সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন গিনি (১১-০২-২০১৮ ২০:৫৭)

টপিকঃ কেমন আছো রমা

কেমন আছো রমা
গিনি

রমাদের বাসা ছিল
রাস্তার ওপারে,
পরিবারের জানাজানি
ছিল ক্ষণিক নিবিড়ে।
ঈষৎ কালো, চঞ্চল চোখের,
কাঁধ ঝোলানো চুলের,
ভালোলাগে রমারে।
তখন সরাসরি বলি,
"ভালোলাগে, ভালোবাসি তোমারে!"
কত চেষ্টা সব বৃথা,
উত্তর কিছু নাই এবারে।
একদিন তাঁর হাত খানা
চেপে ধরি, সে বলে,
"কি করেন, কি করেন!
ব্যথা পাই।"
চোখ চিল চোখেতে, কাঁধ ছিল নুয়ানো।
পরিবারে হয় নালিশ,
মা বলে, " পড়াশুনা নাই
এখনই যেতে চাস ভাগারে।"

তারপর,
তারপর বিনিদ্রা যায় কত রাত।
বিছানায় ছট ফট, বিরহ, বেদনায় কুপোকাত।

মাঝে মাঝে এখন মনে কয়,
যদি এমন তরো হয়,
দুজনে বসে মুখোমুখি,
হাঁতে হাত, এতো জানা,
এতো দেখা, তবু নয়ন স্থির নয়নে,
ঠোঁট অজানায় মৃদু কম্পন।
গালের পরে গাল ঠেকানো,
তাঁর শ্বাস লাগে ঘারের লোমে,
বুকে বুক ঘষে, মিশে যাই ভ্রমে।

পরে ভাংগে তমা।
সত্যি যদি আবার কোনো দিন
সামনা সামনি হই?
আবার কি বাজবে সেই
বাল্য কালের বীন!
থাকে সকল না পাওয়া বুকে জমা,
ঈষৎ হেসে, মৃদু স্বরে,
জিজ্ঞাসিব, "কেমন আছো রমা?"