সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন স্বপ্নীল (২৬-০৬-২০১১ ১০:১৫)

টপিকঃ আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

পূর্বকথা: "আমি এবং আমার ক্যাম্পাস" একটি নতুন সিরিজ।এই সিরিজের মাধ্যমে আমরা একেকজন মানুষের ক্যাম্পাসকে তুলে ধরব তারই দৃষ্টিকোণ থেকে।বেশ কিছু জিনিস আমরা জানতে চাইব আমাদের অতিথির কাছ থেকে আর সেটার মাধ্যমেই আমরা অতিথি ও তার ক্যাম্পাসকে আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করব।আশা করি আপনাদের ভাল লাগবে।

আজকেরটা পর্ব ২।যারা এই সিরিজের  পর্ব ১ পড়েন নাই, তারা  নিচের লিংকে যেয়ে পড়ে নিতে পারেন:

আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ১ : অতিথি: ইমরান তুষার






http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/banner1.jpg



আজকের পর্ব কথা:

আজকের অতিথি ইন্জ্ঞিনিয়ার। তিনি পড়াশোনা করেন হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ( হাবিপ্রবি) যেটা বাংলাদেশে ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। এটি উত্তরবঙ্গ তথা রাজশাহী বিভাগের প্রথম বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার মাধ্যম ইংরেজি এবং কোর্স-ক্রেডিট-সেমিস্টার পদ্ধতিতে পরিচালিত।


এই সিরিজের ২য় পর্বের জন্য ফোরামের নিয়মিত সদস্য ইন্জ্ঞিনিয়ার কে বলতেই রাজি হয়ে গেল।বেশ প্রফেশনাল একজন মানুষ।যা যা চাইলাম তা বেশ দ্রুততার সাথেই আমাকে এনে দিল।আমি বেশ অবাকই হয়েছি।ইন্জ্ঞিনিয়ারের লেখা বেশ চমৎকার আর খুব সুন্দরভাবেই তিনি তার ক্যাম্পাসকে তুলে ধরেছেন।তাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।




তো চলুন জেনে নেই আজকে ইন্জ্ঞিনিয়ার ও তার ক্যাম্পাস সম্পর্কে.......


ক্যাম্পাস সম্পর্কে কিছু কথা.........
-আর সবার মতই, যখন অ্যাডমিশনের ফরম তুলেছিলাম বিভিন্ন ভার্সিটির, এটার নাম শুনে প্রথম প্রশ্ন ছিল, এটা পাবলিক না প্রাইভেট ভার্সিটি! আজ চার বছর পরেও কেউ প্রথমবার শুনে এই কথাই বলে। হাজী মোহাম্মদ মহসীন নামটা যত পরিচিত, হাজী মোহাম্মদ দানেশ ঠিক ততটাই অপরিচিত।ভর্তি পরীক্ষার দিন প্রথম দেখাতেই ভার্সিটির ক্যাম্পাস আমার খুবই পছন্দ হয়েছিল, সেই অনূভুতিটা এখনও আছে। খুবই সাজানো গোছানো একটা ক্যাম্পাস।



বর্তমানে পড়ালেখার বিষয়..........
-ফুড অ্যান্ড প্রসেস ইন্জ্ঞিনিয়ারিং ।



বর্তমান সেমিস্টার যেমন যাচ্ছে.......
-যাচ্ছে না, শেষ। লাস্ট সেমিস্টার শেষ করে ফেললাম। ইন্টার্ণী আর প্রজেক্ট রিপোর্টটা বাঁকী।



ক্যাম্পাসে প্রিয় টিচার, বন্ধু-বান্ধব ও অন্যান্য কাছের মানুষ যারা আছে তাদের সম্পর্কে......
-জীবনে প্রথমবার বাড়ির বাইরে থেকেছি এই ক্যাম্পাসে। অনেক রকম অভিজ্ঞতা হয়েছে। এই ক্যাম্পাসে রয়েছে কিছু অসাধারণ মানুষ যারা আসলে অনেক বড়, ভাল কিছুর দাবীদার। এখানে হয়ত নিজেকে পূর্ণভাবে মেলতে পারছে না। স্পেসিফিক্যালী নাম ধরে বলে লাভ নেই, অনেক লম্বা লিস্ট হয়ে যাবে। অনেকর নাম বাদ পড়ে যাবে। কেউ ফেসবুকে শেয়ার দিলে বাদ পড়ারা মন খারাপ করবে। ছোট ক্যাম্পাস তো, সবাই খুব কাছের, সবার সাথেই ঘনিষ্টতা।



