টপিকঃ পাহাড়ের উপরে শহর

পাহাড়ের উপরে শহরঃ

      খুব সকালে ঘুম থেকে উঠে গোছগাছ আরম্ভ করলাম। আজ আমাকে যেতে হবে অচেনা অজানা এক শহরে। আমি যে কোম্পানিতে কাজ নিয়েছি সে কোম্পানির একটা ফাইভ স্টার হোটেল আছে তায়েফে। আমাকে মক্কা থেকে তায়েফে বদলি করা হয়েছে। সৌদি আরব এসেছি প্রায় তিন মাস হয়েছে। চাকরিটা স্থায়ী না। এ কোম্পানির সাথে আমার ছয় মাসের কাজের চুক্তি হয়েছে। join করেছি গত মাস খানেক আগে। আমার সাথে আমার সহকর্মী আরো দশজনকে বদলী করা হয়েছে।
    ২০/০১/২০০৩ ইং- সকাল ৭.৩০ মিনিটে কোম্পানির মাইক্রোবাস গেটের সামনে এসে হর্ন বাজালো। আমরা যে যার ব্যাগ নিয়ে গাড়িতে উঠে বসলাম। Head Office থেকে বেরোতে আমাদের সকাল ৯ টার মত বেজে গেল। ডানে মরুভুমি আর বামে মীনা, মুজদালিফা আর আরাফাত পেছনে ফেলে গাড়ী সামনের দিকে এগিয়ে গেল। ২০ মিনিট গাড়ী চলার পর সামনে বিশাল একটা পাহাড় আমাদের নজরে পড়লো। দুর থেকে মনে হল আমাদের যাবার রাস্তাটা পাহাড় পযর্ন্ত গিয়ে শেষ হয়ে গেছে। মনে নানা রকম প্রশ্ন এসে জড়ো হতে লাগলো। অবশেষে মনে মনে এটা conform হলাম যে পাহাড়ের ওপাশে যাওয়ার জন্য নিশ্চই সুড়ঙ্গো পথ আছে।
    অবশেষে সব কৌতুহল পিছনে ফেলে আমাদের গাড়ী পাহাড়ে উঠা আরম্ভ করলো। খুব সরু রাস্তা। কোন মতে একটা গাড়ী যেতে আর একটা গাড়ী আসতে পারে। অভারটেক করার কোন অবকাশ নেই। দুর্ঘটনা এড়ানোর জন্য এখানকার সড়ক ও জনপথ বিভাগ রাস্তার পাশে সবর্চ্চ গতিসীমা বেধে দিয়েছে। কোথাও ৩০ কিঃ মিঃ কোথাও ৪০ কিঃ মিঃ। আমাদের গাড়ী সে মোতাবেগ চলতে লাগলো। গাড়ীর পিছে গাড়ী আর গাড়ীর পিছে গাড়ী দুর থেকে দেখলে মনে হবে পিপড়ের সারি। এরকম Gurney তে আমি একেবারেই নতুন। তাই খুন ভয় লাগছিল। মনে মনে দোয়া- কলমা পড়তে লাগলাম।
      পাহাড়ের একটু উপরে উঠেই ঠান্ডা অনুভব করলাম। মক্কা থাকতেই শুনেছিলাম তায়েফে খুব ঠান্ডা তাই প্রয়োজনীয় কাপড় সঙ্গে নিয়ে এসেছিলাম। কৌতুহল বশত গাড়ীর জানালা দিয়ে নিচের দিকে তাকালাম এবং বুজতে পারলাম আমরা কত উপরে আছি। নিচের বড় বড় বাড়ীগুলো আমার কাছে নিছক পাখির বাসা বলে মনে হল। আমরা প্রায় উপরে উঠে গেছি। এখানেই আমাদের চোঁখে পড়লো মনে রাখার মত একটা দৃশ্য। আর সেটা হলো, পাহাড়ের শত শত বানর এখানে এসে ভিড় করেছে। কয়েকটা বানর আমাদের গাড়ীর পাশে চলে এলো। আমি বাদামের প্যাকেটটা বাইরে বের করতেই হাত থেকে প্যাকেটটা নিয়ে নিল। কোন প্রকার বন্যতা তাদের ভিতর দেখলাম না।
      এখান থেকে প্রায় ২০ মিটার সামনে যেয়ে আমরা একটা ফাইভ স্টার হোটেল দেখতে পেলাম। এবং সেখানেই আমাদের গাড়ী পার্ক করলো। অথার্ত পাহাড় থেকে নামার যে কৌতুহলটা মনের মধ্যে কাজ করছিল সেটা মাটি হয়ে গেলো। পরে জানলাম তায়েফ শহরটাই এই বিশাল পাহাড়টার উপর। পুরো ঘটনাটাই আমার কাছে ছিল একটা Adventure । এই শহরেই কাটিয়ে দিলাম আমার প্রবাস জীবনের ১১ টি মাস।
  এস এম শাহানুর রহমান।

Allah is a better planner... so whenever u'r plan fails, cheer up... Allah has a better plan for you

Re: পাহাড়ের উপরে শহর

ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য।

Re: পাহাড়ের উপরে শহর

ধন্যবাদ ।  smile
পাহাড়ের উপরে শহর। দারুন। dream

নিজের অধিকার আদায় করে নিতে হয়

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

Re: পাহাড়ের উপরে শহর

দারুন!!!

আমি মূর্খ!!!