সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ভেজা বিড়াল (২৯-০৪-২০১৪ ১৮:০৮)

টপিকঃ বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

মমতার বাংলাদেশ প্রেম দেখে চোখে পানি চলে এলো।  cry

http://www.ndtv.com/news/Mamata_on_modi360.jpg

After Narendra Modi said illegal Bangladeshi immigrants would be deported if he came to power, a furious Mamata Banerjee today retorted that the "people of Bengal will throw him out".


If on Bengal's soil he says Bangladeshis will have to pack their bags and go, people of Bengal will throw him out.

http://www.ndtv.com/elections/article/e … jee-515253

নরেন্দ্র মোদির ওপর ক্ষেপেছেন মমতা

বাংলাদেশি অভিবাসীদের ভারতছাড়া করতে ভারতের কট্টর হিন্দুত্ববাদী রাজনৈতিক দল বিজেপির প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী নরেন্দ্র মোদির ঘোষণার বিরুদ্ধে ক্ষেপেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এক নিবাচনী সভায় মমতা বলেন, মোদি বাঙালি অবাঙালি ভাগ করে দেয়ার কে? কত বড় বুকের পাটা যে বাঙালি অবাঙালি ভেদাভেদ তৈরি করে মোদি। ভেদাভেদ তৈরি করার তুমি কোন হরিদাস পাল হে?

মোদির ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেন, নরেন্দ্র মোদি যদি ভারতের প্রধানমন্ত্রী হন তবে তা হবে ভারতের কালো অধ্যায়।

উল্লেখ্য, রোববার সন্ধ্যায় পশ্চিমবঙ্গের শ্রীরামপুরে বিজেপি প্রার্থী বাপ্পি লাহিড়ির সমর্থনে এক জনসভায় মোদি ঘোষণা দেন, ১৬ মের পর বাংলাদেশিদের ভারতছাড়া করা হবে। বিজেপি দীর্ঘদিন ধরে পশ্চিমবঙ্গ ও আসামে ২ কোটি মানুষ বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশ করেছে বলে অভিযোগ করে আসছে। সভায় মোদি বলেন, বহু রাজ্যেই বলা হয়, বিহারীরা অতিথি। কিন্তু রাজধানী দিল্লিসহ ভারতের বহু রাজ্যে বাংলাদেশ থেকে আসা অনুপ্রবেশকারী রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গেও রয়েছে। তারা ভারতের অন্য প্রদেশের মানুষের রুজি, রোজগারে বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে। মমতা ব্যানার্জির উদ্দেশে তিনি বলেন, উড়িষ্যা, বিহার, উত্তরপ্রদেশের মানুষদের উনি অতিথি বলছেন। কিন্তু বাংলাদেশিদের প্রশ্রয় দিচ্ছেন। ১৬ মের পর এদের ভারত থেকে তাড়ানো হবে। বিহারীরা আমার ভাই। তাদের আমি বুকে আগলে রক্ষা করব।

http://www.jugantor.com/international/2 … qPRlY.dpuf


বাংলাদেশের বিপদগ্রস্তরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেন : মমতা

http://www.sorejominbarta.com/uploads/21339.jpg

কলকাতা : বাংলাদেশের বিপদগ্রস্তরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেন এমন মন্তব্য করেছেন দেশটির পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।

সোমবার মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয় নবান্নে বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদীর রোববারের বক্তব্যের প্রতিবাদে নিজের ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় তিনি বলেন, প্রত্যেকেই সুবিধা-অসুবিধায় পড়ে অন্য জায়গায় আশ্রয় নেন। তা গুজরাট হোক, আসাম হোক বা বাংলাদেশ। আমাদের প্রতিবেশি দেশ বাংলাদেশকে আমরা যথেষ্ট ভালোবাসি। তারা যদি কোনো বিপদে পড়েন তাহলে আমরা তাদের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে পারিনা। যারা ৭১-এর সময়ে ভারতে এসেছেন তাদের অধিকার ও যারা এখনও বিপদে পড়ে আসবেন তারাও ভারতের বাঙালি বলে গণ্য হবেন।

বিজেপির বক্তব্যে ক্ষুব্ধ মমতা আরো বলেন, যারা বাংলায় (পশ্চিমবঙ্গে) এসে বাঙালি-অবাঙালি ভাগ করে দিচ্ছে, বাংলায় বিদ্বেষ ছড়াচ্ছে। যে বিভাজনের রাজনীতি, জাতপাতের রাজনীতি করছেন মোদী, সেই মোদী ভারতের ইতিহাস জানেন না।