ক্যাম্পাসে হয়ে যাওয়া কোন বিশেষ প্রোগ্রাম বা অনুষ্ঠান সম্পর্কে স্মৃতিচারন.....
-প্রতিটা ফেস্টিভ্যাল আর মেলায় স্টল অ্যাটেন্ড করাগুলো খুবই মিস করি। ২ টি আইটি ফেস্টিভাল, সিড ফেয়ার, ওয়ার্ল্ড ফুড ডে... প্রথম আইটি ফেস্টিভ্যালে BMI প্রজেক্টটা দারুণ হিট করেছিল। জব্বার কাগু আর কায়কোবাদ স্যারের BMI মেপেছিলাম। জব্বার কাগুর ওয়েট ঠিক থাকলেও কায়কোবাদ স্যার ওভারওয়েট। প্রথম আলোর বিজ্ঞ সাংবাদিক প্রজেক্টটাকে লিখেছিল "কম্পিউটার ভিত্তিক পুষ্টি পরামর্শ tongue tongue tongue"



ক্যাম্পাসে যাওয়া থেকে একদম বাসায় ফিরে আসা পর্যন্ত প্রতিটা দিন যেভাবে কাটে......
-লাস্ট সেমিস্টারটা একটু রিলাক্সে কেটেছে। বাঁকী ৪ বছর ৮ টা- ৫টা কঠিন ক্লাশ। মনে পড়ে ইন্জ্ঞিনিয়ারিং ড্রয়িং আর মেশিন ডিজাইন কোর্সের কথা। সারাদিন ক্লাশ করে রাতে গিয়ে ড্রয়িং। এখন দেখি আরও কড়া, পোলাপান, রাত দশটা পর্যন্ত ল্যাবেই ড্রয়িং করে।আড্ডার জায়গা ক্যাম্পাসের ভেতর দুইটা, D-Box আর শহীদ মিনার। আর, ক্যাম্পাসের বাইরে নানীর দোকান, ভেলুর দোকান, মুসলিম হোটেল। তবে, আমি আড্ডাবাজীর সময় খুব একটা পাই না। ল্যাপি নিয়েই দিন কাটে। ক্লাশ>ল্যাপটপ>ক্লাশ>ল্যাপটপ.....



প্রথম ভর্তি হবার পর দেখা ক্যাম্পাস আর এখনকার ক্যাম্পাসের পার্থক্য .......
-আমরা যখন ভর্তি হই তখন ক্যাম্পাস অনেকটাই ফাঁকা ফাঁকা ছিল। অনেক সাবজেক্টের সবগুলো ব্যাচ ছিল না। আমরা ফুডের ৩য় ব্যাচ, তখন টেলিকমিউনিকেশনের মাত্র ২ টা ব্যাচ ছিল। ভেটেরেনারী কলেজ আলাদা ছিল। সিটও অনেক কম ছিল। ২ টা বাসে ফার্স্ট ইয়ারেও কখনও দাঁড়িয়ে শহরে যাওয়া লাগে নি।

আর এখন, টোটাল ছাত্র সংখ্যা ডবল। ৮ মাসের সেশন জটের কারণে আমাদের মত যাদের থাকার কথা না তারাও ক্যাম্পাসে আছি। নতুন সাবজেক্ট খুলেছে। অধিভুক্ত কলেজ ফ্যাকাল্টীর অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। MS/MBA কোর্স চালু হয়েছে। ক্যাম্পাস এখন অনেকটাই ঘিন্জ্ঞি। ৭ টা বাসেও এখন সবাই যেতে পারে না। এখন মাঝে মাঝে দাঁড়িয়ে শহরে যাই।

