না, তারপরেও পিকাসা এলবামের লিঙ্ক দিয়ে সাধারণ ব্যবহারকারীদের বিভ্রান্ত করে।

আমাদের ওপেন সোর্স কমিউনিটিতে কিছু (বা কতিপয়) ভন্ড এভাবেই মিষ্টি মিষ্টি কথা বলে নন-টেকিদের ব্রেইন ওয়াশ করে দিচ্ছে । এর ফলে এদের মারাত্বক রকমের অন্ধ ভক্তি চলে আসে । নিজেদের বিবেচনা শক্তি লোপ পায় । ফলে এমন সব উদভ্রান্ত কথা বলে যা দেখলে হাসতে হাসতে গড়াগড়ি খেতে হয় । কিন্তু যারা এই কথাগুলো বলে তারা কিন্তু ইচ্ছা করে বলে না । তাদের কে যেভাবে বোঝানো হয় সেভাবেই বোঝে । ঐ ভন্ড মানুষগুলোর মিষ্টি মিষ্টি ব্যবহারে এরা তাদের এতটাই ভক্ত হয়ে যায় যে তারা কিছু বললে সেটা ভেরিফাইও করে দেখেনা। তারা যা বলে সেটাই মেনে নেয় ।

এই মানুষগুলো বাস্তবজীবনে এই অন্ধভক্তির কারণে অনেক সমস্যায় পড়বে । উল্টা পালটা কথা বলে সবার হাসির পাত্র হবে । অথচ এদের কোন দোষ নেই । একটা মহল এদের ব্যবহার করে।

সারিম, পিকাসা অ্যালবামের লিংকটা আমার নিজেরই ব্যক্তিগত পিকাসা অ্যালবামের থেকেই নেয়া। আমার জানা আছে যে লিনাক্সে .NET অ্যাপ্লিকেশনগুলো চালাতে হলে কি করতে হয়। আর এটাও জানা আছে যে লোড ব্যালাসিং সার্ভারের কাজটা আসলে কি? অতএব যে কাজে লিংকটা শেয়ার দিয়েছিলাম ওটা কিছু মানুষের কাছে যতই উদ্ভট আর অন্ধভক্তি বলেই মনে হোক না কেন করার কিছুই নাই। কেননা দৃষ্টিটা যদি আমার উপরে সিংহের পড়ে তো সে শিকার করতে চাইবে আর যদি বেড়ালের পড়ে তো সে ভাগতে চাইবে। বলাবাহুল্য, দুটোই প্রানী এবং শিকারী প্রানী তবুও এটাই সরলীকৃত সমীকরন।

যুদ্ধ যে লড়েনি, কমসে কম যে চাক্ষুস করেনি এর ভয়াবহতা সে বুঝবেই না যে যুদ্ধটা কেন আর কিভাবে করা হয়েছিলো? কি ছিলো এর অন্তর্নিহিত স্বার্থ? তদুপরি যুদ্ধে যে কিছু হারায়নি সে ও বুঝবে না যে হারাবার কি জ্বালা, কি বেদনা। আমার খুব কষ্ট হয় যখন দেখি আমার সমান কষ্ট করে কেউ পথ পাড়ি দিতে চাইছে। আর তাই ছুটে বেড়াই সারা বাংলায়, খুলে দিতে চাই জ্ঞানচক্ষুটা। যেটা আমার অবর্তমানেও দেখাবে সঠিক পথ, দেবে আত্মবিশ্বাস। স্বাধীনতাকামী মানুষকে যুগেযুগে স্বৈরশাসক আর তাঁর দালালরা নানান সময়ে নানান আখ্যা আর অপবাদে লাঞ্চিত আর অপমানিত করেছে, করছে আর আগামীতেও করবে। তবে আমি জানি স্বাধীনতা একা ভোগ করার বিষয় না, সবার মাঝে এর স্বাদ-গন্ধ ছড়িয়ে/বিলিয়ে দিতে পারলেই এর আসল উদ্দেশ্য সাধন হয়।

আমার জানা নেই আমেরিকান নেভী নাদান কি না? আমার জানা নেই জার্মানী কিংবা ফ্রান্সের সরকার বেওকুফ কি না? আমার জানা নেই ব্রাজিলের সরকার ছাগল কি না? আমি জানি না CERN এর কর্তাব্যক্তিরা সহ বিজ্ঞানীরা গর্দভ কি না? কিন্তু আমি এটুকু জানি এঁরা সবাই পার্সোনাল ডেক্সটপ থেকে শুরু করে সার্ভার অবদি, একেবারে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত লিনাক্স ভিত্তিক প্রযুক্তির ওএস ব্যবহার করে, ওপেন সোর্সড সফটওয়্যার ব্যবহার করে। [তথ্যসুত্র] কেন করে এর ব্যাখ্যা চেয়ে ই-মেইল চালাচালি করা শুরু করে দিন। জবাব নিশ্চয়ই পাবেন।

অনিরুদ্ধ লিখেছেন:

ক্লোজড সোর্সের কি প্রয়োজন আছে?

