সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন শিপলু (২১-০৩-২০১০ ১৮:৪৯)

টপিকঃ "ভুত"

{লোকগাঁথা, লোকজ বিশ্বাস অনুযায়ী, আপনার বিশ্বাস করার কোনো প্রয়োজন নেই। কারণ পৃথিবীতে ভুত বলে কিছু নেই। এটা একটি আজাইরা টপিক, সিরিয়াস যারা পড়েবেন না প্লিস।}

ভুত-পেত্নী পরিচিতি
ভুত-পেত্নী: ভুত হলো অশরীরি পুরুষ আত্মা, আর পেত্নী অশরীরি মেয়ে আত্মা। অপঘাত, আত্মহত্যা প্রভৃতি কারণে মৃত্যুর পর মানুষের অতৃপ্ত আত্মা ভুত-পেত্নী হয়ে পৃথিবীতে বিচরণ করতে পারে।

শাকচুন্নি: এটি একটি পেত্নী। অল্পবয়সী, বিবাহিত মেয়ে অপঘাতে মারা গেলে শাকচুন্নিতে পরিণত হতে পারে। শুভ্র কাপড় পরিহিত শাকচুন্নি মূলত জলাভূমির ধারে গাছে বাস করে এবং সুন্দর তরুণ দেখলে তাকে আকৃষ্ট করে ফাঁদে ফেলে। কখনো কখনো সে তরুণকে জলাভূমি থেকে মাছ ধরে দিতে বলে। কিন্তু সাবধান, শাকচুন্নিকে মাছ দেয়া মানে নিজের আত্মা তার হাতে সমর্পণ করা!

চোরাচুন্নি: দুষ্ট ভুত, কোনো চোর মারা গেলে চোরাচুন্নি হতে পারে। পূর্ণিমা রাতে এরা বের হয় এবং মানুষের বাড়িতে ঢুকে পড়ে অনিষ্ট সাধন করে। বাড়িতে এদের অনুপ্রবেশ ঠেকানোর জন্য গঙ্গাজলের ব্যবস্থা আছে।

মেছোভুত: মাছলোভী ভুত। বাজার থেকে কেউ মাছ কিনে গাঁয়ের রাস্তা দিয়ে ফিরলে এটি তার পিছু নেয় এবং নির্জন বাঁশঝাঁড়ে বা বিলের ধারে ভয় দেখিয়ে আক্রমণ করে মাছ ছিনিয়ে নেয়।

পেঁচাপেঁচি: দেখতে পেঁচার মত এবং জোড়া ভুত—একটি ছেলে, অন্যটি মেয়ে। গভীর জঙ্গলে মানুষ প্রবেশ করলে এরা পিছু নেয় এবং সুযোগ বুঝে তাকে মেরে ফেলে।

মামদো ভুত: হিন্দু বিশ্বাস মতে, এটি মুসলমান আত্মা।

ব্রহ্মদৈত্য: ব্রাহ্মণের আত্মা, সাদা ধুতি পরিহিত অবস্থায় দেখা যায়। এরা সাধারণত পবিত্র ভুত হিসেবে বিবেচিত। বলা হয়ে থাকে, কোনো ব্রাহ্মণ অপঘাতে মারা গেলে সে ব্রহ্মদৈত্য হয়। এছাড়া পৈতাবিহীন অবস্থায় কোনো ব্রাহ্মণ মারা গেলেও ব্রহ্মদৈত্য হতে পারে। এরা কারো প্রতি খুশি হয়ে আশির্বাদ করলে তার অভীষ্ট লক্ষ্য অর্জিত হয়, কিন্তু কারো প্রতি নাখোশ হলে তার সমূহ বিপদ। দেবদারু গাছ কিংবা বাড়ির খোলা চত্বরে বাস করে।

স্কন্ধকাটা বা কন্ধকাটা: মাথাবিহীন ভুত। অত্যন্ত ভয়ংকর এই ভুত মানুষের উপস্থিতি টের পেলে তাকে মেরে ফেলে। কোনো দুর্ঘটনায়, যেমন রেলে কারো মাথা কাটা গেলে, সে স্কন্ধকাটা হতে পারে। ভয়ংকর হলেও, মাথা না থাকার কারণে স্কন্ধকাটাকে সহজেই বিভ্রান্ত করা যায়।