আরেকটা ব্যাপার ছিল, আগে সব ডিপার্টমেন্টের ফাইনাল আর মিডটার্ম পরীক্ষা একই সাথে হতো। তাই, যখন পরীক্ষার নোটিশ হয়ে যেত তখন পুরো ভার্সিটিতে পড়া-পড়া রব উঠে যেত। এখন, সবাই যার যার মত পরীক্ষা দেয়। সব সময়ই কারও না কারও ফাইনাল চলছে।

এটার একটা ভাল দিকও আছে। আগে সংখ্যাগরিষ্ঠ এগ্রিকালচারদের পরীক্ষা শেষ হয়ে গেলে আমাদের খুব ঝামেলা হয়ে যেত। হোটেল, ডাইনিং সব বন্ধ। খাবার নিয়ে টেনশনে থাকা লাগতো। এখন এরকম হয় না। আমাদের সময় হলে সিট ফাঁকা পড়ে থাকতো। এখন, ফার্স্ট ইয়ার, সেকেন্ড ইয়ার হলে সিটই পায় না।



ক্যাম্পাসে ঘটে যাওয়া বিশেষ কোন মজার ঘটনা...........
-মজার মধ্যেই থাকি সারাদিন। তবে এই মূহুর্তে একটা ঘটনা মনে পড়ছে।কোন একবার পহেলা বৈশাখে স্টলে গান বাজছিল "পান্জাবীওয়ালা"। স্টলের সামনে রাস্তা দিয়ে আমাদের এক সিনিয়র টিচার আসছিলেন। তাবলিগ করেন, দাড়ীওয়ালা, পান্জাবী পড়া। পড়বি তো পড়, স্যার যখন ঠিক স্টলের সামনে, তখনই গানের ঐ অংশ চলে এসেছে "মনে বড় জ্বালা রে পান্জাবীওয়ালা"। স্যার দেখলাম আড়চোখে তাকিয়ে হাঁটার গতি বাড়ালেন। আমরাও অনেক কষ্টে আটকে রাখা হাসি ছাড়লাম।



ক্যাম্পাসের যে দিকটি সবচে বেশি ভাল লাগে.........
-গোছানো, পরিকল্পিত, ছোট ক্যাম্পাস। সবকিছুই কাছে। হল থেকে ক্লাশে যেতে ১ মিনিটও লাগে না। ভার্সিটিতে ফ্রীল্যান্সারের ছড়াছড়ি। এটা খুব ভাল দিক। আমি যা দেখি, প্রতিটা হলের প্রতিটা ব্লকেই খুঁজলে ডলার পাওয়া যাবে, কম হোক আর বেশী হোক smile



যে দিকটি একদমই ভাল লাগে না..........
-এলাকাভিত্তিক সংগঠন।


বর্তমান ক্যাম্পাসের উন্নতিতে কোন মতামত বা পরামর্শ.......
-১২ বছর একটা পাবলিক ভার্সিটির জন্য কোন বয়সই না। তাই অনেক কিছুরই উন্নতি দরকার। এক কথায় বলা সম্ভব না।



ক্যাম্পাসের ছবিগুলো..........


অডিটোরিয়ামের একাংশ
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/1.jpg


অন্যরকম শহীদ মিনার
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/2.jpg


অ্যাকাডেমিক ভবন ২ আমার ফ্যাকাল্টী বিল্ডিং
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/3.jpg


অ্যাকাডেমিক ভবন ৪
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/4.jpg


অ্যাকাডেমিক ভবনের সামনের মাঠ
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/5.jpg


আমি যে হলে থাকি, সামনের অংশ
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/6.jpg


একাডেমিক ভবন ১
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/7.jpg


এটা লাইব্রেরীর মাঠ
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/8.jpg


এটাও লাইব্রেরীর মাঠ
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/9.jpg


ওয়ার্ড ফুড ডে রেলী: পান্জ্ঞাবীওয়ালা স্যারও আছেন, মোবাইল কানে
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/10.jpg


গেট ৩
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/11.jpg


জিয়া হলের ভেতর থেকে তোলা অন্য ব্লক
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/12.jpg