ক্লোজড সোর্স সফটওয়্যারের অবশ্যই প্রয়োজন রয়েছে। যদি ক্লোজড সোর্স সফটওয়্যার না থাকে, তাহলে ওপেনসোর্সের মূল্যায়ন কোথায়? যদি আধাঁর না থাকে তাহলে আলোর আলাদা কি কোন মর্যাদা আছে? ওপেনসোর্সের স্বার্থেই ক্লোজড সোর্স সফটওয়্যার প্রয়োজন।

একটু কষ্ট করে এফএসএফ বা ফ্রি সফটওয়্যার ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠার ইতিহাস আর যৌক্তিকতা একটু দেখলে তোমার এই ধারনা একটা ধাক্কা খেতো বলে মনে করি।

অনিরুদ্ধ লিখেছেন:

প্রয়োজন সুস্থ প্রতিযোগীতা
তবে, একটা কথা, এক্ষেত্রে প্রয়োজন সুস্থ প্রতিযোগীতা। আমি মাইক্রোসফট নামের প্রতিষ্ঠানের প্রতি কৃতজ্ঞ। কিন্তু তাদের আমি ভালোবাসি না একটি মাত্র কারণে, যেটা হল অসুস্থ প্রতিযোগীতা। মাইক্রোসফট নামক প্রতিষ্ঠানটি তাদের আধিপত্য বিস্তার করে বসে আছে। সাধারণ ব্যবহারকারীরাও মাইক্রোসফটের একক আধিপত্য মেনে নিয়েছে।

পয়সা আর পেশী শক্তির জোরে এমন অনেক কিছুই বিপনন করা সম্ভব যা আদৌ কাংখিত মান/গুন রক্ষায় সক্ষম নয়। ফলে মেনে নেয়া ছাড়া করার কিছুই নাই। আর তদুপরি তুমি স্বৈরশাসককে নিজ বাড়ীতে ভোজসভায় দাওয়াত দিয়ে স্বাধীনতার আবদার করলে সে কি সেটা তোমায় দেবে?

অনিরুদ্ধ লিখেছেন:

যদি কেউ একক আধিপত্য লাভ করে, তবে সে তার প্রোডাক্টের মানোন্নয়নে তেমন একটা মনোযোগ দেয় না। ফলে, প্রতিযোগীতার অভাবে কোম্পানি একরকম অলস হয়ে যায় এবং কম্পিউটিং ইন্টাস্ট্রিকে নতুন কিছু উপহার দিতে ব্যর্থ হয়।

ব্যাপারটিকে আপনি এভাবে কল্পনা করুন, আপনার এলাকায় কেবলমাত্র একটি দোকানেই চাল কিনতে পাওয়া যায়। সে দোকানের মালিক আপনার কাছে বেশি দামে কম মানসম্পন্ন চাল বিক্রি করে। এখন আপনি তার কাছে একরকম জিম্মি হয়ে রইলেন। বেশি দাম দিয়ে আপনাকে খারাপ জিনিস কিনতে হচ্ছে। এমতাবস্থায় যদি একটি নতুন দোকান চালু হয় এবং সে দোকানদার পূর্বের দোকানদার হতে কম দামে অধিক মানসম্পন্ন পণ্য বিক্রি করে, তবে নিঃসন্দেহে পূর্বের দোকানদারের ব্যবসায় মন্দা দেখা দেবে এবং নতুন দোকানদারের সাথে প্রতিযোগীতায় টিকতে তাকে বাধ্য হয়ে কমদামে অধিক মানসম্পন্ন পণ্য বিক্রয় করতে হবে। নয়তবা তার দোকানে কেউ যাবে না।

সফটওয়্যারের ব্যাপারটাও তাই। একক আধিপত্য কাম্য নয়। সুস্থ প্রতিযোগীতাই আমারদের প্রযুক্তিকে উন্নতির চরম শিখরে নিয়ে যেতে পারে।