আলেয়া: জলাভূমির গ্যাসীয় ভুত। এরা জেলেদেরকে বিভ্রান্ত করে, জাল চুরি করে তাদের ডুবিয়ে মারে। কখনো কখনো অবশ্য এরা জেলেদেরকে সমূহ বিপদের ব্যাপারে সতর্ক করে থাকে।

নিশি: খুব ভয়ংকর ভুত। অন্যান্য ভুত সাধারণত নির্জন এলাকায় মানুষকে একা পেলে আক্রমণ করে, কিন্তু নিশি গভীর রাতে মানুষের নাম ধরে ডাকে। নিশির ডাকে সারা দিয়ে মানুষ সম্মোহিত হয়ে ঘরের দরজা খুলে বেরিয়ে পড়ে, আর কখনো ফিরে না। কিছু কিছু তান্ত্রিক অন্যের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেয়ার জন্য নিশি পুষে থাকে।

কানাখোলা: গভীর নির্জন চরাচরে মানুষকে পেলে তার গন্তব্য ভুলিয়ে দিয়ে ঘোরের মধ্যে ফেলে দেয় এই ভুত। মানুষটি তখন পথ হারিয়ে বার বার একই জায়গায় ফিরে আসে, এবং এক সময় ক্লান্ত হয়ে মারা যেতে পারে।

কাঁদরা-মা: অনেকটা নিশির মত এই ভুত গ্রামের পাশে জঙ্গলে বসে করুণ সুরে বিলাপ করতে থাকে। কান্নার সুর শুনে কেউ সাহায্য করতে এগিয়ে গেলে তাকে ইনিয়ে বিনিয়ে গল্প বানিয়ে জঙ্গলের আরো গভীরে নিয়ে মেরে ফেলে। ছোট বাচ্চারা এর কান্নায় বেশি আকৃষ্ট হয়।

ভুত কোথায় থাকে: শেওড়া, দেবদারু, বেল, অশ্বত্থ প্রভৃতি গাছে একটি দুটি ভুতের দেখা পেতে পারেন। কিন্তু বেশি সংখ্যায় ভুত দর্শনের অভিলাষ থাকলে, আপনাকে যেতে হবে বিজন বনে, তেপান্তরের মাঠে, কিংবা ভূষণ্ডির মাঠে।

ভুতের গল্প বলার উপযুক্ত সময়: কেউ অনুরোধ করলেই সাথে সাথে ভুতের গল্প বলতে বসে যাবেন না যেন। সব কিছুরই একটা তরিকা আছে। ভুতের গল্প বলতে হয় মজলিসে, আর গল্পের উপযুক্ত সময় হচ্ছে রাতের বেলা, বিশেষ করে বাদল ধারার রাতে। ঝমঝম বৃষ্টির ফোঁটা পড়বে টিনের চালে বা ছাদে, জানালা থাকবে হাট করে খোলা, হালকা বৃষ্টির ছাঁট আসবে ঘরে। তীব্র কোনো আলো রাখা চলবে না, কেবল একটু দূরে হারিকেন, কুপি বা মোমের মৃদু আলো মিটমিট করে জ্বলতে পারে।

ভুতের গল্পের বর্ণনা মাধ্যম: ভুতের গল্প উত্তম পুরুষে, অর্থাৎ নিজের জবানিতে বলাই ভালো, তাতে গল্পে অনুভূতির ব্যঞ্জনা তীব্র হয় এবং গা ছমছম ভাবটা প্রকট করা যায়। ভুতের গল্পে স্বভাবতই কাউকে না কাউকে ভুতের পাল্লায় পড়তে হবে, সেটি বর্ণনাকারী নিজেই হতে পারেন।

ভুতের গল্প একটানে বলতে নেই, কিছুটা ভয়ের জায়গায় এসে গল্প থামিয়ে দিয়ে সময় ক্ষেপণ করতে হবে, যাতে অন্যরা অনুরোধ করে গল্প চালিয়ে যেতে। যেমন বলা যায়, "বিজন জঙ্গলে ঘুরতে ঘুরতে হঠাৎ এক জায়গায় দেখলাম কী..! আচ্ছা, আজ থাক, ঘুম পাচ্ছে, বাকিটা আরেক দিন বলব।"