তিনি আরো বলেন, আমরা কখনও জাতপাতের রাজনীতি করিনা, প্রেসিডেন্সির উপাচার্য মারোয়াড়ী, রাজ্যের ডিজি অন্ধ্রপ্রদেশের বাসিন্দা।

তিনি গুজরাটের দুর্ভাগ্যের কথা টেনে বলেন, মোদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী হলে কি পরিণতি হতে পারে, সেই সম্পর্কে তিনি কালো দিনের উদাহরণ দিয়েছেন। পাশাপাশি মমতা বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদীকে শয়তান ও দাঙ্গাবাজ বলেও কটাক্ষ করেছেন।

এদিকে, তৃণমুলের সাধারণ সম্পাদক মুকুল রায় মোদীর সারদাকা-ের অভিযোগ প্রসঙ্গে বলেন, মমতার ছবি ১ কোটি ৮০ লাখ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। এই অভিযোগের হয় তারা প্রমাণ করুক নয় নিঃশর্ত ক্ষমা  চাক না হলে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।

অন্যদিকে, সারদার মালিক সুদীপ্ত সেনও বলেন, “মুখ্যমন্ত্রীর কোন ছবি কিনিনি”।

উল্লেখ্য, বিজেপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় গণতান্ত্রিক জোট (এনডিএ) ক্ষমতায় এলে অবৈধ বাংলাদেশি অভিবাসীদের বিতাড়িত করা হবে বলে রোববার হুমকি দিয়েছেন বিজেপির প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী নরেন্দ্র মোদী। সোমবার তারই সে বক্তব্যের প্রতিবাদ জানালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।

http://www.sorejominbarta.com/internati … 1-OvaKnu1s


এদিকে বিজেপির ১১টি ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে বাংলাদেশি হ্যাকাররা।

বাংলাদেশ বিরোধী মন্তব্যের প্রতিবাদে নরেন্দ্র মোদির ওয়েবসাইট হ্যাকড

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলাদেশকে কতো ভালবাসেন সে ব্যাপারেও ধারণা আছে আমার, কিছুদিন আগে কোন এক প্রোগ্রামে সে অভিযোগ করেছিল যে বাংলাদেশে নাকি ভারত থেকে অবৈধ ভাবে পানি দেয়া হচ্ছে !!!

আর মোদীর কথা কি বলার আছে, কিছুই বলব না এরে নিয়া, নাম মনে পড়লেই মেজাজটা খারাপ হয়ে যায় !  notlistening

   নেই, আছে এবং নৈবচ নৈবচ . . . . .
   দেশ, দশ, দুনিয়া তথা বিশ্ব ব্রম্মান্ড হইতে নহে ষাইফ ঋাষেল আপাতত ফেসবুক হইতে আনা গাইয়েবুন

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়


বাংলাদেশীদেরকে তারা কি রহিঙ্গা মনে করেন না কি যে তারা ভারতে আশ্রয় নিতে যাবে?

"We want Justice for Adnan Tasin"

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

আউল লিখেছেন:

বাংলাদেশীদেরকে তারা কি রহিঙ্গা মনে করেন না কি যে তারা ভারতে আশ্রয় নিতে যাবে?

বহু বাংলাদেশী অবৈধ অনুপ্রবেশকারী পশ্চিমবঙ্গে আশ্রয় নিয়েছে এবং এখনও নিচ্ছে। এটা ফ্যাক্ট।

"No ship should go down without her captain."

হৃদয়১'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ভেজা বিড়াল (২৯-০৪-২০১৪ ২০:৫৫)

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

আউল লিখেছেন:

বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়


বাংলাদেশীদেরকে তারা কি রহিঙ্গা মনে করেন না কি যে তারা ভারতে আশ্রয় নিতে যাবে?