ডি-বক্স সকল আন্দোল সংগ্রাম আড্ডার কেন্দ্র
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/13.jpg


দূরে দেখা যায় জিয়া হল
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/14.jpg


প্রশাষনিক ভবন, সামনে গাছের ফাঁক দিয়ে জিমনেশিয়াম দেখা যায়
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/15.jpg


লাইব্রেরী বাইরে থেকে
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/16.jpg


লাইব্রেরীর নিচতলা
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/17.jpg


সেন্ট্রাল মসজিদ ১
http://i1112.photobucket.com/albums/k493/sopn2sa/Engineer/18.jpg





কেমন লাগল আজকের পর্বটি তা এখানে অবশ্যই জানাবেন।আপনাদের মতামতটুকু এই সিরিজের এগিয়ে চলায় অনেক অবদান রাখবে বলেই আমি বিশ্বাস করি।

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

খুব ভাল। এই ভার্সিটি সম্বন্ধে কিছুই জানতাম না, ইঞ্জিনিয়ার আর সপ্নীল কে ধন্যবাদ। thumbs_up

জাগরণে যায় বিভাবরী ...

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

নাকিব লিখেছেন:

খুব ভাল। এই ভার্সিটি সম্বন্ধে কিছুই জানতাম না, ইঞ্জিনিয়ার আর সপ্নীল কে ধন্যবাদ। thumbs_up

ধন্যবাদ নাকিব।সিরিজটা আমি নিজেও এনজয় করছি।ভবিষ্যতে আবারও এই সিরিজের লেখাগুলো রিভাইস দেব।তখন কাজেও লেগে যেতে পারে।

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

অনেক কিছু জানলাম, আরও একটি অসাধারন পোস্ট।  ইঞ্জিনিয়ার আর সপ্নীল কে ধন্যবাদ।

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

দিনাজপুরের এই ক্যাম্পাসে আমি কি কারনে যেন একবার গিয়েছিলাম সঠিক মনে করতে পারছি না। তবে বেশি সময় থাকার সৌভাগ্য হয়নি। যতদুর মনে পড়ে কোন একটি  অনুষ্ঠানে সম্ভাবত।
ধন্যবাদ সপ্নীল ভাইকে

স্বাক্ষর তৈরী করা সম্তব নয়..........!!!
খসড়া খাতা

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

স্বপ্নীল ভাই ও অন্যদের অসংখ্য ধন্যবাদ। নতুন নতুন আইডিয়া বের করায় স্বপ্নীল ভাইয়ের তুলনা হয় না। প্রথম পর্বটা মিস করেছিলাম। উনি ম্যাসেন্জারে না দিলে জানতামই না।


স্বপ্নীল লিখেছেন:

বেশ প্রফেশনাল একজন মানুষ।যা যা চাইলাম তা বেশ দ্রুততার সাথেই আমাকে এনে দিল।আমি বেশ অবাকই হয়েছি।ইন্জ্ঞিনিয়ারের লেখা বেশ চমৎকার আর খুব সুন্দরভাবেই তিনি তার ক্যাম্পাসকে তুলে ধরেছেন।

ব্যাপক লজ্জা পাইলাম  dontsee tongue_smile blushing

ইন্জ্ঞিনিয়ার'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

দারুন !!! অসাধারন পোষ্ট। সপ্নীল ভাইয়ের তুলনা হয় না। সপ্নীল ভাইকে অনেক ধন্যবাদ।

এই গরমে স্বাক্ষর আর কি দিমু........

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

পর্বগুলো পড়ে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সম্পর্কে জানার সুযোগ হচ্ছে। সেজন্য স্বপ্নীল ভাই এবং পর্বের অতিথিদের ধন্যবাদ।

সালেহ আহমদ'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

আমার খুব ক্লোজ বন্ধু এখানে পড়ে, কিন্তু যাব যাব করে যাওয়াই হচ্ছে না  brokenheart
দেখি 1 মাসের মধ্যেই যেতে হবে ছবিগুলো দেখে আরো যেতে ইচ্ছা করতেছে  sad

সুন্দর একটি ইন্টারভিউ এর জন্য স্বপ্নীল ভাইকে ধন্যবাদ।
কিন্তু ইঞ্জিনিয়ার ভাইয়ের আসল নামটা কি ?