ওপেন সোর্স বা উন্মুক্ত সোর্স প্রযুক্তির সাথে কোনক্রমেই ক্লোজড সোর্স প্রতিযোগীতায় অবর্তীন হতে পারবে না। কারন একটাই -- দৌড় প্রতিযোগীতায় দৌড়াতে হলে দরকার পা। যদি সেখানে একটা রোবোট কে দাঁড় করিয়ে দিয়ে বলা হয় যে ওটারও পা আছে ওটার সাথে মানুষ প্রতিযোগীরা দৌড়াবে তো সেটা যেমন বেমানান তেমনি এই তুলনাটাও তাই।

রিং'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

৭২

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

মুশাফ লিখেছেন:
জাহিদ সুমন লিখেছেন:

এরপরও কি ....................এর জন্য যুদ্ধ করা লাগবে না।

ভাই এটাকে যুদ্ধ বলি এই জন্যই পাইরেসি আমাদের রগে রগে ঢুকে আছে ভাইরাসের মতন। এই ব্যাধি থেকে দেশ ও জাতিকে বাঁচাতে হলে যুদ্ধই করতে হবে। এছাড়া কোন উপায় নাই।

আশিকুর_নূর'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

৭৩

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

রিং ভাই চমৎকার লিখেছেন।

ম্যাচের কাঠি নিজেও জানেনা যে তার মধ্যে আগুন আছে।
আমরা প্রত্যেকেই ম্যাচের কাঠির মতো।
আগুনটা বের করতে শুধু একটা ঘষা দরকার।

৭৪ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন invarbrass (১৮-০৮-২০১১ ২২:৫১)

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

লিনাক্সের ২০তম জন্মদিনে মাইক্রোসফটের অফিশিয়াল বার্থডে উইশ ভিডিওঃ

বাই দি ওয়ে, মাসখানেক একটি আর্টিকেল-এ পড়েছিলাম ঈদানীংকালে লিনাক্স কার্নেলের সবচেয়ে বড় কন্ট্রিবিউটর কোম্পানীগুলোর শীর্ষ ৩-এর মধ্যে আছে মাইক্রোসফট ইঙ্ক (নাম মনে নাই, তবে মাইক্রোসফটের এক ভারতীয় বংশোদ্ভুদ প্রোগ্রামার শতশত প্যাচ সাবমিট করছেন)। জ্বী হ্যাঁ, ভুল পড়েন নি - মাইক্রোসফটও আজকাল লিনাক্স কার্ণেল "উন্নয়নের কাজ" করছে! তবে অবাক হবারও কিছু নেই - প্রকৃত উদ্দেশ্য জানলে নিতান্তই স্বাভাবিক ব্যাপার মনে হবে। Hyper-V বা উইন্ডোজ সার্ভারের ভার্চুয়ালাইযেশন প্ল্যাটফর্মে যেন লিনাক্স গেস্ট ভালোভাবে চলতে পারে তার জন্যই এই প্যাচগুলো। Win Server 2008R2-র SCVMM অফিশিয়ালী  রেডহ্যাট এবং স্যুয সাপোর্ট করে (আমি একবার ডেবিয়ানও চালিয়েছিলাম)

বরং অবাক হতে হয় ক্যানোনিকালের অবদান শুনলে। লিনাক্স জগতের অন্যতম ফ্ল্যাগশীপ কোম্পানী হলেও কার্ণেল ডেভেলপমেন্টের পেছনে এদের অবদান প্রায় নেই বললেই চলে। সম্ভবতঃ গত বছর একটি সার্ভে দেখেছিলাম - লিনাক্স কার্ণেলের পেছনে অবদানঃ
রেডহ্যাট - ১০%
ইন্টেল, আইবিএম ও নোভেল - ৪-৬%
এমনকি ওরাকল-ও লিনাক্সের পেছনে ২-৩% অবদান রাখছে।

এদের তুলনায় ক্যানোনিকালের অবদান জানেন? বিরাট, ব্যাপক, বিশাল ০০০.৩%!