ভারতে বাংলাদেশি অনেক আছে এটা সবাই জানে। ২০১২ সালে দিল্লী হাইকোর্ট রায়ে বলেছে বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে ভারতে মোট ৩ কোটি বাংলাদেশি  ভারতীয় পরিচয়ে থাকে। এদের ভোটার কার্ড, রেশন কার্ড সব আছে। আন-অফিসিয়াল ফিগার ৫ কোটি।

ভারতে বাংলাদেশি থাকবে এটা স্বাভাবিক কারন বাংলাদেশ ভারতের ভিতরেই। বাংলাদেশ এত ছোট একটা দেশ যে এখানে বেশি হলে ৫ কোটি মানুষ ঠিকঠাক মতো থাকতে পারে কিন্তু জনসংখ্যা প্রায় ২০ কোটির কাছাকাছি। একটা গ্লাস ভরে গেলে পানি বাইরে উপচে পড়বে এটাই স্বাভাবিক। এটা কেউ ঠেকাতে পারবে না কখনো। 

Narendra Modi remark puts Bangladeshi immigrants in NCR back in focus

In a submission to a Delhi court in 2012, the said it had deported over more than 45,066 illegal migrants from Bangladesh since 1991, including 182 that year. The figures were revealed after additional sessions judge Kamini Lau passed strictures against Delhi's chief secretary, police commissioner and the for failing to identify and deport illegal migrants from Bangladesh living in the city. "It is unfortunate that while genuine citizens of this country continue to suffer in abject poverty, it is petty vote bank politics which prevents a firm, resolute, intense government action against the three crore (official figures) Bangladesh nationals illegally staying in our country," the court said.

http://timesofindia.indiatimes.com/city … d=11000000

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

ভারতে বাংলাদেশি অনেক আছে এটা সবাই জানে। ২০১২ সালে দিল্লী হাইকোর্ট রায়ে বলেছে বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে ভারতে মোট ৩ কোটি বাংলাদেশি  ভারতীয় পরিচয়ে থাকে। এদের ভোটার কার্ড, রেশন কার্ড সব আছে। আন-অফিসিয়াল ফিগার ৫ কোটি

আর যারা ভারতীয় পরিচয়ে আছে তারা তো বাংলাদেশী নয়, এমন তো অনেক ভারতীয় বাংলাদেশেও আছে , চাকুরী করছে ব্যাবসা করছে ,

"We want Justice for Adnan Tasin"

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ভেজা বিড়াল (২৯-০৪-২০১৪ ২৩:৪১)

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

আউল লিখেছেন:

ভারতে বাংলাদেশি অনেক আছে এটা সবাই জানে। ২০১২ সালে দিল্লী হাইকোর্ট রায়ে বলেছে বিভিন্ন জরিপে দেখা গেছে ভারতে মোট ৩ কোটি বাংলাদেশি  ভারতীয় পরিচয়ে থাকে। এদের ভোটার কার্ড, রেশন কার্ড সব আছে। আন-অফিসিয়াল ফিগার ৫ কোটি

আর যারা ভারতীয় পরিচয়ে আছে তারা তো বাংলাদেশী নয়, এমন তো অনেক ভারতীয় বাংলাদেশেও আছে , চাকুরী করছে ব্যাবসা করছে ,

হ্যা, আছে। বাংলাদেশে ৫ লাখের মতো ভারতীয় কাজ করে। ভারতে ৫ কোটি বাংলাদেশি বাস করে তবে ভারতে বাংলাদেশিরা ভোটার কার্ড, রেশন কার্ড পায়। আউল, আপনি ইচ্ছা করলে ভারতে থাকতে পারেন। মমতার আপত্তি নাই।  tongue_smile

টেকলিক্যালী বাংলাদেশিরা জাতি হিসেবে ভারতীয় শুধু বাংলাদেশি উপজাতিরা বার্মিজ যেমন পাকিস্তানে পাঞ্জাবী ও সিন্ধিরা টেকনিক্যালী ভারতীয়, পাশতুন / পাঠানরা আফগানী ও বেলুচরা ইরানী। ভারতীয় মুসলিম বাঙ্গালীরা ও বার্মিজ উপজাতি মিলে পূর্ব বাংলা যা পরে বাংলাদেশ আর ভারতীয় মুসলিম পাঞ্জাবী, সিন্ধি ও ইরানী বেলুচ, আফগানী পাশতুন / পাঠানরা মিলে পাকিস্তান। বাইরের দেশে আপনি যতই বলেন আপনি বাংলাদেশি তারা বলবে ভারতীয়, বাংলাদেশি ঐ এক কথা।

