টপিকঃ ল্যান বা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক ( LAN or Local Area Network-২

আগের পর্ব পাবেন প্রজন্ম ফোরামেসামহোয়ারইনে

পার্ট-২
আমার আগের লেখার পর থেকে। ধরে নেওয়া হচ্ছে যে আপনি তার এর কানেকশন ঠিক মতো দিতে পেরেছেন এবং আপনার পিসিতে ল্যান কার্ড ইনস্টল করা আছে। কিছু ল্যান কার্ড আপনাআপনি পেয়ে যায় মানে নিজে নিজে ইনস্টল করার দরকার হয় না। কানেকশন ঠিক মতো হয়েছে কিনা তা বোঝার সহজ উপায় হলো  একটা তারের দুই প্রান্তে কানেক্টর লাগিয়ে পাশাপাশি দুইটি পিসিতে (ল্যান কার্ডে) সংযোগ দিলে যদি দুই পিসিতে ল্যান কার্ডের আলো জ্বলে তাহলে আপাতত ধরে নেওয়া যায় তার ও সংযোগ ঠিক আছে।

নেটওয়ার্ক কানেকশন তৈরি করাঃ
এজন্য আপনাকে My Network Place এ যেতে হবে। কয়েক ভাবে যাওয়া যায়।
১।স্টার্ট মেনু->মাই নেটওয়ার্ক প্লেসেস (Start-> My Network Places)
২।মাই কম্পিউটারে ঢুকুন , এরপর বাম পাশের প্যানেলে দেখতে পাবেন Other Places, এর নীচে মাই নেটওয়ার্ক প্লেসেস ।
৩.কন্ট্রোল প্যানেলে গিয়ে  Classic   view এ থাকলে Network Connections.
যে কোন একটি উপায়ে আপনি আশা করি মাই নেটওয়ার্ক  প্লেসে যেতে পারবেন। এখন নতুন একটি নেটওয়ার্ক কানেকশন বানানো প্রয়োজন।  My Network Places এর মেনু তে আপনি Create a new connection  এ পাবেন এবং ক্লিক করুন। New connection wizard নামে একটা ইউন্ডো আসবে। Next বাটনে ক্লিক করুন। এখন চারটা অপশন আসবে। আপনি তৃতীয়টি (Setup a home or small office network)সিলেক্ট করুন এবং Next ক্লিক করুন। এরপরের উইন্ডোতে Finish ক্লিক করুন। ব্যাস একটা নেটওয়ার্ক কানেকশন তৈরি হয়ে গেলো। সাথে সাথে নেটওয়ার্ক সেটআপ ইউজার্ড(Network setup wizard)  চলে আসবে। ক্লিক Next এবং এরপর  তিনটা অপশন আসবে। শেষেরটা (Other) সিলেক্ট করুন এবং Next চাপুন। এখন আবার তিনটা অপশন নিয়ে পরবর্তী উইন্ডো আসবে। এখানেও শেষেরটা(This computer belongs to a network  that does not have an Internet connection). আপনার পিসিতে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চাইলে মানে ব্রাড ব্যান্ড লাইন ব্যবহার করতে চাইলেও এই অপশনটিই সিলেক্ট করুন এবং Next চাপুন। এখন যে উইন্ডো আসবে সেখানে কম্পিউটার ডেসক্রিপশন ও কম্পিউটার নেম লেখার জন্য দুইটি আলাদা টেক্স ফিল্ড থাকবে। কম্পিউটার নেম হিসাবে কিছু লিখুন এবং কিছু নাম দেওয়া বাধ্যতামুলক। তবে ডেস্ক্রিপশন কিছু না দিলেও চলে।পরবর্তীতে আপনার নেটওয়ার্কের অন্য পিসি থেকে আপনার কম্পিউটার নেম দিয়ে খুঁজে বের করা যাবে। অন্য উপায় ও আছে পরে বলছি( আই পি এড্রেস দিয়ে)। এখন Next চাপলে work group নামে একটা ফিল্ড আসে। Work group  ডিফল্ট থাকে MSHOME । এটা রাখলেও চলে তবে নিজের ইচ্ছা মতো দেওয়া উচিৎ। Work group  এর আলাদা উপকারীতা আছে আর তা হলো একই workgroup এর পিসি গুলো এক সাথে খুঁজে পাওয়া যায়। এটা অনেক বড় নেটওয়ার্কের জন্য খুবই উপকারী। যেমন ধরুন আপনার অপিসে ৪০ টা কম্পিউটার নেটওয়ার্কে আছে। তবে তার ভেতর ১০,৩০,৫ ,৫ ভিন্ন ভিন্ন কাজে ব্যবহার হয়।তাহলে একই কাজের পিসি গুলোতে একই workgroup এর নাম দিতে হবে। যেমন আমি যে হলে থাকি সেখানে হলের উত্তর আর পশ্চিম এর পিসি গুলো আলাদা করার জন্য আমরা নাম workgroup এর নাম দিতাম AH এবং NH । ধরে নেওয়া আপনি আপনার সুবিধা মতো কোন নাম দিয়েছেন। Next বাটন চাপলে এবার যে উইন্ডো আসবে তাতে দুইটা অপশন থাকে যার একটা ফাইল শেয়ারিং অন রাখার জন্য অন্যটা অফ রাখার জন্য। এক্ষেত্রে যেহেতু ল্যানটাকে ফাইল শেয়ারিং এর জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে তাই Turn on file and printer sharing এটা সিলেক্ট করুন। পরবর্তীতে এই উইজার্ড চালিয়ে আপনি যে কোন অপশন নতুন করে সেট করে নিতে পারবেন।  এখন Next  দুইবার চাপুন এবং শেষ উইন্ডো তে চারটা অপশন আসে যেখানে শেষেরটা সিলেক্ট করতে হবে অর্থাৎ Just finish… এবং Next চাপুন এবং Finish  চাপুন।

