টপিকঃ বুনোফুল বা ঘাসফুলও হতে পারে (পুরাতন বিদায় নতুনকে স্বাগত জানাই)

০১।
https://i.imgur.com/oPsR5Wh.jpg

কেউ কী ভেবেছিলো ২০১৯ এর রাত বারোটায় আতশবাজি ফুটানোর সময়, আগত দিনগুলোতে আলোর ঝলমলানি থেমে যাবে। কেউ কী ভেবেছিলো জানুয়ারী ২০ এর সকালে ঘুম থেকে উঠে, অচিরেই লকডাউনে পড়বো আটকা। কেউ চিন্তাই করতে পারেনি..... এই বিশে বিশ বিষে বিষ হবে। ইতিহাসের পাতায় ঠাঁই নেবে কালো অধ্যায় হিসেবে কে জানতো।

কেউ ভাবেও নি, আপনজনেরা বেলাশেষের খেয়ায় রাখবেন পা এই বছরেই। হয়তো বয়স হয়ে গিয়েছিলো রোগে বেঁধেছিলো বাসা দেহের পরতে পরতে। তাতে কী কেউ ভাবতেই পারেনি সহসাই আপনজনদের প্রাণপাখি যাবে উড়ে। কেউ ভাবতেই পারেনি ঘরে বন্দি থাকতে হবে দিনের পর দিন।

চাকুরীজীবীরা চিন্তাও করতে পারেননি যে তারা এবারের রমজান কাটাবেন নির্ভাবনায়। ঘুম থেকে উঠার থাকবে না তাড়া। সময় মেপে হবে না চলতে। অনেকের ভাবনাতেই আসেনি যে তারা বেকার হবেন। অনেকে এও ভাবতে পারেননি তারা শহরের বাসা ছেড়ে লেজ গুটিয়ে পালাতে হবে গাঁয়ের বাড়ীতে। কারো স্বপ্নেও আসেনি কেউ কেউ অনাহারে অর্ধাহারে কাটাতে হবে দিন। কী দুঃসহ দিন পেরিয়ে এসে ঠেকেছি এখানে মানে বছরের শেষ দিনে। আগত দিন ভালো হবে না মন্দ হবে আল্লাহ তাআলাই ভালো জানেন। তবে আমরা তাঁর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে এই করোনা হতে মুক্তি চাইবো প্রতিনিয়ত। তিনি আমাদের ক্ষমা করবেন, আমাদের প্রতি তুষ্ট হবে ইনশাআল্লাহ আগত দিন আশার আলো নিয়েই আসবে হয়তো।

করোনা আসলো হুটহাট, শিখিয়ে গেলো অনেক কিছু, মানুষ চেনা গেলো, কে আপন কে পর। চেনা হলো চোর। এই ঘোর বিপদের দিনেও কিছু নেতা ফেতা, চেয়ারম্যান মেম্বার, তেল চিনি চাল চুরি করে খবর হয়েছেন। এই দুর্যোগেও বেড়ে গিয়েছিলো ধর্ষন। এই মহামারীর সময়েও মানুষকে দলবদ্ধ হতে হয়েছে। প্রতিবাদ মিছিল করতে হয়েছে। করোনা শিখিয়ে গিয়েছে মানবতা। । কিছু মানুষ হেদায়েতের পথে হেঁটেছে। আর কিছু মানুষ মন্দ হতে আরও মন্দ হয়েছে। সবই চোখের সম্মুখে ঘটা ঘটনা।

এই বিশই চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে গেলো, যে ক্ষমতাবান আল্লাহর উপরে কিছু নেই । তিনি ইচ্ছে করলে মুহুর্তেই দুনিয়া গুঁড়ো করে দিতে পারেন। সাত সমুদ্দুর বিপদ এনে দিতে পারেন সম্মুখে। তিনি চাইলেই ঘড়িতে আছান ঘড়িতে তুফান এনে দিতে পারেন। আফসোস তাঁর কিছু বান্দা এসবে বিশ্বাস রাখে না। তাদের জন্য প্রভুর কাছে হেদায়েতের দোয়া করছি। 
ভাষণ শেষ smile
======================================
এই বুনোফুলগুলো গ্রাম থেকে তুলেছিলাম। এদের নাম জানি না। তবে এগুলো ছোট । এগুলো উপর পা মাড়িয়ে মানুষ হেঁটে যায় । কেউ খেয়ালই করে না। অথচ দেখেন কত সুন্দর। স্যামসাং এস নাইন + এ তোলা ছবিগুলো। আশাকরি ভালো লাগবে আপনাদের।