নরেন্দ্র মোদি চাইলেও বাংলাদেশিদের ভারতে অনুপ্রবেশ ঠেকাতে পারবে না। এটা কখনো সম্ভব না কারন বাংলাদেশি ও ভারতীয় সবাই এক ও অভিন্ন। কোনোভাবেই বুঝা সম্ভব না কে ভারতীয় ও কে বাংলাদেশি, শুধু বাংলা একসেন্টে একটু পার্থক্য আছে কিন্তু পশ্চিম বঙ্গের ২৫% লোক বাংলাদেশি একসেন্টে কথা বলে। এখন বের করতে হলে মোদিকে এই ২৫% বাঙ্গালীদের বের করতে হবে। তখন লাগবে দাঙ্গা। গুটরাটে দাঙ্গা লাগানোর পরে এবার পশ্চিম বাংলা ও আসামে দাঙ্গা লাগানোর  ষড়যন্ত্র করছে শয়তান মোদি।  angry

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

অনেক বাংলাদেশী আছেন যারা বাংলাদেশে থেকেও ভারতের বলে নিজেদেরকে দাবি করতে আনন্দ পায়, তাদের মগজ ভারতের শরীর বাংলাদেশী, তাদের জন্য বিষয়টি খুবই আনন্দের

"We want Justice for Adnan Tasin"

সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ভেজা বিড়াল (৩০-০৪-২০১৪ ১১:৩৫)

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

হৃদয়১ লিখেছেন:
আউল লিখেছেন:

বাংলাদেশীদেরকে তারা কি রহিঙ্গা মনে করেন না কি যে তারা ভারতে আশ্রয় নিতে যাবে?

বহু বাংলাদেশী অবৈধ অনুপ্রবেশকারী পশ্চিমবঙ্গে আশ্রয় নিয়েছে এবং এখনও নিচ্ছে। এটা ফ্যাক্ট।

হৃদয় ভাই, আপনি কাকে ভোট দিয়েছেন? বিজেপিকে?

বিজেপি আসবে এটা নিশ্চিত কিন্তু আপনারা কিভাবে নরেন্দ্র মোদিকে সমর্থন দিতে পারেন? আপনারা জানেন বাংলাদেশ কতটা ভারতের উপর নির্ভরশীল। কিছু বাংলাদেশি যদি থাকে ভারতে তবে তাতে বিজেপির এত মাথা ব্যাথা কেনো? তারা কি সবাই জঙ্গী নাকি? কিছু হয়তো জঙ্গী আছে কিন্তু বাকি সবাই জীবিকার তাগিদে ভারতে পাড়ি জমায়। শুনলাম দরিদ্র অনেক বাংলাদেশি পশ্চিমবঙ্গে রিকশা চালায়। মানবিক দিক বিবেচনায় নিয়ে তাদের প্রতি একটু সহনশীল আচরন প্রত্যাশা করি। বাংলাদেশি ও ভারতীয়রা এক ও অভিন্ন। সবাই মিলে মিশে থাকবে এটাই কাম্য। শুধু শুধু ঘৃৃনা ছড়িয়ে লাভ কি বলেন।  smile

১০

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

আমার নিজের অভিজ্ঞতা বলি। আমি নিজে কলকাতায় দুবার গিয়েছি। যতবার গেছি ওখানকার সবাই খুব আপন করে নিয়েছে। জাতপাতের ভেদাভেদ দু'একজনের মাঝে হয়তো পেয়েছি কিন্তু সেটি আমাদের দেশেও দূর্লভ নয়। আবার আমার বাড়ীতে ও ওরা যখন এসেছে আমরাও সেভাবে তাদেরকে আপন করে নিয়েছি।

সত্যিকার অর্থে বিপদে আপদে মানুষের পাশে দাঁড়ানো বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান সব দেশের মানুষের মজ্জাগত। বিপদে পড়ে পাশের দেশের কেউ আপনার এলাকায় আসলে কি আপনি তাকে তাড়িয়ে দেবেন?

মুখে হয়তো আন্তর্জাতিক আইনের দোহাই দেবেন। কিন্তু বাস্তবে মানুষ পাশে দাড়ানোর সর্বোচ্চ চেষ্টা করে। আর এটিই বাস্তবতা ও সত্য।

খোদ আমেরিকাতে ও মেক্সিকানরা অবৈধভাবে বাস করলেও আমেরিকা ঢালাও ভাবে বিতাড়িত করে না। কারন খুবই বাস্তব। কারন অবৈধ ভাবে আসলেও তারা আমেরিকার অর্থনীতিতে অবদান রাখছে। তাদের ছেলেমেয়েরা আমেরিকাতে পড়াশোনা করছে। উন্নতি করছে। এজন্য অভিবাসন আইন বারাক ওবামা অন্ততঃ দুইবার শীথিল করেছেন।

