টপিকঃ নববর্ষের উৎসব কাদের জন্যে?

crying crying

শুভ বাংলা নববর্য পালনের জন্যে সরকারি চাকুরিজীবিরা উৎসব বোনাস পান, হয়তবা তাই বাজারে ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ২৫০০ টাকা কেজি দরে, যার ক্রয় ক্ষমতা আছে (১) সরকারি চাকুরিজিবী ও আমলা (২) ব্যাবসায়িরা ও ব্যংকার (৩) রাজনৈতিক নেতা,মন্ত্রী, জনপ্রতিনিধি

বোনাসের টাকায় দামি ইলিশ খেয়ে বিশ্রামের জন্য রবিবার ১৫ই এপ্রিল সরকারি ছুটি পালন করবেন,
আর যারা সরকারি চাকুরিজিবী নয়, প্রায় এক কোটি লোক পোশাক কারখানার উপর নির্ভরশীল তাদের অনেকেই পহেলা বৈশাখের দিনোও ডিউটি করতে হয়, আর মাসের বেতনটা ঠিক ভাবে মেলেনা তার উপরে বোনাস তো সোনার ডিম, আর ছুটি সেটা সোনার হরিণ,
যে টাকা পায় তা দিয়ে পুরো মাসের খাওয়াই জুটা কষ্টকর, তাদের জন্যে ইলিশ হচ্ছে স্বপ্ন! আর পান্না আর মরিচ তাদের নিত্য দিনের খাবার

দেশের মোট ৬ কোটি ১০ লাখ শ্রমশক্তির মধ্যে মাত্র ২১ লাখ সরকারি- কর্মকর্তা- কর্মচারিদের বেতন ভাতা বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকারি চাকুরীজিবুদের বেতন অনুপাতে বাজারে জিনিস পত্রর দাম বাড়ে

গার্মেন্টসের চাকুরিজীবী, দিনমজুর, ক্ষুব্ধ দোকানদার, ফেরিওয়ালা, দিনমজুর, কাজের বুয়া, সিকিউরিটি গার্ড সহ নিম্ন আয়ের মানুষের জীবন কি ভাবে চলবে,তা বিবেচনা করা হয়নি। সাধারন মানুষের মজুরি ও আয় কি ভাবে বাড়বে? তা ভাবা হয়নি, এর ফলে পালা দিয়ে বেড়ে গেছে, বিদ্যুৎ- গ্যাসের - মুল্য। বাড়ী ভাড়া বাড়ছে, যাতায়ত ভাড়া বাড়ছে, - বাড়ছে জিনিস পএের দাম। যাদের বেতন বাড়লো, তারা হয়তো সামাল দিতে পারবেন, -

কিন্তুু  যাদের বোনাস নেই, বেতন- ভাতা বাড়লো না, আয় বাড়লো না, তাদের কি হবে ?

নিজে শিক্ষিত হলে হবে না- প্রথমে বিবেকটাকে শিক্ষিত করতে হবে