এতও সময় যা করা হলো তা হলো আপনার পিসিতে একটা নেটওয়ার্ক কানেকশন তৈরী করা হয়েছে এবং নেটওয়ার্কে যেন আপনি ফাইল শেয়ারিং করতে পারেন সেগুলো কনফিগার করা। একটু খেয়াল করলে দেখতে পারবেন আপনার নেটওয়ার্ক প্লেসে একটা আইকন চলে এসেছে যেখানে লেখা আছে Local Area Connection  এবং উপরে লেখা LAN or high Speed Internet . যদি খঁজে না পান ভয় নাই। এই লেখার প্রথম দিকে কিভাবে মাই নেটওয়ার্ক প্লেসে যেতে হবে সেটা বলে দেওয়া আছে। মাই নেটওয়ার্ক প্লেসে গিয়ে যেখান থেকে Create a new connection পেয়েছিলেন সেখার এর নিচে  View Network Connection পাবেন। ওটাতে ক্লিক করতে Local Area Connection   লেখা একটা আইকন চলে আসবে যদি আগের সব কিছু ঠিক মতো করা হয়ে থাকে। এখানেই থাকুন ,কারন আইনি নিয়ে কিছু আলোচনা করে আবার এইখানে ফিরে আসবো।
************* এখানে আবার ফিরে আসা হবে।
এখন শুধুমাত্র আইপি আসাইন করা বাকি। এরপরেই আপনি একটা পিসি থেকে অন্য পিসিতে ফাইল, মেসেজ আদান প্রদান করতে পারবেন। যে সকল পিসি নেটওয়ার্কে থাকবে সব গুলোতে একই ভাবে উপরের জিনিস গুলো সেট আপ করতে হবে।