১০

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

হেব্বি একটি ইন্টারভিউ এর জন্য স্বপ্নীল ভাইকে ধন্যবাদ।  thumbs_up

এবং ইঞ্জিনিয়ার কেউ  thumbs_up

۞ بِسْمِ اللهِ الْرَّحْمَنِ الْرَّحِيمِ •۞
۞ قُلْ هُوَ اللَّهُ أَحَدٌ ۞ اللَّهُ الصَّمَدُ ۞ لَمْ * • ۞
۞ يَلِدْ وَلَمْ يُولَدْ ۞ وَلَمْ يَكُن لَّهُ كُفُوًا أَحَدٌ * • ۞

১১

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

ইলিয়াস লিখেছেন:

অনেক কিছু জানলাম, আরও একটি অসাধারন পোস্ট।  ইঞ্জিনিয়ার আর সপ্নীল কে ধন্যবাদ।

কামাল হোসেন লিখেছেন:

ধন্যবাদ সপ্নীল ভাইকে

আশরাফুল আলম লিখেছেন:

দারুন !!! অসাধারন পোষ্ট। সপ্নীল ভাইয়ের তুলনা হয় না। সপ্নীল ভাইকে অনেক ধন্যবাদ।

সালেহ আহমদ লিখেছেন:

পর্বগুলো পড়ে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো সম্পর্কে জানার সুযোগ হচ্ছে। সেজন্য স্বপ্নীল ভাই এবং পর্বের অতিথিদের ধন্যবাদ।

আশিফ শাহো লিখেছেন:

সুন্দর একটি ইন্টারভিউ এর জন্য স্বপ্নীল ভাইকে ধন্যবাদ।

সাইদুল ইসলাম লিখেছেন:

হেব্বি একটি ইন্টারভিউ এর জন্য স্বপ্নীল ভাইকে ধন্যবাদ।  thumbs_up এবং ইঞ্জিনিয়ার কেউ  thumbs_up


ইলিয়াস ভাই,কামাল হোসেন,আশরাফুল আলম,সালেহ ভাই,আশিফ, সাইদুল -সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ মতামত জানানোর জন্য।এভাবে মতামত জানালে আমার কাজে বেশ সুবিধা হয়।


ইন্জ্ঞিনিয়ার লিখেছেন:

স্বপ্নীল ভাই ও অন্যদের অসংখ্য ধন্যবাদ। নতুন নতুন আইডিয়া বের করায় স্বপ্নীল ভাইয়ের তুলনা হয় না। প্রথম পর্বটা মিস করেছিলাম। উনি ম্যাসেন্জারে না দিলে জানতামই না।

হাহাহা..ইন্জ্ঞিনিয়ারের মত মানুষের প্রশংসা পাওয়াটা বেশ সৌভাগ্যের ব্যাপার  tongueযাই হোক,আবারও ম্যানি ম্যানি থ্যাংকস।

ইন্জ্ঞিনিয়ার লিখেছেন:
স্বপ্নীল লিখেছেন:

বেশ প্রফেশনাল একজন মানুষ।যা যা চাইলাম তা বেশ দ্রুততার সাথেই আমাকে এনে দিল।আমি বেশ অবাকই হয়েছি।ইন্জ্ঞিনিয়ারের লেখা বেশ চমৎকার আর খুব সুন্দরভাবেই তিনি তার ক্যাম্পাসকে তুলে ধরেছেন।

ব্যাপক লজ্জা পাইলাম  dontsee tongue_smile blushing


লজ্জা পাওয়ার কিছু নাই,যাহা সত্য তাহাই বলিলাম।যেদিন থেকে পরিচয় সেদিন থেকেই তো দেখছি আপনাকে,সেখান থেকেই এ কথাগুলোর সত্যতা আরো বেশি পাওয়া যায়  hehe