এই বুনোফুলের মতই জীবন হউক ঝলমলে সুন্দর, সবাই সুস্থ ও নিরাপদ থাকুন এই প্রার্থনা আল্লাহর কাছে।


০২। ছোট একটা বুনোফুল....... সে হিমু সেজে আছে।

https://i.imgur.com/8hDOUgM.jpg

০৩। এগুলো চা বাগানের পথে ঘাটে হয়। খুবই সুন্দর কালার।

https://i.imgur.com/UNwmDrA.jpg

০৪। ছোটোবেলার মধু চোষা ফুল আহা।

https://i.imgur.com/RBkbIlz.jpg

০৫। লজ্জাবতি ফুল। যার পাতা ছুঁয়ে দিলেই মুখ ঢেকে ফেলে

https://i.imgur.com/GiQD6Ws.jpg

০৬। আরেকটা হলুদ হিমু। নাম জানি না। মরুভূমি ভাই চিনতে পারেন।

https://i.imgur.com/8btbq4y.jpg

০৭। ছোট ছোট নীল বেগুনী ফুল। এরা ঘাসের সাথে লেপ্টে থাকে। অদ্ভুত সুন্দর লাগে মাশাআল্লাহ

https://i.imgur.com/a5Rji8x.jpg

০৮। বেগুনী ফুলের নাম জানি না। তবে ইহা টবেও দেখতে পেয়েছি।

https://i.imgur.com/m7lv0qG.jpg

০৯। এই গোলাপী রানীর নাম জানি না। নাকফুল আকারের ফুলটি দেখতে খুব সুন্দর। নরম পাপড়ি।

https://i.imgur.com/fNrc0iO.jpg

১০। নাম জানি না ফুল

https://i.imgur.com/CHxHES4.jpg

১১। লাজোবতী কন্যা।

https://i.imgur.com/sR9IbL9.jpg

১২। ছোটবেলার লাউ ফুল । বৃষ্টিতে ভিজে আছে।

https://i.imgur.com/sqXMLH4.jpg

১৩। ছোটো ছোটো ফুল অথচ কত সুন্দর।

https://i.imgur.com/CqvCB6p.jpg

১৪। ভেজা মধু ফুল। এই গাছের পাতাও উপকারী।

https://i.imgur.com/6kz3jhM.jpg

১৫। এই ফুলেরও নাম জানি না। ইহা ঝরে পরার সময়। এই ফুল গোলাপী রঙের হয়।

https://i.imgur.com/RnEbisf.jpg

১৬। কলাই ঘাস ফুল । হিমু সেজে আছে

https://i.imgur.com/G7MSrd9.jpg

১৭। গোলাপী রাণী

https://i.imgur.com/ViPnm9V.jpg

১৮। উনার নাম জানি না। হতে পারে ঘাসফুল

https://i.imgur.com/pkwY2KO.jpg

২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর তারিখে লেখা একটা অকাব্য

©কাজী ফাতেমা ছবি
=ভুলে যাবো যতসব যন্ত্রণা-ভুল-ভ্রান্তি
ভুলে যাবো সবকিছু, যত অন্যায় অবিচার, দুর্নীতির আস্ফালন
নতুন আলোয় নতুন করে নিজের মতন বাঁচতে শিখে যাবো,
কী হবে হাপিত্যেশের ঘাটে আর নাও ভাসিয়ে!

ভুলে যাবো তোমার দেয়া শত যন্ত্রণা, অবজ্ঞা, অবহেলা
নতুন আলোর ধারায় হাত রেখে জ্বলে উঠবো সুখের ছোঁয়ায়
কী হবে এত কিছু যন্ত্রণা মনে পুষে রেখে!

