টপিকঃ খেলা

এত দিনে যেন স্বরূপে ফিরেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। লা লিগায় রেসিং সান্তাদারের বিপক্ষে চার গোল করার পর গতকাল হারকিউলিসের বিপক্ষে করেছেন দুই গোল। তাঁর জোড়া গোলে ৩-১ গোলের জয় পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। অন্যদিকে মেসি-জাদু অব্যাহত আছে বার্সেলোনায়। গত কয়েক ম্যাচে গোল না পাওয়ার হতাশা নিয়ে সেভিয়ার বিপক্ষে মাঠে নেমে ৫-০ গোলের বিশাল ব্যবধানের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে গতবারের শিরোপা জয়ীরা।
লিগের শুরুতেই বার্সেলোনাকে তাদের নিজেদের মাঠেই ২-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছিল হারকিউলিস। গতকালও রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে খেলার শুরুতেই ফরাসি স্ট্রাইকার ডেভিড ত্রেজেগের গোলে এগিয়ে গিয়েছিল তারা। প্রথমার্ধে অনেক চেষ্টা করেও সেই গোল শোধ করতে পারেনি হোসে মরিনহোর শিষ্যরা। দ্বিতীয়ার্ধে ৫২ মিনিটে রিয়াল মাদ্রিদকে ভারমুক্ত করেন অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া। রোনালদোর পাস থেকে খেলায় সমতা ফেরান এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার। কিন্তু এরপর জয়সূচক গোলের জন্য আবারও দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়েছে বিশ্বের অন্যতম ধনী এই ক্লাবটিকে। রিয়াল মাদ্রিদ যখন পয়েন্ট ভাগাভাগি করে মাঠ ছাড়ার আশঙ্কায় দুলছে, সেই মুহূর্তেই জ্বলে উঠলেন রোনালদো। ৮২ আর ৮৬ মিনিটে হারকিউলিসের জালে দুবার বল জড়িয়ে রিয়ালের জয় নিশ্চিত করেছেন এই পর্তুগিজ স্ট্রাইকার।
রিয়াল মাদ্রিদের জয়টা কষ্টসাধ্য হলেও একেবারে অনায়াস জয় পেয়েছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা। নিজেদের মাঠে সেভিয়াকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে গতবারের শিরোপা জয়ীরা। খেলার শুরুতেই বার্সেলোনার গোল উত্সবের সূচনা করেন মেসি। ২৪ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান ডেভিড ভিয়া। প্রথমার্ধের শেষ মুহূর্তে বাজে ট্যাকলিংয়ের দায়ে লাল কার্ড দেখেন সেভিয়ার ডিফেন্ডার কনকো। দ্বিতীয়ার্ধে ১০ জনের সেভিয়ার ওপর বেশ ভালোমতোই চড়াও হন মেসি, ভিয়া, জাভি ও ইনিয়েস্তারা। ৫২ মিনিটে বার্সেলোনার পক্ষে তৃতীয় গোলটি করেন দানি আলভেজ। ৬৪ ও ৯০ মিনিটে বার্সেলোনাকে আরও দুটি গোল উপহার দেন মেসি ও ভিয়া।
ভ্যালেন্সিয়া থেকে চার কোটি ইউরোর বিনিময়ে বার্সেলোনায় এসে গোল না পাওয়ায় সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন ডেভিড ভিয়া। কিন্তু গতকাল জোড়া গোল করে সমালোচকদের মুখ কিছুদিনের জন্য হলেও বন্ধ করে দিতে পেরেছেন এই স্প্যানিশ স্ট্রাইকার। thumbs_up thumbs_up