১২

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

অনেক মজা পেলাম হাজী দানেশ ভার্সিটি সম্পর্কে পড়ে। মোবাইলে রেজিশট্রেশন করেছিলাম। কিন্তু আরেকজায়গায় এডমিশন টেস্ট থাকায় আর যাওয়া হল না ।  nailbiting

১৩

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

ত্রিনিত্রির রাশিমালা লিখেছেন:

অনেক মজা পেলাম হাজী দানেশ ভার্সিটি সম্পর্কে পড়ে। মোবাইলে রেজিশট্রেশন করেছিলাম। কিন্তু আরেক জায়গায় এডমিশন টেস্ট থাকায় আর যাওয়া হল না ।  nailbiting


হুমম..চাইলে এখন একবার ঘুরে আসতে পারো  hehe

১৪

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

আমি আসলে কমেন্টবাজ/লেখিকা টাইপ কিছু না, পড়িই বেশি! এই লেখাটায় কমেন্ট করার মূল কারন

১. দুজনের সম্পাদনায় লেখা - অথচ 'বাকি', 'ডাইনিং' - এরকম সহজ কিছু বানান ভুল!  brokenheart
২. ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠিত কিন্তু '১২ বছর!'?  surprised কেমনে কি?  hairpull

এই লেখাটা না হলে আমি এই ইউনিভার্সিটিটার নামও হয়ত জানতে পারতাম না! এখন ত আরও জেলখানায় থাকি! cry

দারুন লাগল জানতে পেরে! এই সিরিজের মূল সার্থকতা হয়ত এখানেই! তাই অন্য অনেক জায়গায় বানান তাকায়েও দেখি না, কিন্তু এখানে চোখে লাগল! এই সিরিজটা অভাবনীয় একটা সূচনা! একদিন হয়ত এই সিরিজের জন্য প্রজন্ম ফোরাম গর্ব করবে!  smile

দুজনকে সম্মাননা বুঝিয়ে দিলাম!  smile

আল্লাহুম্মা ইন্নাকা য়াফু্‌ঊন - (হে আল্লাহ আপনি ক্ষমাশীল)
তুহীব্বুল য়াফওয়া - (আপনি মাফ করতে ভালবাসেন)
ফা' ফু আন্নী - (আমাকে মাফ করে দিন।)

১৫ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন স্বপ্নীল (২৬-০৬-২০১১ ১০:৫৬)

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

মুন লিখেছেন:

১. দুজনের সম্পাদনায় লেখা - অথচ 'বাকি', 'ডাইনিং' - এরকম সহজ কিছু বানান ভুল!  brokenheart
২. ২০০২ সালে প্রতিষ্ঠিত কিন্তু '১২ বছর!'?  surprised কেমনে কি?  hairpull

দারুন লাগল জানতে পেরে! এই সিরিজের মূল সার্থকতা হয়ত এখানেই! তাই অন্য অনেক জায়গায় বানান তাকায়েও দেখি না, কিন্তু এখানে চোখে লাগল! এই সিরিজটা অভাবনীয় একটা সূচনা! একদিন হয়ত এই সিরিজের জন্য প্রজন্ম ফোরাম গর্ব করবে!  smile

তোমাকে প্রথমেই ধন্যবাদ এত সুন্দর কমেন্ট করার জন্য।সবাই পিচ্চি পিচ্চি কমেন্ট করে।এভাবে কমেন্ট করলেই না টপিকের জন্য সেটা দারুন ফিডব্যাক হিসেবে কাজ করে  thumbs_up

বানান সমস্যার মূল কারন বিদ্যুত সমস্যা।আমি সব কিছু এডিট করে বানান এডিট করব এমন সময় বিদ্যুত চলে গেল।পরে বাইরে বেশ কিছু কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম,তাই আর সময় পাইনি বানান ঠিক করার।তোমাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ মনে করিয়ে দেয়ার জন্য।ঠিক করে দিলাম যতটুকু পেরেছি।

এ সিরিজটি আসলেই বেশ গুরুত্বপূর্ণ,তাই এর বানানগুলো ভুল হলে সেটা বেশ দৃষ্টিকটু দেখাবে।আমার নিজের বানান নিয়ে বেশ সমস্যা।কোন কিছুর হেল্প নিয়ে কি আমি বানান চেক করতে পারি??এরকম কিছু জানা থাকলে বলিও আমাকে।আরও বানান ভুল থাকতে পারে,সময় পেলে একটু কষ্ট করে আন্ডারলাইন করে দিও  sad