এজন্য সার্কভুক্ত দেশগুলি ইউরোপিয়ান  ইউনিয়নের মত ভিসা ফ্রি আইন চালু করতে পারে। কারন শ্রম বাজারের ধর্ম এটাই। সে যেখানে সুবিধা পাবে সেখানে স্থানান্তরিত হবে। কারনটা স্রেফ অর্থনৈতিক। এখানে আবেগের কোন স্থান নেই।

তাই আমাদের দেশে যেসব ভারতীয় আছেন তাদেরকে আমরা যেমন তাড়ানোর কথা চিন্তা করিনা তেমনি ভারতেরও আমাদের দেশের প্রান্তিক এসব মানুষকে নিয়ে নোংরা রাজনীতি না করাটাই ভালো।

দিনশেষে আমরা সবাই মানবজাতির অংশীদার। আর এটাই চিরন্তন সত্য।

লিনাক্স নিয়ে লিখছি বাংলাতে আমার ব্লগে

১১

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

ভেজা বিড়াল লিখেছেন:

হৃদয় ভাই, আপনি কাকে ভোট দিয়েছেন?

ভোট দিয়ে গণতন্ত্রের অংশীদার হওয়ার ফ্যান্টাসির বয়স পেরিয়ে এসেছি। ভোটের সময় কলেজ রিকুইজিশান হয়ে গেলে বাড়িতে বসে বিশ্রাম নিই। এমনিতেই ছুটিছাটা পাওয়া যায়না।

"No ship should go down without her captain."

হৃদয়১'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

১২ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ভেজা বিড়াল (৩০-০৪-২০১৪ ১৫:২৩)

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

হৃদয়১ লিখেছেন:
ভেজা বিড়াল লিখেছেন:

হৃদয় ভাই, আপনি কাকে ভোট দিয়েছেন?

ভোট দিয়ে গণতন্ত্রের অংশীদার হওয়ার ফ্যান্টাসির বয়স পেরিয়ে এসেছি। ভোটের সময় কলেজ রিকুইজিশান হয়ে গেলে বাড়িতে বসে বিশ্রাম নিই। এমনিতেই ছুটিছাটা পাওয়া যায়না।

শুনলাম এবার পশ্চিমবঙ্গে সবচেয়ে বেশি ভোট পড়েছে। 

মমতা কি কারনে যে তিস্তার পানির ব্যাপারে গড়িমসি করছে সেটা সেই ভালো জানে। এবার নির্বাচনের পরে আশা করি আমরা আমাদের নায্য অংশটুকু পাবো তিস্তা থেকে। তিস্তার পানি না পেলে ঐ অঞ্চল মরুভূমি হয়ে যাবে। বুঝেন তো। বাংলাদেশের নদীগুলো সব ভারতের সাথে কানেকটেড। পানি বন্ধ করে দিলে বাংলাদেশ মরুভূমি হয়ে যাবে।  sad

১৩

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

ভেজা বিড়াল লিখেছেন:

শুনলাম এবার পশ্চিমবঙ্গে সবচেয়ে বেশি ভোট পড়েছে। 

হুম। আটটায় ভোট শুরু। আমতায় সাড়ে নটায় ভোট শেষ। ১০০% ভোট পড়েছে। দু'তিন বছর আগে মারা যাওয়া লোকজন এসে ভোট দিয়ে গেছে। ভোটদান প্রক্রিয়া অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে।
বীরভূমে ভোট নয়, মল্লযুদ্ধ চলছে।

"No ship should go down without her captain."

হৃদয়১'এর ওয়েবসাইট

লেখাটি LGPL এর অধীনে প্রকাশিত

১৪ সর্বশেষ সম্পাদনা করেছেন ভেজা বিড়াল (৩০-০৪-২০১৪ ১৫:৫৫)

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

হৃদয়১ লিখেছেন:
ভেজা বিড়াল লিখেছেন:

শুনলাম এবার পশ্চিমবঙ্গে সবচেয়ে বেশি ভোট পড়েছে। 

হুম। আটটায় ভোট শুরু। আমতায় সাড়ে নটায় ভোট শেষ। ১০০% ভোট পড়েছে। দু'তিন বছর আগে মারা যাওয়া লোকজন এসে ভোট দিয়ে গেছে। ভোটদান প্রক্রিয়া অত্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে।
বীরভূমে ভোট নয়, মল্লযুদ্ধ চলছে।