কিন্তু গল্পের যে অংশগুলি বেশি ভয়ের, বিশেষ করে চূড়ান্ত অংশ, সেখানে না থেমে খুব দ্রুত, জোরে জোরে হঠাৎ বলে ফেলতে হবে। যেমন: "...একথা শুনে লোকটা বলল, আচ্ছা, দেখেন তো এরকম কিনা [নরম স্বরে বলতে হবে] ঘুরতেই দেখি, লোকটার পায়ের কাপড় একটু উপরে, পায়ের পাতা উল্টানো [একটু জোরে], পায়ের আঙ্গুলে কোনো ফাঁক নেই [আরো জোরে], একদম হাঁসের পায়ের মত দেখতে [আরো জোরে বলতে হবে এবং এই দেখো, বলে হঠাৎ গল্পকার নিজের পা দেখিয়ে দেবেন]।

ভুত-পেত্নী দশার অবসান:
ভুত-পেত্নী অতৃপ্ত আত্মা, পৃথিবীর মায়ায় ইতঃস্তত ছুটে বেড়ায়। তাদের জীবন ক্লান্তিকর ভারবহ উদ্দেশ্যহীন, তাই কেউ ভুত-পেত্নীর আত্মা মুক্ত করলে তারা খুশি হয়। আত্মা মুক্ত করার একটি কার্যকর উপায় হলো গয়ায় গিয়ে ভুতের নামে পিণ্ডি দেয়া।

সূত্রঃ প্রথম-আলো-ব্লগ

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: "ভুত"

হুম ভাল লাগলো।

নিশি: খুব ভয়ংকর ভুত। অন্যান্য ভুত সাধারণত নির্জন এলাকায় মানুষকে একা পেলে আক্রমণ করে, কিন্তু নিশি গভীর রাতে মানুষের নাম ধরে ডাকে। নিশির ডাকে সারা দিয়ে মানুষ সম্মোহিত হয়ে ঘরের দরজা খুলে বেরিয়ে পড়ে, আর কখনো ফিরে না। কিছু কিছু তান্ত্রিক অন্যের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেয়ার জন্য নিশি পুষে থাকে।

এটা পড়ে নিলয়-নিশির কথা মনে পড়ল। জটিল কাপল ছিল।

সারিম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-nd 3. এর অধীনে প্রকাশিত

Re: "ভুত"

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ এই মজাদার একটা পোষ্ট এর জন্য।
thumbs_upধন্যবাদ thumbs_up

আমাদের দেশের সকল রাজনীতিবিদদের প্রতি আকুল আবেদনঃ- "আপনারা আপনাদের পরিবারকে যতটুকু ভালবাসেন,জনগনের টাকাকে যতটুকু ভালবাসেন তার চেয়েও কিঞ্চিত পরিমান কম হলেও এই দেশটাকে ভালবাসুন।দেশের মানুষদের ভালবাসুন।দেখবেন সব কিছু ঠিক হয়ে গেছে"।

Re: "ভুত"

ভালো পোস্ট। মজা পাইলাম

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন dhoom_khan (২১-০৩-২০১০ ০১:১৯)

Re: "ভুত"

ধন্যবাদ ভাই সাবধান করার জন্য clap clap clap clap

মনটা আগুনে জলতেছে কি করব । ব্যান ব্যান

Re: "ভুত"

বিশ্বাস করি না কিন্তু তবুও কেন যেন গা শির শির করছে।  tongue_smile  dontsee nailbiting

চমৎকার পোস্ট!

রেপু দেয়ার আগে তাই জিজ্ঞেস করতে চাই তথ্য সূত্র!

[img]http://twitstamp.com/thehungrycoder/standard.png[/img]
what to do?

Re: "ভুত"

চমতকার... রেপু দেয়ার যোগ্য

এক জীবনই সম্পূর্ন নয়।..

My e-mail address

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ফায়ারফক্স (২০-০৩-২০১০ ১৪:২৬)

Re: "ভুত"

চুরি করা লেখা।

http://ghostpedia.blogspot.com/2009_12_01_archive.html

Re: "ভুত"

ফায়ারফক্স লিখেছেন:

চুরি করা লেখা।

http://ghostpedia.blogspot.com/2009_12_01_archive.html


খুবই দুঃখজনক। আমি উনাকে আগেও কয়েকবার অনুরোধ করেছিলাম সূত্রসহ লেখা দিতে। কিন্তু তিনি দেননি।

[img]http://twitstamp.com/thehungrycoder/standard.png[/img]
what to do?