"২০০২ সালে প্রতিষ্ঠিত" এই ভুল তথ্যটুকু পেয়েছিলাম বাংলা উইকিপিডিয়া থেকে  dontsee যাই হোক,বিশ্ববিদ্যালয়ের মুল ওয়েবসাইট অনুসারে ১৯৯৯ ,সেটাই দিয়ে দিলাম  roll

১৬

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

ইন্জ্ঞিনিয়ার বানানটা ভুল মনে হচ্ছে.......
ইঞ্জিনিয়ারিং  এভাবে হবে মনে হয় ।

যাইহোক.......আজ আর একজন এবং তার ভার্সিটি সম্পর্কে জানতে পারলাম । খুবই ভাল লাগল । ইন্টারভিউ খুব সুন্দর হইছে.......ছBগুলোও বেশ সুন্দর হইছে । দুইজনকেই অসংখ্য ধন্যবাদ সাথে +

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর

১৭

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

ছবি-Chhobi লিখেছেন:

ইন্জ্ঞিনিয়ার বানানটা ভুল মনে হচ্ছে.......
ইঞ্জিনিয়ারিং  এভাবে হবে মনে হয় ।

যাইহোক.......আজ আর একজন এবং তার ভার্সিটি সম্পর্কে জানতে পারলাম । খুবই ভাল লাগল । ইন্টারভিউ খুব সুন্দর হইছে.......ছBগুলোও বেশ সুন্দর হইছে । দুইজনকেই অসংখ্য ধন্যবাদ সাথে +

হাহাহা..আপু ,ইন্জ্ঞিনিয়ার এভাবেই তার প্রোফাইলে নাম দিয়ে রেখেছে,এখন আর শুদ্ধ করার কোনো উপায় নেই  tongue

যাই হোক,কাজের ব্যস্ততার মাঝে যে টপিকটুকু দেখতে পেরেছ-এটাই আমার জন্য অনেক কিছু।তোমাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।

১৮

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

আমিও চান্স পেয়েছিলাম ঐখানে, টেলিকমিউনিকেশনে hehe
ওহ, হ্যাঁ ‌- ইঞ্জিনিয়ার আমার স্কুল লাইফের বন্ধু hug

১৯

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

তারেক হাসান লিখেছেন:

আমিও চান্স পেয়েছিলাম ঐখানে, টেলিকমিউনিকেশনে hehe
ওহ, হ্যাঁ ‌- ইঞ্জিনিয়ার আমার স্কুল লাইফের বন্ধু hug

হাহাহা..তাই নাকি?তা পড়া হলো না কেন?

হুম..ইঞ্জিনিয়ার এর আসল নামটা এখানে দিয়ে দেন।আশিফ জানতে চাচ্ছিল।

২০

Re: আমি এবং আমার ক্যাম্পাস : পর্ব ২ : অতিথি: ইন্জ্ঞিনিয়ার

স্বপ্নীল লিখেছেন:

হুম..ইঞ্জিনিয়ার এর আসল নামটা এখানে দিয়ে দেন।আশিফ জানতে চাচ্ছিল।

আশিফ অলরেডী ফাঁকফোকর দিয়ে নাম জেনে ফেলেছে। আর দরকার নাই  big_smile

ছবি-Chhobi লিখেছেন:

ইন্জ্ঞিনিয়ার বানানটা ভুল মনে হচ্ছে.......
ইঞ্জিনিয়ারিং  এভাবে হবে মনে হয় ।

হুমম, আমারই দোষ। প্রথমে ঠিক বানানেই সব জায়গায় অ্যাকাউন্ট খুলেছিলাম। পরে, কেন যেন ঐ বানানটা ভুল মনে হওয়ায় সংশোধন করে ভুল বানানে চলে আসি!  hairpull hairpull hairpull

ইন্জ্ঞিনিয়ার'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত