সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন আউল (১৪-০৯-২০২১ ১১:১৩)

টপিকঃ ক্রমবিলুপ্তির পথে শকুন

বিশেষত দুর্ভিক্ষের সময় যে সকল শকুন মৃত দেহ খেত সেই শকুনগুলো এখন কোথায়?

https://qph.fs.quoracdn.net/main-qimg-07463ba6beed13ad212aa1f52f346a03

সে শকুনগুলি, হারিয়ে যাচ্ছে, সে শকুনগুলি, প্রায় বিলুপ্তির পথে।

পরিবেশবিদরা, শকুন কে পরিচ্ছন্নতা কর্মী বলেই বিবেচনা করেন।

মৃতদেহে পচন ধরে রোগ জীবাণু ছড়িয়ে পড়ার আগেই, শকুন মৃতদেহ ভক্ষণ করে, পরিবেশ কে দূষণ এর হাত থেকে রক্ষা করে, সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার হাত থেকেে রক্ষা করে, আমাদের।

গরু ও মানুষের জীবনের জন্য অন্যতম ঝুঁকি হচ্ছে অ্যানথ্রাক্স রোগ।

একমাত্র শকুন হচ্ছে সেই প্রাণী, যে অ্যানথ্রাক্সে আক্রান্ত মৃত গরুর মাংস খেয়ে হজম করতে পারে। যক্ষ্মা রোগের জীবাণু শকুনের পেটে গিয়ে ধ্বংস হয়ে যায়।

শকুন সাধারনত: উঁচু বট গাছ, শিমুল গাছ ইত্যাদিতে থাকতেই স্বচ্ছন্দ বোধ করে।

কিন্তু, বন ধ্বংস করে, লোকালয় তৈরীর আগ্রাসী মনোভাব, পাশাপাশি বিভিন্ন রাসায়নিক ব্যবহারের প্রতিক্রিয়াজনিত ফল, শকুন কে বিপন্ন করে তুলছে,

ক্রমবিলুপ্তির পথে শকুন,

এর ফল, বিপন্ন হয়ে পড়েছে, পরিবেশের ভারসাম্য, অসহায় হয়ে পড়ছে, স্বাস্থ্যরক্ষায় সুস্থ পরিবেশের প্রয়োজনীয়তার দিকটি।

শকুনের এই বিলুপ্তি কে নিয়ে চলছে গবেষণা, তৈরী হচ্ছে শকুন সংরক্ষণ কেন্দ্র,

কারণ, এটা বুঝা গেছে, শকুনের এই ক্রম বিলুপ্তি, আমাদের জীবনে, অশনি সংকেতের বার্তা বয়ে আনছে।

https://qph.fs.quoracdn.net/main-qimg-af3cc5d2e59125b89c639951457bd883-mzj

"We want Justice for Adnan Tasin"