হা হা হা... আমার তো মনে হয় অনেক বাংলাদেশিও ভোট দিয়েছে এবারের ভারতের নির্বাচনে।  hehe

আমাদের দেশের ভোট হয় কিভাবে দেখেন। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট।  hug

http://www.amaderbarisal.com/wp-content/uploads/2014/02/bakergonj-upazila-election.jpg

১৫

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

ভালো খবর , ভোটার বিহীন নির্বাচনের ৪৪% হয়েছে , এই ৪৪% নিজেরাই ভোট কেন্দ্র ঢুকে সিল মেরে

১৬

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

বাংলাদেশী বিতাড়ন নিয়ে মোদিকে মমতার জবাব

ইন্দিরা-মুজিব চুক্তি, নেহরু-লিয়াকত চুক্তি অনুযায়ী ১৯৭১ সাল পর্যন্ত যারা এদেশে এসেছেন, তারা সবাই ভারতীয় নাগরিক। তারপরও কেউ বিপদে পড়ে এলে তাদের ঠেলে ফিরিয়ে দেয়া যাবে না। এ ব্যাপারে রাষ্ট্রপুঞ্জের একটা নিয়ম আছে। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, কোচবিহারেও অনেক বাংলাদেশী আছেন। তাতে কি হয়েছে! আসামের গোলমালের পরে অনেকে এ রাজ্যে আশ্রয় নিয়েছে। এটাই মানবিকতার ধর্ম। গত রোববারই কলকাতার পার্শ্ববর্তী শ্রীরামপুরে দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে এসে মোদি বলেন, মমতাজি ভোটব্যাংকের দিকে তাকিয়ে এই রাজ্যে রাজনীতি শুরু করেছেন। বিহার, ওড়িশা থেকে এই রাজ্যে গরিব মানুষ কাজে এলে ওঁর রাগ হয়। তাদের পর মনে হয়। হেনস্থা হন তারা। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে সীমান্ত পেরিয়ে কেউ এলে উনি তাদের ‘আদর’ করে এই রাজ্যে রেখে  দেন। ১৯৪৭ সালের পরে যারা ভারতে এসেছেন, তারা বিছানা-বেডিং বেঁধে রাখুন! ১৬ই মে’র পরে তাদের বাংলাদেশে ফিরে যেতে হবে।

http://mzamin.com/details.php?mzamin=Mj … amp;s=MQ==

গুজরাটের দুর্ভাগ্য, একটা শয়তান-ডেঞ্জারাস লোক সেখানে বসে আছে। এই লোক যদি দেশের প্রধানমন্ত্রী হয়, তাহলে দেশের ভাগ্যে দুঃসহ ভয়ঙ্কর কালো দিন ঘনিয়ে আসবে। তিনি বলেন, এই লোক দিল্লীর চেয়ারে বসলেই অন্ধকূপ হত্যার ঘটনা ঘটবে; সারা দেশটাকে জ্বালিয়ে দেবে। তিনি বলেন, লোকটার তাকানোই ভয়ঙ্কর। যেদিকে তাকাচ্ছে সেদিকেই জ্বালিয়ে দিচ্ছে। আজ বাংলার মাটিতে বিদ্বেষ ছড়াতে এসেছে; জাত-পাতের নোংরা রাজনীতি করছে। বাংলায় এসে বাঙালি-অবাঙালি ভাগ করে দাঙ্গা লাগিয়ে যেতে চাইছে। ভয়ঙ্কর কালো দিনের স্বপ্ন আজ দেখাচ্ছে মোদি।

http://www.alokitobangladesh.com/last-p … G1Lzx.dpuf

আমি আজ থেকে মমতা ভক্ত।  hug

১৭

Re: বাংলাদেশিরা সবসময়ই ভারতে আশ্রয় পাবেনঃ মমতা বন্দোপাধ্যায়

জাহিদ সুমন লিখেছেন:

বিপদে পড়ে পাশের দেশের কেউ আপনার এলাকায় আসলে কি আপনি তাকে তাড়িয়ে দেবেন?

বিপদটা কি ? আর্থিক, সামাজিক, না জাতীয় ? আসল বিপদ না নকল বিপদ ? সেটা বলুন | বাংলাদেশের খাব আর ভারতের খাব এমন মানসিকতা খুব খারাপ |