টপিকঃ পোশাক শ্রমিকদের মজুরি ১৬ হাজার করার দাবি

সংবাদটি শেয়ার করছি


পোশাক শিল্পের সাথে জড়িত শ্রমিকদের বেতন অবিলম্বে নূন্যতম ১৬ হাজার টাকা ঘোষণা করার দাবিতে মানববন্ধন ও মিছিল করেছে কয়েকটি সংগঠন।

শুক্রবার (১৩ জুলাই) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ পোশাক শিল্প শ্রমিক ফেডারেশন, সম্মিলিত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন এবং বাংলাদেশ মেটাল ক্যামিক্যাল গার্মেন্টস এন্ড টেইলার্স ওয়ার্কার্স ফেডারেশন যৌথ উদ্যোগে এ মানববন্ধন করা হয়।

মানববন্ধনে সম্মিলিত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি নাজমা আক্তারের সভাপতিত্বে করেন।

কর্মসূচিতে বাংলাদেশ পোশাক শিল্প শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি ও ইন্ডাষ্ট্রিঅল বাংলাদেশ কাউন্সিলের মহাসচিব মোঃ তৌহিদুর রহমান, বাংলাদেশ মেটাল ক্যামিক্যাল গার্মেন্টস এন্ড টেইলার্স ওয়াকার্স ফেডারেশনের সভাপতি শহীদুল্লাহ বাদল, বাংলাদেশ পোশাক শিল্প শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক তাহমিনা রহমান, সম্মিলিত গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক নাহিদুল হাসান নয়ন এবং বাংলাদেশ মেটাল ক্যামিক্যাল গার্মেন্টস এন্ড টেইলার্স ওয়াকার্স ফেডারেশনের সাংগঠনিক সম্পাদক রহিমা আক্তার রুপা, আর.এম.জি ওয়াকার্স ফোরামের সভাপতি মর্জিনা ও আর এম জি ওয়াকার্স ফোরামের সাধারণ সম্পাদক শরীফুন্নেছাসহ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মানববন্ধনে নেতৃবৃন্দ বলেন, জানুয়ারি মাসে মজুরী বোর্ড গঠিত হলেও অদৃশ্য কারণে মাত্র দুটি সভা তারা করেছেন যাহা কোনভাবেই কাম্য নয়। মজুরী গঠনের ৬ মাসের মধ্যে তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষন পূর্বক শ্রমিক ও মালিক প্রতিনিধির সুপারিশ যাচাই বাছাই করে নিম্নতম মজুরীসহ সকল গ্রেডের মজুরী সুপারিশ শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রনালয়ের নিকট জমা দেয়ার নিয়ম থাকলেও বর্তমান বোর্ড মালিক তোষণ নীতি অনুসরন করছেন। মালিক পক্ষের প্রতিনিধি যাহাই করে বলেন বর্তমান মজুরী বোর্ড তাহাই করেন বলে আমাদের প্রতিয়মান হচ্ছে।

ইতোমধ্যে সরকারি মিল কারখানার শ্রমিকদের মজুরী ১শ’ ভাগ বৃদ্ধি করা হয়েছে। দেশের বর্তমান ৩৩ বিলিয়ন ডলারের রফতানি শিল্পের খেটে খাওয়া শ্রমিকদের মজুরী  সবচাইতে কম যাহা অত্যন্ত লজ্জাজনক বটে। নেতৃবৃন্দ সভার নামে আর কালক্ষেপন না করার দাবি জানিয়ে বলেন, ৩১ শে জুলাইয়ের মধ্যে নিম্নতম মজুরী ১৬ হাজার টাকা সুপারিশ প্রকাশ করতে হবে অন্যথায় মাঠ পর্যায়ে শ্রমিকদের নিয়ে ধারাবাহিক আন্দোলন সংগ্রাম গড়ে তুলতে আমরা বাধ্য হবো।

বর্তমানে বাড়ি ভাড়া বৃদ্ধি, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ক্রমাগত উর্দ্ধগতি, চিকিৎসা ও শিক্ষা ব্যায় অস্বাভাবিক হারে বেড়ে যাওয়ায় শ্রমিক সমাজ দিশেহারা হয়ে পড়েছে। দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেলে আন্দোলন ছাড়া আমাদের অন্য কোন পথ থাকবে না।

মানববন্ধন শেষে মিছিলটি প্রেসক্লাব থেকে পল্টন মোড় হয়ে পুনরায় প্রেসক্লাবে এসে শেষ হয়। মিছিলে ১৬ হাজার টাকা মজুরী অবিলম্বে দিতে হবে। বাড়ি ভাড়া নিয়ন্ত্রণ করো, দ্রব্যমূল্যের উর্দ্ধগতি কমাতে হবে, কমাতে হবে, মালিক খাবেতো শ্রমিক খাবে না তা হবে না, তা হবে না।

ওএফ


http://pbd.news/selected/59819/%E0%A6%A … C%E0%A6%BF

নিজে শিক্ষিত হলে হবে না- প্রথমে বিবেকটাকে শিক্ষিত করতে হবে