১০

Re: "ভুত"

চোর বলা ঠিক নয়। কারন

qshohenq লিখেছেন:

সূত্রঃ অনেক দিন আগে নেট থেকে পেয়েছিলাম।

সারিম'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc-sa 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১১

Re: "ভুত"

বাহ! পড়ে বেশ মজাই লাগলো। ধন্যবাদ কিউএস ভাইকে। চোর বলার কী আছে? উনার মনে নেই সেটা তো বলেইছেন।
অ.ট.
ভূত ব্যাপারটা কেমন গোলমেলে...যদি নাই থাকবে তাহলে যুগে যুগে গল্প-গাথায় কেন এদের এত সদর্প উপস্থিতি!!
মানুষ আসলে অন্ধকার কে আদি থেকেই ভয় পেয়ে আসছে। কেন ভয় পেয়ে আসছে সেটাও ভাবার বিষয়। জগতের সব কিছুই নাকি জোড়া জোড়া ঘটে থাকে; আলো-অন্ধকার, ভালো-মন্দ ইত্যাদি। তবে দৃশ্যমান চেতনার সাথে অদৃশ্যমান চেতনার সহাবস্থান খুব অসম্ভব কি??

কিছু বাধা অ-পেরোনোই থাক
তৃষ্ণা হয়ে থাক কান্না-গভীর ঘুমে মাখা।

উদাসীন'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি CC by-nc 3.0 এর অধীনে প্রকাশিত

১২

Re: "ভুত"

@ উদাসীন ভাই  এতটা উদাসিন হলে চল্বে না। আপনি সমন্বয়ক।

তার ঘিলু এত ভাল যে অনেক দিন আগে পড়ছে কিন্তু সেই ওয়েব সাইডের নাম মনে নাই কিন্তু যেটা পড়ছে সেটা দড়ি কমা সহ মনে আছে!!!!!

হাস্যকর যুক্তি। তিনি নিজের যদি একটা লাইনও যোগ করতেন এই অভিযোগ আমি করতাম না।

১৩

Re: "ভুত"

উনি তো বলেইছেন লেখাটা ওনার না, নেট থেকে পাওয়া। তাই ওনাকে চোর বলছেন কোন হিসেবে?  thumbs_down

১৪

Re: "ভুত"

প্রথমেই ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি "ভুত" পোষ্ট করে ভুতের মত হাওয়া হয়ে যাওয়ার জন্য।
যত অভিযোগ ততো খন্ডন। আমার অজানতেই আমার পক্ষে অনেকেই কথা বলছেন দেখে ভালোলাগলো খুব। আমি জানি শুধু আমার পক্ষেই নয়, আপনারা আপনাদের বিবেক ও বিবেচনা অনুযায়ী সকলের পক্ষেই কথা বলবেন। আর যারা অভিযোগ করেছেন তাদেরেটাও ঠিক। কারণ জবাবদিহীতা সবকিছুরই গতি আনায়ন করে।
এবার আমি আমার দুটি কথা বলতে চাই অভিযোগ বা জবাবদিহীতায়।

ফায়ারফক্স লিখেছেন:

@ উদাসীন ভাই  এতটা উদাসিন হলে চল্বে না। আপনি সমন্বয়ক।

তার ঘিলু এত ভাল যে অনেক দিন আগে পড়ছে কিন্তু সেই ওয়েব সাইডের নাম মনে নাই কিন্তু যেটা পড়ছে সেটা দড়ি কমা সহ মনে আছে!!!!!

