সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন তার-ছেড়া-কাউয়া (১৮-০৭-২০১১ ২১:৩৩)

টপিকঃ তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

প্রথম যখন প্রজন্মে লেখা শুরু করলাম তখন অভ্যর্থনা কক্ষে নিজের কোন পরিচয় দেইনি। কেন জানি ইচ্ছা করেনি। তবে অভ্যর্তনা কক্ষে নতুনরা এসে নিজের পরিচয় দিলে সবাই যেভাবে উষ্ণভাবে অভ্যর্তনা জানায়, সেটা দেখে যে লোভ হত না, তা বলা ঠিক হবে না। আমার প্রথম পোস্ট করার সাথে সাথেই অনেকেই সেখানে কমেন্ট করেন। মাসুদ ভাই, ইলিয়াস ভাইসহ অনেকেই আমাকে নিজের পরিচয় দেয়ার সুপরামর্শটি দিলেও তা শুনিনি। তবে গত কিছুদিন ধরে বেশ কয়েকজনের কাছ থেকে গোপনবার্তায় পাওয়া অনুরোধ এবং হুমকির পরিপ্রেক্ষিতে আমার আজকের এই পোস্ট।

আমার নাম মিয়া মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান। শিক্ষকতা করি। বর্তমানে একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রনিক্স ও টেলিযোগাযোগ প্রকৌশল বিভাগে লেকচারার হিসেবে কর্মরত আছি। আমার পরিবারে আছেন আমার মা, স্ত্রী, বড় দুই ভাই,দুই ভাবী এবং তিন ভাতিজি ও এক ভাতিজা।
আমি

লেখালিখির ব্যাপারে আমার অনুপ্রেরণা প্রধানত আমার সবচেয়ে বড় ভাই। যদিও ওনার লেখার বিষয়বস্তু আমার লেখার বিষয়বস্তুর সাথে খুব একটা মিলেনা, কিন্তু এরপরও ওনার লেখা আমাকে অনুপ্রাণিত করেছে লেখালিখিতে আসায়। উনি ছাড়া অন্য যাদের লেখা আমার খুবই ভালো লাগে তারা হলেন জাফর ইকবাল স্যার, আরিফ জেবতিক, হিমু। মাত্র তিনটি নাম দেখে হয়তো অবাক হচ্ছেন। কিন্তু ইদানিং এই তিনজনের লেখাই আমার বেশি পড়া হচ্ছে। আর দেশের বাইরের যাদের লেখা সবসময় আমার ভালো লেগে এসেছে তারা হলেন , জুলভার্ন, আইজাক আসিমভ, আর্থার সি ক্লার্ক, ড্যান ব্রাউন প্রমুখ। পড়তে ভালো লাগে সায়েন্স ফিকশান। লিখতে ভালো লাগে রম্য।

লেখার সময় কাউকে অনুকরণ করি না। নিজস্ব স্বকীয়তা বজায় রাখি। হয়তোবা লেখার মান অনেক খারাপ। কিন্তু ‘নিজ হাতে গড়া মোর কাচা ঘর খাসা’ এই লাইনটি সর্বদা মাথায় রাখি এবং লেখার মান উন্নত করার চেষ্টার ব্রত থাকি।

অতীতের অনেক কিছুই মিস করি। বলে শেষ করা যাবে না। স্কুল থেকে ফেরার পথে বাসভাড়ার পয়সা বাচিয়ে আট আনা দিয়ে কেনা সবুজ আইস্ক্রীম খাওয়া, পেস্টের প্যাকেটে নষ্ট হয়ে যাওয়া খেলনা গাড়ির চাকা লাগিয়ে নতুন গাড়ি বানানো, পলিথিন কেটে তা দিয়ে প্যারাস্যুট বানানো, সাইকেল নিয়ে বিকেলবেলা বন্ধুদের সাথে ক্যান্টনমেন্টের উচুনিচু রাস্তা ভ্রমন,বন্ধুদের সাথে কার্জনের লনে বসে তাস পিটানো, টিএসসির অডিটোরিয়ামে বন্ধুদের সাথে করা মঞ্চনাটকগুলো ইত্যাদি অনেক জিনিস মিস করি। সবচেয়ে বেশি মিস করি আমার প্রয়াত বাবাকে। বাবা না বলে বন্ধু বলাই মনেহয় ভালো। নন-একাডেমিক বিষয়গুলোতে সবচেয়ে বেশি উতসাহদাতা আমার আব্বাটাকেই সবচেয়ে বেশি মিস করি।