আইপি এড্রেস আসাইনঃ
আইপি নিয়ে আলোচনা করলে সারাদিন লিখেও শেষ করতে পারবো না। তবে ল্যান সেট আপের জন্য যা দরকার তা এখানে আলোচনা করবো। আইপি হলো ইন্টারনেট প্রটোকল। প্রটোকলের অর্থ হলো কিছু  পূর্ব নির্ধারিত নিয়ম কানুন। আমি এটা নিয়ে কঠিনের দিকে যেতে চাই না। তবে সাধারনত IPV4 ব্যবহার করা হয়।  আইপি ও সাবনেটিং নিয়ে আমি আশা করি অন্য একটা পোস্ট করবো। সেখান থেকে অথবা নিজে বুঝে আপনি পরবর্তীতে আইপি সেটিং অতি সহজে পরিবর্তন করতে পারবেন।
এখন আসুন উপরে **** দেওয়া জায়গায় ফিরে যায়। Local Area Connection   এ রাইট ক্লিক করে Properties  সিলেক্ট করুন। যে উইন্ডো আসবে সেটা General  ট্যাব। এখন এর নিচের দিকে Show icon …(Taskbar এ কানেকশন আইকন প্রদর্শন করার জন্য)  এবং Notify me… এই দুইটা ঠিক দিয়ে দিন। এরপর এই উইন্ডোর মাঝের দিকে খেয়াল করুন দেখবেন লেখা আছে
Client for Microsoft network
File and printer sharing…
Qos packet…
Internet protocol (TCP/IP)
আপনি শেষেরটা Internet protocol (TCP/IP) সিলেক্ট করা অবস্থায় Properties.  অনেক দূর আগিয়ে গেছেন ।আর একটু...। ডিফল্ট থাকে Obtain ip automatically । নিজেদের ইচ্ছা মতো আইপি আসাইন করা জন্য পরের অপশনে(Use the following address..) ক্লিক করুনএখানে আইপি ,সাবনেট মাস্ক ও গেটওয়ে লেখার জায়গা আছে। এখন 
IP address :10.1.1.*
Subnet mask: 255.0.0.0

ভাবছেন * কেনো লিখলাম  বা এতো কিছু থাকতে 10.1.1 এইভাবে কেনো লিখলাম। আসলে এটা বুঝাতে গেলে আরো অনেক কিছু লিখতে হবে। তবে * এর জায়গায় ১-২৫৫ পর্যন্ত যে কোন সংখ্যা দিয়ে পারেন তবে এক বার কোন পিসিতে একটা নাম্বার আসাইন করা হলে সেটা আর অন্য পিসিতে ব্যবহার করা যাবে না। আইপি আরো অনেক ধরনের হতে পারে , সেদিকে আমি যাচ্ছি না। আপাতত কাজ চালানোর মতো এটা ভালো ভাবেই চলবে।
যেমন পিসি-1 এর আইপি এড্রেস 10.1.1.1, পিসি-2 এর আইপি এড্রেস 10.1.1.2  এই কনভেননশন ফলো করা যেতে পারে যেখানে পিসি-1,পিসি-2  হলো এক একটা পিসির নাম । এখন Ok  করুন। আমি xp service pack -2 দেখে দেখে লিখছি তবে অন্যান্য ভার্সনে মোটামুটি প্রায় সবই একই। বুঝতে মনে হয় কষ্ট হবে না। যদি ফায়ারওয়াল অফ করতে চান তাহলে এডভান্স ট্যাবে গিয়ে সেটিং থেকে অফ করে দিন। সব শেষে ওকে করুন। ব্যাস হয়ে গেলো ল্যান এর সফটওয়্যার পার্ট এর কনফিগারেশন। একটা কথা বলে রাখি যদি বুঝতে কোথাও অসুবিধা হয় তো হতাশ হবেন না, একটু ঘাটাঘাটি করলে আমি এতোখন যেসব জায়গা থেকে ঘুরিয়ে আনলাম আপনি নিজেই সেই গুলো করতে পারবেন। আপনি যদি এতোখন খেয়াল করে থাকেন তো দেখবেন টাস্কবার (নিচের দিকের বারটাকে বলে ,যেখানে স্টার্ট মেনু থাকে, হা হা হা) এ নেটওয়ার্ক এর একটা আইকন চলে আসছে যদি তারের কানেকশন ঠিক থাকে। উপরের মতো করে কমপক্ষে একটা হাব থেকে ২টা পিসি অথবা এটা পিসি নিজেদের ভেতর কানেক্ট করে কনফিগার করে দেখুন আগে। এখন কাজগুলো যে ঠিক মতো হয়েছে তা কিভাবে বুঝবেন। যদি এক পিসি থেকে অন্য পিসিতে ডাটা বা ফাইল পত্র পাঠাতে পারেন তাহলে তো নিশ্চিত হবেন নিশ্চয়। তার আগে আসুন টেস্ট করে দেখি কানেকশন ঠিক আছে কি না।