অবশ্য উন্নতি হচ্ছে খুব "দ্রুতগতিতে" - ২০০৮ সালের তুলনায় এদের অবদান ৩০০% বেড়েছে - তখন ক্যানোনিকালের অবদান ছিলো ০০.১%!  lol

শুধু লিনাক্স কার্ণেলই নয়, গ্নোওম ডেভেলপমেন্টের ক্ষেত্রে সবচাইতে কম অবদানের চ্যাম্পিয়ানও ক্যানোনিকাল।

এন্ড-ইউজারদের মধ্যে লিনাক্সকে জনপ্রিয় করার জন্য ক্যানোনিকালের ভূমিকা অনস্বীকার্য। সন্দেহ নেই সাধারণ ব্যবহারকারীদের লিনাক্স ইউজার এক্সপেরিয়েন্স (UX) সহজ করার জন্য প্রচুর অবদান আছে এদের। তবে উন্মুক্ত কম্পিউটিং-এর আদর্শ নিয়ে চললেও ক্যানোনীকালের কর্ম-পদ্ধতি গড়পড়তা কমার্শিয়াল কোম্পানীগুলোর চেয়ে খুব বেশি ভিন্ন বলে মনে হয় না। ব্যবসায়িক স্বার্থ আছে বলেই মাইক্রোসফট, ওরাকল, আইবিএম (বা এমনকি রেডহ্যাট/স্যুযে-কেও গণনায় ধরতে পারেন) লিনাক্স ডেভেলপমেন্টের পেছনে অবদান রাখছে। ব্যক্তিগতভাবে এ ধরণের "ফ্রিমিয়াম" ডিস্ট্রোগুলোর তুলনায় ডেবিয়ান, জেন্টু, স্ল্যাক বা আর্ক ইত্যাদি ডিস্ট্রো ওপেনসোর্স ওএস-এর প্রকৃত মাসকট বলে মনে করি। আফসোস, উবুন্টু/ফেডোরার মত পলিশ, বার্ণিশ, গ্ল্যামার এদের নেই।

বিঃদ্রঃ আমি বন্টু ইউজার।

Calm... like a bomb.

৭৫

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

ওয়াও! মাইক্রোসফ্টের ভিডিওটা তো চমৎকার!!!  thumbs_up কিউট!  love

invarbrass লিখেছেন:

এদের তুলনায় ক্যানোনিকালের অবদান জানেন? বিরাট, ব্যাপক, বিশাল ০০০.৩%!
অবশ্য উন্নতি হচ্ছে খুব "দ্রুতগতিতে" - ২০০৮ সালের তুলনায় এদের অবদান ৩০০% বেড়েছে - তখন ক্যানোনিকালের অবদান ছিলো ০০.১%!

ক্যানোনিকালের সেচ্ছাচারীতার জন্যই বুন্টু ছাড়তে হয়েছে। ইউনিটির মত আনস্টেবল জিনিসকে এখনই ডিফল্ট করে তারা কি হাতি ঘোড়া উদ্ধার করেছে জানি না তবে আমার মত আরও অনেক ইউজার হারিয়েছে তা জানি। ম্যাকের নকল করতে গিয়ে কিছুই করতে পারছে না। ম্যাকের ডকের মত ইউনিটির লঞ্চার করার ট্রাই করছে। কিন্তু তাও পারছে না।  lol

OH DEAR NEVER FEAR SAIF IS HERE
BOSS অর্থাৎ সাইফ
Cloud Hosting BossHostBD

৭৬ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আশিকুর_নূর (১৮-০৮-২০১১ ২৩:০৫)

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

আমি নিজেও বন্টু ইউসার, আর ইউনিটি ন্মোম ৩ কোনটাই ভাল লাগে নাই, ইউনিটি আনস্টেবেলিটি এবং ন্মোম ৩ চালাতে বেশি হিমশিম খেতে হয় তাই এখন ন্মোম ২ এই খুশি আছি, এটাতেই থাকব ১২.০৪ আসার আগ পর্যন্ত।

ওরাকল কন্ট্রিবিউট করে তাদের তো নিজেদেরই একটা কমার্শিয়াল ওএস আছ যারা তার আনব্রেকেবল কার্ণেল বলত, এটা নিয়ে মনে হয় তারা ভরাডুবি খাওয়ার পর শুরু করছে কন্ট্রিবিউট করা।

কেননিক্যাল কন্ট্রিবিউট না করলে কোন সমস্যা আমি দেখছি না, ওরা লিনাক্সকে ডেস্কটপ কম্পিউটিং এর জন্য যে পর্যায়ে নিয়ে যাচ্ছে তা কম কী?

আশিকুর_নূর'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

৭৭

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

সাইফ দি বস ৭ লিখেছেন:

ক্যানোনিকালের সেচ্ছাচারীতার জন্যই বুন্টু ছাড়তে হয়েছে। ইউনিটির মত আনস্টেবল জিনিসকে এখনই ডিফল্ট করে তারা কি হাতি ঘোড়া উদ্ধার করেছে জানি না তবে আমার মত আরও অনেক ইউজার হারিয়েছে তা জানি। ম্যাকের নকল করতে গিয়ে কিছুই করতে পারছে না। ম্যাকের ডকের মত ইউনিটির লঞ্চার করার ট্রাই করছে। কিন্তু তাও পারছে না।  lol

ন্যাটি তো LTS ভার্সান নয়, অতএব কিছু আনস্টেবল জিনিস থাকবে সেটাই স্বাভাবিক। নতুন জিনিসগুলো সম্পর্কে ফিডব্যাকের দরকার আছে তো!

ইউনিটি একটা নতুন ডিফল্ট জিনিস এবং সম্ভবত ফ্লপ খাবে।

লিব্রেঅফিস একটা নতুন ডিফল্ট জিনিস, যা ফেমাস।

"No ship should go down without her captain."

হৃদয়১'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

৭৮

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

invarbrass লিখেছেন:

লিনাক্সের ২০তম জন্মদিনে মাইক্রোসফটের অফিশিয়াল বার্থডে উইশ ভিডিওঃ

ভিডিওটা চমৎকার লাগলো। smile

দেখা যাচ্ছে মাইক্রোসফট নিজেই সহাবস্থানে আগ্রহী।

৭৯

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

অফটপিক:  neutral
অ--নে--ক দিন বাদে ব্রাশু ভাইয়ের লেখা দেখলাম। thumbs_up

-----
ভিডিওটাতে ইনসাল্ট করার চেষ্টা করা হইলো বলে মনে হলো। কারণ লিনাক্সের উন্নতিকে মাইক্রোসফটের কাছে শিশুসুলভ মনে হয় - অর্থাৎ অনেক কিছু করার চেষ্টা করবে, কিন্তু মাইক্রোসফট এই স্টেজ পার হয়ে বড় হয়েছে। শিশুদের পাত্তা দেয়ার কিছু নাই ... ... ... ...



সম্ভবত মাইক্রোসফট নিজেদেরকেই অভয় দিচ্ছে এই ভিডিও দিয়ে  tongue

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

৮০

Re: লিনাক্স বা ওপেনসোর্সপ্রেমী বলেই যে মাইক্রোসফটের বিরোধিতা করি, তা নয়

কেউ কি জাফর ইকবালের "লাবু এল শহরে " পড়েছেন? সেখানে উইন্ডোজকে স্যার চরম পচানি দিছেন lol2 lol2 lol2
ঝুম্পা খালা আর লাবু গেল কম্পিউটার কিনতে, কিন্তু তারা কম্পিউটারের কিছুই বুঝে না।দোকান্দারের কাছ থেকে জানতে পারল কম্পিউটার টাকা দিয়ে কিনতে হলেও সফটওয়ার কিনতে হবে না, চোরাই মাল দেয়া হবে।তখনই ঝুম্পা খালা আর লাবু মুখ শক্ত করে বল্ল, তারা চোরাই মাল নিবে না।
দোকানী যতই বলুক মন্ত্রী মিনিস্টাররাও এটা ইউজ করে, তারপরেও তারা চোরাই মাল নিবে না।
তখন একজন এসে বল্ল, সে চোরাই মাল ইউজ করে না।
"আমার কমিউটারে লিনাক্স অপারেটিং সিস্টেম।মাইক্রোসফট উইন্ডোজের বাবা-বাঘের বাচ্চা অপারেটিং সিস্টেম।... পৃথিবীর সবাই মিলে তৈরি করছে একেবারে ফাটাফাটি জিনিস। মাইক্রোসফটের এখন বদনা নিয়ে দৌড়াদৌড়ি শুরু হয়ে গেছে।"
গল্পের শেষে দেখা যায় লাবু উবুন্টু ইউজ করছে।

অ.ট. আরে, invarbrass ভাই দেখি kidding বহুতদিন পর।

"আমি তোমাদেরকে ভয়,ক্ষুধা এবং ধন সম্পদ,জীবন ও ফল ফসলের ক্ষয়ক্ষতি দ্বারা অবশ্য পরীক্ষা করব।তুমি শুভ সংবাদ দাও ধৈর্যশীলগণকে- যারা তাদের উপর বিপদ আপতিত হলে বলে-'আমরা তো আল্লাহরই এবং নিশ্চিতভাবে তাঁর দিকেই প্রত্যাবর্তনকারী'।"--- সূরা বাকারা(১৫৫,১৫৬)
তাই আমার মনে হয়,খারাপ অবস্থায় থাকলেও, আমাদের কারোরই হতাশ হওয়া উচিত না। smile