লেখালিখি চলছে। লেখালিখি চলবে। কখনো হয়তো বেশি হারে, কখনোবা কম। কিন্তু এ যাত্রা মৃত্যুর আগ পর্যন্ত থামবেনা। সবাইকে সালাম।

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

"Better late than never"
দেরী করে হলেও পরিচয় দেবার জন্য ধন্যবাদ। এতোদিন মনে করতাম আপনি মনে হয় এখনো ছাত্র আছেন, এখন জানলাম আপনার এখন ছাত্র আছে roll

সুন্দর পরিচয় পর্বের জন্যে ধন্যবাদ। প্রথম প্রথম আপনার বেশ ভালো লেখা পেতাম, আর ইদানিং মনে হয় পাচ্ছিনা worried
ওহ, আর এই আপনার ইউজারনেমের রহস্য কি? আপনার তার ছিঁড়া ভালো কথা, কিন্তু কাউয়া কেন?  tongue_smile

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

অভ্যর্থনা কক্ষের পোস্ট। নতুন কইরা স্বাগতম  wink

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

স্বাগতম  hug স্বাগতম  hug

পুনরায় স্বাগতম  hug

নতুন কইরা স্বাগতম  hug

۞ بِسْمِ اللهِ الْرَّحْمَنِ الْرَّحِيمِ •۞
۞ قُلْ هُوَ اللَّهُ أَحَدٌ ۞ اللَّهُ الصَّمَدُ ۞ لَمْ * • ۞
۞ يَلِدْ وَلَمْ يُولَدْ ۞ وَلَمْ يَكُن لَّهُ كُفُوًا أَحَدٌ * • ۞

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

স্বাগতম  hug স্বাগতম  hug

পুনরায় স্বাগতম  hug

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

তারেক হাসান লিখেছেন:

"Better late than never"
দেরী করে হলেও পরিচয় দেবার জন্য ধন্যবাদ। এতোদিন মনে করতাম আপনি মনে হয় এখনো ছাত্র আছেন, এখন জানলাম আপনার এখন ছাত্র আছে roll

সুন্দর পরিচয় পর্বের জন্যে ধন্যবাদ। প্রথম প্রথম আপনার বেশ ভালো লেখা পেতাম, আর ইদানিং মনে হয় পাচ্ছিনা worried
ওহ, আর এই আপনার ইউজারনেমের রহস্য কি? আপনার তার ছিঁড়া ভালো কথা, কিন্তু কাউয়া কেন?  tongue_smile

পূর্বে রম্য লিখতাম অনেক বেশি। ইদানিং বিভিন্ন জিনিস নিয়া লিখি। সায়েন্স ফিকশান নিয়া মাতলাম কিছুদিন মাঝখানে। সেগুলো মনেহয় আপনার ভালো লাগে নাই। আর বিবাহ করার পরে লেখার রেট কমে গেছে  sad
কাউয়া নামের ইতিহাস সংক্ষিপ্ত। আমার গায়ের কালার আমার বড় দুইভাইয়ের তুলনায় অনেক বেশি কালা। অনেকটা কাকের মত। এর জন্য এই নাম। হা হা হা।

@ স্বপ্নীল ভাই, সাইদুল ভাই, ডেডলক ভাইঃ অনেক ধইন্যবাদ  big_smile big_smile

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

ফোরামে ছয়মাস বয়েসী আসাদ ভাইকে স্বাগতম। আপনার লেখার হাত আমাদের শামীম ভাইয়ের চাইতেও সুন্দর। কিছু কিছু কথার ভাবার্থ মারত্মক রকমের হৃদয়গ্রাহী।

কেন জানিনা আপনার মতো আমিও এখন এ সময়ে এসে অনেক, অনেক, অনেক কিছুকেই মিস করি। সবচাইতে বেশী মিস করি NIIT তে আমার ক্লাশরুম আর মেশিনরুম গুলোকে। হোয়াইট বোর্ডটাতে ডাস্টার আর মার্কার দিয়ে নিজের জ্ঞানটুকুর চিত্রায়ন আর পটপরিবর্তন করা হবে না। বহুদিন মেশিনগুলোর সাথে ডেট করা হয়না, হবে না আর কোনদিন।

আমার দাদাজান বলতেন, ""কোনদিন শিক্ষক হবি না। কাঁদতে হবে।'' আমার আঠারো থেকে চল্লিশোর্ধ বয়েসী ছাত্ররা এখনো যখন কোথাও দেখা হলেই আমায় চিনতে পেরে ছুটে আসেন, আমার খবরা-খবর নেন, আমি তখন বোকার মতো চেয়ে থাকি তাঁদের দিকে। কাউকে হয়তো চিনতেই পারিনা।

আজ সকালেই রনদীপম'দা নিজের ব্লগে ""রুহির সকাল'' দিয়ে আমায় প্রচন্ড রকমে স্মৃতিকাতর করে দিয়েছিলেন। আর এখন আপনার লেখাটা পড়ার পর হটাৎই আমার প্রচন্ড কষ্ট হচ্ছে। বাতাসে অক্সিজেনের অভাব অনুভব করছি আর একই সাথে চোখের জলপ্রকোষ্ঠের নিয়ন্ত্রনটুকু হারিয়েছি। আমিও তো একদিন দাপুটে একজন শিক্ষক ছিলাম, একটা পর একটা ক্লাশে দাবড়ে বেড়াতাম সারাদিন। কেন এত দ্রুতই ফুরিয়ে গেলো সব.................সবকিছু!!!

আসলে গত শুক্রবারে আপনাদের ওখানে গিয়ে মনে প্রচন্ড কষ্ট হচ্ছিলো। ঠিক ১২ বছর আগে বিদায় জানিয়েছিলাম সিলেটকে। জানিনা আর কখনো যাওয়া হবে কিনা? আর হলেও আমার স্মৃতি আমার সাথে তখন কতটুকু প্রতারনা করবে কে জানে?

হয়তো বেশ কিছু প্রচন্ড আবেগী কথা বলে ফেললাম। মাফ করে দেবেন। ভালো কথা আপনার মতোই আমারও পছন্দের লেখক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল স্যার। খুব অল্প সময়ের জন্যে হলেও শাবিপ্রবিতে ওনার ছাত্রত্ব পেয়েছিলাম এটুকু আমার সারাজীবনের বিরাট এক সুখস্মৃতি, এক অর্জন।

রিং'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

স্বাগতম ।

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

https://lh5.googleusercontent.com/-8pj2VB30-ng/TiMUVJmR6iI/AAAAAAAAAA8/U8LdV7I-C1M/s640/24062011355.jpg
নায়ক মার্কা ফটুক দিয়া যদি কন আপনি দেখতে কালো  dontsee

১০ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন তার-ছেড়া-কাউয়া (১৮-০৭-২০১১ ২১:১২)

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

রিং লিখেছেন:

ফোরামে ছয়মাস বয়েসী আসাদ ভাইকে স্বাগতম। আপনার লেখাটা পড়ার পর হটাৎই আমার প্রচন্ড কষ্ট হচ্ছে। বাতাসে অক্সিজেনের অভাব অনুভব করছি আর একই সাথে চোখের জলপ্রকোষ্ঠের নিয়ন্ত্রনটুকু হারিয়েছি।জানিনা আর কখনো যাওয়া হবে কিনা?