ভুলে যাবো দীর্ঘশ্বাস, বিষাদ, তিতে কথার ঝড়,
নতুন আলোর প্রভাতে চোখ খুলেই চিনে নেবো আপন পথ
কী হবে আর দীর্ঘশ্বাসের ঘরে নিভৃতে বসবাস করে!

ভুলে যাবো বুকফাঁটা কান্না, বিতৃষ্ণা, বিমর্ষ ক্ষণ, ভুল ভ্রান্তি
নতুন আলো আসুক জানালা ফুঁড়ে-আমি ছুঁয়ে দেবো আলো
কী হবে এত শত কু বুকের ভেতর পুষে রেখে!

ভুলে যাবো বাসা বেঁধেছিলো যত অসুখ বিসুখ, কষ্ট ব্যথা
নতুন আলোর দুয়ারে দাঁড়িয়ে নেবো শপথ-যা কিছু হবে ভালো হোক
সুখ নেই সুখ নেই কী হবে আর এসব ভেবে!

যা চলে যায় যাক্, স্মৃতির খাতায় সযতনে রাখলাম তোলে.....কেবল সুখটুকু
যা কিছু ঘটে গেছে যাক্, আশায় থাকবো ভালো কিছুর জন্য,
যা আসে আসুক ধেয়ে, বুক পেতে নেবো সব।

ভালো হোক আর মন্দই হোক, সয়ে নেবো সব নিয়তি ভেবে।
নতুনত্বে সাজুক জীবন, ভুলগুলো সব মুছে দেবো সময়ের ইরেজারে,
আসুক একটি নতুন আলোর প্রভাত,
সাদরে তাকে নেবো তাকে জড়িয়ে জীবনের সাথে।
December 31, 2018

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর

Re: বুনোফুল বা ঘাসফুলও হতে পারে (পুরাতন বিদায় নতুনকে স্বাগত জানাই)

ভালো বলেছেন।  thumbs_up

নামায সবার উপর ফরয করা হয়েছে

Re: বুনোফুল বা ঘাসফুলও হতে পারে (পুরাতন বিদায় নতুনকে স্বাগত জানাই)

০৬। আরেকটা হলুদ হিমু। নাম জানি না। মরুভূমি ভাই চিনতে পারেন।

অনেকগুলি ফুলই চিনিন না। সেগুলির কথা কিছু বলার নাই। যেগুলি চিনি সেগুলির নাম জানিয়ে দিচ্ছি।

২। তুরান
৩। দাঁতাঙ্গা
৪+১৪। দণ্ডকলস
৬। কলকাসুন্দা
৭। হংসপদি
৯্+১০+১৭+১৮। বন ওকড়া

এখনো অনেক অজানা ভাষার অচেনা শব্দের মত এই পৃথিবীর অনেক কিছুই অজানা-অচেনা রয়ে গেছে!! পৃথিবীতে কত অপূর্ব রহস্য লুকিয়ে আছে- যারা দেখতে চায় তাদের নিমন্ত্রণ।

Re: বুনোফুল বা ঘাসফুলও হতে পারে (পুরাতন বিদায় নতুনকে স্বাগত জানাই)

খাইরুল লিখেছেন:

ভালো বলেছেন।  thumbs_up

thank u vaiya

1 hour, 26 minutes and 54 seconds after:

মরুভূমির জলদস্যু লিখেছেন:

০৬। আরেকটা হলুদ হিমু। নাম জানি না। মরুভূমি ভাই চিনতে পারেন।

অনেকগুলি ফুলই চিনিন না। সেগুলির কথা কিছু বলার নাই। যেগুলি চিনি সেগুলির নাম জানিয়ে দিচ্ছি।

২। তুরান
৩। দাঁতাঙ্গা
৪+১৪। দণ্ডকলস
৬। কলকাসুন্দা
৭। হংসপদি
৯্+১০+১৭+১৮। বন ওকড়া

অসংখ্য ধন্যবাদ মরু ভাইয়া
ভালো থাকুন

জাযাল্লাহু আন্না মুহাম্মাদান মাহুয়া আহলুহু......
এই মেঘ এই রোদ্দুর