ধরি এক পিসিতে বসে আপনি অন্য পিসি একটিভলি ল্যানে আছে কিনা তা টেস্ট করবেন এবং অন্য ঐ পিসিটার আইপি হলো 10.1.1.22 . । আমরা একটা কমান্ড রান থেকে অথবা কমান্ড প্রম্পট (Command prompt)  থেকে চালিয়ে টেস্টটা করবো।
Start-> run টাইপ করুন ping<space> ip address<space> -t
ping 10.1.1.22 –t অথবা ping 10.1.1.22 অথবা  ping  pcname (ping pc1 –t  বা  ping  pc1 )

এখানে –t না দিলেও হবে। -t দিলে বার বার পিং করে আর চেক করে। রান থেকে cmd লিখে সহজে command prompt এ যেতে পারেন এবং সেখানে ও একই কমান্ড চালাতে পারেন।
যে পিসি পিং করছেন তা যদি নেটওয়ার্কে থাকে তাহলে আপনি পিং রেপ্লাই পাবেন। লেখা যা আসে তা এই রকমঃ
ping 10.1.1.22  –t

Pinging 10.1.1.22 with 32 bytes of data:

Reply from 10.1.1.22: bytes=32 time=16ms TTL=64
Reply from 10.1.1.22: bytes=32 time=26ms TTL=64
Reply from 10.1.1.22: bytes=32 time=37ms TTL=64

যদি –t দেন তো বার বার এমন Reply from 10.1.1.22: bytes=32 time=37ms TTL=64 লেখা আসে। আর না হলে চার বার আসে। এরপর ctrl+c চাপলে অথবা –t  না দিলে চারবার রিপোর্ট দেখানোর পর নিচের মতো লেখা আসবেঃ
Ping statistics for 10.1.1.1:
    Packets: Sent = 3, Received = 3, Lost = 0 (0% loss),
Approximate round trip times in milli-seconds:
    Minimum = 16ms, Maximum = 37ms, Average = 26ms

আর যদি কানেকশন ঠিক না থাকে তাহলে Reply from 10.1.1.22: bytes=32 time=37ms TTL=64 এটা  না এসে আসবে Request  timeout.