ধন্যবাদ রিং ভাই। কষ্ট দেয়ার জন্য লিখিনি। দুঃখিত। আর কখনো আসবেন না মানে কি? কইলাম না মিয়া যে, নেক্সট টাইম আসলে খাবার টেবিলে খাইতে পারবেন। মেঝেতে বসা লাগবো না cool আর আপনার শরীর এখন কেমন? যত্ন নিবেন নিজের। মানব সেবায় ব্রত হয়েছেন ঠিক আছে। তাই বলে নিজের শরীরের দিকে খেয়াল রাখবেন না সেটা কেমন কথা? যতদিন সুস্থ থাকবেন ততদিন এই সেবা দিতে পারবেন।

তারেক হাসান লিখেছেন:

নায়ক মার্কা ফটুক দিয়া যদি কন আপনি দেখতে কালো  dontsee


তাইলে বুঝেন আমার ভাইয়েরা কিমুন ফর্সা। উনাগো পাশে আমারে কাউয়ার লাহান লাগে  big_smile

@জাবেদঃ ধইন্যবাদ

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

১১ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন জেলাল (১৮-০৭-২০১১ ২১:৪৮)

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

অভ্যর্থনা কক্ষের পাশ দিয়েই যাচ্ছিলাম। অভ্যর্থনা কক্ষে খুব একটা ঢোকা হয় না। টপিকদাতার নাম হিসেবে কাউয়া ভাইকে দেখেই থমকে দাড়ালাম এবং সটান ঢুকে পড়লাম।

নিজেকে এত সুন্দর করে অভ্যর্থনা কক্ষে পরিচয় করিয়ে দিতে আর কাউকে দেখিনি। আপনাকে বিলম্বিত স্বাগতম। ধন্যবাদ।

১২

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

এই ভাই কে স্ব-চক্ষে দেখার সৌভাগ্য হয়েছিল...ঐ যে প্রজন্ম এর গেট টুগেদার...তখন উনাকে দেখে আমার বিবাহিত মনে হয় নি ghusi ghusi...অথচ আজ জানলাম...সাথে আরো অনেক কিছুই জানলাম neutral neutral

রাহাত'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nd 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৩

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

তারেক হাসান লিখেছেন:

"Better late than never"

খাঁটি কথা
অ.ট. তারেক ভাই আর একটা পোস্ট করলেই আপনার স্কোর ২০০০ হবে। অগ্রীম অভিনন্দন জানিয়ে রাখলাম।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১৪

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

মরুভূমির জলদস্যু লিখেছেন:
তারেক হাসান লিখেছেন:

"Better late than never"

খাঁটি কথা
অ.ট. তারেক ভাই আর একটা পোস্ট করলেই আপনার স্কোর ২০০০ হবে। অগ্রীম অভিনন্দন জানিয়ে রাখলাম।

ধন্যবাদ। গুটি গুটি পায়ে ২০০০ পোস্ট করেই ফেললাম  yahoo

১৫

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

রাহাত লিখেছেন:

এই ভাই কে স্ব-চক্ষে দেখার সৌভাগ্য হয়েছিল...ঐ যে প্রজন্ম এর গেট টুগেদার...তখন উনাকে দেখে আমার বিবাহিত মনে হয় নি ghusi ghusi...অথচ আজ জানলাম...সাথে আরো অনেক কিছুই জানলাম neutral neutral

তখন বিবাহিত ছিল না। জীবিত ছিল। তবে সিংকিং সিংকিং ড্রিংকিং অবস্থায় ছিল।  wink

শামীম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১৬

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

খুউব ভাল লাগলো thumbs_up
তা মুড়ি কেন প্রিয় হলো তা তো বললেন না  thinking
দারুন আত্মকথনের জন্য সম্মাননা  clap

একজন মানুষের জীবন হচ্ছে - ক্ষুদ্র আনন্দের সঞ্চয়। একেকজন মানুষের আনন্দ একেক রকম ...
এসো দেই জমিয়ে আড্ডা মিলি প্রাণের টানে !
   