হাস্যকর যুক্তি। তিনি নিজের যদি একটা লাইনও যোগ করতেন এই অভিযোগ আমি করতাম না।

আমি যদি বলতাম "অনেক দিন আগে নেট পড়েছে" তাহলে অবশ্যই আপনার অভিযোগ মেনে নিতাম। কিন্তু ভাই আমি বলেছে: "সূত্রঃ অনেক দিন আগে নেট থেকে পেয়েছিলাম।" তাই যেভাবে পেয়েছি সেভাবেই এখানে দেখতে পাচ্ছেন। নিজের স্বল্পবুদ্ধির কিছুই যোগ করি নি। অনেকদিন আগে যখন নেটে পড়েছিলাম তখন ভালোলেগে ছিলো বলে কম্পিউটারে সেভ করে রেখে ছিলাম। তখন লিংটি সেভ করিনি, প্রয়োজন হবে ভাবিনি তাই। এর জন্যই লিংটি দিতে পারিনি। বি.দ্র. আপনি যে লিংটি দিয়েছেন, আমি সেখানে এটি পড়িনি, অন্য কোথাও পড়েছিলাম।

হাঙ্গরিকোডার লিখেছেন:
ফায়ারফক্স লিখেছেন:

চুরি করা লেখা।

http://ghostpedia.blogspot.com/2009_12_01_archive.html


খুবই দুঃখজনক। আমি উনাকে আগেও কয়েকবার অনুরোধ করেছিলাম সূত্রসহ লেখা দিতে। কিন্তু তিনি দেননি।

"হাঙ্গরিকোডার" ভাইয়ের অভিযোগ সত্য। কিন্তু ভাই আমি আপনাকে তখনই বলেছি  "কিছু লেখা আছে যেগুলি আমি আনেক আগে সেভ করে রেখেছি সে সম্পর্কে" গোপন বার্তায়

"এখন বলেন কিভাবে সূত্র দিই। (নেট থেকে পাওয়া লিখলে হবে? অন্য কোনো সাজেসান থাকলেও জানাতে পারেন।)
যদি বলেন তাহলে এই ধরণের লেখা আর পোস্ট করবো না।"

এর উত্তরে আপনি গোপন বার্তায় বলেছিলেন :

হাঙ্গরিকোডার লিখেছেন:

পোস্ট করতে নিষেধ করা হয়নি। শুধুমাত্র সূত্র উল্লেখ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।

সেরকম ক্ষেত্রে
সূত্রঃ ইন্টারনেট থেকে পাওয়া বা ইন্টারনেট পাওয়া ব্যক্তিগত সংরক্ষণ থেকে

এখন বলেন হাঙ্গরিকোডার ভাই আমার দোষটা কোথায়? আমি আপনার দেখানো পথেই হেঁটেছি।
আপাততো আরকিছু বলার নেই আমার।

সকলকে ধন্যবাদ।
(যারা অভিযোগ করেছেন এবং যারা খন্ড করেছেন, সেই সাথে যারা "ভুত" পড়েছেন, সকলকেই। )

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১৫

Re: "ভুত"

@qshohenq
আমি দুঃখিত, আসলে আপনার শেষ লাইনটি যে কোন ভাবেই হোক আমার দৃষ্টি এড়িয়ে গিয়েছিল। কারণ সম্ভবত ঐ প্যারাগ্রাফের সাথে সূত্রটি মিশে থাকায় সেটি আমার চোখে পড়ে নি।

আমি সম্ভবত আপনাকে এটাও বলেছিলাম সূত্র শুধুমাত্র চুরি থেকেই রক্ষা করে না বরং লেখার গ্রহণযোগ্যতাও বাড়ায় এবং এ সম্পর্কিত দ্বায়িত্ব/ঝামেলা কিছুটা এড়াতেও সাহায্য করে। ধরুন, এমন একটি লেখা দিলেন যেটি দেখা গেল পরবর্তীতে সঠিক নয়। যদি আপনি মূল লেখায় সুত্র বা ফুটনোট থাকে তাহলে কিন্তু আপনি সহজেই এ সম্পর্কিত ঝামেলাটি এড়াতে পারবেন।অন্যথায় সবাই কিন্তু আপনাকেই দোষ দেবে ভুল তথ্যের জন্য।

[img]http://twitstamp.com/thehungrycoder/standard.png[/img]
what to do?