ল্যান ব্রাউজ করাঃ
এই কাজটা অনেক ভাবে করা যায়ঃ
১।রানে গিয়ে আইপি অথবা কম্পিউটার নেম টাইপ করে ( \\10.1.1.22   অথবা \\pc1)
২.My computer এর এড্রেস বারে ১নং এর কমান্ড লিখে।
৩। মাই নেটওয়ার্ক প্লেসে গিয়ে View worlgroup computers ক্লিক করে নিজের workgroup এর পিসি গুলো চলে আসে। অনেক সময় এটা আসরে টাইম নেই। একবার রিস্টার্ট করলে ঠিক হয়ে যায়।
৪।ল্যান স্কানার জাতীয় সফটওয়্যার ব্যবহার করে। নেটে সার্চ করলে এমন হাজার হাজার সফটওয়্যার পাবেন।আমার নিজের বানানো একটা আছে যার কাজ সম্পূর্ন শেষ হলে আপনাদের মাঝে প্রকাশ করবো আশা করি।
ফাইল শেয়ার দেওয়াঃ
My computer  এ ঢুকে এক মেনু বার থেকে  Tool-> Folder option->view   এর পর একদম নিচের দিকে দেখবেন Simple file sharing ….এই অপশনটি তুলে দিন। এখন ওকে করে বের হয়ে আসুন। এখন যে  ফোল্ডার অন্যদের সাথে শেয়ার করতে চান তার উপর রাইট ক্লিক করে  মেনু থেকে শেয়ারিং এন্ড সিকিউরিটি তে ক্লিক করুন। এরপর Share this folder সিলেক্ট করুন। এখন আপনার ইচ্চা মতো শেয়ার নেম,ডেসক্রিপশন,লিমিটেশন,পারমিশন এই গুলো দিয়ে ওকে করুন। দুই তিন দিন ল্যান ব্যবহার করলে আপনি এই গুলোর বস হয়ে যাবেন। তখন নিজে থেকে অনেক কিচু বের করে ফেলতে পারবেন। অন্য কোন পিসি থেকে কেউ এখন আপনার পিসিতে ঢুকলে আপনার শেয়ারকৃত ফোল্ডার সমূহ দেখতে ,কপি করতে পারবে।

আজকের লেখা এই পর্যন্ত। আগামীতে সময় পেলে পরের পর্ব নিয়ে আসবো। আসলে যে জিনিস গুলো ভিসুয়ালি দেখানো উচিৎ তা আমি লিখে প্রকাশ করার চেস্টা করেছি।কারন ছবি দিয়ে বোঝাতে গেলে অনেক ছবি দেওয়া প্রয়োজন  যা এখন দিতে পারছি না।তবে আগামিতে ছবি এড করার চিন্তা করবো। আমি আশা করি আপনি যদি একটু ক্রজি হন তাহলে পড়ে পড়েই পেরে যাবেন । সময় পেলেই পরের পর্ব নিয়ে লিখবো।



বিঃদ্রঃ ভুল ভ্রান্তি যদি কেউ পান তাহলে ঠিক করে দেওয়ার চেস্টা করলে ভালো হবে। কারন লেখার পর আবার পড়ে দেখার মতো সময় হয়না।

Re: ল্যান বা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক ( LAN or Local Area Network-২

মাঞ্চু, ধন্যবাদ। পুরোটাই পড়লাম।

আপনি উইন্ডোজে ল্যান এক্টিভেট করা নিয়ে লিখেছেন। আপনার এ পর্বটি আমি লিনাক্সে করা নিয়ে লিখব। কারণ আগের পর্ব (যদিও পড়ে দেখিনি) মনে হয় একই।

আর আইপি উপর লেখার অপেক্ষায়।

[img]http://twitstamp.com/thehungrycoder/standard.png[/img]
what to do?

Re: ল্যান বা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক ( LAN or Local Area Network-২

ধন্যবাদ কোডার কষ্ট করে পড়ার জন্য।

Re: ল্যান বা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক ( LAN or Local Area Network-২

জটিল হইছে @ মানচূ(y)

তয়, গুরু, আপনার নামটাও এক্কেরে জটিল।

Re: ল্যান বা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক ( LAN or Local Area Network-২

মানচুমাহারা লিখেছেন:

ধন্যবাদ কোডার কষ্ট করে পড়ার জন্য।

ধন্যবাদ...। অনেক উপকার পেলাম

Re: ল্যান বা লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক ( LAN or Local Area Network-২

মান্চু, ধন্যবাদ বাংলায় এমন প্রয়াসের জন্য। খুবই দরকারী একটা টিউটোরিয়াল।

এডমিন:
মান্চুর আগের একটি আবেদন আবার উথ্থাপন করছি,ফোরামে ড্রাফ্ট সেভ অপশন থাকলে ভালো হত। এরকম লেখা লিখতে নিশ্চই খুব দরকার এই অপশন।

“All our dreams can come true if we have the courage to pursue them.” - Walt Disney
http://www.amanpages.com/