স্বেচ্ছাসেবকঃ  ফাউন্ডেশন ফর ওপেন সোর্স সলিউশনস বাংলাদেশ, নীতি নির্ধারকঃ মুক্ত প্রযুক্তি।

১৭

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

জেলাল লিখেছেন:

অভ্যর্থনা কক্ষের পাশ দিয়েই যাচ্ছিলাম। অভ্যর্থনা কক্ষে খুব একটা ঢোকা হয় না। টপিকদাতার নাম হিসেবে কাউয়া ভাইকে দেখেই থমকে দাড়ালাম এবং সটান ঢুকে পড়লাম।

নিজেকে এত সুন্দর করে অভ্যর্থনা কক্ষে পরিচয় করিয়ে দিতে আর কাউকে দেখিনি। আপনাকে বিলম্বিত স্বাগতম। ধন্যবাদ।

অনেক ধইন্যবাদ জেলাল ভাই। ভাই বেশি ফুলায়েন না। ফাইটা যামুতো। এমনিতেই বিবাহের পরে কোমর ৩১ থিকা বাইরা হইচে ৩৪  crying তার উপর আপ্নেরা সমানে পাম্প করতাছেন। একদম ঠিক না  shame

রাহাত লিখেছেন:

এই ভাই কে স্ব-চক্ষে দেখার সৌভাগ্য হয়েছিল...ঐ যে প্রজন্ম এর গেট টুগেদার...তখন উনাকে দেখে আমার বিবাহিত মনে হয় নি ghusi ghusi...অথচ আজ জানলাম...সাথে আরো অনেক কিছুই জানলাম neutral neutral

জ্বী ভাই। আমিই সেই লোক, যে ঐ সময় অবিবাহিত ছিলো। বর্তমানে বিবাহিত  big_smile big_smile আর আপ্নিই সেই লোক, যার সাথে গেট-টুগেদারে আমার প্রথম কথা হয়েছিলো  big_smile

তারেক হাসান লিখেছেন:

গুটি গুটি পায়ে ২০০০ পোস্ট করেই ফেললাম  yahoo

আমার প্রাণঢালা অভিনন্দন গ্রহণ করুন

masud3011 লিখেছেন:

খুউব ভাল লাগলো thumbs_up
তা মুড়ি কেন প্রিয় হলো তা তো বললেন না  thinking
দারুন আত্মকথনের জন্য সম্মাননা  clap


আপনিই সেই লোক যার কাছে আমি আমার মোবাইল নাম্বার লিখে দিয়েছিলাম। আপনি আর রাহাত ভাই ছাড়া আমার কারো সাথে পরিচয় হয়নি সেদিন  neutral মুড়ি কেন প্রিয় সেটা অল্প কথায় বলা যাবে না। সে এক বিরাট ইতিহাস। আর আপনাকে অনেক ধন্যবাদ মাসুদ ভাই  big_smile big_smile

শামীম লিখেছেন:

তবে সিংকিং সিংকিং ড্রিংকিং অবস্থায় ছিল।  wink


লোকজনকে এইসব বলা একদম ঠিক না  shame

রাবনে বানাদি ভুড়ি :-(

১৮

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

ইতোপূর্বে যাঁরা ২/১ লাইনে পরিচয় পর্ব সেরেছে, তাঁরা আপনার পরিচিতি দেখে নতুন করে পরিচয় দিয়ে প্রজন্মকে প্রাণবন্ত করুক।

You'll never reach your destination if you stop and throw stones at every dog that barks.

১৯

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

thumbs_up দারুন একটা চমক পেলাম। খুব ভাল লাগলো আপনার পরিচয় পর্ব দেখে। (তার-ছেড়া-কাউয়া)আসাদুজ্জামান ভাই সম্পর্কে বিস্তারিত জানা গেল। অসংখ্য ধন্যবাদ।

২০

Re: তার-ছেড়া-কাউয়ার আত্মকথন

সুন্দর তো। দেখে আমারো এরকম একটা লিখতে ইচ্ছা করতেসে।

জাগরণে যায় বিভাবরী ...