১৬

Re: "ভুত"

হাঙ্গরিকোডার লিখেছেন:

@qshohenq
আমি দুঃখিত, আসলে আপনার শেষ লাইনটি যে কোন ভাবেই হোক আমার দৃষ্টি এড়িয়ে গিয়েছিল। কারণ সম্ভবত ঐ প্যারাগ্রাফের সাথে সূত্রটি মিশে থাকায় সেটি আমার চোখে পড়ে নি।

আমি সম্ভবত আপনাকে এটাও বলেছিলাম সূত্র শুধুমাত্র চুরি থেকেই রক্ষা করে না বরং লেখার গ্রহণযোগ্যতাও বাড়ায় এবং এ সম্পর্কিত দ্বায়িত্ব/ঝামেলা কিছুটা এড়াতেও সাহায্য করে। ধরুন, এমন একটি লেখা দিলেন যেটি দেখা গেল পরবর্তীতে সঠিক নয়। যদি আপনি মূল লেখায় সুত্র বা ফুটনোট থাকে তাহলে কিন্তু আপনি সহজেই এ সম্পর্কিত ঝামেলাটি এড়াতে পারবেন।অন্যথায় সবাই কিন্তু আপনাকেই দোষ দেবে ভুল তথ্যের জন্য।

ধন্যবাদ।
আপনার পরামর্শ আমি মনে রেখেছি। তবুও এখন থেকে এ ব্যাপারে আরো যত্নবান হবো।

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

১৭

Re: "ভুত"

উদাসীন লিখেছেন:

মানুষ আসলে অন্ধকার কে আদি থেকেই ভয় পেয়ে আসছে। কেন ভয় পেয়ে আসছে সেটাও ভাবার বিষয়। জগতের সব কিছুই নাকি জোড়া জোড়া ঘটে থাকে; আলো-অন্ধকার, ভালো-মন্দ ইত্যাদি। তবে দৃশ্যমান চেতনার সাথে অদৃশ্যমান চেতনার সহাবস্থান খুব অসম্ভব কি??

আমি ব্যাপারটা ১০০% বিশ্বাস করি। কিন্তু বেশির ভাগ মানুষই দেখি খুবই সাহসী। কেউই বিশ্বাস করে না।  surprised
ভুত যদি নাই থাকবে তবে এত গল্প ছবি কেন? মুক্তি যুদ্ধেরও তো এত গল্প উপন্যাস নেই।।

Feed থেকে ফোরাম সিগনেচার, imgsign.com
ব্লগ: shiplu.mokadd.im
মুখে তুলে কেউ খাইয়ে দেবে না। নিজের হাতেই সেটা করতে হবে।

শিপলু'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি GPL v3 এর অধীনে প্রকাশিত

১৮

Re: "ভুত"

ভাল একটা পোসট নিয়া উনাকে ধন্যবাদ দেয়া উচিত । দ্বিমত করা উচিত না আমাদের

মনটা আগুনে জলতেছে কি করব । ব্যান ব্যান

১৯ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন সারিম (২১-০৩-২০১০ ০১:৫২)

Re: "ভুত"

যাই হোক, কিছু বলছি না। একটু অট পোস্টাই।
আগে বলে নেই এই অধমের অনেক হবির মধ্যে একটা হচ্ছে গ্রিক মিথলজির কাহিনী ঘাটাঘাটি করা।


ফায়ারফক্স লিখেছেন:

চুরি করা লেখা।

http://ghostpedia.blogspot.com/2009_12_01_archive.html


ঔ লিংকের লেখাও যে চুরি করা না সেটা কে বলল?
আসল কথায় আসি।
ওখানে গ্রিক দেবতাদের দৈত্য বা  ভুত বলা হয়েছে, যার তীব্র নিন্দা জানাই।
সাইক্লোপ এর উচ্চারন কি আসলেই "ক্লাইকোপ্স"?

আপডেটঃ
কইতে কইতে চোর ধরা পড়ল। ঔ লিংকের লেখক লেখা দিয়েছেন সমকাল থেকে কপি পেস্ট করে লিংক

২০

Re: "ভুত"

হা হা আমিতো প্রথম আলো ব্লগেও একটা পোস্ট দেখলাম।
http://prothom-aloblog.com/users/base/serendipity/135

যাইহোক, সমন্বয়কের কাজ আমাকে কি নতুন করে শিখতে হবে?? আমি ভালো করেই জানি কার কী অভিপ্রায়?

@শিপলু ভাই, ঠিক বলেছেন অনেকেই বিরাট সাহসী...বিজ্ঞান মনস্ক হবার অযুহাতে অবিসংবাদিত এ রহস্য এড়িয়ে যাওয়া হয়েছে।

কিছু বাধা অ-পেরোনোই থাক
তৃষ্ণা হয়ে থাক কান্না-গভীর ঘুমে মাখা।